ঢাকা   বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪ | ৫ বৈশাখ ১৪৩১

মোবাইলের নেশা সর্বনাশা, সবজির বদলে শিশুকেই ফ্রিজে ভরলেন মা!

Daily Inqilab অনলাইন ডেস্ক

০২ এপ্রিল ২০২৪, ০১:১৫ পিএম | আপডেট: ০২ এপ্রিল ২০২৪, ০১:১৫ পিএম

মানুষের মুঠোয় ফোন, না ফোনের মুঠোয় মানুষ? অ্যাকচুয়ালে আনন্দে নেই, বরং ভার্চুয়ালে মেতে বিশ্ব। পকেটের কড়ি খরচ করে বেড়াতে গিয়েও ক্যামেরাই চোখ। বেড়াতে গিয়ে ‘সেকেন্ড হ্যান্ড’ সূর্যোদয় দেখেই আনন্দ নেটিজেনের। হ্যাঁ, নেটিজেন। যেহেতু সিটিজেনের দিন গিয়েছে। ফলে মা-বাবা, স্বামী-স্ত্রী-সন্তান ছাড়াও সংসারে বাঁচা সম্ভব, কিন্তু ফোন ছাড়া সম্ভব নয় কখনই। তারই চূড়ান্ত দৃষ্টান্তের ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সম্প্রতি। যেখানে দেখা গিয়েছে, একটানা ফোনালাপে মগ্ন মা সবজির বদলে কোলের সন্তানকেই রেফ্রিজারেটরের ভরলেন!

 

এটা সত্যি যে আজকের দিনে সোশাল মিডিয়ার একাধিক কার্যকরী ভূমিকা রয়েছে। ফোনের মাধ্যমে যাবতীয় কাজ সারা সম্ভব। প্রয়োজনের পাশাপাশি বিনোদনেরও হাজার সম্ভার রয়েছে স্মার্টফোনে। তারপরেও এই কাণ্ড মেনে নেয়া কঠিন। ভাইরাল ভিডিওতে দেখা গিয়েছে, নিজের বাড়িতে এক তরুণী মা ও তার সন্তানকে। শিশুসন্তান মেঝেতে আপন মনে খেলছে। ফোনে কথা বলতে বলতেই তার দেখভাল করছেন তরুণী। এর মধ্যেই ফোন ছেড়ে সবজি কাটতে ব্যস্ত হন মা।

 

এর পরই ঘটে বিপজ্জনক মজার কাণ্ড। ফোনের নেশায় মশগুল মা সবজির বদলে সন্তানকে রেফ্রিজারেটরের ভিতরে ঢুকিয়ে দেন। খানিক বাদে সেখানে হাজির হন শিশুর পিতা। সন্তান কোথায়, জানতে চান স্ত্রীর কাছে। এতেই টনক নড়ে তরুণীর। দুজনে মিলে গোটা বাড়ি তন্ন তন্ন করে খুঁজতে শুরু করেন। তাতে শিশুটিকে পাওয়ার কথা নয়, পানওনি তারা। শেষ পর্যন্ত ভয়ংকর ঠান্ডা ও শ্বাসকষ্টে শিশুটি মরণকান্না কেঁদে উঠলে রেফ্রিজারেটর থেকে উদ্ধার করা হয় তাকে।

 

এই ঘটনায় বোঝা যায়, ফোন কীভাবে মানুষের স্বাভাবিক জীবনকে ধ্বংস করছে। যেখানে দায়িত্বজ্ঞান তো বহু দূর, যুক্তিবুদ্ধিরও অস্তিত্ব থাকছে না। ফোন কি মানুষের জন্য এতটাও জরুরি হতে পারে, যেখানে ভুলবশত মা তার সন্তানের মৃত্যুর কারণ হয়ে উঠছেন। এই প্রশ্ন তুলে সচেতনতার বার্তা দিল বর্তমান ভিডিও।


বিভাগ : আন্তর্জাতিক


মন্তব্য করুন

HTML Comment Box is loading comments...

আরও পড়ুন

স্টুয়ার্ট ল এখন যুক্তরাষ্ট্রের কোচ

স্টুয়ার্ট ল এখন যুক্তরাষ্ট্রের কোচ

যে কারণে ৫৮ বছর বয়সে পেশাদার ফুটবলে রোমারিও

যে কারণে ৫৮ বছর বয়সে পেশাদার ফুটবলে রোমারিও

চন্দ্রঘোনা থানার সি আর মামলার ৭ আসামী গ্রেপ্তার

চন্দ্রঘোনা থানার সি আর মামলার ৭ আসামী গ্রেপ্তার

শাহিনের সাথে আমার কোনো বিবাদ নেই: বাবর

শাহিনের সাথে আমার কোনো বিবাদ নেই: বাবর

সালথায় আগুনে পুড়ল ১২টি দোকান, বিপুল পরিমাণ ক্ষয়ক্ষতি

সালথায় আগুনে পুড়ল ১২টি দোকান, বিপুল পরিমাণ ক্ষয়ক্ষতি

উলভার্টের ১৮৪* ছাপিয়ে আতাপাত্তুর ১৯৫*, শ্রীলঙ্কার রেকর্ডময় জয়

উলভার্টের ১৮৪* ছাপিয়ে আতাপাত্তুর ১৯৫*, শ্রীলঙ্কার রেকর্ডময় জয়

মালিকদের লুটপাটে বেসরকারি অনেকগুলো ব্যাংক ধ্বংসের মুখে

মালিকদের লুটপাটে বেসরকারি অনেকগুলো ব্যাংক ধ্বংসের মুখে

শরিফুল-তাসকিন তোপে উড়ে গেল শেখ জামালও

শরিফুল-তাসকিন তোপে উড়ে গেল শেখ জামালও

বাসের ধাক্কায় কিশোরগঞ্জে দুই মোটরসাইকেল আরোহী নিহত

বাসের ধাক্কায় কিশোরগঞ্জে দুই মোটরসাইকেল আরোহী নিহত

ফারাক্কার প্রভাবে পদ্মা নদী এখন বিলে পরিনত হয়েছে

ফারাক্কার প্রভাবে পদ্মা নদী এখন বিলে পরিনত হয়েছে

আমার স্ত্রীর কোনো ক্ষতি হলে সেনাপ্রধানকে দায়ী করব : ইমরান খান

আমার স্ত্রীর কোনো ক্ষতি হলে সেনাপ্রধানকে দায়ী করব : ইমরান খান

পশ্চিমাদের চাপ বাড়লেও ইরানের তেল রপ্তানিতে বাধা নেই

পশ্চিমাদের চাপ বাড়লেও ইরানের তেল রপ্তানিতে বাধা নেই

কারাবন্দি থেকে ফের গৃহবন্দি সু চি

কারাবন্দি থেকে ফের গৃহবন্দি সু চি

প্রাণিসম্পদ সেবা সপ্তাহ ও প্রদর্শনীর উদ্বোধন প্রধানমন্ত্রীর

প্রাণিসম্পদ সেবা সপ্তাহ ও প্রদর্শনীর উদ্বোধন প্রধানমন্ত্রীর

ক্রিমিয়া ও ডনবাস চিরকাল রাশিয়ার মধ্যে থাকবে: স্লোভাক প্রধানমন্ত্রী

ক্রিমিয়া ও ডনবাস চিরকাল রাশিয়ার মধ্যে থাকবে: স্লোভাক প্রধানমন্ত্রী

রুশ সেনাদের অগ্রগতির কথা স্বীকার করেছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট

রুশ সেনাদের অগ্রগতির কথা স্বীকার করেছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট

সিঙ্গাপুরের নতুন প্রধানমন্ত্রীকে যে চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হবে

সিঙ্গাপুরের নতুন প্রধানমন্ত্রীকে যে চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হবে

বনশ্রীতে লাগা আগুন নিয়ন্ত্রণে

বনশ্রীতে লাগা আগুন নিয়ন্ত্রণে

ছাতকে সড়ক দুর্ঘটনায় কণ্ঠশিল্পী পাগল হাসানসহ প্রাণ গেল দুইজনের

ছাতকে সড়ক দুর্ঘটনায় কণ্ঠশিল্পী পাগল হাসানসহ প্রাণ গেল দুইজনের

ইসরাইল প্রতিশোধ নিলে আঞ্চলিক যুদ্ধের ঝুঁকি বাড়বে: জর্ডান

ইসরাইল প্রতিশোধ নিলে আঞ্চলিক যুদ্ধের ঝুঁকি বাড়বে: জর্ডান