অস্ত্র নিয়ে মুসলিমদের বিরুদ্ধে বিজিপির মিছিল : জামশেদপুরে নামল দাঙ্গা পুলিশ

Daily Inqilab অনলাইন ডেস্ক

১০ এপ্রিল ২০২৩, ০৭:১০ পিএম | আপডেট: ৩০ এপ্রিল ২০২৩, ১১:৫৯ পিএম

 হিন্দুদের রামনবমী উৎসবের পতাকা ছেঁড়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে হিন্দু-মুসলিম সঙ্ঘর্ষের জেরে পূর্ব ভারতের শিল্পশহর জামশেদপুরে দাঙ্গা পুলিশ নামানো হয়েছে।

ঝাড়খন্ড রাজ্যের ওই শহরে জারি করা হয়েছে ১৪৪ ধারা, সাময়িকভাবে বন্ধ আছে মোবাইল ইন্টারনেট পরিষেবাও।

এদিকে পাশের রাজ্য বিহারে পুলিশ সাংবাদিক বৈঠক করে ঘোষণা করেছে, রামনবমীর সময় সেখানে যে সাম্প্রদায়িক সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে, তা রীতিমতো সোশ্যাল মিডিয়া ও হোয়াটসঅ্যাপে পরিকল্পনা এঁটে করা হয়েছিল।

উগ্র হিন্দুত্ববাদী সংগঠন বজরং দলের নালন্দা জেলার প্রধানকে তারা এই ঘটনায় প্রধান অভিযুক্ত হিসেবে চিহ্নিত করেছে।

বস্তুত রামনবমীর মিছিলকে কেন্দ্র করে ভারতের বিভিন্ন প্রান্তে যে দাঙ্গা ও সঙ্ঘর্ষ শুরু হয়েছিল, ওই উৎসবের ১২ দিন পরও তা এখনো থিতোয়নি।

পূর্ব ভারতের তিনটি রাজ্য– পশ্চিমবঙ্গ, বিহার ও ঝাড়খন্ডেই সবচেয়ে বেশি উত্তেজনা ও সহিংসতার আঁচ পড়েছে। ঘটনাচক্রে এই তিনটি রাজ্যেই এখন বিজেপিবিরোধী সরকার ক্ষমতায় আছে।

তবে মহারাষ্ট্র ও গুজরাটের মতো যে সব রাজ্যে বিজেপি এককভাবে বা শরিকদের নিয়ে ক্ষমতায় আছে, সেখানেও নানা জায়গাতে রামনবমীর সময় সাম্প্রদায়িক সঙ্ঘর্ষ হয়েছে।

পর্যবেক্ষকরা অনেকেই বলছেন, অতীতে রামনবমীর অনুষ্ঠান মূলত বাড়ির চার দেয়ালের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকলেও ইদানীং রাজপথে শোভাযাত্রা করে রামনবমী পালনের ধূম পড়েছে, বিভিন্ন হিন্দুত্ববাদী সংগঠনগুলো নানা রাজ্যে যার আয়োজন করছে।

বিশেষ করে যেখানে বিজেপি ক্ষমতায় নেই, সেখানে বিজেপি ও তাদের সমর্থক সংগঠনগুলো পায়ের তলায় শক্ত জমি পেতে সুকৌশলে রামনবমীকে ব্যবহার করছে বলেও তারা ধারণা করছেন।

জামশেদপুরে যা ঘটেছে
রামনবমীর সময় শহরের শাস্ত্রীনগর এলাকায় টাঙানো হিন্দুদের একটি পতাকা কেউ বা কারা ছিঁড়ে ফেলে ধর্মীয় অবমাননা করেছে, এই অভিযোগকে কেন্দ্র করে জামশেদপুরে থমথমে উত্তেজনা ছিল শনিবার (৮ এপ্রিল) থেকেই।

এই ঘটনায় দোষীদের অবিলম্বে গ্রেফতার করতে হবে, এই দাবিতে হিন্দুরা গতকাল আবার মিছিল বের করে এবং একটি থানাও ঘেরাও করা হয়।

রোববার সন্ধ্যায় এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে হিন্দু ও মুসলিমদের মধ্যে সঙ্ঘর্ষ বাঁধে, দু’পক্ষই পরস্পরের বিরুদ্ধে পাথর ছোঁড়ে এবং অনেকে আহত হয়।

ক্ষুব্ধ জনতা দু’টি দোকানও জ্বালিয়ে দেয়, একটি অটোরিক্সাতেও আগুন ধরানো হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ কাঁদানে গ্যাস ছোঁড়ে।

এরপর আজ সোমবার ভোররাতেই শহরে দাঙ্গা পুলিশ মোতায়েন করা হয় এবং কারফিউ জারি করা হয়।

জামশেদপুরের পুলিশ প্রধান প্রভাত কুমার অবশ্য দাবি করেছেন পরিস্থিতি এখন নিয়ন্ত্রণে আছে।

তিনি জানান, ‘শহরের জায়গায় জায়গায় সব জমায়েত ভেঙে দেয়া হয়েছে। পুরো এলাকায় বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে, নামানো হয়েছে এক কোম্পানি র‍্যাপিড অ্যাকশন ফোর্স বা র‍্যাফ-ও।

তবে যেকোনো দাঙ্গার পর যেমনটা হয়, জামশেদপুর এখন গুজবের নগরীতে পরিণত হয়েছে।

পূর্ব সিংভূম জেলার ডেপুটি কমিশনার বিজয়া যাদব গুজবে কান না-দিতে সাধারণ মানুষের কাছে আর্জি জানিয়েছেন। উত্তেজনা ছড়ানোর অভিযোগে বেশ কয়েকজনকে আটকও করা হয়েছে বলে তিনি জানান।

‘হোয়াটসঅ্যাপে দাঙ্গার প্ল্যান’
ওদিকে গত ৩০ মার্চ রামনবমীর মিছিলের পর পরই বিহার শরিফে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে, সাম্প্রদায়িক সঙ্ঘর্ষে একজন যুবকের মৃত্যুও হয়।

ওই রাজ্যের সাসারাম ও রোহটাস জেলাতেও রামনবমীকে কেন্দ্র করে ব্যাপক দাঙ্গা-হাঙ্গামা ঘটে।

এরপর আজ বিহার পুলিশের অতিরিক্ত মহাপরিচালক জিতেন্দ্র সিং গাঙ্গওয়ার সাংবাদিক বৈঠক করে জানান, বজরং দল সোশ্যাল মিডিয়াতে রীতিমতো পরিকল্পনা করে রাজ্যে এই সব সহিংসতা ঘটিয়েছে।

তিনি বলেন, ‘বজরং দলের নালন্দা জেলার প্রধান কুন্দন কুমার রামনবমীর ঠিক আগে একটি হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ খোলেন, যাতে ৪৫৬ জন সদস্য ছিলেন। উৎসবের সময় কিভাবে দাঙ্গা বাঁধানো হবে, ওই গ্রুপেই সেই পরিকল্পনা করা হয়েছিল। কুন্দন কুমার ও তার একজন সহযোগী কিষেণ কুমার ছিলেন এই গ্রুপের অ্যাডমিন।’

পুলিশ তাদের সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করতে শুরু করার পরই এই দু’জন থানায় আত্মসমর্পণ করেছেন বলে গাঙ্গওয়ার জানান। অন্য অভিযুক্তদের খোঁজে এখনো তল্লাসি চলছে।

এর আগে বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতিশ কুমারও বলেছিলেন, সাসারাম বা বিহার শরিফে আগে কখনো রামনবমীর সময় দাঙ্গাহাঙ্গামা হয়নি। এই ঘটনা ‘মোটেও স্বাভাবিক নয়’।

‘দাঙ্গার এই টাইমিং নতুন’
ভারতের বিভিন্ন প্রান্তে রামনবমীর সময় এই যে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গাহাঙ্গামা ঘটতে শুরু করেছে, তার বিশেষত্ব ও প্যাটার্ন নিয়ে একটি প্রতিবেদন তৈরি করেছেন আমেরিকার ব্রাউন ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক আশুতোষ ভার্শনে ও গবেষক ভানু জোশী।

ওই প্রতিবেদনে তারা বলেছেন, ভারতে হিন্দুদের দশেরা উৎসব বা শিয়া মুসলিমদের মহরমের সময় দুই সম্প্রদায়ের মধ্যে সঙ্ঘর্ষ বা উত্তেজনা প্রায়ই ঘটে থাকলেও ইদানীং রামনবমী বা হনুমান জয়ন্তীর সময় যে দাঙ্গা হতে দেখা যাচ্ছে, সেটা একটা নতুন ট্রেন্ড।

ভারতের স্বাধীনতার পর প্রথম তিন বা চার দশকে রামনবমী খুবই শান্তিপূর্ণ ও নিভৃত একটি ধর্মীয় উৎসব হিসেবেই পরিচিত ছিল।

এমনকি রামনবমীতে রাস্তায় বড় মিছিল বের করারও বিশেষ রেওয়াজ ছিল না বলে ওই গবেষকরা জানাচ্ছেন।

তিনি আরো বলেন, ‘কিন্তু ১৯৮০-এর দশকের শেষ দিকে বিজেপি ও তাদের অনুসারী হিন্দুত্ববাদী সংগঠনগুলো যখন রামজন্মভূমি আন্দোলন শুরু করেন, তখন থেকেই সেটা পাল্টাতে শুরু করে। জয় শ্রীরাম স্লোগানের মধ্যে দিয়ে ‘মর্যাদা পুরুষোত্তম রাম’ হিন্দুত্বের নতুন আইকন হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হন।’

রামনবমী হল আসলে হিন্দুদের ভগবান শ্রীরামের জন্মদিনের উৎসব। আর ওই জন্মদিন পালনের জন্য রাস্তায় বড় বড় ধর্মীয় শোভাযাত্রা ও মিছিল বের করা হতে থাকে।

গত কয়েক বছর ধরে সেসব মিছিলে প্রকাশ্যে অস্ত্রশস্ত্র প্রদর্শন করা হচ্ছে বা অন্য সম্প্রদায়ের প্রতি প্ররোচনামূলক স্লোগান দেয়া হচ্ছে, গান বাজানো হচ্ছে বলেও অভিযোগ উঠছে, যার জেরে বহু জায়গাতেই সূত্রপাত হচ্ছে অশান্তি ও সহিংসতার। সূত্র : বিবিসি


বিভাগ : আন্তর্জাতিক


মন্তব্য করুন

HTML Comment Box is loading comments...

আরও পড়ুন

জোয়ারের পানিতে ভেসে গেল নিঝুমদ্বীপের অর্ধকোটি টাকার মাছ,কোম্পানীগঞ্জের নিম্নাঞ্চল প্লাবিত

জোয়ারের পানিতে ভেসে গেল নিঝুমদ্বীপের অর্ধকোটি টাকার মাছ,কোম্পানীগঞ্জের নিম্নাঞ্চল প্লাবিত

পরিবেশের সুরক্ষায় সরকারের উদ্যোগ সফল করতে হবে : পরিবেশমন্ত্রী সাবের চৌধুরী

পরিবেশের সুরক্ষায় সরকারের উদ্যোগ সফল করতে হবে : পরিবেশমন্ত্রী সাবের চৌধুরী

জনপ্রতিনিধিরাই জনগণের ভাগ্য পরিবর্তন করতে পারে : স্থানীয় সরকার মন্ত্রী

জনপ্রতিনিধিরাই জনগণের ভাগ্য পরিবর্তন করতে পারে : স্থানীয় সরকার মন্ত্রী

হায়দরাবাদকে উড়িয়ে চ্যাম্পিয়ন কলকাতা

হায়দরাবাদকে উড়িয়ে চ্যাম্পিয়ন কলকাতা

মিশর থেকে ২শ’ ত্রাণবাহী ট্রাকের গাজায় প্রবেশ

মিশর থেকে ২শ’ ত্রাণবাহী ট্রাকের গাজায় প্রবেশ

বাইডেন ও শি’কে ইউক্রেন শান্তি সম্মেলনে যোগ দিতে জেলেনস্কির আমন্ত্রণ

বাইডেন ও শি’কে ইউক্রেন শান্তি সম্মেলনে যোগ দিতে জেলেনস্কির আমন্ত্রণ

সংস্কৃতির প্রশ্নে আমরা আপোষহীন : ধর্মমন্ত্রী

সংস্কৃতির প্রশ্নে আমরা আপোষহীন : ধর্মমন্ত্রী

সরকার অবশ্যই আদালতের রায় অনুযায়ী তারেককে ফিরিয়ে আনবে : প্রধানমন্ত্রী

সরকার অবশ্যই আদালতের রায় অনুযায়ী তারেককে ফিরিয়ে আনবে : প্রধানমন্ত্রী

উচ্চ পর্যায়ের দুর্নীতির শ্বেতপত্র প্রকাশের দাবি করলো টিআইবি

উচ্চ পর্যায়ের দুর্নীতির শ্বেতপত্র প্রকাশের দাবি করলো টিআইবি

ইন্ডিগো এয়ারলাইনসের স্বেচ্ছাচারিতা মালয়শিয়াগামী যাত্রীদের অনিশ্চিত ভবিষ্যৎ

ইন্ডিগো এয়ারলাইনসের স্বেচ্ছাচারিতা মালয়শিয়াগামী যাত্রীদের অনিশ্চিত ভবিষ্যৎ

গাবতলী পশুর হাটের ইজারা অভিনেতা ডিপজলের : আপিল বিভাগ

গাবতলী পশুর হাটের ইজারা অভিনেতা ডিপজলের : আপিল বিভাগ

ছুটি বাতিল, কুইক রেসপন্স টিমকে প্রস্তুত রাখতে নির্দেশনা ডিএনসিসি মেয়রের

ছুটি বাতিল, কুইক রেসপন্স টিমকে প্রস্তুত রাখতে নির্দেশনা ডিএনসিসি মেয়রের

৩৮ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে ন্যাশনাল লাইফ

৩৮ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে ন্যাশনাল লাইফ

সাংবাদিকদের নিয়ে এমপি সিদ্দিকুর রহমানের আপত্তিকর বক্তব্য প্রত্যাহারের দাবি

সাংবাদিকদের নিয়ে এমপি সিদ্দিকুর রহমানের আপত্তিকর বক্তব্য প্রত্যাহারের দাবি

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সুনাম ক্ষুন্নের জন্য অসাধু চক্রের ভুয়া বিজ্ঞপ্তি

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সুনাম ক্ষুন্নের জন্য অসাধু চক্রের ভুয়া বিজ্ঞপ্তি

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরে নতুন মহাপরিচালক আবদুস সামাদ

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরে নতুন মহাপরিচালক আবদুস সামাদ

ক্রিয়েটরদের নিরাপত্তা বাড়াতে কমিউনিটি গাইডলাইনে নতুন ফিচার যুক্ত করলো টিকটক

ক্রিয়েটরদের নিরাপত্তা বাড়াতে কমিউনিটি গাইডলাইনে নতুন ফিচার যুক্ত করলো টিকটক

আনিসুল হক সড়ক পুনরুদ্ধার: ভোগান্তি কমেছে লাখো মানুষের

আনিসুল হক সড়ক পুনরুদ্ধার: ভোগান্তি কমেছে লাখো মানুষের

তাপদাহের সাথে বাজারের অগ্নিমূল্যে জনজীবন অতিষ্ঠ : বাংলাদেশ ন্যাপ

তাপদাহের সাথে বাজারের অগ্নিমূল্যে জনজীবন অতিষ্ঠ : বাংলাদেশ ন্যাপ

মানুষ আশ্রয়কেন্দ্রে, নিম্মাঞ্চল প্লাবিত, আতঙ্কে মানুষ।

মানুষ আশ্রয়কেন্দ্রে, নিম্মাঞ্চল প্লাবিত, আতঙ্কে মানুষ।