বিএনপি-জামায়াত দেশের রাষ্ট্রীয় ব্যবস্থা ধ্বংসের ষড়যন্ত্র করছে : নাছিম

Daily Inqilab অনলাইন ডেস্ক

২৫ মে ২০২৪, ১২:০৫ এএম | আপডেট: ২৫ মে ২০২৪, ১২:০৫ এএম

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও ঢাকা-৮ আসনের সংসদ সদস্য কৃষিবিদ আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম বলেছেন, বাংলাদেশের রাষ্ট্রীয় ব্যবস্থা ও গণতান্ত্রিক ব্যবস্থাকে ধ্বংস করার জন্য বিএনপি-জামায়াত নানা ষড়যন্ত্র করছে। বিএনপি হলো স্বৈরশাসক গোষ্ঠীর দোসর ও ৭৫ এর ঘাতক। এরা এখন পর্যন্ত বাংলাদেশের বিরুদ্ধে নানা ষড়যন্ত্র অব্যাহত রেখেছে। এরা জামায়াতকে সাথে নিয়ে সাম্প্রদায়িক বিষবাষ্প ছড়িয়ে বাংলাদেশকে ধ্বংস করতে চায়।

শুক্রবার (২৪ মে) দুপুরে কেআইবিতে বীর মুক্তিযোদ্ধা, সাবেক সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক আহ্বায়ক আলহাজ মকবুল হোসেনের ৪র্থ মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষ্যে বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের স্মরণ সভার প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, সাম্প্রদায়িক শক্তিকে ধ্বংস করে বাংলাদেশকে জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ গড়ার লড়াই কিন্তু আমাদের শেষ হয়ে যায়নি। আমরা ধনী গরিবের বৈষম্য কমিয়ে বৈষম্যহীন বাংলাদেশ চাই। আমাদেরকে জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ গড়ার জন্য কাজ করতে হবে। দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির জন্য যারা দায়ী তাদের বিপক্ষে আমাদের অবস্থান নিতে হবে। এরা দেশের শত্রু। যারা মূল্য বৃদ্ধি করে ও সিন্ডিকেটের মাধ্যমে মানুষকে কষ্ট দেয় তাদের বিপক্ষে আমাদের অবস্থান থেকে নজর রাখতে হবে। তিনি আরও বলেন, দ্রব্যমূল্য যখন বৃদ্ধি পায় তখন সরকার উদ্বিগ্ন হয়। তখন আমরা দেখি একটি রাজনৈতিক দল উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে। দাম আরো বৃদ্ধি করার জন্য তারা নানা ধরনের প্রচেষ্টা চালায়। তারা বিভিন্ন অপপ্রচার চালিয়ে অসাধু ব্যবসায়ীদের সুবিধা নেওয়ার জন্য সহযোগিতা করে। এরা কখনো দেশের মানুষের ভালো চায় না।

নাছিম বলেন, প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা ১৯৮১ সালে দেশে ফিরে আসার পর থেকেই লড়াই সংগ্রামের মাধ্যমে বাংলাদেশকে উন্নয়ন ও সমৃদ্ধ জাতি হিসেবে প্রতিষ্ঠা করার জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। বাংলাদেশ আজকে ঘুরে দাঁড়িয়েছে। এ ঘুরে দাঁড়ানোর নায়ক হলেন বঙ্গবন্ধুকন্যা দেশরত্ন শেখ হাসিনা। আমরা দেশরত্ন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এক থেকে অভিন্ন হয়ে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বাস্তবায়নের জন্য কাজ করে যাচ্ছি। আমাদের এই আদর্শের বন্ধনকে কেউ নষ্ট করতে পারবে না। আমরা দেশরত্ন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এগিয়ে যাচ্ছি।

আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, যারা দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে ও দেশের ক্ষতি করার চেষ্টা করে তাদের বিরুদ্ধে আমাদের সোচ্চার হতে হবে। ষড়যন্ত্রকারীরা দেশের বাহিরে ও দেশের ভিতরে থেকে ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছে। এদের ষড়যন্ত্র সব সময় থাকবে। আমাদেরকে সজাগ থেকে এদের সকল ষড়যন্ত্রকে মোকাবেলা করতে হবে। যারা দেশের মানুষ ও দেশকে নিয়ে ষড়যন্ত্র করে, তাদের হাত থেকে আমাদের গণতন্ত্রকে রক্ষা করতে হবে। হাজী মকবুল হোসেনের জীবন ও কর্মের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়ে তিনি বলেন, স্বেচ্ছাসেবক লীগের প্রতিষ্ঠাতা আহ্বায়ক মকবুল হোসেন মানুষের জন্য নিজেকে বিলিয়ে দিয়েছিলেন। তিনি সবসময় উদ্যোগী ও সাহসী মানুষ ছিলেন। তিনি কখন হতাশ হতেন না। কখনও তিনি অন্যায়ের কাছে মাথা নত করেননি। তার সফল কর্মময় জীবন এবং জাতির পিতার আদর্শের প্রতি অকৃত্রিম আস্থাই তাকে মানুষের মধ্যে বাঁচিয়ে রাখবে।

স্মরণ সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আলহাজ মকবুল হোসেনের ছেলে বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী আহসানুল ইসলাম টিটু। বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি গাজী মেজবাউল হোসেন সাচ্চুর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আফজালুর রহমান বাবুর সঞ্চালনায় স্মরণসভায় উপস্থিত ছিলেন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি মজিবুর রহমান স্বপন, আনোয়ারুল আজিম সাদেক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক খায়রুল হাসান জুয়েল, ঢাকা মহানগর উত্তর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি ইসহাক মিয়া, সাধারণ সম্পাদক আনিসুর রহমান নাঈম, দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক তারিক সাঈদ, কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক নাফিউল করিম নাফা, আব্দুল্লাহ আল সায়েম, কৃষিবিদ আ ফ ম মাহবুবুল হাসান, শহজালাল মুকুল, দপ্তর সম্পাদক আজিজুল হল আজিজ, গ্রন্থনা ও প্রকাশনা সম্পাদক মনোয়ারুল ইসলাম বিপুল, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক আবুল কালাম আজাদসহ অনেকে।


বিভাগ : রাজনীতি


মন্তব্য করুন

HTML Comment Box is loading comments...

আরও পড়ুন

যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে ৫০ বছরের চুক্তি বাতিল করল সৌদি আরব

যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে ৫০ বছরের চুক্তি বাতিল করল সৌদি আরব

মিশিগানে শিশুদের ওয়াটার পার্কে অতর্কিত হামলা, ২৮ বার গুলি! জখম একাধিক

মিশিগানে শিশুদের ওয়াটার পার্কে অতর্কিত হামলা, ২৮ বার গুলি! জখম একাধিক

দুই দশকেরও বেশি সময় পর কাল উত্তর কোরিয়া যাচ্ছেন রুশ প্রেসিডেন্ট

দুই দশকেরও বেশি সময় পর কাল উত্তর কোরিয়া যাচ্ছেন রুশ প্রেসিডেন্ট

অতীত তিক্ততা ভুলে মুইজ্জুকে মোদির ঈদ অভিনন্দন

অতীত তিক্ততা ভুলে মুইজ্জুকে মোদির ঈদ অভিনন্দন

বাংলাদেশ নৌবাহিনী ও কোস্টগাডের টহল জোরদার -ভীতি ও আতঙ্ক কেটেছে দ্বীপবাসীর

বাংলাদেশ নৌবাহিনী ও কোস্টগাডের টহল জোরদার -ভীতি ও আতঙ্ক কেটেছে দ্বীপবাসীর

ভারতে ভয়াবহ ট্রেন দুর্ঘটনা, নিহত বেড়ে ১৫

ভারতে ভয়াবহ ট্রেন দুর্ঘটনা, নিহত বেড়ে ১৫

ইজরায়েলের যুদ্ধকালীন বিশেষ মন্ত্রিসভা বাতিল করলেন নেতানিয়াহু

ইজরায়েলের যুদ্ধকালীন বিশেষ মন্ত্রিসভা বাতিল করলেন নেতানিয়াহু

ঈশ্বরগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় দুই কিশোরের মৃত্যু

ঈশ্বরগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় দুই কিশোরের মৃত্যু

সিলেট-সুনামগঞ্জে বন্যার অবনতি, উত্তরাঞ্চলে নদ-নদীর পানি বাড়ছেই

সিলেট-সুনামগঞ্জে বন্যার অবনতি, উত্তরাঞ্চলে নদ-নদীর পানি বাড়ছেই

কেউ মাংস দিতে চায় না, তাড়িয়ে দেয়

কেউ মাংস দিতে চায় না, তাড়িয়ে দেয়

পশু কোরবানি দিতে গিয়ে আহত ৯৪

পশু কোরবানি দিতে গিয়ে আহত ৯৪

হরিরামপুরে সাপের কামড়ে দেড় বছরের শিশুর মৃত্যু

হরিরামপুরে সাপের কামড়ে দেড় বছরের শিশুর মৃত্যু

ফৌজদারহাাটে মালবাহী ট্রেন লাইনচ্যুত

ফৌজদারহাাটে মালবাহী ট্রেন লাইনচ্যুত

৭ দিনে পদ্মা সেতুতে ২৫ কোটি ৭৩ লাখ টাকা টোল আদায়

৭ দিনে পদ্মা সেতুতে ২৫ কোটি ৭৩ লাখ টাকা টোল আদায়

যুদ্ধ মন্ত্রিসভা ভেঙে দিয়েছেন নেতানিয়াহু

যুদ্ধ মন্ত্রিসভা ভেঙে দিয়েছেন নেতানিয়াহু

কাদেরের বক্তব্যের জবাব দিতে ‘রুচিতে বাধে’ ফখরুলের

কাদেরের বক্তব্যের জবাব দিতে ‘রুচিতে বাধে’ ফখরুলের

ইউরোয় ‘বড় কিছুর’ লক্ষ্য রোনালদোর

ইউরোয় ‘বড় কিছুর’ লক্ষ্য রোনালদোর

ছোট পুঁজি নিয়েও আত্মবিশ্বাসী ছিলাম: শান্ত

ছোট পুঁজি নিয়েও আত্মবিশ্বাসী ছিলাম: শান্ত

কেন্দ্রীয় কৃষকলীগ নেতা সোহাগ তালুকদার আর নেই

কেন্দ্রীয় কৃষকলীগ নেতা সোহাগ তালুকদার আর নেই

জনগণের মধ্যে ‘ঈদের আনন্দ নেই: মির্জা

জনগণের মধ্যে ‘ঈদের আনন্দ নেই: মির্জা