ভোটারদের উপস্থিতি নিয়ে স্নায়ুচাপে প্রার্থীরা

বরিশাল সিটি নির্বাচন আজ

Daily Inqilab বিশেষ সংবাদদাতা

১১ জুন ২০২৩, ১১:০৫ পিএম | আপডেট: ১২ জুন ২০২৩, ১২:০০ এএম

নানা উদ্বেগ-উৎকন্ঠা আর ভোটারদের উপস্থিতি নিয়ে প্রার্থীদের স্নায়ুচাপের মাঝে বরিশাল সিটি করপোরেশনের ৫ম নির্বাচনে ভোটগ্রহণ আজ সোমবার। সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ৫৮ বর্গ কিলোমিটারের বরিশাল মহানগরীর ৩০টি ওয়ার্ডের ১২৪টি কেন্দ্রের ৮৯৪টি বুথে ২ লাখ ৭৫ হাজার ২৬৭ নারী-পুরুষ ভোটার প্রথমবারের মতো ইভিএম-এ ভোট দেবেন। তবে ভোট বর্জন করলেও এ নির্বাচনে মেয়র পদে জয় পরাজয় এখনো বিএনপির ভোটারদের ওপরই নির্ভরশীল।

নির্বিঘেœ এ ভোট সম্পন্ন করতে নগরীর ১২৪টি কেন্দ্র ছাড়াও পুরো নগরী জুড়ে সাড়ে ৪ হাজার পুলিশ ও আনসার সদস্যের বাইরে র‌্যাব-৮’এর দেড় শতাধিক ফোর্স এবং ১০ প্লাটুন বিজিবি টহলে থাকছে। ১০ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্র্রেট-এর তত্ত্বাবধানে স্ট্রাকিং ফোর্স হিসেবে বিজিবি নগরীর বিভিন্ন এলাকায় অবস্থান গ্রহণের পাশাপাশি টহলেও থাকবে। বিজিবি’র টহল দলের বাইরে ৩০ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্র্রেট-এর তত্ত্বাবধানেও নগরীতে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর ৩০টি দল টহলে ও মজুত ফোর্স হিসেবে সার্বক্ষণিক প্রস্তুত থাকবে বলে জানা গেছে। নগরীর ১০৬টি কেন্দ্রকে ঝুঁকিপূর্ণ বিবেচনায় নিয়ে বাড়তি পুলিশ ও আনসার সদস্য মোতায়েন করা হচ্ছে। বিজিবি ও র‌্যাব নগরীতে টহল শুরু করেছে।

তবে আজ সোমবারের এ নির্বাচনকে ঘিরে গত দেড় মাসেরও বেশি সময় ধরে বরিশালে রাজনৈতিক ও প্রশাসনিক তৎপড়তা থাকলেও নির্বাচনী বিধি-বিধান অনুসরনে কমিশনের মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তাগণ খুব একটা সফলতা দেখাতে পারেন নি। প্রকাশ্যেই অনেক প্রার্থী কমিশনের নিয়ম ভঙ্গ করলেও তার বিরুদ্ধে তেমন কোনো পদক্ষেপ ছিল না। অথচ এ নির্বাচনকে ঘিরে প্রধান নির্বাচন কমিশনার বরিশাল সফর করে প্রার্থী ও পুলিশ প্রশাসনের সাথে সভা করে দিকনির্দেশনা দিয়েছেন। নির্বাচন কমিশনার আহসান হাবীব খান তিনবার এ নগরীতে এসে দিকনির্দেশনা দিয়ে গেছেন।

২০০২ সালে গঠিত বরিশাল সিটি করপোরেশনের ৫ম বারের এ নির্বাচনে মেয়র পদে ৭ জন ছাড়াও নগরীর ৩০টি ওয়ার্ডে ১১৬ জন সাধারণ কাউন্সিলর ও ১০টি সংরক্ষিত নারী আসনে ৪২ জন মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীতায় রয়েছেন।
ভোট গ্রহণের লক্ষ্যে নির্বাচন কমিশন ১২৬ জন প্রিজাইডিং অফিসার, ৮৯৪ সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার এবং সমসংখ্যক পোলিং অফিসার ছাড়াও ১ হাজার ৭৮৮ জন সহকারী পোলিং অফিসরের প্রশিক্ষণ সম্পন্ন করে গত রোববার বিকেলের মধ্যে নির্বাচনী সরঞ্জামসহ কেন্দ্রে পাঠিয়েছে।

আজ সোমবার বরিশাল নগর পরিষদের ৫ম নির্বাচনে আওয়ামী লীগের আবুল খায়ের আবদুল্লাহ, জাতীয় পার্টির প্রকৌশলী ইকবাল হোসেন তাপস ও ইসলামী আন্দোলনের মুফতি ফয়জুল করিম ছাহেবের মধ্যে ত্রিমুখী লড়াইয়ের হচ্ছে। এর বাইরেও জাকের পার্টির মিজানুর রহমান বাচ্চু এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী কামরুল আহসান রূপন ও আলী হোসেন ও ভোটের মাঠে রয়েছেন।

তবে গত দুমাস ধরে অনানুষ্ঠানিক ও আনুষ্ঠানিক ব্যাপক প্রচারণার পরেও দেশের প্রধান বিরোধী দল, বিএনপিবিহীন এ নির্বাচনে এখনো ভোটারদের কেন্দ্রে উপস্থিতি নিয়ে নিশ্চিত হতে পারেন নি কোনো দলের প্রার্থীরাই। ভোটারদের মাঝে ব্যাপক কৌতুহল থাকলেও এখনো ভোটদানে তেমন কোনো আগ্রহ তৈরি হয়নি বলেই মনে করছেন নির্বাচনী পর্যবেক্ষকগণও।

অপরদিকে বরিশালে আওয়ামী লীগের অভ্যন্তরীণ কোন্দল দলটির নীতি নির্ধারকদের মাঝে যথষ্ঠ দুশ্চিন্তা তৈরি করেছে। বর্তমান মেয়র ও মহানগর আওয়ামী লীগের সম্পাদক সাদিক আবদুল্লাহর পরিবর্তে তার চাচা আবুল খায়ের আবদুল্লাহকে মনোনয়ন দেয়ায় সাদেক ও তার পিতা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হাসনাত আবদুল্লাহর বেশিরভাগ অনুসারী খায়েরের পক্ষে প্রচারণাসহ নির্বাচনী কর্মকা-ে সম্পৃক্ত হননি। এমনকি অনেকের বিরুদ্ধে দলীয় প্রার্থীর পরিবর্তে ইসলামী আন্দোলন প্রার্থীকে সমর্থনসহ পরোক্ষভাবে সহযোগীতা করারও অভিযোগ উঠেছে।

আওয়ামী লীগ সমর্থিত নগরীর ২৪ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আনিস শরিফ সংবাদ সম্মেলন করে ‘নির্বাচন করার জন্য ইসলামী আন্দোলন প্রার্থীকে আবুল হাসনাত আবদুল্লাহ ৩ কোটি টাকা দিয়েছেন’ বলেও অভিযোগ করেছেন। পরে তাকে দল থেকে বহিষ্কার করা হলেও বিষয়টি নিয়ে জনমনে সংশয় কাটেনি। ইসলামী আন্দোলন প্রার্থীও বিষয়টি নিয়ে আদালতে মামলা করেছেন।

তবে সব প্রতিকূলতা পাশে রেখে আওয়ামী লীগ প্রার্থী আবুল খায়ের জীবনের প্রথম নির্বাচনে মূল প্রতিদ্বন্দ্বীতায় থাকলেও নিকট অতীতে বরিশালে দলীয় কিছু নেতার কর্মকা-ই এখনো তার অন্যতম প্রতিবন্ধকতা হয়ে আছে। লক্ষে পৌঁছতে দলীয় ঐসব নেতার কর্মকা-কে অতিক্রম করেই জনগণসহ ভোটারের আস্থা অর্জন করে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীকে পরাজিত করার সীমায় পৌঁছতে হবে তাকে। এ মন্তব্য রাজনৈতিক পর্যবেক্ষক মহলের।
ইসলামী আন্দোলন প্রার্থী মুফতি ফয়জুল করিম’ও প্রথমবারের মতো বরিশাল মহানগরী চাবি গ্রহণের লড়াইয়ে নেমে যথেষ্ঠ আলোচনায় এসেছেন। প্রচার-প্রচারণাসহ ব্যাপক সাংগঠনিক কর্মকা-ে বিপুল সংখ্যক কর্মী বাহিনীকে নির্বাচনের মাঠে সম্পৃক্ত করে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের স্নায়ুচাপ বৃদ্ধি করেছেন মুফতি ছাহেব।

তবে নির্বাচনী পর্যবেক্ষকদের মতে, ভোটের মাঠে তার বিশাল কর্মী বাহিনীর ২৫ ভাগও এ নগরীর ভোটার নন। পাশাপাশি বিগত প্রায় ৩০ বছর ধরে মহানগরীর পাশে প্রবাহমান কির্তনখোলা নদীর অপর পাড়ের চরমেনাই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদে বর্তমান পীর ছাহেবসহ মুফতি ছাহেবের পরিবারের সদস্যরাই নির্বাচিত হয়ে আসলেও এলাকায় উন্নয়ন নিয়ে যথেষ্ঠ সমালোচনা রয়েছে। এমনকি দক্ষিণাঞ্চলের প্রায় পৌনে ৪শ ইউনিয়নের মধ্যে উন্নয়নে পেছনের কাতারে রয়েছে চরমোনাই। এ বিষয়টি সচেতন ভোটারসহ নাগরিকদের মাঝেও নানা প্রশ্নের জন্ম দিচ্ছে।

অপরদিকে জাতীয় পার্টি প্রার্থী প্রকৌশলী ইকবাল হোসেন তাপস বরিশালের রাজনীতিতে খুব পুরনো না হলেও গত ৫ বছরেরও বেশি সময় ধরে এ নগরীতে তার পদচারণা রয়েছে। তিনি ২০১৮-এর সিটি ও সংসদ নির্বাচনে পেশী শক্তির কাছে ভোটের আগেই পরাজিত হয়েছেন। তবে এ নগরীসহ জনসাধারণের জীবনমান উন্নয়নে অন্য দুই মূল প্রতিদ্বন্দ্বীর মতোই এখনো খুব সম্পৃক্ত না হলেও আসন্ন নির্বাচনকে ঘিরে জাতীয় পার্টিকে নতুন করে উপস্থাপন করতে সক্ষম হয়েছেন। বিগত দিনে সারা দেশের মতো বরিশালেও জাতীয় পার্টি ও তার এক সময়ের বিশাল কর্মীরা যেভাবে হারিয়ে গেছেন, তাদের কিছুটা সংগঠিত করাসহ দলের মূল স্রোতে ফিরিয়ে আনতে সক্ষম হয়েছেন ইকবাল।

১৯৯১-এর ডিসেম্বরে জাপা প্রার্থী হিসেবে শওকত হোসেন হিরনের অংশ গ্রহণে বরিশাল সদর আসনের উপ-নির্বাচনের পরে এ নগরীতে জাতীয় পার্টি অস্তিত্ব সঙ্কটে ছিল। এমনকি ২০০৩ সালে প্রথম সিটি নির্বাচনসহ পরবর্তি সবগুলো নির্বাচনেই এ নগরী ও সদর আসনে জাপা প্রার্থীদের কখনো জামানত ছিল না। প্রকৌশলী ইকবাল সেখান থেকে দল এবং দলীয় নেতা-কর্মীদের উজ্জিবীত ও সংঠিত করতে সক্ষম হয়েছেন বলে মনে করছেন রাজনৈতিক পর্যবেক্ষক মহল।

তবে আজ সোমবার বরিশাল সিটি নির্বাচন কতটা নির্বিঘেœ, নিরাপদে ও ভোটারদের স্বতস্ফূর্ত অংশগ্রহণে সম্পন্ন হয়, তার ওপর সরকারের পাশাপাশি নির্বাচন কমিশনের আস্থার বিষয়টিও জড়িত বলে মনে করছেন রাজনৈতিক পর্যবেক্ষক মহল।


বিভাগ : জাতীয়


মন্তব্য করুন

HTML Comment Box is loading comments...

আরও পড়ুন

সোমালিয়ার নৌদস্যুদের চেয়েও বিএনপি অনেক বেশি ভয়ঙ্কর : পররাষ্ট্র মন্ত্রী

সোমালিয়ার নৌদস্যুদের চেয়েও বিএনপি অনেক বেশি ভয়ঙ্কর : পররাষ্ট্র মন্ত্রী

তন্বীর প্রেমের টানে নারায়ণগঞ্জ থেকে মোংলায় ছুটে আসছে সুবর্ণা

তন্বীর প্রেমের টানে নারায়ণগঞ্জ থেকে মোংলায় ছুটে আসছে সুবর্ণা

দলীয় কিছু মানুষের হাতে দেশের সম্পদ কেন্দ্রীভূত হচ্ছে

দলীয় কিছু মানুষের হাতে দেশের সম্পদ কেন্দ্রীভূত হচ্ছে

ইসরায়েল থেকে ঢাকায় বিমানের নজিরবিহীন অবতরণ: সর্বত্র নিন্দা ও প্রতিবাদের ঝড়

ইসরায়েল থেকে ঢাকায় বিমানের নজিরবিহীন অবতরণ: সর্বত্র নিন্দা ও প্রতিবাদের ঝড়

নতুন মৌসুমের আগে স্ট্রাইকারের খোঁজে ইউনাইটেড বস

নতুন মৌসুমের আগে স্ট্রাইকারের খোঁজে ইউনাইটেড বস

টোল ছাড়া এক্সপ্রেসওয়েতে উঠতে পারেনি ফায়ার সার্ভিস, সমালোচনা

টোল ছাড়া এক্সপ্রেসওয়েতে উঠতে পারেনি ফায়ার সার্ভিস, সমালোচনা

উচ্চ খরতাপের দহন দেশজুড়ে হিট এলার্ট জারি : সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রাঙ্গামাটিতে ৪০ ডিগ্রি

উচ্চ খরতাপের দহন দেশজুড়ে হিট এলার্ট জারি : সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রাঙ্গামাটিতে ৪০ ডিগ্রি

অবৈধ ইসরাইলের বিমান বাংলাদেশে অবতরণ কেন জনগণ জানতে চায় - মাওলানা জালালুদ্দীন আহমদ

অবৈধ ইসরাইলের বিমান বাংলাদেশে অবতরণ কেন জনগণ জানতে চায় - মাওলানা জালালুদ্দীন আহমদ

ইসরাইলি কার্গো বিমান বাংলাদেশের অবতরণ জাতির সাথে বেইমানির নামান্তর

ইসরাইলি কার্গো বিমান বাংলাদেশের অবতরণ জাতির সাথে বেইমানির নামান্তর

প্রকাশ্যে তরুণীকে মারধর; সোশ্যাল মিডিয়ায় সমালোচনা

প্রকাশ্যে তরুণীকে মারধর; সোশ্যাল মিডিয়ায় সমালোচনা

তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ ডেকে আনতে পারেন বাইডেন : ডোনাল্ড ট্রাম্প

তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ ডেকে আনতে পারেন বাইডেন : ডোনাল্ড ট্রাম্প

নববর্ষে যেসব রাস্তা বন্ধ থাকবে, চলতে হবে যে পথে

নববর্ষে যেসব রাস্তা বন্ধ থাকবে, চলতে হবে যে পথে

কমলনগরে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত উদ্যোক্তার মৃত্যু।

কমলনগরে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত উদ্যোক্তার মৃত্যু।

ইসরায়েলের পাশে দাঁড়ালে মধ্যপ্রাচ্যে মার্কিন ঘাঁটি গুঁড়িয়ে দেওয়ার ‘হুমকি’ ইরানের

ইসরায়েলের পাশে দাঁড়ালে মধ্যপ্রাচ্যে মার্কিন ঘাঁটি গুঁড়িয়ে দেওয়ার ‘হুমকি’ ইরানের

বাংলা নববর্ষ ১৪৩১ উপলক্ষ্যে দেশবাসীকে প্রধানমন্ত্রীর শুভেচ্ছা

বাংলা নববর্ষ ১৪৩১ উপলক্ষ্যে দেশবাসীকে প্রধানমন্ত্রীর শুভেচ্ছা

রাঙ্গামাটির দুর্গম-পার্বত্য সীমান্ত পরিদর্শন করলেন বিজিবির মহাপরিচালক

রাঙ্গামাটির দুর্গম-পার্বত্য সীমান্ত পরিদর্শন করলেন বিজিবির মহাপরিচালক

তীব্র তাপদাহ থাকতে পারে আরও ৩ দিন

তীব্র তাপদাহ থাকতে পারে আরও ৩ দিন

পাকিস্তানে চলন্ত বাস থেকে নামিয়ে গুলি, নিহত ৯

পাকিস্তানে চলন্ত বাস থেকে নামিয়ে গুলি, নিহত ৯

মহাসড়কের পর ট্রেনে মই ব্যবসা, সোশ্যাল মিডিয়ায় সমালোচনা

মহাসড়কের পর ট্রেনে মই ব্যবসা, সোশ্যাল মিডিয়ায় সমালোচনা

মতলবে বিএনপি নেতা সলিম উল্লাহ লাভলুর হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবীতে মানববন্ধন

মতলবে বিএনপি নেতা সলিম উল্লাহ লাভলুর হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবীতে মানববন্ধন