মাদক মামলায় সাজাপ্রাপ্ত লিটন আইন শৃঙ্খলা-বাহিনীকে নজর এড়িয়ে মাদক ব্যবসা করত

Daily Inqilab ইনকিলাব

০৭ মার্চ ২০২৩, ১০:৫২ এএম | আপডেট: ২৯ মার্চ ২০২৩, ০৩:৩২ পিএম

জামিনে বের হয়ে যাবজ্জীবন কারাদন্ড সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি মো. লিটন হাওলাদারকে (৪৫) গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-২। সোমবার রাতে রাজধানীর যাত্রাবাড়ী থানা এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। মাদক মামলায় যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড সাজাপ্রাপ্ত হয়ে ৩৪ মাস জেল খাটার পর জামিনে বের হয়ে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর নজর এড়িয়ে বিভিন্ন ছদ্মবেশ ধারণ করে আত্মগোপনে থেকে মাদক ব্যবসা চালিয়ে যায় সে।

মঙ্গলবার সকালে র‍্যাব-২ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) সিনিয়র এএসপি মো. ফজলুল হক এ তথ্য জানান।

র‍্যাব জানায়, ২০১৮ সালের ১৭ মে সালে ডিএমপির কদমতলী থানায় মাদক মামলার আসামি লিটন হাওলাদার এর বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন মামলা হয়। মামলায় ৩৪ মাস জেল খাটার পর ২০২১ সালে জামিনে বের হয়ে নিয়মিত হাজিরা না দিয়ে গ্রেপ্তার এড়ানোর জন্য আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর চোখ ফাঁকি দিয়ে আত্মগোপনে থাকে। আদালত উক্ত মাদক মামলার অবগত সাক্ষীদের সাক্ষ্য গ্রহণ ও তথ্য প্রমাণসহ বিচারিক কার্যক্রম শেষে আসামির বিরুদ্ধে অপরাধ প্রমাণিত হওয়ায় বিশেষ দায়রা জজ ও বিচারক (জেলা ও দায়রা জজ) দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল-৩, ২০২২ সালের ২৩ জুন সালে আসামি মো. লিটন হাওলাদারকে (৪৫) যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড দেন।

এরই ধারাবাহিকতায়, গোপন তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব-২ এর একটি চৌকস আভিযানিক দল গত ০৬ মার্চ ২০২৩ ইং তারিখ ঢাকার যাত্রাবাড়ী থানা এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি মোঃ লিটন হাওলাদার (৪৫) গ্রেপ্তার করে।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে র‍্যাবের সিনিয়র এএসপি ফজলুল হক জানায়, গ্রেপ্তার আসামি এক জন পেশাদার মাদক চক্রের সদস্য। তার বিরুদ্ধে মাদক এর ২টি মামলা রয়েছে। সে দীর্ঘদিন ধরে বেআইনীভাবে সীমান্ত জেলাসহ দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে নেশা জাতীয় মাদকদ্রব্য রাজধানীর ঢাকায় নিয়ে এসে তার অন্যান্য সংঘবদ্ধ সহযোগীদের কাছে সরবরাহ পূর্বক মাদক ব্যবসা করে আসছিলো।

তিনি বলেন, যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড সাজাপ্রাপ্ত আসামি উক্ত মামলায় ৩৪ মাস জেল খাটার পর জামিনে বের হয়ে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর নজর এড়িয়ে বিভিন্ন ছদ্মবেশ ধারণ করে আত্মগোপনে থেকে মাদক ব্যবসা চালিয়ে যায়। আসামিকে জিজ্ঞাসাবাদে আরও অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া গেছে যা যাচাই বাছাই করে ভবিষ্যতে র‌্যাব-২ এ ধরনের অভিযান অব্যাহত রাখবে।

গ্রেপ্তার আসামির বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলেও জানান র‍্যাবের এই কর্মকর্তা।


বিভাগ : বাংলাদেশ


আরও পড়ুন

সাতক্ষীরার তালায় ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান, জরিমানা ও অবৈধ সেমাই কারখানা বন্ধ

সাতক্ষীরার তালায় ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান, জরিমানা ও অবৈধ সেমাই কারখানা বন্ধ

সৌদি আরবে ভয়াবহ বাস দূর্ঘটনায় নিহত সেনবাগের রাসেলের বাড়িতে চলছে শোকের মাতম

সৌদি আরবে ভয়াবহ বাস দূর্ঘটনায় নিহত সেনবাগের রাসেলের বাড়িতে চলছে শোকের মাতম

'সাংবাদিক শামসুজ্জামানকে অপহরণের ঘটনা রাষ্ট্রীয় ফ্যাসিবাদেরই উলঙ্গ বহিঃপ্রকাশ'

'সাংবাদিক শামসুজ্জামানকে অপহরণের ঘটনা রাষ্ট্রীয় ফ্যাসিবাদেরই উলঙ্গ বহিঃপ্রকাশ'

প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রীর শোক প্রকাশ

প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রীর শোক প্রকাশ

আলেমদের স্বাবলম্বী হওয়ার কথা বললেন মাওলানা শুয়াইব আহমদ আশ্রাফী

আলেমদের স্বাবলম্বী হওয়ার কথা বললেন মাওলানা শুয়াইব আহমদ আশ্রাফী

চট্টগ্রামে আবারও বৃষ্টির কারণে খেলা শুরু হয়নি

চট্টগ্রামে আবারও বৃষ্টির কারণে খেলা শুরু হয়নি

উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার কার্যালয়ে নেই বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি উত্তোলন করেন না পতাকাও

উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার কার্যালয়ে নেই বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি উত্তোলন করেন না পতাকাও

বহিরাগতদের হাতে মারধরের শিকার কুবি শিক্ষার্থী

বহিরাগতদের হাতে মারধরের শিকার কুবি শিক্ষার্থী

বাখমুতে গুরুত্বপূর্ণ কারখানার নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে রুশ সেনা

বাখমুতে গুরুত্বপূর্ণ কারখানার নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে রুশ সেনা

সুলতানা কামাল, রামেন্দু মজুমদারসহ ২৫ জন এখনি জামায়াত নিষিদ্ধ চান

সুলতানা কামাল, রামেন্দু মজুমদারসহ ২৫ জন এখনি জামায়াত নিষিদ্ধ চান

শিবগঞ্জে যুবকের কবজি কর্তনের ঘটনায় গ্রেপ্তার ১

শিবগঞ্জে যুবকের কবজি কর্তনের ঘটনায় গ্রেপ্তার ১

নেতানিয়াহুকে আপাতত হোয়াইট হাউজে আমন্ত্রণ জানাবেন না বাইডেন

নেতানিয়াহুকে আপাতত হোয়াইট হাউজে আমন্ত্রণ জানাবেন না বাইডেন

বগুড়ায় এনজিওর কিস্তির জ্বালায় নারীর আত্মহত্যা!

বগুড়ায় এনজিওর কিস্তির জ্বালায় নারীর আত্মহত্যা!

ইমরান খানের বিরুদ্ধে সানাউল্লাহর ‘হুমকিপূর্ণ মন্তব্যে’ নিন্দা খলিলজাদের

ইমরান খানের বিরুদ্ধে সানাউল্লাহর ‘হুমকিপূর্ণ মন্তব্যে’ নিন্দা খলিলজাদের

দোয়ারাবাজারে মুদি দোকানে বিক্রি হচ্ছে কীটনাশক সার, স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে জনগণ

দোয়ারাবাজারে মুদি দোকানে বিক্রি হচ্ছে কীটনাশক সার, স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে জনগণ

প্রধান বিচারপতির ক্ষমতা কমাচ্ছে শেহবাজ সরকার

প্রধান বিচারপতির ক্ষমতা কমাচ্ছে শেহবাজ সরকার

দেশের মানুষের ভাগ্য পরিবর্তন করাই বর্তমান সরকারের লক্ষ্য : শেখ হাসিনা

দেশের মানুষের ভাগ্য পরিবর্তন করাই বর্তমান সরকারের লক্ষ্য : শেখ হাসিনা

নতুন ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র নিয়ে মহড়া শুরু রাশিয়ার

নতুন ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র নিয়ে মহড়া শুরু রাশিয়ার

স্কুলের খরচে ওমরাহ করলেন ড্রাইভারসহ ৮ কর্মী

স্কুলের খরচে ওমরাহ করলেন ড্রাইভারসহ ৮ কর্মী

বাইডেনের আইসক্রিম প্রতিক্রিয়ায় বিতর্ক

বাইডেনের আইসক্রিম প্রতিক্রিয়ায় বিতর্ক