এই বিএনপির হাতে ক্ষমতা ফিরিয়ে দেবো না: ওবায়দুল কাদের

Daily Inqilab স্টাফ রিপোর্টার

১১ মার্চ ২০২৩, ০৫:৫৩ পিএম | আপডেট: ০১ মে ২০২৩, ১২:০০ এএম

বিএনপিকে উদ্দেশ করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলছেন, এই বিএনপির হাতে আমরা বাংলাদেশ ফিরিয়ে দেবো না। আমাদের প্রাণ থাকতে, এই দেশের মুক্তিযোদ্ধারা বেঁচে থাকতে আমরা কখনও এই দেশ বিএনপির অপশক্তি, সাম্প্রদায়িক শক্তির হাতে হাতে ক্ষমতা ছেড়ে দেবো না।

শনিবার (১১ মার্চ) বিকালে ময়মনসিংহ জেলা সার্কিট হাউজ মাঠে আওয়ামী লীগের ময়মনসিংহের বিভাগীয় জনসভায় তিনি এ কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, অন্তর জ্বালায় মরে বিএনপি, কি করে পদ্মা সেতু মেট্রোরেল এত উন্নয়ন হলো। আজকে জ্বালা আর জ্বালা। মানুষের চোখ জুড়ে যায়, কিন্তু বিএনপির জ্বালা, বুকের ব্যথা বাড়ে। আপনারা ঠিক আছেন? খেলা তাহলে হবে। খেলা হবে জোরদার খেলা হবে। আন্দোলনে খেলা হবে, নির্বাচনে হবে। দুর্নীতিবাজ, অর্থচুরি, জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে খেলা হবে। ময়মনসিংহ প্রস্তুত, শুধু অপেক্ষা শেখ হাসিনার ডাকের।

তিনি আরও বলেন, বিএনপি আন্দোলনে পথ হারিয়ে দিশেহারা। আন্দোলন করার শক্তি তাদের নেই। দৌড়াতে দৌড়াতে এখন মানববন্ধনে দাঁড়িয়ে গেছে। কী দুরবস্থা। তাদের শক্তি কমে গেছে, কিন্তু মুখের বিষ কমেনি। আরও উগ্র হয়ে গেছে। প্রতিদিন বিএনপি নেতারা গালিগালাজ করে আশ্রাব্য ভাষায়।


বিভাগ : বাংলাদেশ


মন্তব্য করুন

HTML Comment Box is loading comments...

আরও পড়ুন

ইউরোর প্রাথমিক দল ঘোষণা স্পেনের,নতুন মুখ ফেরমিন লোপেজ

ইউরোর প্রাথমিক দল ঘোষণা স্পেনের,নতুন মুখ ফেরমিন লোপেজ

দেড় লাখ ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত

দেড় লাখ ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত

পানিবন্দি লাখো মানুষ

পানিবন্দি লাখো মানুষ

দুনিয়ার ধন-সম্পদ মানুষের জন্য পরীক্ষা

দুনিয়ার ধন-সম্পদ মানুষের জন্য পরীক্ষা

ভারত একনায়কতন্ত্রের দিকে যাচ্ছে, পুতিন ও শেখ হাসিনা যা করেছেন মোদি তাই করতে চাইছেন -অরবিন্দ কেজরিওয়াল

ভারত একনায়কতন্ত্রের দিকে যাচ্ছে, পুতিন ও শেখ হাসিনা যা করেছেন মোদি তাই করতে চাইছেন -অরবিন্দ কেজরিওয়াল

ফিচ রেটিংসে ফের বাংলাদেশের ঋণমান অবনমন

ফিচ রেটিংসে ফের বাংলাদেশের ঋণমান অবনমন

এডিপি বাস্তবায়ন অর্ধেকেরও কম

এডিপি বাস্তবায়ন অর্ধেকেরও কম

নিজের বুক পেতে উপকূলকে এবারও রক্ষা করল সুন্দরবন

নিজের বুক পেতে উপকূলকে এবারও রক্ষা করল সুন্দরবন

পৌনে তিন কোটি গ্রাহক বিদ্যুৎবিচ্ছিন্ন

পৌনে তিন কোটি গ্রাহক বিদ্যুৎবিচ্ছিন্ন

কসাই জিহাদকে নিয়ে কলকাতার সেই ফ্ল্যাটে ঢাকা ডিবির তদন্ত দল

কসাই জিহাদকে নিয়ে কলকাতার সেই ফ্ল্যাটে ঢাকা ডিবির তদন্ত দল

একদিনে ৩ হাজার ৩৩৫ মি.মি. বৃষ্টিপাত রেকর্ড!

একদিনে ৩ হাজার ৩৩৫ মি.মি. বৃষ্টিপাত রেকর্ড!

রিমালের প্রভাবে আন্তর্জাতিক রুটের ১০ ফ্লাইট বাতিল

রিমালের প্রভাবে আন্তর্জাতিক রুটের ১০ ফ্লাইট বাতিল

১১১ উপজেলায় কোটিপতি ১০৬ প্রার্থী

১১১ উপজেলায় কোটিপতি ১০৬ প্রার্থী

নিষেধাজ্ঞা উঠছে, সউদীর কাছে প্রাণঘাতী অস্ত্র বিক্রি করবে যুক্তরাষ্ট্র

নিষেধাজ্ঞা উঠছে, সউদীর কাছে প্রাণঘাতী অস্ত্র বিক্রি করবে যুক্তরাষ্ট্র

রাখাইনে নির্বিচারে মুসলিম নিধন ও শিরোñেদ চালাচ্ছে আর্মি

রাখাইনে নির্বিচারে মুসলিম নিধন ও শিরোñেদ চালাচ্ছে আর্মি

শরণার্থী শিবিরে ইসরাইলি হামলায় জীবন্ত পুড়ে মরল অসহায় ফিলিস্তিনিরা

শরণার্থী শিবিরে ইসরাইলি হামলায় জীবন্ত পুড়ে মরল অসহায় ফিলিস্তিনিরা

একদিনে ১৩ জনের করোনা শনাক্ত

একদিনে ১৩ জনের করোনা শনাক্ত

মসজিদসমূহ মুসলমানদের সামনে বাতিঘরের ভূমিকা পালন করেছে

মসজিদসমূহ মুসলমানদের সামনে বাতিঘরের ভূমিকা পালন করেছে

সিট বাণিজ্য বন্ধ হোক

সিট বাণিজ্য বন্ধ হোক

ছাত্রজীবন থেকেই অসাধুতার শুরু!

ছাত্রজীবন থেকেই অসাধুতার শুরু!