মাদক মামলায় সাজাপ্রাপ্ত লিটন আইন শৃঙ্খলা-বাহিনীকে নজর এড়িয়ে মাদক ব্যবসা করত

Daily Inqilab ইনকিলাব

০৭ মার্চ ২০২৩, ১০:৫২ এএম | আপডেট: ৩০ এপ্রিল ২০২৩, ০১:০৮ পিএম

জামিনে বের হয়ে যাবজ্জীবন কারাদন্ড সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি মো. লিটন হাওলাদারকে (৪৫) গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-২। সোমবার রাতে রাজধানীর যাত্রাবাড়ী থানা এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। মাদক মামলায় যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড সাজাপ্রাপ্ত হয়ে ৩৪ মাস জেল খাটার পর জামিনে বের হয়ে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর নজর এড়িয়ে বিভিন্ন ছদ্মবেশ ধারণ করে আত্মগোপনে থেকে মাদক ব্যবসা চালিয়ে যায় সে।

মঙ্গলবার সকালে র‍্যাব-২ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) সিনিয়র এএসপি মো. ফজলুল হক এ তথ্য জানান।

র‍্যাব জানায়, ২০১৮ সালের ১৭ মে সালে ডিএমপির কদমতলী থানায় মাদক মামলার আসামি লিটন হাওলাদার এর বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন মামলা হয়। মামলায় ৩৪ মাস জেল খাটার পর ২০২১ সালে জামিনে বের হয়ে নিয়মিত হাজিরা না দিয়ে গ্রেপ্তার এড়ানোর জন্য আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর চোখ ফাঁকি দিয়ে আত্মগোপনে থাকে। আদালত উক্ত মাদক মামলার অবগত সাক্ষীদের সাক্ষ্য গ্রহণ ও তথ্য প্রমাণসহ বিচারিক কার্যক্রম শেষে আসামির বিরুদ্ধে অপরাধ প্রমাণিত হওয়ায় বিশেষ দায়রা জজ ও বিচারক (জেলা ও দায়রা জজ) দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল-৩, ২০২২ সালের ২৩ জুন সালে আসামি মো. লিটন হাওলাদারকে (৪৫) যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড দেন।

এরই ধারাবাহিকতায়, গোপন তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব-২ এর একটি চৌকস আভিযানিক দল গত ০৬ মার্চ ২০২৩ ইং তারিখ ঢাকার যাত্রাবাড়ী থানা এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি মোঃ লিটন হাওলাদার (৪৫) গ্রেপ্তার করে।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে র‍্যাবের সিনিয়র এএসপি ফজলুল হক জানায়, গ্রেপ্তার আসামি এক জন পেশাদার মাদক চক্রের সদস্য। তার বিরুদ্ধে মাদক এর ২টি মামলা রয়েছে। সে দীর্ঘদিন ধরে বেআইনীভাবে সীমান্ত জেলাসহ দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে নেশা জাতীয় মাদকদ্রব্য রাজধানীর ঢাকায় নিয়ে এসে তার অন্যান্য সংঘবদ্ধ সহযোগীদের কাছে সরবরাহ পূর্বক মাদক ব্যবসা করে আসছিলো।

তিনি বলেন, যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড সাজাপ্রাপ্ত আসামি উক্ত মামলায় ৩৪ মাস জেল খাটার পর জামিনে বের হয়ে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর নজর এড়িয়ে বিভিন্ন ছদ্মবেশ ধারণ করে আত্মগোপনে থেকে মাদক ব্যবসা চালিয়ে যায়। আসামিকে জিজ্ঞাসাবাদে আরও অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া গেছে যা যাচাই বাছাই করে ভবিষ্যতে র‌্যাব-২ এ ধরনের অভিযান অব্যাহত রাখবে।

গ্রেপ্তার আসামির বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলেও জানান র‍্যাবের এই কর্মকর্তা।


বিভাগ : বাংলাদেশ


মন্তব্য করুন

HTML Comment Box is loading comments...

এই বিভাগের আরও

মহিপুরে আগুনে পুড়ে ৬ টি দোকান ভস্মীভূত
মোবাইল কিনে না দেওয়ায় স্কুল ছাত্রের আত্মহত্যা
ঈশ্বরদীতে সড়ক দুর্ঘটনায় হাফেজ শিশুর মৃত্যু
ধনী দেশগুলোর কাছে হাত পেতে এখন আমাদেরকে চলতে হয় না: সিলেটে এনবিআর চেয়ারম্যান
বিভেদ,বিভক্তি নয়, সংযম- সহনশীলতাই ইন্সাফ ভিত্তিক সমাজ প্রতিষ্ঠার অনন্য উপায়।
আরও

আরও পড়ুন

একটি এসএমএসের কারণে ভাঙে মাহির সংসার

একটি এসএমএসের কারণে ভাঙে মাহির সংসার

এলপি গ্যাসের নতুন মূল্য ঘোষণা আজ

এলপি গ্যাসের নতুন মূল্য ঘোষণা আজ

মহিপুরে আগুনে পুড়ে ৬ টি দোকান ভস্মীভূত

মহিপুরে আগুনে পুড়ে ৬ টি দোকান ভস্মীভূত

শিল্পী সমিতি থেকে জায়েদ খানের সদস্যপদ বাতিল

শিল্পী সমিতি থেকে জায়েদ খানের সদস্যপদ বাতিল

আবাসিক ভবনে রেস্টুরেন্ট বন্ধ ও ক্ষতিপূরণের নির্দেশনা চেয়ে রিট

আবাসিক ভবনে রেস্টুরেন্ট বন্ধ ও ক্ষতিপূরণের নির্দেশনা চেয়ে রিট

সম্মান নিয়ে রহস্যের বার্তা দিলেন পরীমনি

সম্মান নিয়ে রহস্যের বার্তা দিলেন পরীমনি

পাকিস্তান ও বাংলাদেশ ঘুরে ভারতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার স্প্যানিশ নারী

পাকিস্তান ও বাংলাদেশ ঘুরে ভারতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার স্প্যানিশ নারী

এবার প্রাঙ্গণেমোর থিয়েটার নিয়ে আসছে ‘অভিনেতা’

এবার প্রাঙ্গণেমোর থিয়েটার নিয়ে আসছে ‘অভিনেতা’

এক চামচ মধু তৈরি করতে ঠিক কতটা পরিশ্রম করে মৌমাছির দল?

এক চামচ মধু তৈরি করতে ঠিক কতটা পরিশ্রম করে মৌমাছির দল?

এবার গঙ্গার নীচ দিয়ে ছুটবে কলকাতা মেট্রো, ৬ মার্চ উদ্বোধন করবেন মোদী

এবার গঙ্গার নীচ দিয়ে ছুটবে কলকাতা মেট্রো, ৬ মার্চ উদ্বোধন করবেন মোদী

গণতন্ত্রের ওপর বক্তৃতা দেওয়ার কোনও অধিকার রাশিয়ার নেই: মলদোভা

গণতন্ত্রের ওপর বক্তৃতা দেওয়ার কোনও অধিকার রাশিয়ার নেই: মলদোভা

এবার রাফাহতে আশ্রয় শিবিরে ইসরায়েলের হামলা, নিহত ১১ ফিলিস্তিনি

এবার রাফাহতে আশ্রয় শিবিরে ইসরায়েলের হামলা, নিহত ১১ ফিলিস্তিনি

আগুনের ঝুঁকিতে ঢাকার ৫৫ ভাগ ভবন

আগুনের ঝুঁকিতে ঢাকার ৫৫ ভাগ ভবন

চার দিনব্যাপী ডিসি সম্মেলন শুরু আজ

চার দিনব্যাপী ডিসি সম্মেলন শুরু আজ

চার দিনব্যাপী ডিসি সম্মেলন শুরু আজ

চার দিনব্যাপী ডিসি সম্মেলন শুরু আজ

আজ ভোট হলে ট্রাম্পের কাছে হারবেন বাইডেন!

আজ ভোট হলে ট্রাম্পের কাছে হারবেন বাইডেন!

নিউজিল্যান্ডে লায়নের ইতিহাস আর অস্ট্রেলিয়ার জয়

নিউজিল্যান্ডে লায়নের ইতিহাস আর অস্ট্রেলিয়ার জয়

মেসি-সুয়ারেস যুগলবন্দিতে উড়ে গেল ওরল্যান্ডো

মেসি-সুয়ারেস যুগলবন্দিতে উড়ে গেল ওরল্যান্ডো

সেই মেস্তেয়ায় ভিনির জোড়া গোলে পিছিয়ে পড়া রিয়ালের সমতা,শেষে বেলিংহ্যামের 'লাল কার্ড '

সেই মেস্তেয়ায় ভিনির জোড়া গোলে পিছিয়ে পড়া রিয়ালের সমতা,শেষে বেলিংহ্যামের 'লাল কার্ড '

শেষ মুহূর্তে গোল করে লিভারপুলকে রুদ্ধশ্বাস জয়  এনে দিলেন নুনেজ

শেষ মুহূর্তে গোল করে লিভারপুলকে রুদ্ধশ্বাস জয়  এনে দিলেন নুনেজ