নির্বাচন এলেই সাম্প্রদায়িক ঘটনা সরকার নিজেই ঘটায়-ঠাকুরগাঁওয়ে মির্জা ফখরুল

Daily Inqilab ঠাকুরগাঁও জেলা সংবাদদাতা

১৩ মার্চ ২০২৩, ০৮:১৭ পিএম | আপডেট: ৩০ এপ্রিল ২০২৩, ১১:২৭ পিএম

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন,নির্বাচনের সময় এলেই সরকার বিভিন্ন ধরনের
সাম্প্রদায়িক ঘটনা নিজেই ঘটিয়ে তার দোষ বিএনপির উপর চাপায়। এটা তাদের পুরোনো অভ্যাস। তবে এবার আর সেই রকম করতে দিবে না বাংলাদেশের জনগন। এবার জনগন নিজের ভোট নিজে দিতে চায়।

তিনি ১৩ মার্চ সোমবার পৌর শহরের কালিবাড়িস্থ নিজ বাসভবনে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে উপরোক্ত কথা বলেন। পঞ্চগড়ের ঘটনায় মির্জা ফখরুল বলেন, এ ঘটনাটি পূর্ব পরিকল্পিত। সরকারের মদদপুষ্টমহল নির্বাচনের পূর্বে গণতন্ত্রের জন্য যে আন্দোলন গড়ে তুলেছে মানুষ তখনই সরকার এ জাতীয় সাম্প্রদায়িক ঘটনা ঘটিয়ে জনগনের দৃষ্টিকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করতে চায়। একই সঙ্গে বিএনপির ভাবমুর্তিকে ক্ষুন্ন করতে চায়। ঘটনার পরপরই কোন তদন্ত ছাড়াই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, এ ঘটনার সাথে বিএনপি জড়িত।

এতে বোঝা যায়, যে ব্যাপার টা পুর্ব পরিকল্পিত। এটা তাদের পুরোনো অভ্যাস। দু:খজনকভাবে ও ক্ষোভের সাথে লক্ষ্য করেছি যে, সরকার পরিকল্পিতভাবে এ প্রচারণা চালাচ্ছে। পরে যখন রেলমন্ত্রী সেখানে যান, ঐ সম্প্রদায়ের লোকজনের সাথে কথা বলেন। সেখানে কিন্তু একটা পরিস্থিতি তৈরী হয়, আহমদিয়া সম্প্রদায়ের লোকেরা বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠেন এবং তারা পরিস্কার বরে বলেন, আপনাদের পাশে যারা আছে তারাই এ ঘটনার সাথে জড়িত। তত্ত্বাবধায়ক বা নিরপেক্ষ সরকারের অধিনে নির্বাচন হলে আ’লীগ ৩০ টি আসন ও পাবে না, তাদের জামানত বাজেয়াপ্ত হবে।

মিডিয়ার নিরপেক্ষ ভূমিকা পালন করা উচিৎ। পঞ্চগড়ের ঘটনার সাথে সরকার সরাসরিভাবে জড়িত। তাদের প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ মদদে এ ঘটনা ঘটেছে। এর সম্পুর্ন দায় সরকারকে নিতে হবে। সাম্প্রদায়িকতা সৃষ্টি করে কখনও একটা দেশের রাজনৈতিক সমস্যা সমাধান করা যায় না। তিনি আরও বলেন, চরম অন্যায়ভাবে বিএনপির নেতা-কর্মীর বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। ১৮০ জনকে ইতিমধ্যে গ্রেফতার করা হয়েছে। পঞ্চগড়ে প্রকৃতপক্ষে ত্রাশের রাজত্ব সৃষ্টি হয়েছে। বিএনপির নেতা-কর্মী ও সমর্থকেরা বাড়িতে থাকতে পারছে না। যেখানে সরকার ঐ বিতর্কিত জলসা করার অনুমতি দিয়েছিল; তাহলে তাদের সুরক্ষা দেওয়ার দরকার ছিল; সরকার কোন পদক্ষেপ গ্রহন করেনি। অথচ বিএনপি ছোট খাটো কোন কর্মসূচী নিলে পুলিশের ছড়াছড়ি হয়ে যায়। সেখানে বিভিন্ন রঙের পতাকা দিয়ে আহমদিয়া সম্প্রদায়ের বাড়িঘর চিহ্নিত করা হয়। সেখানে নির্দয়, অমানুবিক, নির্মমভাবে তাদের বাড়িঘরে আক্রমন করা হয়েছে।

লুটপাট চালানো হয়েছে। ২ জন প্রান দিয়েছেন,একজনকে কুপিয়ে আরেকজনকে পুলিশের গুলিতে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনার পরেও আমরা কি দেখবো যে, সুষ্ঠু নিরপেক্ষ তদন্তের ব্যবস্থা করবেন তা না করে সরকার উল্টো বিএনপির উপরো দোষ চাপানোর চেষ্টায় রয়েছে। উদোর পিন্ডি বুদোর ঘাড়ে চাপানোর চেষ্টা তাদের এখনও রয়েছে। গতকাল তথ্যমন্ত্রীর কথা শুনেছি। তিনি বুঝতে পারেন না, যে তার কথা এখন আর কেউ বিশ্বাস করে না। এ সরকার গোয়েন্দা বাহিনীকে ব্যবহার করে বিএনপির বিরুদ্ধে যত ধরনের প্রচার চালানো যায় তা করছে।

তিনি আরও বলেন, জনগনের যে গণতান্ত্রিক আন্দোলন, তত্ত্বাবধায় সরকারের জন্য আন্দোলন, তার অধিকারের জন্য, এ সরকারের পদত্যাগের দাবিতে, সেই আন্দোলনকে ভিন্নখাতে নিয়ে যেতে এই অপপ্রচার ও অপকর্ম। তথ্যমন্ত্রীকে বলবো এ জাতীয় প্রচারণা থেকে বিরত থাকুন। তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবিতে তারাই হরতাল করেছিল। যখনই তারা ক্ষমতায় আসে তখন তারা তাদের স্বরূপে আবির্ভূত হয়। ৭৫ সালে তারা বাকশাল করেছিল, একই ভাবে তারা ভিন্ন চেহারায় একই শাসন ব্যবস্থা কায়েম করতে চায়। তারা নির্বাচন ব্যবস্থাকে ইতিমধ্যে ধ্বংস করে দিয়ে তারা আবারও ক্ষমতায় যেতে চায়। তবে এবার সেটা হবে না, জনগন জেগে উঠেছে। জনগন তাদের ভোট নিজে দিতে চায়।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, ঠাকুরগাঁও জেলা বিএনপির সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা তৈমুর রহমান, ঠাকুরগাঁও-৩ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য মো: জাহিদুর রহমান জাহিদ, ঠাকুরগাঁও জেলা বিএনপির সহ -সভাপতি ওবায়দুল্লাহ মাসুদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পয়গাম আলী , সহ জেলা বিএনপি, পৌর বিএনপি, থানা বিএনপি, যুবদল, স্বেচ্ছাসেবকদল, ছাত্রদলের বিভিন্ন নেতা-কর্মী ও সমর্থকগণ।


বিভাগ : বাংলাদেশ


মন্তব্য করুন

HTML Comment Box is loading comments...

আরও পড়ুন

গাজায় শান্তি আলোচনায় মধ্যস্থতাকারীর ভূমিকায় থাকতে চাইছে না কাতার?

গাজায় শান্তি আলোচনায় মধ্যস্থতাকারীর ভূমিকায় থাকতে চাইছে না কাতার?

মণিপুরী ছাত্র‌দের জন্য একটি আলাদা হোস্টেল তৈরির প্রতিশ্রুতি দিলেন সিসিক মেয়র আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী

মণিপুরী ছাত্র‌দের জন্য একটি আলাদা হোস্টেল তৈরির প্রতিশ্রুতি দিলেন সিসিক মেয়র আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী

আবুধাবীতে চালু হলো ইউএস বাংলার ফ্লাইট

আবুধাবীতে চালু হলো ইউএস বাংলার ফ্লাইট

বিশ্বকে বাঁচাতে জীবাশ্ম জ্বালানিতে অর্থায়ন বন্ধের দাবি তরুণদের

বিশ্বকে বাঁচাতে জীবাশ্ম জ্বালানিতে অর্থায়ন বন্ধের দাবি তরুণদের

ইরানের হামলার বিষয়ে প্রশ্ন এড়িয়েই যাচ্ছেন ব্লিনকেন

ইরানের হামলার বিষয়ে প্রশ্ন এড়িয়েই যাচ্ছেন ব্লিনকেন

রাজশাহী পবায় ট্রাক চাপায় তিন মোটরসাইকেল আরোহী নিহত, আহত ৩

রাজশাহী পবায় ট্রাক চাপায় তিন মোটরসাইকেল আরোহী নিহত, আহত ৩

নিউইয়র্কে সোনালী এক্সচেঞ্জের গ্রাহক সমাবেশ ও ক্যাম্পেইন অনুষ্ঠিত

নিউইয়র্কে সোনালী এক্সচেঞ্জের গ্রাহক সমাবেশ ও ক্যাম্পেইন অনুষ্ঠিত

বিমানবন্দর এলাকায় বাসের ধাক্কায় এক প্রকৌশলী নিহত

বিমানবন্দর এলাকায় বাসের ধাক্কায় এক প্রকৌশলী নিহত

ফিলিস্তিন জাতিসংঘের সদস্য না হওয়ায় দুঃখ প্রকাশ আরব দেশগুলোর

ফিলিস্তিন জাতিসংঘের সদস্য না হওয়ায় দুঃখ প্রকাশ আরব দেশগুলোর

সুনামগঞ্জের দেখার হাওরে কৃষকদের নিয়ে ধান কাটলেন কৃষিমন্ত্রী

সুনামগঞ্জের দেখার হাওরে কৃষকদের নিয়ে ধান কাটলেন কৃষিমন্ত্রী

সিলেটের উপর দিয়ে বয়ে যেতে পারে ৬০ কি:মি বেগে বজ্র বৃষ্টি সহ দমকা হাওয়া !

সিলেটের উপর দিয়ে বয়ে যেতে পারে ৬০ কি:মি বেগে বজ্র বৃষ্টি সহ দমকা হাওয়া !

আনোয়ারায় হিট স্ট্রোকে শাহজাদা ছালেহ আহমদ (৭৪) শাহর মৃত্যু

আনোয়ারায় হিট স্ট্রোকে শাহজাদা ছালেহ আহমদ (৭৪) শাহর মৃত্যু

দুবাই পানিতে তলিয়ে যাবার কারণ ক্লাউড সিডিং?

দুবাই পানিতে তলিয়ে যাবার কারণ ক্লাউড সিডিং?

জার্মানির প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ জেলেনস্কির

জার্মানির প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ জেলেনস্কির

নেতানিয়াহুকে গ্রেপ্তারি করার প্রস্তুতি নিচ্ছে আইসিসি, জরুরি বৈঠক তলব

নেতানিয়াহুকে গ্রেপ্তারি করার প্রস্তুতি নিচ্ছে আইসিসি, জরুরি বৈঠক তলব

বান্দরবানে অপহৃত সেই ব্যাংক ম্যানাজার কে চট্টগ্রামে বদলী

বান্দরবানে অপহৃত সেই ব্যাংক ম্যানাজার কে চট্টগ্রামে বদলী

মূল্যস্ফীতিই অর্থনীতিতে বড় সমস্যা

মূল্যস্ফীতিই অর্থনীতিতে বড় সমস্যা

খাদের কিনারে মধ্যপ্রাচ্য

খাদের কিনারে মধ্যপ্রাচ্য

সেনাপ্রধান এসএম শফিউদ্দিন আহমেদের প্রশংসনীয় বক্তব্য

সেনাপ্রধান এসএম শফিউদ্দিন আহমেদের প্রশংসনীয় বক্তব্য

রাঙ্গুনিয়ায় বলি খেলায় বিজয়ী রুবেল

রাঙ্গুনিয়ায় বলি খেলায় বিজয়ী রুবেল