ফের পরমাণু বোমা ফাটাতে চলেছে উত্তর কোরিয়া!

Daily Inqilab ইনকিলাব ডেস্ক

১৪ মার্চ ২০২৩, ০৫:৫৩ পিএম | আপডেট: ৩০ এপ্রিল ২০২৩, ১১:৩৫ পিএম

 

পরমাণু বোমা ফাটাতে চলেছে উত্তর কোরিয়া! এমনটাই দাবি করেছে আমেরিকা। যদি এই দাবি সত্যি হয়, তাহলে এটা হবে পিয়ংইয়ংয়ের সপ্তম নিউক্লিয়ার টেস্ট বা পরীক্ষামূলক আণবিক বিস্ফোরণ।

সোমবার সংবাদমাধ্যামে কিমের কোরিয়াকে নিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ করেন মার্কিন পররাষ্ট্রদপ্তরের মুখপাত্র নেড প্রাইস। তিনি বলেন, ‘সপ্তম নিউক্লিয়ার টেস্টের জন্য সমস্ত প্রস্তুতি সেরে ফেলেছে উত্তর কোরিয়া। এমনটা হলে তা ভয়ানক উসকানিমূলক কাজ হবে। এমন পদক্ষেপ আঞ্চলিক নিরাপত্তা ও শান্তিকে প্রবলভাবে বিঘ্নিত করবে।’

উত্তর কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট তথা একনায়ক কিম জং উনের উসকানির বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক মঞ্চের সম্মিলিত পদক্ষেপের দাবি জানিয়ে তিনি আরও বলেন, ‘এমনটা হলে (নিউক্লিয়ার টেস্ট) গোটা বিশ্বের উচিত একসঙ্গে জবাব দেয়া। বিশেষ করে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের পাঁচ স্থায়ী সদস্যদের থেকে কড়া পদক্ষেপ আশা করা হচ্ছে।’

এদিকে, পরিস্থিতি জটিল করে ফের দু’টি স্বল্পপাল্লার ব্যালিস্টিক মিসাইল উৎক্ষেপণ করেছে উত্তর কোরিয়া। মঙ্গলবার এ কথা জানিয়েছে দক্ষিণ কোরিয়ার সেনাবাহিনী। কিমের ফৌজের ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণের কথা জানিয়েছেন জাপানের প্রধানমন্ত্রী ফুমিও কিশিদাও। তবে তাদের দেশে কোনও ক্ষয়ক্ষতি হয়নি বলেই মন্তব্য করেছেন তিনি।

উল্লেখ্য, সোমবার থেকেই যৌথ সামরিক মহড়া শুরু করেছে আমেরিকা ও দক্ষিণ কোরিয়ার ফৌজ। চলবে ২৩ মার্চ পর্যন্ত। তাই পালটা চাপ তৈরি করতেই পরপর মিসাইল উৎক্ষেপণ করছে কিমের সেনা। বলে রাখা ভাল, পরমাণু অস্ত্র তৈরি করতে বদ্ধপরিকর একনায়ক কিম। সম্প্রতি, তারই আদেশে একটি বিল পাশ করেছে উত্তর কোরিয়ার পার্লামেন্ট। সেখানে স্পষ্ট বলা হয়েছে, দেশের বা নেতৃত্বের অস্তিত্ব বিপন্ন হলে পরমাণু অস্ত্র ব্যবহার করতে পারবে সেনা। সূত্র: এপি।


বিভাগ : আন্তর্জাতিক


মন্তব্য করুন

HTML Comment Box is loading comments...

আরও পড়ুন

ইসরাইলের গণহত্যা তদন্তে সহযোগিতা করছেন আমাল ক্লুনি

ইসরাইলের গণহত্যা তদন্তে সহযোগিতা করছেন আমাল ক্লুনি

জয়ে আশাবাদি আশরাফ, রয়েছে ফলাফল ছিনিয়ে নেওয়ার শঙ্কা

জয়ে আশাবাদি আশরাফ, রয়েছে ফলাফল ছিনিয়ে নেওয়ার শঙ্কা

পশ্চিমাদের নিরাপত্তা গ্যারান্টির প্রতি আফ্রিকার দেশগুলোর কেন আস্থা নেই?

পশ্চিমাদের নিরাপত্তা গ্যারান্টির প্রতি আফ্রিকার দেশগুলোর কেন আস্থা নেই?

রইসির হেলিকপ্টার বিধ্বস্তের পর যুক্তরাষ্ট্রের সহায়তা চেয়েও পায়নি ইরান

রইসির হেলিকপ্টার বিধ্বস্তের পর যুক্তরাষ্ট্রের সহায়তা চেয়েও পায়নি ইরান

অবসরের পর চুরির দায়ের কাঠগড়ায় টেনিস তারকা

অবসরের পর চুরির দায়ের কাঠগড়ায় টেনিস তারকা

বেঙ্গালুরুতে রাতভর উদ্দাম পার্টি, মাদকের নেশায় উল্লাস বিধায়ক-নায়িকাদের!

বেঙ্গালুরুতে রাতভর উদ্দাম পার্টি, মাদকের নেশায় উল্লাস বিধায়ক-নায়িকাদের!

বাগেরহাটে আওয়ামী লীগ নেতাকে ছয় মাসের কারাদণ্ড

বাগেরহাটে আওয়ামী লীগ নেতাকে ছয় মাসের কারাদণ্ড

ভোটকেন্দ্রের মাঠে কুকুর, ৩ ঘণ্টায় ভোট পড়েছে মাত্র ১৯টি

ভোটকেন্দ্রের মাঠে কুকুর, ৩ ঘণ্টায় ভোট পড়েছে মাত্র ১৯টি

ইরানের সর্বোচ্চ নেতাকে চিঠি লিখেছেন পুতিন

ইরানের সর্বোচ্চ নেতাকে চিঠি লিখেছেন পুতিন

ইরানি জনগণের মাঝে রাইসি কেন জনপ্রিয় ছিলেন?

ইরানি জনগণের মাঝে রাইসি কেন জনপ্রিয় ছিলেন?

১১ সপ্তাহ বন্ধ থাকার পর খুললো হাইতির বিমানবন্দর

১১ সপ্তাহ বন্ধ থাকার পর খুললো হাইতির বিমানবন্দর

শিল্পীদের ভোটকে অসম্মান করবেন না, ডিপজলের উদ্দেশে রত্না

শিল্পীদের ভোটকে অসম্মান করবেন না, ডিপজলের উদ্দেশে রত্না

ঢাকায় পৌঁছেছেন অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ঢাকায় পৌঁছেছেন অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী

রাইসির মৃত্যুর পর এখন ইরানের ভবিষ্যৎ কী?

রাইসির মৃত্যুর পর এখন ইরানের ভবিষ্যৎ কী?

শত্রুরাই আমার আত্মবিশ্বাস বাড়িয়েছে: পরীমণি

শত্রুরাই আমার আত্মবিশ্বাস বাড়িয়েছে: পরীমণি

ভারতে সাজাভোগ শেষে দেশে ফিরলেন ৮ বাংলাদেশি নারী

ভারতে সাজাভোগ শেষে দেশে ফিরলেন ৮ বাংলাদেশি নারী

কান থেকে ফিরেই হাসপাতালে ঐশ্বরিয়া

কান থেকে ফিরেই হাসপাতালে ঐশ্বরিয়া

অপু বিশ্বাসের জিডি, তিনজনকে সতর্ক করলো পুলিশ

অপু বিশ্বাসের জিডি, তিনজনকে সতর্ক করলো পুলিশ

গণসংহতির বিক্ষোভ ঘিরে বাংলাদেশ ব্যাংকের সামনে নিরাপত্তা জোরদার

গণসংহতির বিক্ষোভ ঘিরে বাংলাদেশ ব্যাংকের সামনে নিরাপত্তা জোরদার

নাইজেরিয়ার মৃৎশিল্পে চিরায়ত ঐতিহ্য

নাইজেরিয়ার মৃৎশিল্পে চিরায়ত ঐতিহ্য