ঢাকা   বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪ | ৫ বৈশাখ ১৪৩১

গাজায় গণহত্যার প্রতিবাদে রাবিতে অনশন

Daily Inqilab রাবি সংবাদদাতা

২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০৫:০৯ পিএম | আপডেট: ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০৫:০৯ পিএম

 


গাজায় গণহত্যার প্রতিবাদ জানিয়ে অনশন করেছেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা। বৃহস্পতিবার (২৯ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১০টায় ফ্রেন্ডস অব প্যালেস্টাইনের আয়োজনে বিশ্ববিদ্যালয়ের জোহা চত্বরে তাঁরা অনশন শুরু করেন। কর্মসূচি চলে বিকেল ৪টা পর্যন্ত।

এসময় তাঁরা STOP GENOCIDE, FREE PALESTINE লেখা সংবলিত প্ল্যাকার্ড প্রদর্শন করে প্রতিবাদ জানান।

অনশনে অংশ নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন খান বলেন, ইসরাইল গাজায় যে আগ্রাসন ও নির্বিচারে গণহত্যা চালাচ্ছে তার প্রতি তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি। সেইসাথে সেখানে যে খাদ্য ও মানবিক সংকট তৈরি হয়েছে তার সুষ্ঠু সমাধান দাবি করছি। তাদের খাদ্য আসতে দখলদারদের বাঁধার সম্মুখীন যেনো না হয়; সেই দাবিতে আমাদের এই অনশন। গাজাবাসী তাদের ন্যূনতম মানবিক অধিকারটুকু ফিরে পাবে বলে আমাদের প্রত্যাশা।

তিনি আরও বলেন, আসলে এখান থেকে আমাদের খুববেশি করণীয় আছে তা নয়, তবে জাতিসংঘসহ বিভিন্ন ফোরামে যে ভোটাভুটি হয় তাতে যেন বাংলাদেশ সরকার ফিলিস্তিনের পক্ষে জোড়ালো ভূমিকা পালন করে সরকারের কাছে আমরা সেটার দাবি জানাই। ইসরায়েলি এই কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রীয়ভাবে সরকার যেন ধিক্কার জানায়, সেইসাথে তাদের বিভিন্ন কর্মকাণ্ডের প্রতি সরকারের নিন্দা ও প্রতিবাদগুলো যেন আরও অ্যাক্টিভলি করে সেই দাবি জানাই।

আরবি বিভাগের অধ্যাপক ড. ইফতেখারুল আলম মাসউদ বলেন, গাজাবাসীর উপর বর্বর ইসরায়েলি সামরিক বাহিনী যে নির্মম গণহত্যা চালাচ্ছে তার প্রতিবাদে আমরা এ অনশন কর্মসূচি পালন করছি।

এর দ্বারা কোন প্রভাব ফেলবে কিনা এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, সারাবিশ্ব এরকম অল্প অল্প প্রতিবাদ আসতে থাকলে একসময় অনেক বড় হবে। আমরা আমাদের মানবিক দৃষ্টিকোন থেকে এখানে বসেছি। আশা করি অনেকেই এরকমভাবে প্রতিবাদ জানাবে।

অনশনে অংশ নেওয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের ২০২০-২১ সেশনের এক শিক্ষার্থী বলেন, আমরা তো সরাসরি গাজাবাসীর জন্য কিছু করতে পারবো না, তবে মানবিক বিবেচনায় আমাদের এই অনশন কর্মসূচির মাধ্যমে একটু হলেও অসহায় গাজাবাসীর জন্য সহমর্মিতা জানানো হবে।


বিভাগ : বাংলাদেশ


মন্তব্য করুন

HTML Comment Box is loading comments...

আরও পড়ুন

মালিকদের লুটপাটে বেসরকারি অনেকগুলো ব্যাংক ধ্বংসের মুখে

মালিকদের লুটপাটে বেসরকারি অনেকগুলো ব্যাংক ধ্বংসের মুখে

শরিফুল-তাসকিন তোপে উড়ে গেল শেখ জামালও

শরিফুল-তাসকিন তোপে উড়ে গেল শেখ জামালও

বাসের ধাক্কায় কিশোরগঞ্জে দুই মোটরসাইকেল আরোহী নিহত

বাসের ধাক্কায় কিশোরগঞ্জে দুই মোটরসাইকেল আরোহী নিহত

ফারাক্কার প্রভাবে পদ্মা নদী এখন বিলে পরিনত হয়েছে

ফারাক্কার প্রভাবে পদ্মা নদী এখন বিলে পরিনত হয়েছে

আমার স্ত্রীর কোনো ক্ষতি হলে সেনাপ্রধানকে দায়ী করব : ইমরান খান

আমার স্ত্রীর কোনো ক্ষতি হলে সেনাপ্রধানকে দায়ী করব : ইমরান খান

পশ্চিমাদের চাপ বাড়লেও ইরানের তেল রপ্তানিতে বাধা নেই

পশ্চিমাদের চাপ বাড়লেও ইরানের তেল রপ্তানিতে বাধা নেই

কারাবন্দি থেকে ফের গৃহবন্দি সু চি

কারাবন্দি থেকে ফের গৃহবন্দি সু চি

প্রাণিসম্পদ সেবা সপ্তাহ ও প্রদর্শনীর উদ্বোধন প্রধানমন্ত্রীর

প্রাণিসম্পদ সেবা সপ্তাহ ও প্রদর্শনীর উদ্বোধন প্রধানমন্ত্রীর

ক্রিমিয়া ও ডনবাস চিরকাল রাশিয়ার মধ্যে থাকবে: স্লোভাক প্রধানমন্ত্রী

ক্রিমিয়া ও ডনবাস চিরকাল রাশিয়ার মধ্যে থাকবে: স্লোভাক প্রধানমন্ত্রী

রুশ সেনাদের অগ্রগতির কথা স্বীকার করেছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট

রুশ সেনাদের অগ্রগতির কথা স্বীকার করেছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট

সিঙ্গাপুরের নতুন প্রধানমন্ত্রীকে যে চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হবে

সিঙ্গাপুরের নতুন প্রধানমন্ত্রীকে যে চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হবে

বনশ্রীতে লাগা আগুন নিয়ন্ত্রণে

বনশ্রীতে লাগা আগুন নিয়ন্ত্রণে

ছাতকে সড়ক দুর্ঘটনায় কণ্ঠশিল্পী পাগল হাসানসহ প্রাণ গেল দুইজনের

ছাতকে সড়ক দুর্ঘটনায় কণ্ঠশিল্পী পাগল হাসানসহ প্রাণ গেল দুইজনের

ইসরাইল প্রতিশোধ নিলে আঞ্চলিক যুদ্ধের ঝুঁকি বাড়বে: জর্ডান

ইসরাইল প্রতিশোধ নিলে আঞ্চলিক যুদ্ধের ঝুঁকি বাড়বে: জর্ডান

ব্রেন্ডন লিঞ্চের নেতৃত্বে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধি দল ঢাকায় আসছেন ২১ এপ্রিল

ব্রেন্ডন লিঞ্চের নেতৃত্বে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধি দল ঢাকায় আসছেন ২১ এপ্রিল

মুজিবনগর সরকার এবং বাংলাদেশের স্বাধীনতা একই সূত্রে গাঁথা: রাষ্ট্রদূত মো.ইমরান

মুজিবনগর সরকার এবং বাংলাদেশের স্বাধীনতা একই সূত্রে গাঁথা: রাষ্ট্রদূত মো.ইমরান

সেরেল্যাকে অতিরিক্ত চিনি মেশানোর অভিযোগ নেসলের বিরুদ্ধে

সেরেল্যাকে অতিরিক্ত চিনি মেশানোর অভিযোগ নেসলের বিরুদ্ধে

গেরুয়া পোশাক পরা নিয়ে প্রশ্ন তোলায় তেলঙ্গানায় স্কুলে হামলা

গেরুয়া পোশাক পরা নিয়ে প্রশ্ন তোলায় তেলঙ্গানায় স্কুলে হামলা

দীর্ঘক্ষণ রোদে রেখে ১ মাসের সন্তানকে হত্যা, ৮ বছর জেল রাশিয়ান ইনফ্লুয়েন্সারের

দীর্ঘক্ষণ রোদে রেখে ১ মাসের সন্তানকে হত্যা, ৮ বছর জেল রাশিয়ান ইনফ্লুয়েন্সারের

কেউ মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনে কোনো পদক্ষেপ নেয়নি: প্রধানমন্ত্রী

কেউ মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনে কোনো পদক্ষেপ নেয়নি: প্রধানমন্ত্রী