সিসিডিএম সভা আজ

প্রিমিয়ার ক্রিকেটে থাকছে না বিদেশি!

Daily Inqilab স্পোর্টস রিপোর্টার :

১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১২:০৪ এএম | আপডেট: ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১২:০৪ এএম

২০২৩-২৪ মৌসুমের প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগ নিয়ে আজ সকাল সাড়ে ১১টায় প্রথম সভায় বসবে সিসিডিএম। সভার আলোচ্যসূচিতে বিষয় তিনটি- ২০২৩-২৪ মৌসুমের প্রিমিয়ার লিগের দলবদল, ২০২৩-২৪ মৌসুমের প্রিমিয়ার লিগ শুরু এবং অন্যান্য। আলোচ্যসূচিতে সরাসরি উল্লেখ না থাকলেও ক্লাবগুলোর কানে এরই মধ্যে বাতাসে ভাসা একটা খবর পৌঁছে গেছে, যেটা আলোচ্যসূচির ‘অন্যান্য’ পর্বের ছায়া থেকে অবধারিতভাবেই বেরিয়ে আসবে কালকের সিসিডিএম সভায়। খবরটা হলো, বিসিবি এবারের প্রিমিয়ার লিগ করতে যাচ্ছে বিদেশি ক্রিকেটার ছাড়া। অর্থাৎ প্রিমিয়ার লিগে কোনো দল বিদেশি ক্রিকেটার খেলাতে পারবে না। কারণ হিসেবে বর্তমান ডলার-সংকটের কথাই বেশি শোনা যাচ্ছে।
প্রিমিয়ার লিগে বিদেশি খেলোয়াড় না খেলানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে কি না, জানতে চাইলে সিসিডিএমপ্রধান ও বিসিবি পরিচালক মোহাম্মদ সালাউদ্দিন দেশের শীর্ষস্থানীয় এক পত্রিকাকে বলেন, বিসিবি থেকে এ রকম একটা নির্দেশনা থাকলেও এ ব্যাপারে আনুষ্ঠানিক সিদ্ধান্ত হবে কালকের (আজ) সিসিডিএম সভায়। তিনি বলেন, ‘গতবারই সব ক্লাবের প্রস্তাব ছিল শুধু স্থানীয় ক্রিকেটারদের দিয়ে প্রিমিয়ার লিগ খেলানো যায় কি না। আমরা একটা অ্যাজেন্ডা রেখেছি। কাল (আজ) ক্লাবগুলোর সভায় এটা তোলা হবে। যা সিদ্ধান্ত হবে, ক্লাবগুলোর সঙ্গে বসেই হবে।’
সিসিডিএমের সভায় অবশ্য ভিন্নমত প্রকাশের রেওয়াজ অনেক দিন থেকেই নেই। কোনো ব্যাপারে বোর্ড থেকে নির্দেশনা থাকলে তো সেটার প্রশ্নই ওঠে না। কারণ, প্রিমিয়ার লিগের ৮ থেকে ৯টি ক্লাবের সঙ্গে বর্তমান বোর্ড পরিচালকেরা সরাসরি সম্পৃক্ত। কেউ কেউ সম্পৃক্ত একাধিক ক্লাবের সঙ্গেও। এ অবস্থায় দু-একটি ক্লাব যদি বিদেশি ক্রিকেটার না খেলানোর সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করেও, সেটি ধোপে টিকবে না বলেই ধরে নেওয়া যায়। সিসিডিএমপ্রধানের কথায়ও পরোক্ষে সেটাই ফুটে উঠল, ‘বোর্ড থেকে নির্দেশনা আগেই এসেছে। বোর্ডের বাইরে যাওয়ার সুযোগ নেই। তা-ও কাল আলোচনা করে নেব। তবে ক্লাবগুলো এটা অনানুষ্ঠানিকভাবে জানে।’ একটি ক্লাবের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক কর্মকর্তা অবশ্য ক্ষুব্ধ কণ্ঠে বলেন, ‘আমরা লোকমুখে শুনছি, এবার বিদেশি ক্রিকেটার খেলতে দেবে না। এ ব্যাপারে বোর্ড থেকে আমাদের এখনো কিছু জানানো হয়নি। প্রিমিয়ার লিগ নিয়ে সিসিডিএমের কোনো সভাই তো হয়নি এখনো!’
গতবার গরমের কারণে লিগ খেলতে কষ্ট হয়েছিল ক্রিকেটারদের। এবার তাই লিগ কিছুটা সহনশীল আবহাওয়ার মধ্যে করা যায় কি না, সে চিন্তাও আছে সিসিডিএমের। আরেক ক্লাবের কর্মকর্তা পড়েছেন অন্য দুশ্চিন্তায়, ‘আমরা এরই মধ্যে দু-একজন বিদেশি খেলোয়াড়ের সঙ্গে কথাবার্তা মোটামুটি পাকা করে ফেলেছি। তাদের ধরে নিয়ে বাকি স্থানীয় খেলোয়াড়র নিয়েছি। এখন সেই জায়গাগুলো প‚রণ করব কীভাবে?’
প্রিমিয়ার লিগ থেকে বিদেশি খেলোয়াড় বাদ দেওয়ার চিন্তার একটা কারণ বর্তমান ডলার-সংকট। বিপিএলে সব নিয়মকানুন মেনে বিদেশিদের পাওনা মেটানো হলেও প্রিমিয়ার লিগে প্রায়ই ক্লাবগুলো তা মানে না বলে জানিয়েছে বোর্ডের একটি সূত্র। তবে দু-একটি ক্লাবের দাবি, বড় দলগুলোর ভালো মানের বিদেশি না পাওয়াটাই বোর্ডকে এমন সিদ্ধান্ত নিতে প্রভাবিত করছে। যদিও সিসিডিএমপ্রধান সালাহউদ্দিন বিদেশি খেলোয়াড় না খেলানোর অন্য ব্যাখ্যাই দিলেন, ‘স্থানীয় খেলোয়াড়েরা যেন আরও বেশি খেলার সুযোগ পায়, সে জন্যই এই চিন্তা। আবার এটাও ঠিক, বিদেশিরা থাকলে আমাদের খেলোয়াড়েরা তাদের কাছ থেকে অনেক কিছু শিখতে পারে। তবে বিপিএলে যেহেতু বিদেশি প্রচুর খেলোয়াড় খেলছে, সেটা তো সেখানেই হচ্ছে।’
গতবার গরমের কারণে লিগ খেলতে কষ্ট হয়েছিল ক্রিকেটারদের। এবার তাই লিগ কিছুটা সহনশীল আবহাওয়ার মধ্যে করা যায় কি না, সে চিন্তাও আছে সিসিডিএমের। পবিত্র রোজা সামনে রেখে সেটা কীভাবে সম্ভব, সেই আলোচনাও হবে আজকের সভায়।

 

 


বিভাগ : খেলাধুলা


মন্তব্য করুন

HTML Comment Box is loading comments...

এই বিভাগের আরও

টিকিটের দাম ২ কোটিরও বেশি! বিশ্বকাপে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ নিয়ে তুঙ্গে উত্তেজনা
বাংলাদেশকে কঠিন লক্ষ্য দিল শ্রীলঙ্কা
ফিল্ডিংয়ে নেমেই বাংলাদেশের উইকেট
হায়দরাবাদের নেতৃত্বে কামিন্স
শিরোপা দৌড়ে ১০ পয়েন্ট এগিয়ে লেভারকুসেন
আরও

আরও পড়ুন

টিকিটের দাম ২ কোটিরও বেশি! বিশ্বকাপে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ নিয়ে তুঙ্গে উত্তেজনা

টিকিটের দাম ২ কোটিরও বেশি! বিশ্বকাপে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ নিয়ে তুঙ্গে উত্তেজনা

মনিপুর স্কুলকে গ্রাস করার অপচেষ্টা চলছে: সংবাদ সম্মেলনে অভিভাবকদের অভিযোগ

মনিপুর স্কুলকে গ্রাস করার অপচেষ্টা চলছে: সংবাদ সম্মেলনে অভিভাবকদের অভিযোগ

১ লাখ টন চিনি পুড়ে ছাই, এখনো জ্বলছে আগুন

১ লাখ টন চিনি পুড়ে ছাই, এখনো জ্বলছে আগুন

রুশ ও মার্কিন নভোচারী নিয়ে স্পেসএক্স এর যাত্রা

রুশ ও মার্কিন নভোচারী নিয়ে স্পেসএক্স এর যাত্রা

লাক্ষাদ্বীপে কেন দ্বিতীয় সামরিক নৌঘাঁটি তৈরি করছে ভারত?

লাক্ষাদ্বীপে কেন দ্বিতীয় সামরিক নৌঘাঁটি তৈরি করছে ভারত?

কুসিক উপনির্বাচন : সংখ্যালঘু নতুন ও দক্ষিনের ভোটার জয়-পরাজয়ে ফ্যাক্টর

কুসিক উপনির্বাচন : সংখ্যালঘু নতুন ও দক্ষিনের ভোটার জয়-পরাজয়ে ফ্যাক্টর

সিরাজগঞ্জে ‘শিক্ষকের গুলিতে’ মেডিক্যাল কলেজ শিক্ষার্থী আহত

সিরাজগঞ্জে ‘শিক্ষকের গুলিতে’ মেডিক্যাল কলেজ শিক্ষার্থী আহত

বাংলাদেশকে কঠিন লক্ষ্য দিল শ্রীলঙ্কা

বাংলাদেশকে কঠিন লক্ষ্য দিল শ্রীলঙ্কা

সুগার মিলের আগুন নিয়ন্ত্রণে নৌবাহিনী

সুগার মিলের আগুন নিয়ন্ত্রণে নৌবাহিনী

টেকসই ভবিষ্যতের লক্ষ্যে পরিবেশবান্ধব জ্বালানিতে গুরুত্ব দিচ্ছে গ্রামীণফোন

টেকসই ভবিষ্যতের লক্ষ্যে পরিবেশবান্ধব জ্বালানিতে গুরুত্ব দিচ্ছে গ্রামীণফোন

মধ্যপ্রাচ্যের অন্যতম গন্তব্য আবুধাবীতে ফ্লাইট শুরু করতে যাচ্ছে ইউএস-বাংলা

মধ্যপ্রাচ্যের অন্যতম গন্তব্য আবুধাবীতে ফ্লাইট শুরু করতে যাচ্ছে ইউএস-বাংলা

ওয়ারীর ১৪ রেস্টুরেন্টে অভিযান, আটক ১৬

ওয়ারীর ১৪ রেস্টুরেন্টে অভিযান, আটক ১৬

শিক্ষার্থীদের সঠিক মূল্যায়নের জন্য প্রয়োজন দক্ষ শিক্ষকঃ গবেষণা

শিক্ষার্থীদের সঠিক মূল্যায়নের জন্য প্রয়োজন দক্ষ শিক্ষকঃ গবেষণা

দূষণজনিত রোগ প্রতিরোধে জাতীয় অভিযোজন পরিকল্পনায় স্বাস্থ্য বিষয়টি অন্তর্ভুক্ত করা হবে : পরিবেশমন্ত্রী

দূষণজনিত রোগ প্রতিরোধে জাতীয় অভিযোজন পরিকল্পনায় স্বাস্থ্য বিষয়টি অন্তর্ভুক্ত করা হবে : পরিবেশমন্ত্রী

কুমিল্লায় দুগ্ধপোষ্য শিশু চুরির অপরাধে এক নারীর দশ বছরের কারাদণ্ড

কুমিল্লায় দুগ্ধপোষ্য শিশু চুরির অপরাধে এক নারীর দশ বছরের কারাদণ্ড

ভি সিরিজের নতুন স্মার্টফোন এনেছে ভিভো

ভি সিরিজের নতুন স্মার্টফোন এনেছে ভিভো

অ্যাপলকে ১৮০ কোটি ইউরো জরিমানা করেছে ইইউ

অ্যাপলকে ১৮০ কোটি ইউরো জরিমানা করেছে ইইউ

গ্রুমিং সচেতনতার জন্য বিয়ার্ডো ও লিভনের স্পেশাল এডিশন ‘স্টাইলিং সল্যুশন’

গ্রুমিং সচেতনতার জন্য বিয়ার্ডো ও লিভনের স্পেশাল এডিশন ‘স্টাইলিং সল্যুশন’

মুসলিম উম্মাহর ঐক্য, শান্তি ও সমৃদ্ধি এবং দেশের শান্তি- শৃঙ্খলা রক্ষায় আল্লাহর রহমত কামনা করে মোকামিয়ার দুই দিনব্যাপী মাহফিল সম্পন্ন

মুসলিম উম্মাহর ঐক্য, শান্তি ও সমৃদ্ধি এবং দেশের শান্তি- শৃঙ্খলা রক্ষায় আল্লাহর রহমত কামনা করে মোকামিয়ার দুই দিনব্যাপী মাহফিল সম্পন্ন

ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্রে ১৭, সাধারণ কেন্দ্রে থাকবে ১৬ জনের ফোর্স

ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্রে ১৭, সাধারণ কেন্দ্রে থাকবে ১৬ জনের ফোর্স