ঢাকা   বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪ | ৫ বৈশাখ ১৪৩১

দাফনের ৬ মাস পর কবর থেকে তোলা হলো আ.লীগ নেতার লাশ

Daily Inqilab অনলাইন ডেস্ক

২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০৪:৪২ পিএম | আপডেট: ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০৪:৪২ পিএম

 

 মুন্সীগঞ্জের টংগিবাড়ী উপজেলার হাট বালিগাঁও কবরস্থান থেকে দাফনের ছয় মাস পর আওয়ামী লীগ নেতা আজগর হোসেন চঞ্চল বেপারীর লাশ উত্তোলন করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৯ ফেব্রুয়ারি) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ওমর শরীফ ফাহাদের উপস্থিতিতে লাশটি উত্তোলন করা হয়। নিহত আজগর হোসেন চঞ্চল টংগিবাড়ী উপজেলার বালিগাঁও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।

মামলার বাদী নিহতের স্ত্রী সুমি আক্তারের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, গত বছরের ১০ সেপ্টেম্বর বিকেল ৫টার দিকে নিজের কাজ করার জন্য বাড়ির বাহিরে যান চঞ্চল। পরে রাত সাড়ে ১২টার দিকে চঞ্চল তার স্ত্রীর মোবাইলে ফোন দিলে তার সঙ্গে কিছু লোকের বাগবিতণ্ডা ও চেঁচামেচি শুনতে পান। এ সময় আপনার সঙ্গে কে বা কারা আছে জানতে চাইলে চঞ্চল জানান তার সঙ্গে বালিগাওঁ গ্রামের রিটু, হাবিবুর রহমান সোহেল, নিতাই দাস ও উত্তম সরকার সানীসহ আরও কয়েকজন রয়েছে। পরে ওই দিন রাতেই ইসলামপুর রাস্তার পাশে মুমূর্ষু অবস্থায় চঞ্চলকে বালিগাওঁ বাজারের ব্যবসায়ী আমির হোসেন দেখতে পেয়ে বালিগাঁও ডক্টরস ক্লিনিকে নিয়ে যায়। ডাক্তার উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নিয়ে যেতে বললে চঞ্চলকে ঢাকাস্থ আসগর আলী হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসাধিন অবস্থায় ১১ সেপ্টেম্বর তিনি মারা যান।

ওই সময় এলাকার কতিপয় ব্যক্তি সুমি আক্তারকে বুঝায় যে চঞ্চল মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় মারা গেছেন। পরিবারকে ভুল বুঝিয়ে‌ পোস্ট মর্টেম ছাড়াই চঞ্চলকে কৌশলে মাটি দিতে বাধ্য করে। পরবর্তীতে সুমি আক্তার জানতে পারেন তার স্বামীর বুকের হাড় ৯টি ভাঙ্গা ছিল এবং পিঠের হাড় ৩ জায়গায় ভাঙা ছিল।চঞ্চল মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় মারা গেছে দুষ্কৃতকারীরা এমনটি বললেও মোটরসাইকেলের দুর্ঘটনায় যে ধরনের আঘাতপ্রাপ্ত হওয়ার কথা সেই ধরনের আঘাত নেই। পরে চঞ্চলের সঙ্গে থাকা লোকজন তিনি কীভাবে মারা গেছেন- সে বিষয়ে সঠিক ব্যাখ্যা দিতে না পারায় চঞ্চলের স্ত্রী সুমি আক্তার বাদী হয়ে মুন্সীগঞ্জ আদালতের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ৪নং আমলি আদালতে মামলা করেন। সেখান থেকেও মামলাটি খারিজ করে দিলে মুন্সীগঞ্জ জজ আদালতে মামলা দায়ের করা হয়। ওই মামলার প্রেক্ষিতে টংগিবাড়ী থানাকে মামলাটি এফআইআর হিসেবে নিতে আদেশ দেন আদালত।

এ বিষয়ে মামলার বাদী সুমী আক্তার বলেন, যখন আমার স্বামী চঞ্চল মারা যান, তখন আমি অনেক অসুস্থ ছিলাম। তার কয়েকদিন আগে আমার তৃতীয় সিজার করা হয়। কন্যা সন্তানের জন্ম হয়। আগে আরও দুই মেয়ে রয়েছে। আমি অসুস্থ থাকায় বুঝতে পারি নাই যে আমার স্বামীকে কেউ মেরে ফেলেছে। যারা আমার স্বামীরে মারছে তারা দ্রুত কৌশলে তার দাফনের কাজ সেরে ফেলে। পরে জানতে পারলাম ওরা পরিকল্পিতভাবে আমার স্বামীকে মেরে রাস্তায় ফেলে রেখেছিল। বালিগাওঁ গ্রামের মোফাজ্জল কমান্ডারের ছেলে রিটু, যুবলীগ নেতা হাবিবুর রহমান সোহেল, নিতাই দাস , উত্তম সরকার রাজনৈতিক দ্বন্দ্বের কারণে পরিকল্পিতভাবে মেরে আমার স্বামীকে রাস্তার নির্জন স্থানে ফেলে রেখে যায় । আমি তাদের আসামি করে মুন্সীগঞ্জ আদালতে মামলা করেছি।

এ ব্যাপারে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা টংগিবাড়ী থানা পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) আল মামুন বলেন, আদালতের নির্দেশে টংগিবাড়ী থানায় একটি মামলা হয়। ওই মামলায় আদালত নিহতের মরদেহ কবর হতে উত্তোলন করে ময়নাতদন্তের আদেশ দেন। সে মোতাবেক আজ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মুন্সীগঞ্জ মর্গে পাঠানো হয়েছে।

 


বিভাগ : বাংলাদেশ


মন্তব্য করুন

HTML Comment Box is loading comments...

আরও পড়ুন

সিনিয়র শিল্প সচিবের সঙ্গে যুক্তরাজ্যে নিযুক্ত বাংলাদেশ হাইকমিশনারের সাক্ষাৎ

সিনিয়র শিল্প সচিবের সঙ্গে যুক্তরাজ্যে নিযুক্ত বাংলাদেশ হাইকমিশনারের সাক্ষাৎ

রাজবাড়ী পদ্মা নদীতে গোসলে নেমে ডুবে যুবকের মৃত্যু

রাজবাড়ী পদ্মা নদীতে গোসলে নেমে ডুবে যুবকের মৃত্যু

স্টুয়ার্ট ল এখন যুক্তরাষ্ট্রের কোচ

স্টুয়ার্ট ল এখন যুক্তরাষ্ট্রের কোচ

যে কারণে ৫৮ বছর বয়সে পেশাদার ফুটবলে রোমারিও

যে কারণে ৫৮ বছর বয়সে পেশাদার ফুটবলে রোমারিও

চন্দ্রঘোনা থানার সি আর মামলার ৭ আসামী গ্রেপ্তার

চন্দ্রঘোনা থানার সি আর মামলার ৭ আসামী গ্রেপ্তার

শাহিনের সাথে আমার কোনো বিবাদ নেই: বাবর

শাহিনের সাথে আমার কোনো বিবাদ নেই: বাবর

সালথায় আগুনে পুড়ল ১২টি দোকান, বিপুল পরিমাণ ক্ষয়ক্ষতি

সালথায় আগুনে পুড়ল ১২টি দোকান, বিপুল পরিমাণ ক্ষয়ক্ষতি

উলভার্টের ১৮৪* ছাপিয়ে আতাপাত্তুর ১৯৫*, শ্রীলঙ্কার রেকর্ডময় জয়

উলভার্টের ১৮৪* ছাপিয়ে আতাপাত্তুর ১৯৫*, শ্রীলঙ্কার রেকর্ডময় জয়

মালিকদের লুটপাটে বেসরকারি অনেকগুলো ব্যাংক ধ্বংসের মুখে

মালিকদের লুটপাটে বেসরকারি অনেকগুলো ব্যাংক ধ্বংসের মুখে

শরিফুল-তাসকিন তোপে উড়ে গেল শেখ জামালও

শরিফুল-তাসকিন তোপে উড়ে গেল শেখ জামালও

বাসের ধাক্কায় কিশোরগঞ্জে দুই মোটরসাইকেল আরোহী নিহত

বাসের ধাক্কায় কিশোরগঞ্জে দুই মোটরসাইকেল আরোহী নিহত

ফারাক্কার প্রভাবে পদ্মা নদী এখন বিলে পরিনত হয়েছে

ফারাক্কার প্রভাবে পদ্মা নদী এখন বিলে পরিনত হয়েছে

আমার স্ত্রীর কোনো ক্ষতি হলে সেনাপ্রধানকে দায়ী করব : ইমরান খান

আমার স্ত্রীর কোনো ক্ষতি হলে সেনাপ্রধানকে দায়ী করব : ইমরান খান

পশ্চিমাদের চাপ বাড়লেও ইরানের তেল রপ্তানিতে বাধা নেই

পশ্চিমাদের চাপ বাড়লেও ইরানের তেল রপ্তানিতে বাধা নেই

কারাবন্দি থেকে ফের গৃহবন্দি সু চি

কারাবন্দি থেকে ফের গৃহবন্দি সু চি

প্রাণিসম্পদ সেবা সপ্তাহ ও প্রদর্শনীর উদ্বোধন প্রধানমন্ত্রীর

প্রাণিসম্পদ সেবা সপ্তাহ ও প্রদর্শনীর উদ্বোধন প্রধানমন্ত্রীর

ক্রিমিয়া ও ডনবাস চিরকাল রাশিয়ার মধ্যে থাকবে: স্লোভাক প্রধানমন্ত্রী

ক্রিমিয়া ও ডনবাস চিরকাল রাশিয়ার মধ্যে থাকবে: স্লোভাক প্রধানমন্ত্রী

রুশ সেনাদের অগ্রগতির কথা স্বীকার করেছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট

রুশ সেনাদের অগ্রগতির কথা স্বীকার করেছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট

সিঙ্গাপুরের নতুন প্রধানমন্ত্রীকে যে চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হবে

সিঙ্গাপুরের নতুন প্রধানমন্ত্রীকে যে চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হবে

বনশ্রীতে লাগা আগুন নিয়ন্ত্রণে

বনশ্রীতে লাগা আগুন নিয়ন্ত্রণে