ঢাকা   বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪ | ৫ বৈশাখ ১৪৩১
জেনারেল মুনিরকে ইমরান খানের প্রতি নমনীয় হতে আহবান

পাকিস্তানের সেনাবাহিনীর অভ্যন্তরে তৈরি হচ্ছে ফাটল

Daily Inqilab দ্য নিউ ইয়র্ক টাইম্স

২৯ মার্চ ২০২৪, ১২:১১ এএম | আপডেট: ২৯ মার্চ ২০২৪, ১২:১১ এএম

কয়েক দশক ধরে যদিও পাকিস্তানের সবচেয়ে গুরুত্বপ‚র্ণ প্রতিষ্ঠান হিসেবে বিবেচিত সামরিক বাহিনী প্রায়শই দেশটির নির্বাচিত সরকারগুলিকে ক্ষমতাচ্যুত করার জন্য হস্তক্ষেপ করে আসছিল, তবুও অনেক পাকিস্তানি এটিকে দেশের অযোগ্য রাজনীতিবিদদের কাছ থেকে পরিত্রাণ হিসাবে দেখতেন। মনে করা হত সেনাবাহিনীই একমাত্র শক্তি, যা দেশকে একত্রে ধরে রাখতে সক্ষম। তবে, এখন প্রশ্ন উঠেছে যে, জেনারেলরা নিজেদের একত্র করে রাখতে পারবেন কিনা।

জনতাবাদী প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান সরাসরি পাকিস্তানের সামরিক বাহিনীর প্রভাবকে চ্যালেঞ্জ করার পর এর মর্যাদা বিপর্যয়কর ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে। প্রতিক্রিয়ায়, খানকে ক্ষমতাচ্যুত করা হয়েছে, জেলে পাঠানো হয়েছে এবং তার দল, ফেব্রæয়ারী নির্বাচনে সর্বাধিক সংসদীয় আসনে জয়ী হওয়া সত্তে¡ও, সামরিক নেতৃত্বের হস্তক্ষেপে এই মাসে ক্ষমতা গ্রহণকারী একটি নতুন বেসামরিক সরকার গঠন থেকে ছিটকে পড়ে। এখন, পাকিস্তানে গভীরভাবে একটি মেরুকরণ তৈরি হয়েছে, এবং দেশটির সেনাপ্রধান জেনারেল সৈয়দ অসীম মুনিরের জন্য আরও বড় উদ্বেগের বিষয় হল, সামরিক বাহিনীতেও এই মেরুকরণের বিস্তার ঘটেছে। সামরিক নেতৃত্বের উল্লেখযোগ্য অংশ, শক্তিশালী সামরিক পরিবারগুলি এবং প্রভাশারী কর্মকর্তারা ইমরান খানের প্রতি সমর্থন পোষণ করেন। তারা খানের যুক্তরাষ্ট্র বিরোধী দৃষ্টিভঙ্গির প্রতি সহানুভ‚তিশীল, যার মধ্যে পাকিস্তানকে চীন এবং রাশিয়ার সাথে আরও ঘনিষ্ঠ যুক্ত করা অন্তর্ভুক্ত।

পাকিস্তানের জন্য খারাপ সময়ে এই বিভাজন পরিস্থিতিকে আরও করেছে। দেশটির অর্থনীতি ধংসের কাছাকাছি এবং জেনারেল মুনির ওয়াশিংটনের সাথে সম্পর্ক মেরামত করার জন্য কাজ করছেন যা, ইমরান খানের আমলে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছিল। ভারতের প্রধানমন্ত্রী হিন্দু জাতীয়তাবাদী নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বে চিরপ্রতিদ্ব›দ্বী ভারত, সেইসাথে তালেবান-নিয়ন্ত্রিত আফগানিস্তান এবং ইরান সহ পাকিস্তান সব দিক থেকে রাজনৈতিক ও নিরাপত্তা চ্যালেঞ্জ দ্বারা আক্রান্ত।

ইরানি বাহিনী জানুয়ারিতে পাকিস্তানে বিমান হামলা শুরু করে, যা পাকিস্তানকে পাল্টা হামলার উস্কানি দেয়। এই মাসে, পাকিস্তানের সামরিক ঘাঁটিগুলি দেশটির দক্ষিণে এবং আফগানিস্তানের সীমান্তে পৃথক জঙ্গি হামলার শিকার হয়েছে। নি:সন্দেহে, দেশটির দুর্দশার বেশিরভাগ দায় সেনাবাহিনীর ওপরই বর্তায়।

গত মাসে নির্বাচন ঘনিয় আসার সাথে সাথে ইমরান খানের দলের পরাজয় নিশ্চিত করতে সামরিক বাহিনী পদক্ষেপ নেয়। নির্বাচনের ঠিক আগে তাকে দুর্নীতি এবং রাষ্ট্রীয় গোপনীয়তা ফাঁস করার বহু প্রশ্নবিদ্ধ অভিযোগে দীর্ঘ কারাদÐের শাস্তি দেয়া হয় এবং তার দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ বা পিটিআই-এর উপর কঠোর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়, যা ম‚লত এর প্রার্থীদের প্রচারণা নিষিদ্ধ করেছিল।

কিন্তু, পিটিআই-পন্থী প্রার্থীরা পার্লামেন্টে সর্বাধিক আসন জিতে সামরিক বাহিনীকে হতবাক করে দেয়। সামরিক বাহিনী বর্তমান জোট সরকার কৌশলী করার মাধ্যমে বিজয়ী পিটিআই-পন্থীদের ক্ষমতা থেকে দ‚রে সরিয়ে রাখে।
একটি ক্ষয়প্রাপ্ত অর্থনৈতিক ও নিরাপত্তা পটভূমি ছাড়াও, সেই সরকার এখন জনসংখ্যার একটি বিশাল অংশের মুখোমুখি যারা নির্বাচনে কারচুপি হয়েছে বলে মনে করে। সামরিক বাহিনী, যেটি পাকিস্তানের বর্তমান সরকারকে সাহায্য করছে, তা নিজের সুনামের ক্ষতির মোকাবেলা করার জন্য যথেষ্ট শক্তিশালী। তবে এটিকে আগে নিজের ঘর সামলাতে হবে।

সম্প্রতি পাকিস্তান সেনাবাহিনীতে চাকরিরত এবং অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা স্পষ্টভাবে জেনারেল মুনিরকে ইমরান খানের প্রতি নরম দৃষ্টিভঙ্গি নেওয়ার আহŸান জানিয়েছেন এবং পাকিস্তানের মধ্যে এটি সর্বজনবিদিত যে, খানের সাথে কীভাবে আচরণ করা হচ্ছে তা নিয়ে গত মে মাসের বিক্ষোভে কিছু সামরিক পরিবারের সদস্যরা সরাসরি অংশগ্রহণ করেছেন।

জেনারেল মুনির সেই বিক্ষোভের আগুন নেভানোর চেষ্টায় ব্যস্ত। তিনি কর্মকর্তাদের মনে করিয়ে দিচ্ছেন যে, মে মাসের সহিংসতা সরাসরি সামরিক বাহিনীকে লক্ষ্য করে ঘটেছিল এবং খান-পন্থী মনোভাবের বিস্তার বন্ধ করতে তিকি চেষ্টা করছেন। মুনির স্বল্পমেয়াদে সফল হতে পারেন, তবে এই গল্পটি এখনও শেষ হয়নি।

কর্তমান পরিস্থিতি পাকিস্তানের জন্য বিপজ্জনক হয়ে উঠতে পারে। ইমরান খান সামরিক ও রাজনৈতিক প্রতিষ্ঠানে তার প্রতিদ্ব›দ্বীদের সাথে আলোচনা করতে অস্বীকার করে মতস্থির থেকেছেন। অনেকেরই আশঙ্কা, একজন প্রতিহিংসাপরায়ণ খান পাকিস্তানকে কোথায় নিয়ে যেতে পারেন যদি তিনি ফিরে আসেন। এবং যদি জেনারেল মুনির স্থিতাবস্থা বজায় রাখার জন্য তার মেয়াদ বাড়ানোর চেষ্টা করেন, তাহলে সামরিক অনৈক্য ছড়িয়ে পড়তে পারে।

পাকিস্তানের সেনাবাহিনীর ঐক্য আপাতত অটুট বলে মনে হলেও, সামরিক ভ্রাতৃতের ক্ষেত্রে সবকিছু ঠিকঠাক নেই। পাকিস্তানের জেনারেলরা নিজেদের মধ্যে ইমরান খান সংক্রান্ত ফাটল বন্ধ করতে না পারলে দেশটির রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা, এর নিরাপত্তা এবং ভবিষ্যৎ সম্পর্কে ভবিষ্যদ্বাণী করা কঠিন হয়ে পড়বে।

 

 


বিভাগ : ইসলামী বিশ্ব


মন্তব্য করুন

HTML Comment Box is loading comments...

আরও পড়ুন

কালকিনিতে কলেজ ছাত্রীকে ধর্ষনের ঘটনায় মামলা দায়ের

কালকিনিতে কলেজ ছাত্রীকে ধর্ষনের ঘটনায় মামলা দায়ের

ছেলেকে ভোট না দিলে উন্নয়ন বন্ধের হুমকি একরামুল করিম চৌধুরী এমপির

ছেলেকে ভোট না দিলে উন্নয়ন বন্ধের হুমকি একরামুল করিম চৌধুরী এমপির

গোপালগঞ্জে সিঁধ কেটে ঘরে প্রবেশ করে প্রবাসীর স্ত্রীকে এসিড নিক্ষেপ

গোপালগঞ্জে সিঁধ কেটে ঘরে প্রবেশ করে প্রবাসীর স্ত্রীকে এসিড নিক্ষেপ

জাতির পিতার সমাধিতে বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কমিশনের চেয়ারম্যানের শ্রদ্ধা

জাতির পিতার সমাধিতে বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কমিশনের চেয়ারম্যানের শ্রদ্ধা

সিনিয়র শিল্প সচিবের সঙ্গে যুক্তরাজ্যে নিযুক্ত বাংলাদেশ হাইকমিশনারের সাক্ষাৎ

সিনিয়র শিল্প সচিবের সঙ্গে যুক্তরাজ্যে নিযুক্ত বাংলাদেশ হাইকমিশনারের সাক্ষাৎ

রাজবাড়ী পদ্মা নদীতে গোসলে নেমে ডুবে যুবকের মৃত্যু

রাজবাড়ী পদ্মা নদীতে গোসলে নেমে ডুবে যুবকের মৃত্যু

স্টুয়ার্ট ল এখন যুক্তরাষ্ট্রের কোচ

স্টুয়ার্ট ল এখন যুক্তরাষ্ট্রের কোচ

যে কারণে ৫৮ বছর বয়সে পেশাদার ফুটবলে রোমারিও

যে কারণে ৫৮ বছর বয়সে পেশাদার ফুটবলে রোমারিও

চন্দ্রঘোনা থানার সি আর মামলার ৭ আসামী গ্রেপ্তার

চন্দ্রঘোনা থানার সি আর মামলার ৭ আসামী গ্রেপ্তার

শাহিনের সাথে আমার কোনো বিবাদ নেই: বাবর

শাহিনের সাথে আমার কোনো বিবাদ নেই: বাবর

সালথায় আগুনে পুড়ল ১২টি দোকান, বিপুল পরিমাণ ক্ষয়ক্ষতি

সালথায় আগুনে পুড়ল ১২টি দোকান, বিপুল পরিমাণ ক্ষয়ক্ষতি

উলভার্টের ১৮৪* ছাপিয়ে আতাপাত্তুর ১৯৫*, শ্রীলঙ্কার রেকর্ডময় জয়

উলভার্টের ১৮৪* ছাপিয়ে আতাপাত্তুর ১৯৫*, শ্রীলঙ্কার রেকর্ডময় জয়

মালিকদের লুটপাটে বেসরকারি অনেকগুলো ব্যাংক ধ্বংসের মুখে

মালিকদের লুটপাটে বেসরকারি অনেকগুলো ব্যাংক ধ্বংসের মুখে

শরিফুল-তাসকিন তোপে উড়ে গেল শেখ জামালও

শরিফুল-তাসকিন তোপে উড়ে গেল শেখ জামালও

বাসের ধাক্কায় কিশোরগঞ্জে দুই মোটরসাইকেল আরোহী নিহত

বাসের ধাক্কায় কিশোরগঞ্জে দুই মোটরসাইকেল আরোহী নিহত

ফারাক্কার প্রভাবে পদ্মা নদী এখন বিলে পরিনত হয়েছে

ফারাক্কার প্রভাবে পদ্মা নদী এখন বিলে পরিনত হয়েছে

আমার স্ত্রীর কোনো ক্ষতি হলে সেনাপ্রধানকে দায়ী করব : ইমরান খান

আমার স্ত্রীর কোনো ক্ষতি হলে সেনাপ্রধানকে দায়ী করব : ইমরান খান

পশ্চিমাদের চাপ বাড়লেও ইরানের তেল রপ্তানিতে বাধা নেই

পশ্চিমাদের চাপ বাড়লেও ইরানের তেল রপ্তানিতে বাধা নেই

কারাবন্দি থেকে ফের গৃহবন্দি সু চি

কারাবন্দি থেকে ফের গৃহবন্দি সু চি

প্রাণিসম্পদ সেবা সপ্তাহ ও প্রদর্শনীর উদ্বোধন প্রধানমন্ত্রীর

প্রাণিসম্পদ সেবা সপ্তাহ ও প্রদর্শনীর উদ্বোধন প্রধানমন্ত্রীর