আগুন সন্ত্রাসীদের শাস্তি নিশ্চিত হলেই দেশে নাশকতা কমবে -কুষ্টিয়ায় মাহবুবউল আলম হানিফ

Daily Inqilab বিশেষ সংবাদদাতা, কুষ্টিয়া

১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১২:০৪ এএম | আপডেট: ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১২:০৪ এএম

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ এমপি বলেছেন, কে মুক্তি পাবে আর কে পাবে না সেটা একমাত্র আদালতের উপর নির্ভর করে। তবে আমরা প্রত্যাশা করি কেউ যেন অপরাধ না করে সাজা না পায়, আবার কেউ অপরাধ করে পার না পায়। যারা ইতোপূর্বে আগুন দিয়ে পুলিশসহ মানুষকে পুড়িয়ে হত্যা করেছে, যারা প্রধান বিচারপতির বাড়িতে হামলা করেছে, হরতাল অবরোধের নামে বাসে ট্রেনে ট্রাকে আগুন দিয়েছে, সেই সব প্রকৃত সন্ত্রাসীদের শাস্তি দিতে পারলেই দেশে আগামীতে এ ধরনের ঘটনা কমে আসবে।

১২ ফেব্রুয়ারি, সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টায় কুষ্টিয়া সরকারী কলেজে একাদশ ও সম্মান প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থীদের নবীন বরণ এবং বার্ষিক ক্রীড়া ও সাহিত্য-সংস্কৃতি প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

এসময় হানিফ আরো বলেন, নির্বাচনের পরে আওয়ামী লীগকে সাংগঠনিকভাবে শক্তিশালী করতে তৃণমূল পর্যায়ে দলকে ঢেলে সাজানোসহ কোথাও কোনো বিরোধ থাকলে তা সমাধানের কর্মসূচি চলছে। আর বিএনপি ২০১২ সাল থেকে বছরে দুইবার করে সরকার পতনের কর্মসূচি দিয়ে আসছে। এসব নিয়ে সরকার আর জনগণ কিছু ভাবে না। নতুন করে বিএনপির আন্দোলনের কথা শুনলে তার দলের লোকজনই এখন হাসে।

কুষ্টিয়া সরকারী কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. শিশির কুমার রায়ের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও কুষ্টিয়া-৩ সদর আসনের এমপি মাহবুবউল আলম হানিফ। পরে তিনি বার্ষিক ক্রীড়া ও সাহিত্য-সংস্কৃতি প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন। শেষে কলেজের শিক্ষার্থীদের পরিবেশনায় অনুষ্ঠিত হয় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।


বিভাগ : বাংলাদেশ


মন্তব্য করুন

HTML Comment Box is loading comments...

এই বিভাগের আরও

কুসিক উপনির্বাচন : সংখ্যালঘু নতুন ও দক্ষিনের ভোটার জয়-পরাজয়ে ফ্যাক্টর
সিরাজগঞ্জে ‘শিক্ষকের গুলিতে’ মেডিক্যাল কলেজ শিক্ষার্থী আহত
কুমিল্লায় দুগ্ধপোষ্য শিশু চুরির অপরাধে এক নারীর দশ বছরের কারাদণ্ড
মুসলিম উম্মাহর ঐক্য, শান্তি ও সমৃদ্ধি এবং দেশের শান্তি- শৃঙ্খলা রক্ষায় আল্লাহর রহমত কামনা করে মোকামিয়ার দুই দিনব্যাপী মাহফিল সম্পন্ন
ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্রে ১৭, সাধারণ কেন্দ্রে থাকবে ১৬ জনের ফোর্স
আরও

আরও পড়ুন

এপ্রিলে নেপালের সঙ্গে জলবিদ্যুৎ আমদানির চুক্তি হবে : বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী

এপ্রিলে নেপালের সঙ্গে জলবিদ্যুৎ আমদানির চুক্তি হবে : বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী

বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের প্রকল্পে নজরদারি রাখবেন জেলা প্রশাসকরা

বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের প্রকল্পে নজরদারি রাখবেন জেলা প্রশাসকরা

নায়ক হওয়া হলো না জাকেরের

নায়ক হওয়া হলো না জাকেরের

বাংলাদেশে ইলেকট্রিক গাড়ি ‘বিওয়াইডি সিল’ উন্মোচন

বাংলাদেশে ইলেকট্রিক গাড়ি ‘বিওয়াইডি সিল’ উন্মোচন

ইউসিবির উদ্যোগে আর্থিক সাক্ষরতা দিবস পালিত

ইউসিবির উদ্যোগে আর্থিক সাক্ষরতা দিবস পালিত

এসও-এস শিশু পল্লী’র সাথে অংশীদারিত্বে আসলো ভিভো

এসও-এস শিশু পল্লী’র সাথে অংশীদারিত্বে আসলো ভিভো

ভাঙ্গা থেকে পায়রা হয়ে কুয়াকাটা পর্যন্ত রেলপথ নির্মাণের প্রকল্প গ্রহণ করা হবে

ভাঙ্গা থেকে পায়রা হয়ে কুয়াকাটা পর্যন্ত রেলপথ নির্মাণের প্রকল্প গ্রহণ করা হবে

বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী ছিলেন অধ্যাপক মোসলেমা খাতুন

বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী ছিলেন অধ্যাপক মোসলেমা খাতুন

একুশে গ্রন্থমেলায় বিক্রয় শীর্ষে এম মিরাজ হোসেনের নতুন দুই বই

একুশে গ্রন্থমেলায় বিক্রয় শীর্ষে এম মিরাজ হোসেনের নতুন দুই বই

ঢাকা-আশুলিয়া এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের সমস্যার মূলে সিএমসি

ঢাকা-আশুলিয়া এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের সমস্যার মূলে সিএমসি

পল্টনে পুলিশ হত্যা মামলার আসামি নীলফামারীতে গ্রেফতার

পল্টনে পুলিশ হত্যা মামলার আসামি নীলফামারীতে গ্রেফতার

গত বছরের জুন পর্যন্ত মেট্রোরেলে আয় ১৮,২৮,০৬,৫১৪ টাকা

গত বছরের জুন পর্যন্ত মেট্রোরেলে আয় ১৮,২৮,০৬,৫১৪ টাকা

টিকিটের দাম ২ কোটিরও বেশি! বিশ্বকাপে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ নিয়ে তুঙ্গে উত্তেজনা

টিকিটের দাম ২ কোটিরও বেশি! বিশ্বকাপে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ নিয়ে তুঙ্গে উত্তেজনা

মনিপুর স্কুলকে গ্রাস করার অপচেষ্টা চলছে: সংবাদ সম্মেলনে অভিভাবকদের অভিযোগ

মনিপুর স্কুলকে গ্রাস করার অপচেষ্টা চলছে: সংবাদ সম্মেলনে অভিভাবকদের অভিযোগ

১ লাখ টন চিনি পুড়ে ছাই, এখনো জ্বলছে আগুন

১ লাখ টন চিনি পুড়ে ছাই, এখনো জ্বলছে আগুন

রুশ ও মার্কিন নভোচারী নিয়ে স্পেসএক্স এর যাত্রা

রুশ ও মার্কিন নভোচারী নিয়ে স্পেসএক্স এর যাত্রা

লাক্ষাদ্বীপে কেন দ্বিতীয় সামরিক নৌঘাঁটি তৈরি করছে ভারত?

লাক্ষাদ্বীপে কেন দ্বিতীয় সামরিক নৌঘাঁটি তৈরি করছে ভারত?

কুসিক উপনির্বাচন : সংখ্যালঘু নতুন ও দক্ষিনের ভোটার জয়-পরাজয়ে ফ্যাক্টর

কুসিক উপনির্বাচন : সংখ্যালঘু নতুন ও দক্ষিনের ভোটার জয়-পরাজয়ে ফ্যাক্টর

সিরাজগঞ্জে ‘শিক্ষকের গুলিতে’ মেডিক্যাল কলেজ শিক্ষার্থী আহত

সিরাজগঞ্জে ‘শিক্ষকের গুলিতে’ মেডিক্যাল কলেজ শিক্ষার্থী আহত

বাংলাদেশকে কঠিন লক্ষ্য দিল শ্রীলঙ্কা

বাংলাদেশকে কঠিন লক্ষ্য দিল শ্রীলঙ্কা