যুদ্ধ পরিস্থিতি নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র-ইউক্রেন আলোচনা জাপোরোজিয়ে রুশ আক্রমণে ইউক্রেনের তিনটি ব্রিগেড বিধ্বস্ত সোলেদার-বাখমুতে ইউক্রেনীয় সেনা ঘাঁটিতে হামলা, নিহত ১০

এপ্রিলে ১৫ হাজার সৈন্য হারিয়েছে ইউক্রেন

Daily Inqilab ইনকিলাব ডেস্ক :

০২ মে ২০২৩, ১১:৩৭ পিএম | আপডেট: ০৩ মে ২০২৩, ১২:০০ এএম

রাশিয়ান বাহিনী ইতিমধ্যেই পর্যাপ্ত গোলাবারুদ পেয়েছে যাতে তারা গুলি করে কার্যকরভাবে শত্রুর ক্ষতি করতে পারে এবং দেশীয় প্রতিরক্ষা শিল্প সাধারণত সেনাবাহিনী এবং নৌবাহিনীর প্রয়োজনীয়তা পূরণ করে, প্রতিরক্ষা মন্ত্রী সের্গেই শোইগু গতকাল সামরিক কমান্ডারদের সাথে একটি কনফারেন্স কলে বলেছেন।

এপ্রিলে, ইউক্রেন যুদ্ধে ১৫ হাজার সৈন্য এবং ৪৩০টি সাঁজোয়া যান হারিয়েছে। অতএব, ফেব্রুয়ারির তুলনায় কিয়েভ সরকারের জনশক্তি ক্ষয়ক্ষতি এক তৃতীয়াংশ বৃদ্ধি পেয়েছে (রাশিয়ান প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় মার্চ মাসে কিয়েভ সরকারের সামরিক কর্মীদের ক্ষতির বিষয়ে রিপোর্ট করেনি)। তিনি বলেন, ‘রাশিয়ান সশস্ত্র বাহিনী পুরো সংঘর্ষ রেখা বরাবর সক্রিয় অপারেশন চালাচ্ছে। পশ্চিমা দেশগুলোর অভূতপূর্ব সামরিক সহায়তা সত্ত্বেও শত্রুরা ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি করছে।’

রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী, শুধুমাত্র গত মাসেই কিয়েভ সরকার ১৫,০০০ সৈন্য, আটটি যুদ্ধবিমান এবং ২৭৭টি মনুষ্যবিহীন আকাশযান, ৪৩০টি ট্যাংক এবং অন্যান্য সাঁজোয়া যুদ্ধ যান, ১৮টি মাল্টিপল রকেট লঞ্চার এবং ২২৫টি আর্টিলারি বন্দুক হারিয়েছে। ইউক্রেনের জনশক্তির ক্ষতি ফেব্রুয়ারির তুলনায় এপ্রিলে বেশি প্রমাণিত হয়েছে যখন সরঞ্জামের ক্ষতি জানুয়ারির পরিসংখ্যানকে ছাড়িয়ে গেছে (রাশিয়ান প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের দ্বারা প্রকাশিত সর্বশেষ তথ্য), যদিও ইউক্রেন সেই সময়ে আরও বেশি বিমান হারিয়েছিল। এদিকে, রাশিয়ার কৌশলগত ক্ষেপণাস্ত্র কর্পোরেশন যা ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা, জাহাজ-বিরোধী, রাডার এবং অন্যান্য ক্ষেপণাস্ত্র তৈরি করে, নতুন অস্ত্রের ব্যাপক উৎপাদন শুরু করেছে। ‘কিছু অত্যাধুনিক অস্ত্র ব্যবস্থার ব্যাপারে, কর্পোরেশন সিরিয়াল উৎপাদনে চলে গেছে, যথেষ্ট কম সময়ের মধ্যে সব ধাপ শেষ করা হয়েছে,’ শোইগু বলেন। সামগ্রিকভাবে, ‘এন্টারপ্রাইজটি প্রতিষ্ঠিত সময়সীমার মধ্যে প্রতিরক্ষা সংগ্রহের পরিকল্পনা পূরণ করে’ কিন্তু এখন ‘যথাসম্ভব কম সময়ের মধ্যে নির্ভুল অস্ত্রের উৎপাদন দ্বিগুণ করা’ প্রয়োজন।

জাপোরোজিয়ে রুশ আক্রমণে ইউক্রেনের তিনটি ব্রিগেড বিধ্বস্ত : রাশিয়ার আক্রমণের ফলে জাপোরোজিয়ের পাভলোগ্রাদে গোলাবারুদ এবং জ্বালানী ডিপো ধ্বংস হয়ে গেছে। ফলে ইউক্রেনীয় সশস্ত্র বাহিনীর তিনটি ব্রিগেড, যাদের গত ৩০ এপ্রিল জাপোরোজিয়ে এলাকায় পুনরায় মোতায়েন করা হয়েছিল, তারা আর যুদ্ধ চালিয়ে যেতে পারবে না, ‘উই আর টুগেদার উইথ রাশিয়া’র চেয়ারম্যান ভ্লাদিমির রোগভ সোমবার বলেছেন।

‘সংঘর্ষ রেখার ওরেখভ বিভাগে তিনটি ব্রিগেডের সাথে পুনঃনিয়োগ সম্পন্ন হয়েছে। তাদের কিছু অংশ শেরবাকির বসতিতে পৌঁছেছে,’ তিনি বলেছিলেন। ‘আমি মনে করি যে ইউক্রেনীয় সশস্ত্র বাহিনীর ৪৬ তম ব্রিগেডকে পাভলোগ্রাদে পুণরায় নিয়োজিত করা হয়েছিল, সেখানে জ্বালানী পণ্য এবং সরবরাহের প্রধান মজুদ রয়েছে, তারা সম্ভবত যুদ্ধের ক্রিয়াকলাপের জন্য প্রয়োজনীয় সমস্ত সরবরাহের সাথে লজিস্টিক সমস্যার মুখোমুখি হবে। পাভলোগ্রাডের ডিপোতে আক্রমণ কতটা শক্তিশালী ছিল, ইউক্রেনীয় সশস্ত্র বাহিনীর মজুদের ভারি মজুদ ধ্বংস করা হয়েছে কিনা তার উপর নির্ভর করে, প্রস্তুত হতে আরও কয়েক দিন বা সম্ভবত সপ্তাহ লাগবে,’ রোগভ ব্যাখ্যা করেছেন।

তিনি রোববার রাতে বলেছিলেন যে, রাশিয়ান বাহিনী পাভলোগ্রাদে রেলপথের অবকাঠামো এবং গোলাবারুদ এবং জ্বালানীর ডিপোতে হামলা চালিয়েছিল, যা ইউক্রেনীয় সৈন্যরা জাপোরোজিয়ের দিকে আক্রমণের জন্য জমা করছিল। রোগভ এর আগে তাসকে বলেছিল যে, ইউক্রেনীয় সেনা কমান্ড ৪৬ তম এয়ারবর্ন অ্যাসল্ট ব্রিগেড, সেইসাথে ১১৬ তম এবং ১১৮ তম ব্রিগেডকে জাপোরোজিয়ে এলাকায় পুনরায় মোতায়েন করেছে এবং ১২ হাজার যোদ্ধা ইতিমধ্যেই গুলিয়াইপোল এবং ওরেখভের কাছে রয়েছে। তার মূল্যায়ন অনুসারে, যদি এই এলাকায় আক্রমণ চালানো হয়, ইউক্রেনীয় ইউনিটগুলি শহরগুলিতে লড়াই এড়াবে এবং পরিবর্তে ক্রিমিয়ার স্থল করিডোর কেটে মেলিটোপোলের পূর্বে আজভ সাগরে প্রবেশের চেষ্টা করবে।

সোলেদার-বাখমুতে ইউক্রেনীয় সেনা ঘাঁটিতে হামলা, নিহত ১০ : রাশিয়ার সাউদার্ন ব্যাটলগ্রুপের ক্ষেপণাস্ত্র এবং কামান হামলায় সোলেদার-বাখমুত এলাকায় ইউক্রেনের সেনাবাহিনীর ঘাঁটিগুলো ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। গ্রুপের মুখপাত্র ভাদিম আস্তাফিভ তাসকে এ তথ্য জানিয়েছেন।

‘সাউদার্ন ব্যাটলগ্রুপের ক্ষেপণাস্ত্র এবং আর্টিলারি সৈন্যরা কনস্টান্টিনোভকা বসতির কাছে ইউক্রেনীয় ২৪ তম পৃথক যান্ত্রিক ব্রিগেড এবং স্পেশাল অপারেশন ফোর্সের ইউনিটের সেনা সাইটগুলিতে আঘাত করেছিল,’ তিনি বলেছিলেন। তার মতে, আভদিয়েভকা এলাকায়, পাল্টা ব্যাটারি লড়াইয়ের ফলে, ইউক্রেনীয় ক্ষেপণাস্ত্র এবং আর্টিলারি সৈন্যদের গুলি চালানোর অবস্থানগুলি ধ্বংস হয়ে গেছে। শত্রুর জনশক্তিও আঘাত হেনেছে, যার ফলে দশজন হতাহত হয়েছে।

যুদ্ধ পরিস্থিতি নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র-ইউক্রেন আলোচনা : মার্কিন জয়েন্ট চিফস অফ স্টাফের চেয়ারম্যান মার্ক মিলি ইউক্রেনের সশস্ত্র বাহিনীর কমান্ডার-ইন-চিফ ভ্যালেরি জালুঝনির সাথে ফোনে সংঘর্ষের বিষয়ে আলোচনা করেছেন।

মার্কিন পক্ষ থেকে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, উভয় পক্ষ পরিস্থিতির মূল্যায়ন বিনিময় করেছে। বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘তারা (মিলি এবং জালুঝনি) ইউক্রেনে অপ্রীতিকর এবং চলমান রাশিয়ার আক্রমণ নিয়ে আলোচনা করেছেন এবং দৃষ্টিভঙ্গি ও মূল্যায়ন বিনিময় করেছেন।’ মার্কিন পক্ষ নির্দেশ করেছে যে, মিলি কথোপকথনের সময় ‘ইউক্রেনের সার্বভৌমত্ব এবং আঞ্চলিক অখ-তার প্রতি অটুট সমর্থন’ পুনর্ব্যক্ত করেছেন। সূত্র : তাস, বিবিসি নিউজ।


বিভাগ : আন্তর্জাতিক


মন্তব্য করুন

HTML Comment Box is loading comments...

আরও পড়ুন

কুষ্টিয়ায় পরকীয়ার জেরে যুবককে পিটিয়ে হত্যা, আটক ৩

কুষ্টিয়ায় পরকীয়ার জেরে যুবককে পিটিয়ে হত্যা, আটক ৩

কুষ্টিয়ায় বালু বোঝাই ট্রলি চাপায় বৃদ্ধা নিহত

কুষ্টিয়ায় বালু বোঝাই ট্রলি চাপায় বৃদ্ধা নিহত

বঙ্গোপসাগরে শক্তিশালী হচ্ছে নিম্নচাপ, আঘাত হানতে পারে যেসব জেলায়

বঙ্গোপসাগরে শক্তিশালী হচ্ছে নিম্নচাপ, আঘাত হানতে পারে যেসব জেলায়

মার্কিন সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করার ডিক্রিতে সাক্ষর করলেন পুতিন

মার্কিন সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করার ডিক্রিতে সাক্ষর করলেন পুতিন

আজিজের নিষেধাজ্ঞা ও বেনজীরের সম্পদ ক্রোক জাতির জন্য লজ্জার : ডা. শাহাদাত

আজিজের নিষেধাজ্ঞা ও বেনজীরের সম্পদ ক্রোক জাতির জন্য লজ্জার : ডা. শাহাদাত

অবরুদ্ধ গাজায় কোরআন পোড়াচ্ছেন ইসরায়েলি সেনারা

অবরুদ্ধ গাজায় কোরআন পোড়াচ্ছেন ইসরায়েলি সেনারা

কৈলাশটিলা-৮ কূপ থেকে প্রতিদিন মিলবে ২১ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস

কৈলাশটিলা-৮ কূপ থেকে প্রতিদিন মিলবে ২১ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস

একাকী নামাজ পড়ার সময় ইকামত দেওয়া প্রসঙ্গে।

একাকী নামাজ পড়ার সময় ইকামত দেওয়া প্রসঙ্গে।

জলাবদ্ধতার নিরসন চাই

জলাবদ্ধতার নিরসন চাই

রাশিয়া মহাকাশে উপগ্রহ বিধ্বংসী অস্ত্র উৎক্ষেপন করেছে: যুক্তরাষ্ট্র

রাশিয়া মহাকাশে উপগ্রহ বিধ্বংসী অস্ত্র উৎক্ষেপন করেছে: যুক্তরাষ্ট্র

ফরিদপুরে বোমায় উড়ে গেল যুবকের আঙ্গুল চোখ ও কনুই

ফরিদপুরে বোমায় উড়ে গেল যুবকের আঙ্গুল চোখ ও কনুই

ইন্দুরকানীতে ৪র্থ শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে যুবক গ্রেফতার

ইন্দুরকানীতে ৪র্থ শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে যুবক গ্রেফতার

ঘুমের মধ্যেই মৃত্যু ‘বিশ্বের সবচেয়ে সুখী কুকুর’ কাবোসুর

ঘুমের মধ্যেই মৃত্যু ‘বিশ্বের সবচেয়ে সুখী কুকুর’ কাবোসুর

কালিয়াকৈরে ভয়াবহ আগুনে কলোনির শতাধিক ঘর পুড়ে ছাই

কালিয়াকৈরে ভয়াবহ আগুনে কলোনির শতাধিক ঘর পুড়ে ছাই

শেষ পর্যস্ত শাভিকে ছাঁটাই করল বার্সা

শেষ পর্যস্ত শাভিকে ছাঁটাই করল বার্সা

নেত্রকোণার পূর্বধলায় চিরকুট লেখে ট্রেনের নীচে ঝাঁপ দিয়ে নারীর আত্মহত্যা

নেত্রকোণার পূর্বধলায় চিরকুট লেখে ট্রেনের নীচে ঝাঁপ দিয়ে নারীর আত্মহত্যা

বিএনপি-জামায়াত দেশের রাষ্ট্রীয় ব্যবস্থা ধ্বংসের ষড়যন্ত্র করছে : নাছিম

বিএনপি-জামায়াত দেশের রাষ্ট্রীয় ব্যবস্থা ধ্বংসের ষড়যন্ত্র করছে : নাছিম

মাঠে নামতে মুখিয়ে আছে ইংল্যান্ড-পাকিস্তান

মাঠে নামতে মুখিয়ে আছে ইংল্যান্ড-পাকিস্তান

২১শ’ সাল নাগাদ বিশ্বে শিশু জন্মের হার ১.৭ শতাংশে নামবে

২১শ’ সাল নাগাদ বিশ্বে শিশু জন্মের হার ১.৭ শতাংশে নামবে

উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আগুন, ২ শতাধিক শেড পুড়ে ছাই

উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আগুন, ২ শতাধিক শেড পুড়ে ছাই