ঢাকা   বৃহস্পতিবার, ৩০ মার্চ ২০২৩ | ১৬ চৈত্র ১৪২৯

৮ ঘণ্টায়ও আগুন নেভেনি, সেনা সহায়তা চাওয়া হতে পারে

Daily Inqilab সীতাকুণ্ড চট্টগ্রাম উপজেলা সংবাদদাতা

১১ মার্চ ২০২৩, ০৬:৪৭ পিএম | আপডেট: ৩০ মার্চ ২০২৩, ০৫:৪৮ পিএম

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে তুলার গোডাউনে লাগা আগুন দীর্ঘ ৮ ঘণ্টা পেরিয়ে গেলেও নিয়ন্ত্রণে আসেনি। কবে নাগাদ আগুন নিয়ন্ত্রণে আসতে পারে সেটিও নিশ্চিত করে জানাতে পারেনি ফায়ার সার্ভিসের কর্মকর্তারা। আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে প্রয়োজনে সশস্ত্র বাহিনীর সহায়তা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক (ডিসি) আবুল বাশার মো. ফখরুজ্জামান।

শনিবার (১১ মার্চ) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলার ছোট কুমিরা নেমসন ডিপোর পাশে এসএল গ্রুপের মালিকানাধীন ইউনিটেক্স গ্রুপের ভাড়ায় নেওয়া একটি তুলার গোডাউনে এ আগুনের সূত্রপাত হয়। এ দুর্ঘটনায় এখনো হতাহতের কোনো খবর পাওয়া যায়নি। জেলা প্রশাসন জানায়, সপ্তাহখানেক ধরে এসএল গ্রুপের গোডাউনটিতে ওয়েল্ডিংয়ের কাজ চলছিল। ধারণা করা হচ্ছে, ওয়েল্ডিংয়ের আগুনের স্ফূলিঙ্গ থেকেই আগুনের সূত্রপাত হয়েছে। সন্ধ্যায় ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন ডিসি আবুল বাশার মো. ফখরুজ্জামান। কুমিরা ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র স্টেশন অফিসার সুলতান মাহমুদ জানিয়েছেন, পানি সংকটের কারণে আগুন নিয়ন্ত্রণে বেগ পেতে হচ্ছে। আগুনে হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

এর আগে, গত শনিবার (৪ মার্চ) সীতাকুণ্ডের সোনাইছড়ি ইউনিয়নের কদমরসুল কেশবপুর এলাকার সীমা অক্সিজেন লিমিটেড নামে কারখানায় বিস্ফোরণ এবং অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। এতে এ পর্যন্ত সাতজন নিহত এবং ৩৩ জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। বিস্ফোরণের ঘটনায় সোমবার রাতে সীতাকুণ্ড থানায় মামলা দায়ের হয়।

জানা গেছে, গত বছরের ৪ জুন রাতে সীতাকুণ্ডের কদমরসুল এলাকায় অবস্থিত বিএম ডিপোতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড ঘটে। আগুন লাগার ঘণ্টা খানেকের মধ্যে সেখানে বিকট শব্দে বিস্ফোরণ হয়। এরপর টানা ৮৬ ঘণ্টা আগুন জ্বলতে থাকে। একপর্যায়ে সেনাবাহিনী, পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। ওই দুর্ঘটনায় আশপাশে থাকা ফায়ার সার্ভিসকর্মী ও শ্রমিকসহ ৫১ জন নিহত হন। এছাড়া আহত হন প্রায় দুই শতাধিক। পাশাপাশি ১৫৬টি আমদানি-রপ্তানি কনটেইনার ক্ষতিগ্রস্ত হয়।


বিভাগ : জাতীয়


আরও পড়ুন

চীনের আধুনিকায়ন বিশ্ব উন্নয়নে নতুন পথ দেখিয়েছে

চীনের আধুনিকায়ন বিশ্ব উন্নয়নে নতুন পথ দেখিয়েছে

গ্রাহকের দেওয়া টিপ দ্বিগুণ করে রাইডারকে দেবে ফুডপ্যান্ডা

গ্রাহকের দেওয়া টিপ দ্বিগুণ করে রাইডারকে দেবে ফুডপ্যান্ডা

ডলারের দাম বেড়েছে, রপ্তানিতে মিলবে ১০৫ টাকা

ডলারের দাম বেড়েছে, রপ্তানিতে মিলবে ১০৫ টাকা

শিপার্স কাউন্সিল অফ বাংলাদেশের বোর্ড সভা অনুষ্ঠিত

শিপার্স কাউন্সিল অফ বাংলাদেশের বোর্ড সভা অনুষ্ঠিত

গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে মার্কিন সাংবাদিক ইভান গার্শকোভিচকে গ্রেপ্তার করলো রাশিয়া

গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে মার্কিন সাংবাদিক ইভান গার্শকোভিচকে গ্রেপ্তার করলো রাশিয়া

মারা গেলেন আত্মহত্যা চেষ্টা করা শেকৃবির সেই ছাত্রী

মারা গেলেন আত্মহত্যা চেষ্টা করা শেকৃবির সেই ছাত্রী

কাল খুলছে মেট্রোরেলের উত্তরা দক্ষিণ ও শেওড়াপাড়া স্টেশন

কাল খুলছে মেট্রোরেলের উত্তরা দক্ষিণ ও শেওড়াপাড়া স্টেশন

আমিরাতে রমজান মাসে ভিক্ষাবৃত্তি নিষিদ্ধ হাতেনাতে ধরতে পারলে পাঁচ হাজার দিরহাম জরিমানা ও তিন মাসের জেল

আমিরাতে রমজান মাসে ভিক্ষাবৃত্তি নিষিদ্ধ হাতেনাতে ধরতে পারলে পাঁচ হাজার দিরহাম জরিমানা ও তিন মাসের জেল

সাংবাদিক শামসুজ্জামানের মুক্তির দাবি কুবি সাংবাদিক সমিতির

সাংবাদিক শামসুজ্জামানের মুক্তির দাবি কুবি সাংবাদিক সমিতির

সাংবাদিক হয়রানি ও আটকের ঘটনায় যুক্তরাষ্ট্রসহ ১২ দেশের উদ্বেগ

সাংবাদিক হয়রানি ও আটকের ঘটনায় যুক্তরাষ্ট্রসহ ১২ দেশের উদ্বেগ

মতলবে ৩ প্রতিষ্ঠানকে ৭ হাজার টাকা জরিমানা

মতলবে ৩ প্রতিষ্ঠানকে ৭ হাজার টাকা জরিমানা

আল্লামা শিব্বীর আহমদের দাফন সম্পন্ন

আল্লামা শিব্বীর আহমদের দাফন সম্পন্ন

ইসরাইলে দূতাবাস স্থাপন করেছে আজারবাইজান

ইসরাইলে দূতাবাস স্থাপন করেছে আজারবাইজান

কোটালীপাড়ায় অবৈধভাবে সরকারি জায়গা দখল করে তিনতলা ভবন নির্মানের চেষ্টা

কোটালীপাড়ায় অবৈধভাবে সরকারি জায়গা দখল করে তিনতলা ভবন নির্মানের চেষ্টা

সুনামগঞ্জে পৃথক দুটি মামলায় একজনের মৃত্যুদন্ড, দুই জনের যাবজ্জীবন

সুনামগঞ্জে পৃথক দুটি মামলায় একজনের মৃত্যুদন্ড, দুই জনের যাবজ্জীবন

বাখমুতে প্রতিদিন ৫০০ সৈন্য হারাচ্ছে ইউক্রেন

বাখমুতে প্রতিদিন ৫০০ সৈন্য হারাচ্ছে ইউক্রেন

আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে,পুলিশের প্রতি জনগণের আস্থা বেড়েছে: আইজিপি

আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে,পুলিশের প্রতি জনগণের আস্থা বেড়েছে: আইজিপি

সুপ্রিম কোর্ট বারে তলবি সভা নির্বাচনের নতুন তারিখ ১৪-১৫ জুন

সুপ্রিম কোর্ট বারে তলবি সভা নির্বাচনের নতুন তারিখ ১৪-১৫ জুন

গর্ভাবস্থার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া, চেহারাই পাল্টে গেল অন্তঃসত্ত্বা যুবতীর!

গর্ভাবস্থার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া, চেহারাই পাল্টে গেল অন্তঃসত্ত্বা যুবতীর!

১৮ বছর পর ফের হিজাব পরিধানের অনুমতি পেল জার্মানির মুসলিম নারীরা

১৮ বছর পর ফের হিজাব পরিধানের অনুমতি পেল জার্মানির মুসলিম নারীরা