যুদ্ধবন্ধ ইস্যুতে জাতিসংঘে বাংলাদেশের ভোট না দেওয়ার ব্যাখ্যা দিয়েছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়

Daily Inqilab ইনকিলাব ডেস্ক

২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ০১:৩৬ পিএম | আপডেট: ৩০ এপ্রিল ২০২৩, ১১:৪৯ পিএম

বাংলাদেশ

অংশ নেয়নি বাংলাদেশ। ভারত, পাকিস্তানের সঙ্গে বাংলাদেশও এ ইস্যুতে ভোটদানে বিরত ছিল। এর কারণ কি, সে ব্যাপারে ব্যাখ্যা দিয়েছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। গতকাল রোববার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সেহেলী সাবরীন এক ব্রিফিংয়ে জানান, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ‘সবার সঙ্গে বন্ধুত্ব ও ‘কারও প্রতি শত্রæতা নয়’ পররাষ্ট্রনীতি অনুসরণের কারণেই ইউক্রেন ইস্যুতে ভোটদানে নীরব থাকে বাংলাদেশ।
সেহেলী সাবরীন বলেন, আমরা এ সংঘাত বন্ধের আহবান জানাই। আমাদের অঙ্গীকারে প্রতিজ্ঞ জাতিসংঘ সনদের যে উদ্দেশ্য ও নীতি, তা যেকোনো মূল্যে বহাল রাখা উচিত। এ বিষয়ে আমরা প্রস্তাবিত রেজুলেশনে ইউক্রেনে একটি ব্যাপক, ন্যায্য ও স্থায়ী শান্তির প্রচারের জন্য জাতিসংঘের মহাসচিব এবং সদস্য দেশগুলোর প্রতি আহবান জানাতে গুরুত্ব দিই। তিনি বলেন, সবার সঙ্গে বন্ধুত্ব ও কারও প্রতি শত্রæতা নয়- জাতির পিতার এ নীতি অনুসারে বাংলাদেশ একটি শান্তি কেন্দ্রিক পররাষ্ট্রনীতি অনুসরণ করে। সার্বভৌম, সমস্ত রাষ্ট্রের আঞ্চলিক অখন্ডতার প্রতি শ্রদ্ধা, আন্তর্জাতিক বিরোধের শান্তিপূর্ণ নিষ্পত্তি ও সম্মানের নীতির ওপর ভিত্তি করে আমাদের পররাষ্ট্রনীতি জাতিসংঘের সনদে উল্লিখিত নীতির সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ। বাংলাদেশ ইউক্রেনের পরিস্থিতি, বিশেষ করে বেসামরিক প্রাণহানি, সংঘাতপূর্ণ অঞ্চলে মানবিক পরিস্থিতির অবনতি ও বিশ্বজুড়ে আর্থ-সামাজিক প্রভাবের বিষয়ে উদ্বিগ্ন।
পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বলেন, আমরা দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি, আন্তর্জাতিক বিরোধের শান্তিপূর্ণ নিষ্পত্তি অবশ্যই সর্বজনীনভাবে সর্বত্র সবার জন্য, সব পরিস্থিতিতে কোনো প্রকার ব্যতিক্রম ছাড়াই মেনে চলতে হবে। যদিও বর্তমান রেজুলেশনের চ‚ড়ান্ত উদ্দেশ্য ইউক্রেনে একটি ব্যাপক, ন্যায্য এবং দীর্ঘস্থায়ী শান্তি খোঁজা। আমরা বিশ্বাস করি, বর্তমান সংঘাতের যেকোনো অর্থবহ ও টেকসই সমাধানের জন্য অবশ্যই সংঘাতে জড়িত পক্ষগুলোর মধ্যে নিবিড় ক‚টনৈতিক সম্পৃক্ততা ও সংলাপ প্রয়োজন। আমাদের মতে, এই গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টটি রেজুলেশনে অনুপস্থিত ছিল। সে কারণে আমরা বিরত থাকতে বাধ্য ছিলাম।
গত ২৩ ফেব্রুয়ারি ‘ইউএন চার্টার প্রিন্সিপ্যাল আন্ডারলাইয়িং এ কমপ্রিহেন্সিভ, জাস্ট অ্যান্ড লাস্টিং পিস ইন ইউক্রেন’ শীর্ষক রেজুলেশনের ভোট অনুষ্ঠিত হয়। এতে পক্ষে ভোট দেয় ১৪১ দেশ। ভোট দেয়নি ভারত, বাংলাদেশ, পাকিস্তানসহ ৩২ দেশ। বিপক্ষে ছিল- বেলারুশ, সিরিয়া, উত্তর কোরিয়া, মালী, ইরিত্রিয়া ও রাশিয়াসহ সাতটি দেশ। ভোটদান থেকে বিরত থাকার জন্য বাংলাদেশ ধন্যবাদ জানিয়েছে রাশিয়া।


বিভাগ : জাতীয়


মন্তব্য করুন

HTML Comment Box is loading comments...

আরও পড়ুন

কুড়িগ্রামে বন্যায় নৌকা ডুবি, নিখোঁজ ৭

কুড়িগ্রামে বন্যায় নৌকা ডুবি, নিখোঁজ ৭

উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে প্রতিরক্ষা চুক্তি করলেন পুতিন

উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে প্রতিরক্ষা চুক্তি করলেন পুতিন

ভারতীয় ‘গুপ্তচর’দের বিতাড়িত করেছে অস্ট্রেলিয়া

ভারতীয় ‘গুপ্তচর’দের বিতাড়িত করেছে অস্ট্রেলিয়া

জয়ের ধারায় ইন্টার মায়ামি

জয়ের ধারায় ইন্টার মায়ামি

সমতায় শেষ স্কটল্যান্ড-সুইজারল্যান্ড ম্যাচ

সমতায় শেষ স্কটল্যান্ড-সুইজারল্যান্ড ম্যাচ

হাঙ্গেরির বিপক্ষেও জার্মানির সহজ জয়

হাঙ্গেরির বিপক্ষেও জার্মানির সহজ জয়

সউদি আরবে এবার অন্ততঃ ৫৫০ হজযাত্রীর মৃত্যু

সউদি আরবে এবার অন্ততঃ ৫৫০ হজযাত্রীর মৃত্যু

নতুন মৌসুমের শুরুতেই সিটির প্রতিপক্ষ চেলসি

নতুন মৌসুমের শুরুতেই সিটির প্রতিপক্ষ চেলসি

বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে দুধকুমার নদের পানি, ভাঙ্গন আতঙ্কে নদী পাড়ের মানুষ।

বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে দুধকুমার নদের পানি, ভাঙ্গন আতঙ্কে নদী পাড়ের মানুষ।

ডেনমার্কের বিপক্ষে ফোডেনের ভালো খেলার আশা ইংল্যান্ড কোচের

ডেনমার্কের বিপক্ষে ফোডেনের ভালো খেলার আশা ইংল্যান্ড কোচের

বাগেরহাটে বজ্রপাতে দুই কৃষকের মৃত্যু, আহত ১

বাগেরহাটে বজ্রপাতে দুই কৃষকের মৃত্যু, আহত ১

চীন-নেপাল সম্পর্ক ক্রমেই গভীর হচ্ছে

চীন-নেপাল সম্পর্ক ক্রমেই গভীর হচ্ছে

বঞ্চিতদের মাঝে কোরবানির গোশত বিতরণ

বঞ্চিতদের মাঝে কোরবানির গোশত বিতরণ

কুষ্টিয়ায় এশিয়ান টিভির সাংবাদিক রিজুর উপর হামলা, গুরুতর আহতাবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি

কুষ্টিয়ায় এশিয়ান টিভির সাংবাদিক রিজুর উপর হামলা, গুরুতর আহতাবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি

দু'পক্ষের সংঘর্ষে নরসিংদীতে পুলিশ কর্মকর্তাসহ ৫ জন গুলিবিদ্ধ

দু'পক্ষের সংঘর্ষে নরসিংদীতে পুলিশ কর্মকর্তাসহ ৫ জন গুলিবিদ্ধ

এলডব্লিউজি সনদ না থাকায় চামড়া শিল্পের কাংখিত অগ্রগতি ব্যাহত : বিটিএ

এলডব্লিউজি সনদ না থাকায় চামড়া শিল্পের কাংখিত অগ্রগতি ব্যাহত : বিটিএ

সিলেটসহ উত্তরাঞ্চলের বন্যার্তদের সাহায্যার্থে এগিয়ে আসুন

সিলেটসহ উত্তরাঞ্চলের বন্যার্তদের সাহায্যার্থে এগিয়ে আসুন

ঈদুল আজহায় আনন্দ-বিনোদনে প্রবাসী কর্ণফুলী ক্রীড়া পরিষদের ত্রিদেশীয় ফুটবল টুর্ণামেন্ট

ঈদুল আজহায় আনন্দ-বিনোদনে প্রবাসী কর্ণফুলী ক্রীড়া পরিষদের ত্রিদেশীয় ফুটবল টুর্ণামেন্ট

সরকার দলীয় লোকজন দেশের সরকারি-বেসরকারি ব্যাংকগুলোকে খালি করে দিয়েছে : প্রিন্সিপাল মোসাদ্দেক বিল্লাহ মাদানি

সরকার দলীয় লোকজন দেশের সরকারি-বেসরকারি ব্যাংকগুলোকে খালি করে দিয়েছে : প্রিন্সিপাল মোসাদ্দেক বিল্লাহ মাদানি

ভূ-মধ্যসাগরে নিহত ১১ জন মাদারীপুরের ৩জন

ভূ-মধ্যসাগরে নিহত ১১ জন মাদারীপুরের ৩জন