কিশোরীকে ধর্ষণের পর খুন

৭ বছর পর ধরা ফাঁসির আসামি

Daily Inqilab চট্টগ্রাম ব্যুরো

০৫ মে ২০২৩, ১০:৩৯ পিএম | আপডেট: ০৬ মে ২০২৩, ১২:০১ এএম

বিয়ের নামে প্রতারণা করে এক কিশোরীকে ধর্ষণের পর খুনের দায়ে মৃত্যুদ-প্রাপ্ত এক আসামিকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। গতকাল শুক্রবার ভোর রাতে নগরীর বায়েজিদ এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতার আলী আকবরের (২৯) বাড়ি ফটিকছড়ি উপজেলার ডলু গ্রামে। খুনের শিকার ১৪ বছর বয়সী কিশোরী একই উপজেলার ভুজপুর থানার সৈলকুপা গ্রামের এক কৃষকের মেয়ে। ২০১৬ সালের ২০ জানুয়ারি ভুজপুরের বাদুরখীল গ্রামে একটি পাহাড় থেকে কিশোরীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।
র‌্যাব-৭ চট্টগ্রামের সদর ক্যাম্প কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাহফুজুর রহমান জানান, আকবর বিবাহিত ছিলেন। কিন্তু সেটা গোপন রেখে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ২০১৫ সালে ১০ নভেম্বর সে মেয়েটিকে বিয়ে করেন। মেয়েটির বাবা ছিলেন গরীব কৃষক। নোটারি পাবলিকের কাগজপত্র দেখিয়ে কিশোরীকে বিয়ের কথা বলেছিল আকবর। বাস্তবে কাগজপত্র ছিল ভুয়া। বিয়ের দুইমাস পর আকবরের চাপে ওই কিশোরী বাবার বাড়িতে গিয়ে স্বামীর জন্য এক লাখ টাকা চায়। কিন্তু কৃষক বাবা টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করেন। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে মেয়েটিকে খুন করে আকবর।
এ ঘটনায় কিশোরীর বাবার ভুজপুর থানায় দায়ের হওয়া মামলায় ২০১৭ সালে অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়েছিল। অভিযোগপত্রে বলা হয়, টাকা না পাওয়ায় আকবর ক্ষুব্ধ হয়ে কিশোরীকে তার বাবার বাড়িতে রেখে দেয়। তার প্রথম স্ত্রী কিশোরীকে নিয়ে আলাদাভাবে বসবাসের তথ্য জেনে যায়। তার সঙ্গে সম্পর্কচ্ছেদের জন্য আকবরের ওপর মানসিক চাপ তৈরি করে। মানসিক যন্ত্রণা থেকে মুক্তি পেতে আকবর কিশোরীকে খুনের পরিকল্পনা করে। ২০১৬ সালের ১২ জানুয়ারি তাকে বেড়াতে নেয়ার কথা বলে বাবার বাড়ি থেকে নিয়ে যায় আকবর। ১৭ জানুয়ারি পর্যন্ত তাকে নিয়ে বিভিন্ন এলাকায় বেড়াতে যায়। ওইদিন সকাল থেকে ২০ জানুয়ারি সকালের মধ্যে কিশোরীকে শ্বাসরোধে খুন করে লাশ তার বাবার খামারবাড়ির পাশে পাহাড়ে গাছের সঙ্গে ঝুলিয়ে রাখে।
তদন্তকারী কর্মকর্তা অভিযোগপত্রে আরো উল্লেখ করেন, খুনের আগে অবৈধভাবে স্ত্রী পরিচয়ে নিজের হেফাজতে রাখা কিশোরীকে আলী আকবরের ধর্ষণ করার প্রমাণ ময়নাতদন্ত প্রতিবেদনে পাওয়া যায়। এছাড়া খুনের আগে কিংবা পরে কিশোরীর যৌনাঙ্গে ধারালো কিছু দিয়ে জখমের চিহ্নও পাওয়া যায়।
গত ১৯ মার্চ এ মামলায় আলী আকবরের মৃত্যুদ- দেন আদালত। হত্যাকা-ের পর পুলিশ আলী আকবরকে গ্রেফতার করলেও পরে জামিনে গিয়ে পলাতক হয়ে যান। বিভিন্ন ছদ্মবেশ ধরে নগরীর বিভিন্নস্থানে কাজ নিয়ে আকবর টানা প্রায় সাত বছর গ্রেফতার এড়াতে সক্ষম হয়েছিলেন।


বিভাগ : জাতীয়


মন্তব্য করুন

HTML Comment Box is loading comments...

আরও পড়ুন

ইণ্ডিগো এয়ারলাইনসের স্বেচ্ছাচারিতা

ইণ্ডিগো এয়ারলাইনসের স্বেচ্ছাচারিতা

বৈধপথে রেমিট্যান্স পাঠিয়ে নিজে সম্মানিত হোন দেশকেও সম্মানিত করুন

বৈধপথে রেমিট্যান্স পাঠিয়ে নিজে সম্মানিত হোন দেশকেও সম্মানিত করুন

বাংলাদেশে এখন আর স্বাধীন সাংবাদিকতা নেই: রিজভী

বাংলাদেশে এখন আর স্বাধীন সাংবাদিকতা নেই: রিজভী

এক দশক পর চ্যাম্পিয়ন কলকাতা

এক দশক পর চ্যাম্পিয়ন কলকাতা

জেমস বন্ডের থিম সং লিখেছিলেন লানা দেল রে, তবে মনোনীত হয়নি

জেমস বন্ডের থিম সং লিখেছিলেন লানা দেল রে, তবে মনোনীত হয়নি

খালেদ মুন্নার ফোক ম্যাশআপ

খালেদ মুন্নার ফোক ম্যাশআপ

চেম্বার আদালতে আপিল করলেন ডিপজল

চেম্বার আদালতে আপিল করলেন ডিপজল

‘অ্যানিমেল’ সিক্যুয়েলে রণবীরের প্রতিপক্ষ ভিকি

‘অ্যানিমেল’ সিক্যুয়েলে রণবীরের প্রতিপক্ষ ভিকি

গানে ফিরছেন সঙ্গীতশিল্পী রিংকু

গানে ফিরছেন সঙ্গীতশিল্পী রিংকু

কোক স্টুডিও বাংলায় ওয়ারফেজের গান

কোক স্টুডিও বাংলায় ওয়ারফেজের গান

উন্নয়ন সম্ভাবনায় দক্ষিণের জনপদ

উন্নয়ন সম্ভাবনায় দক্ষিণের জনপদ

নদী রক্ষায় বড় ধরনের যুদ্ধ শুরু হয়েছে, এ যুদ্ধে আমরা বিজয়ী হব : নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী

নদী রক্ষায় বড় ধরনের যুদ্ধ শুরু হয়েছে, এ যুদ্ধে আমরা বিজয়ী হব : নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী

সর্বজনীন পেনশন স্কিম বাতিল দাবি, ইবি শিক্ষকদের মানববন্ধন

সর্বজনীন পেনশন স্কিম বাতিল দাবি, ইবি শিক্ষকদের মানববন্ধন

বাসের ওপর উল্টে গেল ট্রাক, ১১ জনের মৃত্যু

বাসের ওপর উল্টে গেল ট্রাক, ১১ জনের মৃত্যু

ভয়েস চেঞ্জ অ্যাপে গলা বদলে ৭ শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ

ভয়েস চেঞ্জ অ্যাপে গলা বদলে ৭ শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ

গুগল ম্যাপ দেখে গাড়ি চালিয়ে পানিতে পড়লেন ৪ পর্যটক

গুগল ম্যাপ দেখে গাড়ি চালিয়ে পানিতে পড়লেন ৪ পর্যটক

পৃথিবীর কাছাকাছি বাসযোগ্য নতুন গ্রহ আবিষ্কার

পৃথিবীর কাছাকাছি বাসযোগ্য নতুন গ্রহ আবিষ্কার

বাইডেন ও ট্রাম্পের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের স্বাধীনতায় ফাটল ধরানোর অভিযোগ কেনেডির

বাইডেন ও ট্রাম্পের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের স্বাধীনতায় ফাটল ধরানোর অভিযোগ কেনেডির

ভারতে ধনীদের ওপর সম্পদ করারোপ প্রস্তাব

ভারতে ধনীদের ওপর সম্পদ করারোপ প্রস্তাব

নিউইয়র্ক-লন্ডনের তুলনায় এশিয়ায় বাড়ছে আবাসন মূল্য

নিউইয়র্ক-লন্ডনের তুলনায় এশিয়ায় বাড়ছে আবাসন মূল্য