ঢাকা   বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪ | ৫ বৈশাখ ১৪৩১
গাজায় ইসরাইলি হামলায় বেশ কয়েকজন বিদেশী ত্রাণকর্মী নিহত

২০২৩ সালে যুক্তরাষ্ট্রে মুসলিম বিদ্বেষে রেকর্ড

Daily Inqilab ইনকিলাব ডেস্ক

০৩ এপ্রিল ২০২৪, ১২:০৭ এএম | আপডেট: ০৩ এপ্রিল ২০২৪, ১২:০৭ এএম

মুসলিম ও ফিলিস্তিনিদের বিরুদ্ধে রিপোর্ট করা বৈষম্য এবং হামলা ২০২৩ সালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে রেকর্ড উচ্চতায় পৌঁছেছে, যা ক্রমবর্ধমান ইসলামোফোবিয়া এবং পক্ষপাত দ্বারা চালিত হয়েছে। গাজায় ইসরাইলের যুদ্ধকে কেন্দ্র করে এসব ঘটনা বৃদ্ধি পেয়েছে বলে মঙ্গলবার একটি অ্যাডভোকেসি গ্রুপের তথ্য দেখিয়েছে। ২০২৩ সালে মুসলিম বিদ্বেষ সম্পর্কিত মোট ৮,০৬১টি ঘটনা ঘটেছে, যা আগের বছরের তুলনায় ৫৬ শতাংশ বেশি এবং প্রায় ৩০ বছর আগে আমেরিকান-ইসলামিক সম্পর্ক সংক্রান্ত কাউন্সিলের রেকর্ড শুরু হওয়ার পর থেকে সর্বোচ্চ। হামাসের বিরুদ্ধে ইসরাইলের যুদ্ধ শুরুর পর অক্টোবর থেকে ডিসেম্বরের মধ্যে প্রায় ৩,৬০০টি ঘটনা ঘটেছে, সিএআইআর জানিয়েছে।

মানবাধিকার আইনজীবীরা একইভাবে মধ্যপ্রাচ্যে সাম্প্রতিক সংঘাতের বিস্ফোরণের পর থেকে ইসলামোফোবিয়া, ফিলিস্তিন-বিরোধী পক্ষপাতিত্ব এবং ইহুদি বিদ্বেষের বিশ্বব্যাপী বৃদ্ধির রিপোর্ট করেছেন। মার্কিন ঘটনাগুলির মধ্যে রয়েছে অক্টোবরে ইলিনয়ে ৬ বছর বয়সী ফিলিস্তিনি আমেরিকান ওয়াদেয়া আল-ফাইউমকে মারাত্মক ছুরিকাঘাত, নভেম্বরে ভারমন্টে ফিলিস্তিনি বংশোদ্ভূত তিন ছাত্রকে গুলি করা, এবং ফেব্রুয়ারিতে টেক্সাসে একজন ফিলিস্তিনি আমেরিকান ব্যক্তিকে ছুরিকাঘাত। সিএআইআর -এর রিপোর্টে বলা হয়েছে যে, ২০২৩ সালে ‘মুসলিম-বিদ্বেষের পুনরুত্থান’ দেখা গেছে ২০২২ সালে প্রথমবারের মতো বার্ষিক অভিযোগে হ্রাস পাওয়ার পরে। ২০২৩ সালের প্রথম নয় মাসে, এই ধরনের ঘটনা প্রতি মাসে গড়ে প্রায় ৫০০টি ঘটেছে, যা শেষ চতুর্থাংশে লাফিয়ে বেড়ে ১,২০০টি হয়েছে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ‘বর্ধিত ইসলামোফোবিয়ার এই তরঙ্গের পিছনে প্রাথমিক শক্তি ছিল ২০২৩ সালের অক্টোবরে ইসরাইল এবং ফিলিস্তিনে সহিংসতার বৃদ্ধি।’ ২০২৩ সালে সর্বাধিক অসংখ্য অভিযোগ ছিল অভিবাসন এবং আশ্রয়, কর্মসংস্থান বৈষম্য, ঘৃণামূলক অপরাধ এবং শিক্ষা বৈষম্যের বিভাগগুলিতে, সিএআইআর বলেছে।

এদিকে, গাজায় ইসরাইলি হামলায় যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক দাতব্য সংস্থা ‘ওয়ার্ল্ড সেন্ট্রাল কিচেন’ (ডব্লিউসিকে) এর বেশ কয়েকজন কর্মী নিহত হয়েছে। সংস্থাটির প্রতিষ্ঠাতা জোসে আন্দ্রেস নিজেই এ তথ্য জানিয়েছেন। ‘ওয়ার্ল্ড সেন্ট্রাল কিচেন গাজায় আইডিএফ বিমান হামলায় আমাদের বেশ কয়েকজন বোন এবং ভাইকে হারিয়েছে। আমি তাদের পরিবার এবং বন্ধুবান্ধব এবং আমাদের পুরো ডব্লিউসিকে পরিবারের জন্য হৃদয়বিদারক এবং শোকাহত,’ আন্দ্রেস সোশ্যাল মিডিয়া সাইট এক্স-এ পোস্ট করে বলেছেন।

এর আগে, গাজা ভূখ-ের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বলেছিল যে, তাদের গাড়ি লক্ষ্য করে ইসরাইলি হামলা নিহত চার বিদেশী সাহায্য কর্মী এবং তাদের ফিলিস্তিনি ড্রাইভারের লাশ কেন্দ্রীয় গাজার দেইর এল-বালাহ হাসপাতালে আনা হয়েছিল। তারা এক বিবৃতিতে বলেছে যে, সাহায্য কর্মীদের মধ্যে ‘ব্রিটিশ, অস্ট্রেলিয়ান এবং পোলিশ নাগরিক রয়েছে, আরেকজনের জাতীয়তা জানা যায়নি’ এবং নিহত পঞ্চম ব্যক্তি ছিলেন একজন ফিলিস্তিনি ড্রাইভার এবং অনুবাদক।

ইসরাইলি সামরিক বাহিনী একটি বিবৃতিতে বলেছে যে তারা ‘এই দুঃখজনক ঘটনার পরিস্থিতি বোঝার জন্য সর্বোচ্চ স্তরে একটি পুঙ্খানুপুঙ্খ পর্যালোচনা পরিচালনা করছে’, যোগ করেছে যে, তারা ফিলিস্তিনিদের সহায়তা প্রদানের প্রচেষ্টায় ‘ডব্লিউসিকে এর সাথে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করছে’। দেইর এল-বালার আল-আকসা হাসপাতালে বার্তা সংস্থা এএফপি’র একজন সংবাদদাতা কাছাকাছি তিনটি বিদেশী পাসপোর্ট সহ পাঁচটি লাশ পড়ে থাকতে দেখেছেন। অস্ট্রেলিয়ার বৈদেশিক বিষয় ও বাণিজ্য বিভাগ বলেছে যে, গাজায় একজন অস্ট্রেলিয়ান সাহায্যকর্মীর মৃত্যু হয়েছে এমন প্রতিবেদনগুলো তারা অবিলম্বে নিশ্চিত করতে চাইছে। এই প্রতিবেদনগুলি খুবই দুঃখজনক।’ ওয়ার্ল্ড সেন্ট্রাল কিচেন সাইপ্রাস থেকে নৌযানে আসা ত্রাণ বিতরণে এবং গাজায় একটি অস্থায়ী জেটি নির্মাণে জড়িত।

হামাসের ৭ অক্টোবরের হামলার পর থেকে, গাজা প্রায় সম্পূর্ণ অবরোধের মধ্যে রয়েছে এবং জাতিসংঘ ইসরাইলের বিরুদ্ধে ২৪ লাখ ফিলিস্তিনিদের জন্য জরুরিভাবে প্রয়োজনীয় মানবিক সহায়তা সরবরাহে বাধা দেয়ার অভিযোগ এনেছে। জাতিসংঘের সংস্থাগুলি বারবার সতর্ক করেছে যে, উত্তর গাজা দুর্ভিক্ষের দ্বারপ্রান্তে রয়েছে, পরিস্থিতিকে মানবসৃষ্ট সংকট বলে অভিহিত করেছে। সূত্র : ট্রিবিউন, ওয়াশিংটন পোস্ট।

তোশাখানা মামলায় ইমরান খান ও বুশরা বিবির সাজা স্থগিত
ডন
ইসলামাবাদ হাইকোর্ট (আইএইচসি) সোমবার তোশাখানা মামলায় পাকিস্তানের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান এবং তার স্ত্রী বুশরা বিবিকে দেয়া ১৪ বছরের সাজা স্থগিত করেছে। তবে অন্য মামলায় দোষী সাব্যস্ত হওয়ায় তাদের মুক্তি দেওয়া হবে না।

পাকিস্তানের সাধারণ নির্বাচনের কয়েক দিন আগে ৩১ জানুয়ারি ইমরান এবং বুশরাকে তোশাখানা রেফারেন্সে সাজা দেওয়া হয় ইসলামাবাদের একটি আদালত। রায়ে ইমরান এবং বুশরাকে ১০ বছরের জন্য কোনও সরকারী পদে থাকতে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয় এবং প্রত্যেককে ৭৮কোটি ৭০ লাখ রুপি জরিমানা করা হয়। এর একদিন পর, তাদেরকে পরবর্তী ইদ্দতের সময়কালীন তাদের বিবাহ সম্পর্কিত একটি মামলায় সাত বছরের কারাদ- দেওয়া হয়।

এর আগে, সরকারী গোপনীয়তা আইনের অধীনে প্রতিষ্ঠিত একটি বিশেষ আদালত রাষ্ট্রীয় গোপনীয়তা লঙ্ঘনের জন্য ইমরান এবং তার পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশিকে ১০ বছরের কারাদ- দেয়। আদালতের নির্দেশ অনুসরণ করে কর্তৃপক্ষের কাছে আত্মসমর্পণ করতে রায় ঘোষণার পর বুশরা আদিয়ালা কারাগারে পৌঁছেন, যেখানে ঘঅই টিম ইতিমধ্যেই উপস্থিত ছিল। কিন্তু, গভীর রাতে জারি করা একটি বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে ইমরানের বানি গালার বাড়িকে সাব-জেল ঘোষণা করে তাকে সেখানে স্থানান্তর করা হয়।
বানি গালার বাড়িতে বুশরা বিবির স্থানান্তর নিয়ে কয়েক সপ্তাহ ধরে আলোচনা চলছে কারণ তিনি এবং ইমরান থান বাসভবনটিকে সাব-জেল হিসেবে ঘোষণা করার জন্য কোনো আবেদন জমা দিতে অস্বীকার করেছেন। আগের শুনানিতে, আদিয়ালা জেল প্রশাসন তাকে কারাগারে ফিরিয়ে নেওয়ার বিরোধিতা করেছিল। তারা দাবি করেছিল যে, কারাগারে অতিরিক্ত ভিড় প্রাক্তন ফার্স্ট লেডির জন্য নিরাপত্তা হুমকির সৃষ্টি করেছিল।


বিভাগ : আন্তর্জাতিক


মন্তব্য করুন

HTML Comment Box is loading comments...

আরও পড়ুন

স্টুয়ার্ট ল এখন যুক্তরাষ্ট্রের কোচ

স্টুয়ার্ট ল এখন যুক্তরাষ্ট্রের কোচ

যে কারণে ৫৮ বছর বয়সে পেশাদার ফুটবলে রোমারিও

যে কারণে ৫৮ বছর বয়সে পেশাদার ফুটবলে রোমারিও

চন্দ্রঘোনা থানার সি আর মামলার ৭ আসামী গ্রেপ্তার

চন্দ্রঘোনা থানার সি আর মামলার ৭ আসামী গ্রেপ্তার

শাহিনের সাথে আমার কোনো বিবাদ নেই: বাবর

শাহিনের সাথে আমার কোনো বিবাদ নেই: বাবর

সালথায় আগুনে পুড়ল ১২টি দোকান, বিপুল পরিমাণ ক্ষয়ক্ষতি

সালথায় আগুনে পুড়ল ১২টি দোকান, বিপুল পরিমাণ ক্ষয়ক্ষতি

উলভার্টের ১৮৪* ছাপিয়ে আতাপাত্তুর ১৯৫*, শ্রীলঙ্কার রেকর্ডময় জয়

উলভার্টের ১৮৪* ছাপিয়ে আতাপাত্তুর ১৯৫*, শ্রীলঙ্কার রেকর্ডময় জয়

মালিকদের লুটপাটে বেসরকারি অনেকগুলো ব্যাংক ধ্বংসের মুখে

মালিকদের লুটপাটে বেসরকারি অনেকগুলো ব্যাংক ধ্বংসের মুখে

শরিফুল-তাসকিন তোপে উড়ে গেল শেখ জামালও

শরিফুল-তাসকিন তোপে উড়ে গেল শেখ জামালও

বাসের ধাক্কায় কিশোরগঞ্জে দুই মোটরসাইকেল আরোহী নিহত

বাসের ধাক্কায় কিশোরগঞ্জে দুই মোটরসাইকেল আরোহী নিহত

ফারাক্কার প্রভাবে পদ্মা নদী এখন বিলে পরিনত হয়েছে

ফারাক্কার প্রভাবে পদ্মা নদী এখন বিলে পরিনত হয়েছে

আমার স্ত্রীর কোনো ক্ষতি হলে সেনাপ্রধানকে দায়ী করব : ইমরান খান

আমার স্ত্রীর কোনো ক্ষতি হলে সেনাপ্রধানকে দায়ী করব : ইমরান খান

পশ্চিমাদের চাপ বাড়লেও ইরানের তেল রপ্তানিতে বাধা নেই

পশ্চিমাদের চাপ বাড়লেও ইরানের তেল রপ্তানিতে বাধা নেই

কারাবন্দি থেকে ফের গৃহবন্দি সু চি

কারাবন্দি থেকে ফের গৃহবন্দি সু চি

প্রাণিসম্পদ সেবা সপ্তাহ ও প্রদর্শনীর উদ্বোধন প্রধানমন্ত্রীর

প্রাণিসম্পদ সেবা সপ্তাহ ও প্রদর্শনীর উদ্বোধন প্রধানমন্ত্রীর

ক্রিমিয়া ও ডনবাস চিরকাল রাশিয়ার মধ্যে থাকবে: স্লোভাক প্রধানমন্ত্রী

ক্রিমিয়া ও ডনবাস চিরকাল রাশিয়ার মধ্যে থাকবে: স্লোভাক প্রধানমন্ত্রী

রুশ সেনাদের অগ্রগতির কথা স্বীকার করেছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট

রুশ সেনাদের অগ্রগতির কথা স্বীকার করেছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট

সিঙ্গাপুরের নতুন প্রধানমন্ত্রীকে যে চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হবে

সিঙ্গাপুরের নতুন প্রধানমন্ত্রীকে যে চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হবে

বনশ্রীতে লাগা আগুন নিয়ন্ত্রণে

বনশ্রীতে লাগা আগুন নিয়ন্ত্রণে

ছাতকে সড়ক দুর্ঘটনায় কণ্ঠশিল্পী পাগল হাসানসহ প্রাণ গেল দুইজনের

ছাতকে সড়ক দুর্ঘটনায় কণ্ঠশিল্পী পাগল হাসানসহ প্রাণ গেল দুইজনের

ইসরাইল প্রতিশোধ নিলে আঞ্চলিক যুদ্ধের ঝুঁকি বাড়বে: জর্ডান

ইসরাইল প্রতিশোধ নিলে আঞ্চলিক যুদ্ধের ঝুঁকি বাড়বে: জর্ডান