রোজা মুমিনের জন্য ঢাল স্বরূপ জুমার খুৎবা পূর্ব বয়ান

Daily Inqilab স্টাফ রিপোর্টার

১০ মার্চ ২০২৩, ০৭:১৪ পিএম | আপডেট: ০১ মে ২০২৩, ১২:১৮ এএম

রহমত, বরকত, নাজাত ও কল্যাণের মাস পবিত্র মাহে রমজান সমাগত । এখন থেকেই রমজানের পবিত্রতা রক্ষা ও তার পুন্যতা হাসিলের লক্ষ্যে পরিপূর্ণ প্রস্তুতি নেয়া প্রতিটি মুমিনের জন্য জরুরি । রাসূল (সা.) বলেছেন, রোজা মুমিনের জন্য ঢাল স্বরূপ। আজ জুমার খুৎবাপূর্ব বয়ানে পেশ ইমাম এসব কথা বলেন। আজ মহাখালীস্থ মসজিদে গাউছুল আজমের খতিব প্রিন্সিপাল মাওলানা খালিদ সাইফুল্লাহ জুমা পূর্ব বয়ানে বলেন, বিশ্ব মানবতার মুক্তির দিশারী রহমাতুল্লিল আলামীন প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) এর খতমে নবুয়াত অস্বীকার করলে মানুষ বেঈমান ও কাফের হয়ে যায়। বর্তমানে আহমদিয়া জামাত তথা কাদিয়ানী ভ্রান্ত সম্প্রদায় ব্যাপক মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে। প্রকাশ্যে ও গোপনে মানুষের ঈমান আক্বিদা নষ্ট করছে। তদুপরি সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের মানসিকতা নিয়ে সমাজে বিচরণ করছে। আমাদের সকলকে এ বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে।
পবিত্র কোরআনের উদ্বৃতি দিয়ে খতিব বলেন, আল্লাহ রাব্বুল আলামীন ইরশাদ করেন মুহাম্মদ তোমাদের কোন পুরুষের পিতা নন, তিনি আল্লাহর রাসূল ও শেষ নবী। আল্লাহ সর্ববিষয়ে সবজান্তা। (সূরা আহযাব : ৪০)। অপর এক আয়াতে আল্লাহ বলেন, আল্লাহ নবীদের থেকে ওয়াদা নেন যে, আমি তোমাদের কিতাব ও হেকমত দিয়েছি। এরপর তোমাদের কাছে থাকা বিষয়ের সত্যায়নকারী হিসেবে একজন রাসূল আসবেন। তখন তোমরা তাঁর প্রতি ঈমান আনবে এবং তাঁকে সাহায্য করবে। তিনি বললেন, তাহলে তোমরা কি স্বীকার করলে এবং এই শর্তে আমার ওয়াদা গ্রহণ করলে? তারা বলল, আমরা স্বীকার করলাম। তিনি বললেন, তাহলে এবার স্বাক্ষী থাক। আর আমিও তোমাদের স্বাক্ষী হলাম (সূরা আল-ইমরান : ৮১)। এসকল আয়াত দ্বারা আল্লাহ রাব্বুল আলামীন রাসূল (স.) এর খতমে নবুওয়াতের বিষয়টি সুস্পষ্ট করেছেন। তদুপরি এ জাহেল ভ্রান্ত কুফরি কাদিয়ানী সম্প্রদায় যুগযুগ ধরে খতমে নবুওয়াতকে অস্বীকার করে আসছে। ইতিহাস পর্যালোচনা করলে দেখা যায় ভারত উপমহাদেশ যখন ব্রিটিশরা শাসন করতো, তখন এই নামধারী মুসলমান সম্প্রদয়ের সৃষ্টি। ব্রিটিশ বিরোধী আন্দোলনসহ উপমহাদেশ থেকে ব্রিটিশদের বিতারিত করার মূল নায়ক ছিল তৎকালীন মুসলিমগণ। উপমহাদেশের ক্ষমতার মসনদ টিকিয়ে রাখার জন্য তখন ব্রিটিশরা মুসলমানের মাঝে দাঙ্গা সৃষ্টির মাধ্যমে অধিনস্তদের দূর্বল করে রাখা ও বিশেষ করে আন্দোলন, জিহাদ ও প্রতিবাদ থেকে দূরে সরিয়ে রাখার জন্য সৃষ্টি করলো তাদের তোষামদকারী দালাল ও ভ্রান্ত মতাদর্শের কাদিয়ানী সম্প্রদায়। ব্রিটিশদের পরামর্শ ও ইন্দনে কাদিয়ানী সম্প্রদায়ের নেতা মির্জা গোলাম আহমদ কাদিয়ানী পর্যায়ক্রমে নিজেকে মুজাদ্দিদ, জুলকারনাইন, ইমাম মাহদী, ঈসা মসীহ, নবী, আল্লাহ পুত্র ও নিজেকে খোদা বলে দাবি করে এবং উপমহাদেশে ব্রিটিশদের শাসন টিকিয়ে রাখার জন্য জিহাদ প্রতিবাদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন মনগড়া ফতোয়া দিয়ে মুসলমানদের বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করে। সেই থেকে এখনও ব্রিটিশদের মদদে তারা টিকে আছে। বর্তমানে সারা বাংলাদেশে তাদের ৪২৫টি কার্যালয় রয়েছে, যার প্রধান কার্যালয় বখশিবাজারে। মুসলমানদের ঈমান আক্বিদা টিকিয়ে রাখার জন্য যেমনিভাবে কোরআন হাদিস সম্পর্কে জ্ঞান রাখতে হবে। ঠিক তেমনিভাবে এইসকল ভ্রান্ত আক্বিদার ফাঁদে যেন না পড়ে যাই সেজন্য তাদের সম্বন্ধেও জানতে হবে। আহমদিয়া জামাত তথা কাদিয়ানী সম্প্রদায় ইসলামের লেভেল লাগিয়ে সারা দেশে বিচরণ করছে। তারা আমাদের মতই কালিমা, নামাজ, রোজা, হজ, যাকাত ও কোরআন, হাদীস মানে। কিন্তু এমন কিছু বিষয় তারা অস্বীকার করে যাতে মানুষ আর নিজেকে মুসলিম দাবি করতে পারে না। যেমন রাসূল (সা.) এর খতমে নবুওয়াত বা তিনি শেষ নবী এটি মানে না। ফেরেশতাগণকে অস্বীকার করে, তাদের মতে কিয়ামত দিবস বলতে কিছুই নেই। সর্বপরি আমরা যারা কাদিয়ানীর অনুসারী নই তাদেরকে তারা কাফের হিসেবে আখ্যায়িত করে। আল্লাহ ও তাঁর রাসূলের প্রতি বিষোদগার করার ফলে গোলাম আহমদ কাদিয়ানীর মৃত্যু কতটা লজ্জাস্কর ও ভয়াবহ হয়েছিল তা আমাদের সকলেরই জানা আছে। এদের ধোকা থেকে নিজেদের হেফাজত করতে হবে। একই সাথে পবিবার, সমাজ, রাষ্ট্র ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ের সকলকে কাদিয়ানীদের ভ্রান্ত মতবাদ থেকে মুক্ত রাখতে বিষয়টি সকলের সাথে শেয়ার করতে হবে। মনে রাখবেন আল্লাহর সাথে নাফরমানী ও রাসূলের সাথে বেয়াদবীর শাস্তি কেবল আখেরাতেই নয় বরং দুনিয়াতেও এরা পদে পদে লাঞ্চিত, অপমানিত ও অপদস্ত হয়। একটি বিষয় ভুলে গেলে চলবে না, রাসূল (সা.) বলেছেন তাঁর পরে কিয়ামতের পূর্বপর্যন্ত চল্লিশজন ভন্ড নবীর আবির্ভাব ঘটবে। সুতরাং এ বিষয়ে সর্বদা সতর্ক থাকতে হবে আল্লাহ আমাদের সকল ধরণের ফেৎনা থেকে হেফাজত করুন। আমীন।
মিরপুরের ঐতিহ্যবাহী বাইতুল মামুর জামে মসজিদের খতিব মুফতি আব্দুর রহিম কাসেমী আজ জুমার খুৎবা পূর্ব বয়ানে বলেন, রহমত, বরকত, নাজাত ও কল্যাণের মাস পবিত্র মাহে রমজান সমাগত । এখন থেকেই রমজানের পবিত্রতা রক্ষা ও তার পুন্যতা হাসিলের লক্ষ্যে পরিপূর্ণ প্রস্তুতি নেয়া প্রতিটি মুমিনের জন্য জরুরি । রাসূল সাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম পবিত্র রমজানের রহমত , বরকত ও ফজিলত অর্জনের লক্ষ্যে রমজানের দুই মাস পূর্ব থেকেই প্রস্তুতির জন্য দোয়া শিখিয়ে দিয়েছেন । "আল্লাহুম্মা বারিক লানা ফি রজাবা ওয়া শাবান ওয়া বাল্লিগনা রমাযান" হে আল্লাহ তুমি আমাদের রজব ও শাবান মাসে বরকত দান কর। আর রমজানের অফুরন্ত বারাকাত ও ফজিলত আমাদের ভাগ্যে নসীব কর। রমজানের বারাকাত মুমিন বান্দা দুনিয়া ও আখিরাত উভয় জগতেই লাভ করবে । সবচেয়ে ছোট বারাকাত হল দুনিয়ায় অফুরন্ত শান্তি আর পরকালে জাহান্নাম থেকে মুক্তি । রাসূল সাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেন, হে মুয়াজ ইবনে জাবাল আমি কি তোমাদের দুনিয়াতে শান্তি ও আখিরাতের কল্যাণ জাহান্নাম থেকে মুক্তির বিষয় বর্ণনা করে দিব না ? হযরত মুয়াজ ইবনে জাবাল রাজিয়াল্লাহু আনহু বলেন, জি হ্যা, ইয়া রাসূলুল্লাহ । রাসূল সাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেন, তা রমজানের রোজা (যা মুমিনের জন্য ঢাল স্বরূপ, আল্লাহর রাস্তায় দান ও ভোর রাতের (তাহাজ্জুদ নামায)। তিরমিযি শরীফ হাদিস নং ২৬১৬। অতএব রমজানের পবিত্রতা রক্ষা ও তার ফজিলত অর্জনের লক্ষ্যে রমজানুল মুবারক আগমনের পূর্বেই প্রস্তুতির এ শেষ পর্বে নিজেদের কাজকর্ম যথা সম্ভব তাড়াতাড়ি সম্পন্ন করে এখন থেকেই মাঝে মাঝে রোজা ও অধিক পরিমাণে নফল ইবাদাতে মশগুল থাকা।

 


বিভাগ : বাংলাদেশ


মন্তব্য করুন

HTML Comment Box is loading comments...

এই বিভাগের আরও

বেইলি রোডের অগ্নিকান্ডে বউ-মেয়েসহ নিহত কাস্টমস ইন্সপেক্টর শাহজালালের দাফন হবে উখিয়ায়
মহিপুরে আগুনে পুড়ে ৬ টি দোকান ভস্মীভূত
মোবাইল কিনে না দেওয়ায় স্কুল ছাত্রের আত্মহত্যা
ঈশ্বরদীতে সড়ক দুর্ঘটনায় হাফেজ শিশুর মৃত্যু
ধনী দেশগুলোর কাছে হাত পেতে এখন আমাদেরকে চলতে হয় না: সিলেটে এনবিআর চেয়ারম্যান
আরও

আরও পড়ুন

আমি একজন ব্যক্তির আক্রোশের শিকার - জায়েদ খান

আমি একজন ব্যক্তির আক্রোশের শিকার - জায়েদ খান

ক্যালিফোর্নিয়ায় প্রবল তুষারঝড়, বিদ্যুৎহীন অর্ধলক্ষাধিক মানুষ

ক্যালিফোর্নিয়ায় প্রবল তুষারঝড়, বিদ্যুৎহীন অর্ধলক্ষাধিক মানুষ

ভারতে আইসিইউতে রোগীকে অজ্ঞান করে ধর্ষণ, পুরুষ নার্স গ্রেপ্তার

ভারতে আইসিইউতে রোগীকে অজ্ঞান করে ধর্ষণ, পুরুষ নার্স গ্রেপ্তার

নতুন জীবন শুরু করলেন অনুপম-প্রস্মিতা

নতুন জীবন শুরু করলেন অনুপম-প্রস্মিতা

বেইলি রোডের অগ্নিকান্ডে বউ-মেয়েসহ নিহত কাস্টমস ইন্সপেক্টর শাহজালালের দাফন হবে উখিয়ায়

বেইলি রোডের অগ্নিকান্ডে বউ-মেয়েসহ নিহত কাস্টমস ইন্সপেক্টর শাহজালালের দাফন হবে উখিয়ায়

একটি এসএমএসের কারণে ভাঙে মাহির সংসার

একটি এসএমএসের কারণে ভাঙে মাহির সংসার

এলপি গ্যাসের নতুন মূল্য ঘোষণা আজ

এলপি গ্যাসের নতুন মূল্য ঘোষণা আজ

মহিপুরে আগুনে পুড়ে ৬ টি দোকান ভস্মীভূত

মহিপুরে আগুনে পুড়ে ৬ টি দোকান ভস্মীভূত

শিল্পী সমিতি থেকে জায়েদ খানের সদস্যপদ বাতিল

শিল্পী সমিতি থেকে জায়েদ খানের সদস্যপদ বাতিল

আবাসিক ভবনে রেস্টুরেন্ট বন্ধ ও ক্ষতিপূরণের নির্দেশনা চেয়ে রিট

আবাসিক ভবনে রেস্টুরেন্ট বন্ধ ও ক্ষতিপূরণের নির্দেশনা চেয়ে রিট

সম্মান নিয়ে রহস্যের বার্তা দিলেন পরীমনি

সম্মান নিয়ে রহস্যের বার্তা দিলেন পরীমনি

পাকিস্তান ও বাংলাদেশ ঘুরে ভারতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার স্প্যানিশ নারী

পাকিস্তান ও বাংলাদেশ ঘুরে ভারতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার স্প্যানিশ নারী

এবার প্রাঙ্গণেমোর থিয়েটার নিয়ে আসছে ‘অভিনেতা’

এবার প্রাঙ্গণেমোর থিয়েটার নিয়ে আসছে ‘অভিনেতা’

এক চামচ মধু তৈরি করতে ঠিক কতটা পরিশ্রম করে মৌমাছির দল?

এক চামচ মধু তৈরি করতে ঠিক কতটা পরিশ্রম করে মৌমাছির দল?

এবার গঙ্গার নীচ দিয়ে ছুটবে কলকাতা মেট্রো, ৬ মার্চ উদ্বোধন করবেন মোদী

এবার গঙ্গার নীচ দিয়ে ছুটবে কলকাতা মেট্রো, ৬ মার্চ উদ্বোধন করবেন মোদী

গণতন্ত্রের ওপর বক্তৃতা দেওয়ার কোনও অধিকার রাশিয়ার নেই: মলদোভা

গণতন্ত্রের ওপর বক্তৃতা দেওয়ার কোনও অধিকার রাশিয়ার নেই: মলদোভা

এবার রাফাহতে আশ্রয় শিবিরে ইসরায়েলের হামলা, নিহত ১১ ফিলিস্তিনি

এবার রাফাহতে আশ্রয় শিবিরে ইসরায়েলের হামলা, নিহত ১১ ফিলিস্তিনি

আগুনের ঝুঁকিতে ঢাকার ৫৫ ভাগ ভবন

আগুনের ঝুঁকিতে ঢাকার ৫৫ ভাগ ভবন

চার দিনব্যাপী ডিসি সম্মেলন শুরু আজ

চার দিনব্যাপী ডিসি সম্মেলন শুরু আজ

চার দিনব্যাপী ডিসি সম্মেলন শুরু আজ

চার দিনব্যাপী ডিসি সম্মেলন শুরু আজ