ভারতে ভয়াবহ ট্রেন দুর্ঘটনায় আমরা শোকাভিভূত

Daily Inqilab ইনকিলাব

০৪ জুন ২০২৩, ০৮:৪৩ পিএম | আপডেট: ০৫ জুন ২০২৩, ১২:০০ এএম

গত শুক্রবার সন্ধ্যায় ভারতের উড়িষ্যা রাজ্যের বালাসোরে সংঘটিত ভয়াবহ ট্রেন দুর্ঘটনায় নিহতের সংখ্যা ২৮৮ জনে দাঁড়িয়েছে। আহতের সংখ্যা ৭৪৭। শনিবার উদ্ধার অভিযান শেষে ভারতের রেল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, আহতদের মধ্যে ৫৬ জনের অবস্থা গুরুতর। নিহতের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে আশংকা করা হচ্ছে। রেল কর্তৃপক্ষের তদন্ত দলের প্রাথমিক অনুসন্ধানে উঠে এসেছে সংকেত দিয়ে আবার তুলে নেয়ার কারণে দুর্ঘটনাটি ঘটেছে। কলকাতা থেকে চেন্নাইগামী করম-ল এক্সপ্রেসকে মূল লাইন দিয়ে চলে যাওয়ার সংকেত দেয়া হয়। এরপরই আবার সংকেত তুলে নেয়া হয়। ট্রেনটি তখন বাড়তি লাইনে ঢুকে সেখানে দাঁড়িয়ে থাকা একটি মালবাহী ট্রেনে ধাক্কা দেয়। তখনই বিপরীত দিক যশবন্তপুর-হাওড়া এক্সপ্রেস অপর মূল লাইন ধরে চলে আসে। এতেই এই ভয়ংকর দুর্ঘটনা ঘটে। ইতোমধ্যে এই দুর্ঘটনাকে দেশটির এই শতকের সবচেয়ে বড় দুর্ঘটনা বলে মনে করা হচ্ছে। ১৯৮১ সারে বিহারে বাগমতি সেতু পার হওয়ার সময় একটি ট্রেন নদীতে পড়ে গেলে সাড়ে সাত শতাধিক মানুষ নিহত হয়। এরপর ১৯৯৫ সালে উত্তর প্রদেশের ফিরোজাবাদে ট্রেন দুর্ঘটনায় নিহত হয় ৩০৫ জন। এ শতকের ২০১৯ সালে উক্ত প্রদেশের পুখরায়ানে একটি ট্রেনের ১৪টি বগি লাইনচ্যুত হওয়ায় নিহত হয় ১৫২ জন। ২০১০ সালে পশ্চিমবঙ্গের ঝাড়গ্রামে মুম্বাইগামী জ্ঞানেশ্বরী এক্সপ্রেস ট্রেনের সঙ্গে একটি মালবাহী ট্রেনের মুখোমুখী সংঘর্ষে ১৪৮ জন নিহত হয়। ট্রেন দুর্ঘটনা ভারতে কোনো নতুন ঘটনা নয়। বিশ্বের অন্যান্য দেশেও ছোটখাটো দুর্ঘটনা তো বটেই, বড় দুর্ঘটনাও ঘটতে দেখা যায়। যদিও তুলনামূলক বিচারে ট্রেন সবচেয়ে নিরাপদ ও আরামদায়ক গণপরিবহন। মালামাল পরিবহনেও ট্রেনের অবদান বেশি। দেখা গেছে, চালকের অসতর্কতা ও ভুল সিগনালের কারণে অধিকাংশ ট্রেন দুর্ঘটনা ঘটে। সংশ্লিষ্টরা আরো সতর্ক, সাবধান ও দায়িত্বনিষ্ঠ হলে অনেক দুর্ঘটনা এড়িয়ে যাওয়া সম্ভব।

একথা অস্বীকার করা যাবে না, গণপরিবহন হিসাবে ট্রেন বরাবরই যাত্রীদের প্রথম পছন্দ। নিরাপদে ও আরামে গন্তব্যে পৌঁছানোর ক্ষেত্রে ট্রেন অদ্বিতীয়। এর ভাড়াও অন্যান্য পরিবহনের চেয়ে কম। মালামাল পরিবহনের ক্ষেত্রেও টেনের অবদান অনস্বীকার্য সেই সূচনাকাল থেকেই মালবাহী ট্রেনের ব্যবস্থা রয়েছে। এখনো মালবাহী ট্রেনের অপরিহার্যতা ও জনপ্রিয়তা বিদ্যমান। ভারতে ট্রেন নিয়ে অনেক কথা আছে। ব্রিটিশ আমলে এর যাত্রা শুরু। বলা হয়ে থাকে, রেলওয়ে খ--বিচ্ছিন্ন ভারতকে ঐক্যবদ্ধ করে। একথা মিথ্যে নয়। ব্রিটিশ ভারত আলাদা আলাদা রাষ্ট্রে বিভক্ত হয়ে গেলেও প্রতিটি দেশেই রেলওয়ে যাতায়াতের গুরুত্বপূর্ণ মাধ্যম হিসাবে বিদ্যমান আছে। দেশ হিসাবে ভারত রেলওয়ে বা ট্রেনের উপর বিশেষভাবে নির্ভরশীল। বিপুল জনসংখ্যার দেশ হওয়ায় সেখানে জনগণের যাতায়াত ও গমনাগমনে ট্রেননির্ভরতা অনেক বেশি। এক হিসাবে দেখা গেছে, ভারতে প্রতি বছর ৮৪০ কোটির বেশি মানুষ ট্রেনে ভ্রমণ করে। প্রতিদিন ভ্রমণকারীর সংখ্যা গড়ে ২ কোটি ৩০ লাখ। বিশ্বের শীর্ষে থাকা জনবহুল দুটি দেশের অপরটি হলো চীন। চীনে ভারতের চেয়েও অধিক মানুষ ট্রেনে ভ্রমণ করে থাকে। এদের সংখ্যা বছরে গড়ে আড়াই শ’ কোটির কম নয়। রেলওয়ের উন্নয়নে ও বিকাশে চীন ও ভারতই শুধু নয়, অন্যান্য দেশও সর্বাধিক চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। ট্রেনের গতি, লাইনের উৎকর্ষ ও যাত্রীনিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য অবিরাম প্রয়াস চলছে এবং এর উল্লেখযোগ্য সাফল্য ইতোমধ্যে পাওয়া গেছে। উড়োজাহাজের সমান গতিতে ট্রেন চলা এখন আর কোনো বিস্ময় নয়। তিব্বতের বরফঢাকা উঁচু পাহাড়ের ওপর দিয়ে চীনের ট্রেন লাইন বসানো পরম আশ্চর্যের বিষয় হিসাবে গণ্য হয়ে থাকে।

তারপরও ট্রেন দুর্ঘটনা ঘটে এবং হরহামেশাই ঘটছে। মানুষ ভুলের ঊর্ধ্বে নয়। তার অসতর্ক ও অসাবধান হওয়া অসম্ভব নয়। তেমনি প্রযুক্তি ও যন্ত্রপাতির ওপর শতভাগ নির্ভর করা যায় না। যে কোনো কারণে যে কোনো সময় দুর্ঘটনা ঘটে যেতে পারে। তবে যে কোনো দুর্ঘটনা থেকেই শিক্ষা নেয়ার অনেক কিছু থাকে। বাংলাদেশেও ট্রেন দুর্ঘটনা প্রায়ই ঘটে। এ দেশের ইতিহাসে সবচেয়ে ভয়াবহ ট্রেন দুর্ঘটনা ঘটে ১৯৮৯ সালে। টঙ্গীর মজুখানে দুটি ট্রেনের মুখোমুখী সংঘর্ষ হয়। এতে ১৭০ জন যাত্রী নিহত ও ৪০০ যাত্রী আহত হয়। ২০১৯ সালে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় দুই ট্রেনের মুখোমুখী সংঘর্ষে নিহত হয় ১৬ জন। এক পরিসংখ্যানে দেখা যায়, ২০১৯ পূর্ববর্তী ১০ বছরে ২০০০ ছোট-বড় দুর্ঘটনা ঘটেছে। এতে প্রাণ হারিয়েছে আড়াই শতাধিক যাত্রী। আহত হয়েছে এক হাজারের বেশি। দেখা গেছে, ট্রেন দুর্ঘটনার অন্তত ৮০ শতাংশের জন্য দায়ী রেল কর্মীদের অবহেলা ও অসতকর্তা। ত্রুটিপূর্ণ সিগন্যালিং সিস্টেমের কারণেও দুর্ঘটনা ঘটে। লাইনের ত্রুটির কারণেও ঘটে। তবে সতর্ক ও সাবধান হলে অনেক দুর্ঘটনা এড়িয়ে যাওয়া সম্ভব। ভারতের বালাসোরের ট্রেন দুর্ঘটনা থেকে বাংলাদেশে রেল কর্তৃপক্ষ ও কর্মীরা শিক্ষা নেবে, সাবধান হবে, কর্তব্যনিষ্ঠ হবে, সেই কামনা করি। পরিশেষে কথিত ট্রেন দুর্ঘটনায় বিপুল মানুষের নিহত ও আহত হওয়ার ঘটনায় আমরা আন্তরিক শোক জানাচ্ছি। তাদের পরিবার পরিজনের প্রতি জানাচ্ছি গভীর সহানুভূতি।


বিভাগ : সম্পাদকীয়


মন্তব্য করুন

HTML Comment Box is loading comments...

আরও পড়ুন

ইউরোপের বিভিন্ন শহরে প্রতিবাদে রাজপথ প্রকম্পিত করে তোলেন প্রবাসী বাংলাদেশীরা

ইউরোপের বিভিন্ন শহরে প্রতিবাদে রাজপথ প্রকম্পিত করে তোলেন প্রবাসী বাংলাদেশীরা

দূর সম্পর্কীয় খালাকে বিয়ে করা প্রসঙ্গে।

দূর সম্পর্কীয় খালাকে বিয়ে করা প্রসঙ্গে।

মাদারীপুরে ছাত্রলীগ-পুলিশের ত্রিমুখী সংঘর্ষে কোটা আন্দোলনকারী শিক্ষার্থী নিহত, আহত ২৫, আটক ৮

মাদারীপুরে ছাত্রলীগ-পুলিশের ত্রিমুখী সংঘর্ষে কোটা আন্দোলনকারী শিক্ষার্থী নিহত, আহত ২৫, আটক ৮

পুলিশ-আন্দোলনকারী সংঘর্ষে রণক্ষেত্র ঝিনাইদহ ওসিসহ আহত ১৫

পুলিশ-আন্দোলনকারী সংঘর্ষে রণক্ষেত্র ঝিনাইদহ ওসিসহ আহত ১৫

অচল ময়মনসিংহ: বন্ধ দুরপাল্লার যান চলাচল বন্ধ

অচল ময়মনসিংহ: বন্ধ দুরপাল্লার যান চলাচল বন্ধ

যুক্তরাষ্ট্রকে জবাব দিতে রাশিয়াও পারমাণবিক ক্ষেপণাস্ত্র মোতায়েন করতে পারে

যুক্তরাষ্ট্রকে জবাব দিতে রাশিয়াও পারমাণবিক ক্ষেপণাস্ত্র মোতায়েন করতে পারে

আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলনের

আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলনের

নাঙ্গলকোটে কোটা বিরোধীদের সাথে ছাত্র লীগের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও বাঙ্গড্ডা বাজারে বিক্ষোভ মিছিল

নাঙ্গলকোটে কোটা বিরোধীদের সাথে ছাত্র লীগের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও বাঙ্গড্ডা বাজারে বিক্ষোভ মিছিল

পুলিশের সামনেই রাজশাহী মহাসড়ক অবরোধ করল রাবি শিক্ষার্থীরা

পুলিশের সামনেই রাজশাহী মহাসড়ক অবরোধ করল রাবি শিক্ষার্থীরা

গুলিবিদ্ধসহ আহত ৮৭ জন ঢামেকে ভর্তি

গুলিবিদ্ধসহ আহত ৮৭ জন ঢামেকে ভর্তি

সংঘটিত ঘটনার তদন্তে এক সদস্যবিশিষ্ট তদন্ত কমিশন গঠন

সংঘটিত ঘটনার তদন্তে এক সদস্যবিশিষ্ট তদন্ত কমিশন গঠন

চট্টগ্রামে ত্রিমুখী সংঘর্ষে নিহত ২ পুলিশ বক্সে আগুন থানা ঘেরাও

চট্টগ্রামে ত্রিমুখী সংঘর্ষে নিহত ২ পুলিশ বক্সে আগুন থানা ঘেরাও

চীন দেখতে চায় না বাংলাদেশে প্রাণহানি

চীন দেখতে চায় না বাংলাদেশে প্রাণহানি

রাশিয়া এ বছরেই বিশেষ অভিযান শেষ করবে: চেচেন কমান্ডার

রাশিয়া এ বছরেই বিশেষ অভিযান শেষ করবে: চেচেন কমান্ডার

বিহারে এক মাসে ধসে পড়ল ১৫ সেতু

বিহারে এক মাসে ধসে পড়ল ১৫ সেতু

বিটিভির ট্রান্সমিশন বন্ধ

বিটিভির ট্রান্সমিশন বন্ধ

শিক্ষার্থীদের মৃত্যু, হামলার প্রতিবাদে শুক্রবার বাদ জুমা সর্বদলীয় সমাবেশ ও মিছিলের ডাক বিএনপির যুগপৎ আন্দোলনের শরিকদের

শিক্ষার্থীদের মৃত্যু, হামলার প্রতিবাদে শুক্রবার বাদ জুমা সর্বদলীয় সমাবেশ ও মিছিলের ডাক বিএনপির যুগপৎ আন্দোলনের শরিকদের

চাসভ ইয়ার ছেড়ে পালাচ্ছে ইউক্রেনীয় সেনা

চাসভ ইয়ার ছেড়ে পালাচ্ছে ইউক্রেনীয় সেনা

মধ্যপ্রাচ্য, ইউক্রেন সংঘাতে যুক্তরাষ্ট্র সরাসরি জড়িত: ল্যাভরভ

মধ্যপ্রাচ্য, ইউক্রেন সংঘাতে যুক্তরাষ্ট্র সরাসরি জড়িত: ল্যাভরভ

বাধার মুখে যেতে পারেনি ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও সেতু ভবনে আগুন

বাধার মুখে যেতে পারেনি ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও সেতু ভবনে আগুন