লক্ষ্মীপুর-৪ (রামগতি-কমলনগর) আসনের এমপিকে গণসংবর্ধনা

Daily Inqilab রামগতি (লক্ষ্মীপুর) উপজেলা সংবাদদাতা

১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০১:১৮ পিএম | আপডেট: ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০১:১৮ পিএম

 

 

লক্ষ্মীপুর-৪ (রামগতি-কমলনগর) আসনের নব নির্বাচিত সংসদ-সদস্য ও জেলা আ.লীগের সহ-সভাপতি আব্দুল্লাহ আল মামুনকে গণসংবর্ধনা দেওয়া হয়েছে। সোমবার সন্ধায় রামগতির আলেকজান্ডার সরকারি মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে এ গণসংবর্ধনা দেন নাগরিক কমিটি।

রামগতি উপজেলা আ.লীগের সভাপতি আব্দুল ওয়াহেদ মুরাদের সভাপতিত্বে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপপরিচালক মোঃ জাকির হোসেন, রামগতি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শরাফ উদ্দীন আজাদ সোহেল, কমলনগর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মেছবাহ উদ্দিন বাপ্পী, কমলনগর উপজেলা আ.লীগের সভাপতি মোঃ নিজাম উদ্দিন, রামগতি উপজেলা আ.লীগের সহসভাপতি ড. আশ্রাফ আলী চৌধুরী সারু,আ.লীগ নেতা ও চরগাজী ইউপি চেয়ারম্যান তাওহীদুল ইসলাম সুমন,বড়খেরী ইউপি চেয়ারম্যান হাসান মাকছুদ মিজান, লক্ষ্মীপুর জেলা পরিষদের সদস্য মেজবাহ উদ্দিন ভিপি হেলাল,রামগতি উপজেলা আ.লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবু নাছের, সাংগঠনিক সম্পাদক জহির উদ্দীন বাবর,কমলনগর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ওমর ফারুক সাগর, রামগতি উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফাতেমা ফারুক,কমলনগরের তোরাবগন্জ ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান ফয়সাল আহমেদ রতন, রামগতি উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক শোয়াইব খন্দকার, আ,লীগ নেতা জাফর ইসলাম রাসেল ও যুবলীগ নেতা মিরাজ হোসেন শান্ত প্রমুখ নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

এসময় নব নির্বাচিত এ সংসদ সদস্যকে বিভিন্ন পর্যায়ের জনপ্রতিনিধি, সামাজিক সংগঠন, আ.লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা ফুলের শুভেচ্ছায় সিক্ত করেন।

সংবর্ধনায় আব্দুল্লাহ আল মামুন এমপি বলেন,আমি কাজের মানুষ। আমাকে দিয়ে আপনারা কাজ করে নিতে পারবেন। এ অঞ্চলের বড় সমস্যা নদী ভাঙন রোধ করা। আমি শপথ নেওয়ার পরেই প্রথম সংসদ অধিবেশনে নদী বাঁধের কথা বলেছি। মেঘনার তীর রক্ষা বাঁধ টেকসই করতে বরাদ্দকৃত ৩ হাজার ১ শ কোটি টাকার চলমান কাজ সম্পন্ন করতে চাই। আমি আপনাদেরই সন্তান, আমার জন্মস্থানের উন্নয়নে বাকি জীবন আপনাদের সাথেই কাটাতে চাই। এ জন্য আপনাদের সার্বিক সহযোগীতা লাগবে। নদী বাঁধ ছাড়াও অন্যান্য উন্নয়নেও কাজ করে যেতে চাই। তিনি আরও বলেন,আমি স্বতন্ত্র থেকে এমপি হয়েছি। তাই আমরা কারো সাথে দ্বন্দ্ব সংঘাত চাইনা। সবাই মিলেমিশে এ রামগতি-কমলনগরের উন্নয়নে কাজ করবো ইনশাআল্লাহ।


বিভাগ : বাংলাদেশ


মন্তব্য করুন

HTML Comment Box is loading comments...

এই বিভাগের আরও

কুসিক উপনির্বাচন : সংখ্যালঘু নতুন ও দক্ষিনের ভোটার জয়-পরাজয়ে ফ্যাক্টর
সিরাজগঞ্জে ‘শিক্ষকের গুলিতে’ মেডিক্যাল কলেজ শিক্ষার্থী আহত
কুমিল্লায় দুগ্ধপোষ্য শিশু চুরির অপরাধে এক নারীর দশ বছরের কারাদণ্ড
মুসলিম উম্মাহর ঐক্য, শান্তি ও সমৃদ্ধি এবং দেশের শান্তি- শৃঙ্খলা রক্ষায় আল্লাহর রহমত কামনা করে মোকামিয়ার দুই দিনব্যাপী মাহফিল সম্পন্ন
ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্রে ১৭, সাধারণ কেন্দ্রে থাকবে ১৬ জনের ফোর্স
আরও

আরও পড়ুন

নায়ক হওয়া হলো না জাকেরের

নায়ক হওয়া হলো না জাকেরের

বাংলাদেশে ইলেকট্রিক গাড়ি ‘বিওয়াইডি সিল’ উন্মোচন

বাংলাদেশে ইলেকট্রিক গাড়ি ‘বিওয়াইডি সিল’ উন্মোচন

ইউসিবির উদ্যোগে আর্থিক সাক্ষরতা দিবস পালিত

ইউসিবির উদ্যোগে আর্থিক সাক্ষরতা দিবস পালিত

এসও-এস শিশু পল্লী’র সাথে অংশীদারিত্বে আসলো ভিভো

এসও-এস শিশু পল্লী’র সাথে অংশীদারিত্বে আসলো ভিভো

ভাঙ্গা থেকে পায়রা হয়ে কুয়াকাটা পর্যন্ত রেলপথ নির্মাণের প্রকল্প গ্রহণ করা হবে

ভাঙ্গা থেকে পায়রা হয়ে কুয়াকাটা পর্যন্ত রেলপথ নির্মাণের প্রকল্প গ্রহণ করা হবে

বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী ছিলেন অধ্যাপক মোসলেমা খাতুন

বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী ছিলেন অধ্যাপক মোসলেমা খাতুন

একুশে গ্রন্থমেলায় বিক্রয় শীর্ষে এম মিরাজ হোসেনের নতুন দুই বই

একুশে গ্রন্থমেলায় বিক্রয় শীর্ষে এম মিরাজ হোসেনের নতুন দুই বই

ঢাকা-আশুলিয়া এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের সমস্যার মূলে সিএমসি

ঢাকা-আশুলিয়া এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের সমস্যার মূলে সিএমসি

পল্টনে পুলিশ হত্যা মামলার আসামি নীলফামারীতে গ্রেফতার

পল্টনে পুলিশ হত্যা মামলার আসামি নীলফামারীতে গ্রেফতার

গত বছরের জুন পর্যন্ত মেট্রোরেলে আয় ১৮,২৮,০৬,৫১৪ টাকা

গত বছরের জুন পর্যন্ত মেট্রোরেলে আয় ১৮,২৮,০৬,৫১৪ টাকা

টিকিটের দাম ২ কোটিরও বেশি! বিশ্বকাপে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ নিয়ে তুঙ্গে উত্তেজনা

টিকিটের দাম ২ কোটিরও বেশি! বিশ্বকাপে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ নিয়ে তুঙ্গে উত্তেজনা

মনিপুর স্কুলকে গ্রাস করার অপচেষ্টা চলছে: সংবাদ সম্মেলনে অভিভাবকদের অভিযোগ

মনিপুর স্কুলকে গ্রাস করার অপচেষ্টা চলছে: সংবাদ সম্মেলনে অভিভাবকদের অভিযোগ

১ লাখ টন চিনি পুড়ে ছাই, এখনো জ্বলছে আগুন

১ লাখ টন চিনি পুড়ে ছাই, এখনো জ্বলছে আগুন

রুশ ও মার্কিন নভোচারী নিয়ে স্পেসএক্স এর যাত্রা

রুশ ও মার্কিন নভোচারী নিয়ে স্পেসএক্স এর যাত্রা

লাক্ষাদ্বীপে কেন দ্বিতীয় সামরিক নৌঘাঁটি তৈরি করছে ভারত?

লাক্ষাদ্বীপে কেন দ্বিতীয় সামরিক নৌঘাঁটি তৈরি করছে ভারত?

কুসিক উপনির্বাচন : সংখ্যালঘু নতুন ও দক্ষিনের ভোটার জয়-পরাজয়ে ফ্যাক্টর

কুসিক উপনির্বাচন : সংখ্যালঘু নতুন ও দক্ষিনের ভোটার জয়-পরাজয়ে ফ্যাক্টর

সিরাজগঞ্জে ‘শিক্ষকের গুলিতে’ মেডিক্যাল কলেজ শিক্ষার্থী আহত

সিরাজগঞ্জে ‘শিক্ষকের গুলিতে’ মেডিক্যাল কলেজ শিক্ষার্থী আহত

বাংলাদেশকে কঠিন লক্ষ্য দিল শ্রীলঙ্কা

বাংলাদেশকে কঠিন লক্ষ্য দিল শ্রীলঙ্কা

সুগার মিলের আগুন নিয়ন্ত্রণে নৌবাহিনী

সুগার মিলের আগুন নিয়ন্ত্রণে নৌবাহিনী

টেকসই ভবিষ্যতের লক্ষ্যে পরিবেশবান্ধব জ্বালানিতে গুরুত্ব দিচ্ছে গ্রামীণফোন

টেকসই ভবিষ্যতের লক্ষ্যে পরিবেশবান্ধব জ্বালানিতে গুরুত্ব দিচ্ছে গ্রামীণফোন