বগুড়ায় বিএনপি নেতাকর্মীদের সইতে হয়েছে নানামুখী নির্যাতন

Daily Inqilab মহসিন রাজু

০১ জানুয়ারি ২০২৪, ১২:০০ এএম | আপডেট: ০১ জানুয়ারি ২০২৪, ১২:০০ এএম

২০২৩ সালের পুরোটাই বগুড়া নানান ঘটনা অঘটনের মধ্যে পার হলেও প্রধানত খুন খারাবী আর বিরোধী রাজনৈতিক শক্তি বিএনপির নেতা কর্মীদের ফেস করতে হয়েছে দুঃসহ সব নির্যাতন মামলাসহ নানামুখি নির্যাতন। এবাড়ি ওবাড়ি পালিয়েও স্বস্তি পায়নি তারা। যে বাড়িতেই পলাতক নেতা কর্মীরা থাকতে গিয়েছেন সেইসব বাড়ির লোকজনেরাও শিকার হয়েছেন বহুমুখি হয়রানীর শিকার। ফলে বাধ্য হয়ে নেতাকর্মীদের কখনো ঝোপঝাড়ে কখনো ফসলের ক্ষেতে তাদের রাত কাটাতে হয়েছে।
হত্যাকা- : গত কয়েক বছরের মত সদ্যবিদায় বছরেও ছিল হত্যা খুুনের ধারাবাহিকতা। পুলিশ বিভাগের একটি রিপোর্টে দেখা যায় ২০২৩ সালের নভেম্বর পর্যন্ত বগুড়া জেলায় ১২ উপজেলায় খুন হয়েছে ৭১টি। এর মধ্যে ডিবি পুলিশের হেফাজতে হাবিবুর রহমান নামে একজন আইনজীবী সহকারীর মৃত্যুকে এর মধ্যে ধরা হয়নি। পুলিশ এটাকে হার্ট অ্যাটাকে মৃত্যু বলে উল্লেখ করেছে। প্রথমদিকে মরহুম হাবিবের স্বজনরা তিনি বিএনপি করতেন বিধায় রাজনৈতিক চক্রান্তের স্বীকার হয়েছেন বলে দাবি করলেও পরে বিষয়টি নিয়ে আর উচ্চবাচ্য করেননি।
পুলিশের পরিসংখ্যান অনুযায়ী দেখা যাচ্ছে, ২০২৩ সালে গড়ে খুনের সংখ্যা দাঁড়ায় ৬টি। উল্লেখযোগ্য ও চাঞ্চল্যকর খুনের মধ্যে ঈদের আগের রাতে বগুড়া শহরের প্রাণকেন্দ্র কবি নজরুল ইসলাম সড়কে সম্রাট নামের এক মাদকাসক্ত যুবকের ছুরিকাঘাতে নির্মমভাবে নিহত হন রেজাউল করিম পান্না নামে সরকারি কলেজের একজন অবসরপ্রাপ্ত প্রিন্সিপাল।
আরেকটি ঘটনায় নিজ বাড়িতে পরকীয়াজনিত ঘটনায় মারা যায় শিবগঞ্জে কর্মরত এক মহিলা আনসার সদস্য। দুটি ঘটনার পরপরই অবশ্য পুলিশ ঘাতকদের গ্রেফতার করেছে।
এছাড়াও বিগত বছরে বেশ কয়েকটি সিএনজি অটোরিকশা ও চার্জার ভ্যান ও অটোরিকশা ছিনতাইয়ের জন্য ছিনতাইকারীরা মেরে ফেলে বেশ কয়েকজনকে, যাদের মধ্যে শিশুরাও আছে।
সংসদ উপনির্বাচন ও হিরো আলম : বিগত ২০১৮ সালের সালে অনুষ্ঠিত জাতীয় নির্বাচনে বগুড়ার দুটি আসনে নির্বাচিত হন দু’জন সংসদ সদস্য। এরমধ্যে বগুড়া সদরে বিএনপির টিকিটে বিজয়ী হন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। দলের হাইকমান্ডের নির্দেশে বিএনপি মহাসচিব সংসদে যোগ দেননি। এর ফলে একাদিক্রমে ৯০ দিন পার হলে বাতিল হয়ে যায় যায় তার পদ। ফলে উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় এবং সেই নির্বাচনে বিজয়ী হন বগুড়া জেলা বিএনপির সিনিয়র নেতা গোলাম মোহাম্মদ সিরাজ। তবে ২০২২ সালের ডিসেম্বরে সরকারবিরোধী আন্দোলনের স্বার্থে বগুড়ার দুজন সংসদ সদস্য- বগুড়া সদরে গোলাম মোহাম্মদ সিরাজ ও কাহালু নন্দীগ্রামে মোশাররফ হোসেন পদত্যাগ করেন। এ কারণে ২০২৩ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে বগুড়ায় দুটি সংসদীয় আসনে উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।
উপনির্বাচনে মহাজোটের প্রার্থী হিসেবে বগুড়া সদরে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রাগেবুল আহসান রিপু এবং কাহালু নন্দীগ্রামে জেলা জাসদের সভাপতি রেজাউল করিম তানসেন নির্বাচিত হন। তবে উপনির্বাচনে দুটি আসনেই প্রার্থী হয়ে আলোড়ন তোলেন ইউটিউবার হিরো আলম। হিরো আলম বগুড়া সদরে অল্প পরিমাণে ভোট পেলেও কাহালু নন্দীগ্রামে প্রায় জিতেই গিয়েছিলেন।
বিএনপি নেতাদের পলাতক জীবন : ২৪ ডিসেম্বর পর্যন্ত পাওয়া তথ্যানুযায়ী বগুড়া কারাগারে ছিলেন বিএনপির ৪২১ জন নেতাকর্মী। এরমধ্যে বগুড়া সদরে ৭৫ জন, গাবতলী উপজেলায় সর্বাধিক ৮০ জন, ধুনট উপজেলায় ১০ জন, শেরপুর উপজেলায় ৩০ জন, কাহালু উপজেলায় ২৫ জন, নন্দীগ্রাম উপজেলায় ২০ জন, সারিয়াকান্দি উপজেলায় ১০ জন, সোনাতলা উপজেলায় ১০ জন, শাজাহানপুর উপজেলায় ৪০ জন, তালোড়া পৌরসভার ৫ জন, সান্তাহার পৌরসভার ১০ জন, আদমদীঘি উপজেলার ২০ জন, দুপচাঁচিয়া উপজেলার ৪০ জন এবং তৃতীয় সর্বাধিক শিবগঞ্জ উপজেলায় ৫৬ জন নেতাকর্মী কারবাসে আছেন বলে জানিয়েছেন বিএনপি নেতা অ্যাডভোকেট আব্দুল ওহাব।
প্রায় দেড় সহস্রাধিক এজাহার নামীয় আসামি হয়ে ফেরার জীবনে আছেন। জামিনে আছেন সমসংখ্যক নেতাকর্মী। অতীতে রাজনৈতিক মামলার আসামিদের পলাতক জীবন এবং বর্তমান সরকারের সময়ের পলাতক মামলার আসামিদের সুবিধা একরকম নয়। আগে রাজনৈতিক মামলার আসামিরা অনায়াসে এখানে সেখানে পলাতক থাকতে তেমন কোন হয়রানির শিকার হতেন না। অনেকেই রাজনৈতিক মামলার আসামিকে শেল্টার দেওয়াকে কর্তব্য মনে করতো। কিন্তু এখন পুলিশি হয়রানির ধরন পাল্টে যাওয়ায় স্বজনরাও আর বিএনপি নেতাকর্মীদের ঠাঁই দিতে রাজি হতে চান না। ফলে বহু সংখ্যক পলাতক বিএনপি নেতাকর্মীকে বাধ্য হয়ে নির্জন স্থানে এবং ফসলি জমিতে একা বা দলবদ্ধভাবে রাত্রী যাপন করতে হয়।
রক্তাক্ত স্বতন্ত্র প্রার্থী : আসন্ন জাতীয় দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বগুড়ায় বেশ কয়েকজন সাবেক বিএনপি নেতা/নেত্রী স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে অংশ নিয়েছেন। এরা হলেন বগুড়া-২ সংসদীয় আসনে শিবগঞ্জ উপজেলার সাবেক মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান বিউটি বেগম। তিনি বগুড়া জেলা বিএনপির অঙ্গদল মহিলা দলের সাংগঠনিক সম্পাদক ছিলেন। বগুড়া-১ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. শোকরানা, বগুড়া-৪ আসনের সাবেক এমপি ও সাবেক বিএনপি নেতা ডাক্তার জিয়াউল হক মোল্লা এবং বগুড়া-৭ সংসদীয় আসনে শাজাহানপুর উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান সরকার বাদল। এদেরকে এলাকায় অবাঞ্ছিত ঘোষণা করে প্রত্যেকের কুশপুতুল পুড়িয়েছে বিএনপির নেতাকর্মীরা। এরমধ্যে শিবগঞ্জে বিউটি বেগমের বাড়িতে ককটেল হামলা এবং কাহালুতে ডাক্তার জিয়াউল হক মোল্লার গাড়িতে হামলা করে তাকে রক্তাক্ত করার ঘটনা ছিল বিশেষভাবে আলেচিত।


বিভাগ : বিশেষ সংখ্যা


মন্তব্য করুন

HTML Comment Box is loading comments...

আরও পড়ুন

পশ্চিমাদের নিরাপত্তা গ্যারান্টির প্রতি আফ্রিকার দেশগুলোর কেন আস্থা নেই?

পশ্চিমাদের নিরাপত্তা গ্যারান্টির প্রতি আফ্রিকার দেশগুলোর কেন আস্থা নেই?

রইসির হেলিকপ্টার বিধ্বস্তের পর যুক্তরাষ্ট্রের সহায়তা চেয়েও পায়নি ইরান

রইসির হেলিকপ্টার বিধ্বস্তের পর যুক্তরাষ্ট্রের সহায়তা চেয়েও পায়নি ইরান

অবসরের পর চুরির দায়ের কাঠগড়ায় টেনিস তারকা

অবসরের পর চুরির দায়ের কাঠগড়ায় টেনিস তারকা

বেঙ্গালুরুতে রাতভর উদ্দাম পার্টি, মাদকের নেশায় উল্লাস বিধায়ক-নায়িকাদের!

বেঙ্গালুরুতে রাতভর উদ্দাম পার্টি, মাদকের নেশায় উল্লাস বিধায়ক-নায়িকাদের!

বাগেরহাটে আওয়ামী লীগ নেতাকে ছয় মাসের কারাদণ্ড

বাগেরহাটে আওয়ামী লীগ নেতাকে ছয় মাসের কারাদণ্ড

ভোটকেন্দ্রের মাঠে কুকুর, ৩ ঘণ্টায় ভোট পড়েছে মাত্র ১৯টি

ভোটকেন্দ্রের মাঠে কুকুর, ৩ ঘণ্টায় ভোট পড়েছে মাত্র ১৯টি

ইরানের সর্বোচ্চ নেতাকে চিঠি লিখেছেন পুতিন

ইরানের সর্বোচ্চ নেতাকে চিঠি লিখেছেন পুতিন

ইরানি জনগণের মাঝে রাইসি কেন জনপ্রিয় ছিলেন?

ইরানি জনগণের মাঝে রাইসি কেন জনপ্রিয় ছিলেন?

১১ সপ্তাহ বন্ধ থাকার পর খুললো হাইতির বিমানবন্দর

১১ সপ্তাহ বন্ধ থাকার পর খুললো হাইতির বিমানবন্দর

শিল্পীদের ভোটকে অসম্মান করবেন না, ডিপজলের উদ্দেশে রত্না

শিল্পীদের ভোটকে অসম্মান করবেন না, ডিপজলের উদ্দেশে রত্না

ঢাকায় পৌঁছেছেন অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ঢাকায় পৌঁছেছেন অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী

রাইসির মৃত্যুর পর এখন ইরানের ভবিষ্যৎ কী?

রাইসির মৃত্যুর পর এখন ইরানের ভবিষ্যৎ কী?

শত্রুরাই আমার আত্মবিশ্বাস বাড়িয়েছে: পরীমণি

শত্রুরাই আমার আত্মবিশ্বাস বাড়িয়েছে: পরীমণি

ভারতে সাজাভোগ শেষে দেশে ফিরলেন ৮ বাংলাদেশি নারী

ভারতে সাজাভোগ শেষে দেশে ফিরলেন ৮ বাংলাদেশি নারী

কান থেকে ফিরেই হাসপাতালে ঐশ্বরিয়া

কান থেকে ফিরেই হাসপাতালে ঐশ্বরিয়া

অপু বিশ্বাসের জিডি, তিনজনকে সতর্ক করলো পুলিশ

অপু বিশ্বাসের জিডি, তিনজনকে সতর্ক করলো পুলিশ

গণসংহতির বিক্ষোভ ঘিরে বাংলাদেশ ব্যাংকের সামনে নিরাপত্তা জোরদার

গণসংহতির বিক্ষোভ ঘিরে বাংলাদেশ ব্যাংকের সামনে নিরাপত্তা জোরদার

নাইজেরিয়ার মৃৎশিল্পে চিরায়ত ঐতিহ্য

নাইজেরিয়ার মৃৎশিল্পে চিরায়ত ঐতিহ্য

নাগরিকত্ব ফিরে পেয়ে প্রথমবার ভোট দিলেন অক্ষয়

নাগরিকত্ব ফিরে পেয়ে প্রথমবার ভোট দিলেন অক্ষয়

চাটখিলে দুই ঘণ্টায় এক বুথে পড়ল ১ ভোট

চাটখিলে দুই ঘণ্টায় এক বুথে পড়ল ১ ভোট