দিনের ভোট রাতে করার চেষ্টা করলে প্রতিহত করা হবে -ইসলামী আন্দোলনের আমীর

Daily Inqilab স্টাফ রিপোর্টার

০৫ মে ২০২৩, ০৭:৪৪ পিএম | আপডেট: ০৬ মে ২০২৩, ১২:০১ এএম

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আমীর মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম পীর সাহেব চরমোনাই বলেছেন, মালিক শ্রমিকদের সম্পর্ক হবে ভাই ভাই। সে সম্পর্ক কি আমাদের সমাজে আছে। স্বাধীনতার ৫২ বছরে যারা ক্ষমতায় এসেছেন তারাই দেশের হাজার হাজার কোটি টাকা লোপাট করে সুইচ ব্যাংকে রেখেছেন। যারা ধোঁকা দিয়ে বোকা বানাচ্ছেন, আপনাদের সেই সুযোগ আর নেই। ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ আপনাদের মুখোশ উম্মোচন করবে।

আজ শুক্রবার চাঁদপুর হাসান আলী হাই স্কুল মাঠে ইসলামী শ্রমিক আন্দোলন বাংলাদেশ চাঁদপুর জেলা শাখার আয়োজনে শ্রমিক সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। ইসলামী শ্রমিক আন্দোলন বাংলাদেশ চাঁদপুর জেলা শাখার সভাপতি মুহাম্মদ আবুল বাশার তালুকদারের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বত্তব্য রাখেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় সংখ্যালঘু বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা মকবুল হোসাইন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক (ঢাকা বিভাগীয়) অধ্যাপক সৈয়দ বেলায়েত হোসেন, ইসলামী শ্রমিক আন্দোলন বাংলাদেশের জয়েন্ট সেক্রেটারী জেনারেল আলহাজ মুফতি মোস্তফা কামাল, ইসলামী শ্রমিক আন্দোলন বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক (কুমিল্লা বিভাগ) মাওলানা মুহাম্মদ মহিউদ্দিন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ চাঁদপুর জেলা শাখার সভাপতি শেখ মুহাম্মদ জয়নাল আবেদীন।
জেলা শ্রমিক আন্দোলনের সাধারণ সম্পাদক মো. মহিবুল্লাহ ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাওলানা আব্দুল কাদেরের যৌথ পরিচালনায় আরো বক্তব্য রাখেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ চাঁদপুর জেলা শাখার সেক্রটারী ইয়াছিন রাশেদ সানী, আলহাজ মামুনুর রশিদ বেলাল, মাওলানা হেলাল আহমদ, মো. মনির হোসেন পাঠান, মাওলানা নুরুদ্দিন, পীরজাদা মাওলানা আফসার উদ্দিন, এইচ.এম নিজাম, ডাঃ বেলাল হোসেন, মুফতি আবু নাঈম তানভীর, মাওলানা আনসার আহমাদ, মাওলানা ফখরুল ইসলাম, মুহাম্মদ সেলিম হোসাইন, কামাল গাজী। সমাবেশে বিভিন্ন উপজেলা ও ইউনিয়ন শাখা থেকে শত শত নেতাকর্মী মিছিল নিয়ে অংশগ্রহণ করেন।

পীর সাহেব চরমোনাই বলেন, ৫টি সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ইসলামী আন্দোলনের প্রার্থী রয়েছে এবং শক্ত অবস্থানে আছে। কেউ যদি দিনের ভোট রাতে দেয়ার চেষ্টা করেন তাহলে কঠিনভাবে প্রতিহত করা হবে। জনগণ আর দিনের ভোট রাতে দেখতে চায় না। আমরা জাতীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনের প্রস্তাব দিয়েছে। সামনে জাতীয় নির্বাচন আসছে, সরকার যদি সুষ্ঠু ও ন্যায়ের পক্ষে জাতীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন না দেয়, তাহলে এখন পর্যন্ত আমাদের সিদ্ধান্ত রয়েছে, আমরা নির্বাচনে যাব না।
জাতীয় শিক্ষক ফোরামের সভা অনুষ্ঠিত ঃ
জাতীয় শিক্ষক ফোরাম এর কেন্দ্রীয় সভাপতি অধ্যাপক নাছির উদ্দীন খান বলেছেন, কিশোর অপরাধ বৃদ্ধি পাবার কারণেই গত ৩০ এপ্রিল রাজবাড়ী জেলার পাংশায় কিশোর ছিনতাইকারীদের হাতে স্কুল শিক্ষককে খুন হতে হল। মাথায় বন্দুক ঠেকিয়ে হত্যা করা ছিনতাইকারীদের পুলিশ গ্রেফতার করলেও একজন শিক্ষককেতো আর ফিরে পাওয়া যাবে না। লক্ষ্য করলে দেখা যাচ্ছে, স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীর একাংশ এখন মাদক,ছিনতাইসহ নানা অপরাধে জড়িত। একইভাবে গত ২৮ এপ্রিল জাতীয় শিক্ষক ফোরাম এর কেন্দ্রীয় সহকারী প্রশিক্ষণ সম্পাদক মুনশি আবু দারদাকে ফরিদপুরের ভাঙায় মাইক্রো বাসে ধাক্কা দিয়ে উঠিয়ে নির্যাতন করে টাকা আদায় করে আহতবস্থায় ছেড়ে দেয়া হয়েছে। মানুষের নৈতিকতার অবক্ষয় ঠেকানো না গেলে এবং নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার না করলে পরিস্থিতি আরও খারাপ হতে বাধ্য। এজন্য নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদারের পাশাপাশি শিক্ষার সর্বস্তরে ধর্মীয় শিক্ষা ও দীক্ষা বাধ্যতামূলক করতে হবে। কারণ মানুষের নৈতিক শিক্ষা ও দীক্ষা অর্জনের মাধ্যমে খোদাভীতি সৃষ্টির পাশাপাশি অন্যায়ের প্রতি ঘৃণাবোধ সৃষ্টি হয়। আজ শুক্রবার সকাল ১০ টায় কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত কেন্দ্রীয় কমিটির দ্বি মাসিক বৈঠকে জাতীয় শিক্ষক ফোরাম এর কেন্দ্রীয় সভাপতি এসব কথা বলেন।
সংগঠনের সেক্রেটারি জেনারেল প্রভাষক আব্দুস সবুর এর পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় নেতৃবৃন্দ আরও বলেন, শুধু বিজ্ঞান চর্চার মাধ্যমে সভ্য জাতি গড়ে উঠেনা বরং ধর্মীয় নীতি নৈতিকতার শিক্ষার মাধ্যমে আদর্শ সভ্যতা বিনির্মান করা যায়। শিক্ষার সর্বস্তরে বিজ্ঞান চর্চার পাশাপাশি ধর্মীয় নীতি নৈতিকতার শিক্ষা ও দীক্ষা বাধ্যতামূলক করার মাধ্যমে উন্নত সমাজ ও কল্যাণ রাষ্ট্র গঠনে আত্মনিয়োগ করতে হবে।

 


বিভাগ : জাতীয়


মন্তব্য করুন

HTML Comment Box is loading comments...

আরও পড়ুন

তলিয়ে গেছে সুন্দরবনের করমজল পর্যটনকেন্দ্র

তলিয়ে গেছে সুন্দরবনের করমজল পর্যটনকেন্দ্র

বৈরী সম্পর্কের বরফ গলিয়ে সমঝোতা চাইছেন তাইওয়ানের প্রেসিডেন্ট

বৈরী সম্পর্কের বরফ গলিয়ে সমঝোতা চাইছেন তাইওয়ানের প্রেসিডেন্ট

সেন্টমার্টিনে ঘূর্ণিঝড় রিমালের প্রভাবে বেড়েছে বৃষ্টি-বাতাস ও পানির উচ্চতা

সেন্টমার্টিনে ঘূর্ণিঝড় রিমালের প্রভাবে বেড়েছে বৃষ্টি-বাতাস ও পানির উচ্চতা

এমপি আনার হত্যা: শিলাস্তির সর্বোচ্চ শাস্তি চান পরিবার

এমপি আনার হত্যা: শিলাস্তির সর্বোচ্চ শাস্তি চান পরিবার

ঘূর্ণিঝড় রেমাল : সব মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ছুটি বাতিল

ঘূর্ণিঝড় রেমাল : সব মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ছুটি বাতিল

ফের পুতিনের বিরুদ্ধে আপত্তিকর বক্তব্য বাইডেনের

ফের পুতিনের বিরুদ্ধে আপত্তিকর বক্তব্য বাইডেনের

দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া রুটে লঞ্চ চলাচল বন্ধ

দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া রুটে লঞ্চ চলাচল বন্ধ

ভয়েস চেঞ্জ অ্যাপে গলা বদলে ৭ শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ

ভয়েস চেঞ্জ অ্যাপে গলা বদলে ৭ শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ

ঘূর্ণিঝড় ‘রেমাল’ : বন্ধ হলো বরিশাল বিমানবন্দরের সব কার্যক্রম

ঘূর্ণিঝড় ‘রেমাল’ : বন্ধ হলো বরিশাল বিমানবন্দরের সব কার্যক্রম

হাতিয়ার সঙ্গে সারা দেশের নৌ চলাচল বন্ধ

হাতিয়ার সঙ্গে সারা দেশের নৌ চলাচল বন্ধ

রয়েল এয়ার ফোর্সের বিমান বিধ্বস্ত, পাইলট নিহত

রয়েল এয়ার ফোর্সের বিমান বিধ্বস্ত, পাইলট নিহত

কুয়াকাটায় আবাসিক হোটেলগুলোকে আশ্রয়স্থল হিসাবে খুলে দেয়া হয়েছে

কুয়াকাটায় আবাসিক হোটেলগুলোকে আশ্রয়স্থল হিসাবে খুলে দেয়া হয়েছে

রাজকোটে গেমিং জোন অগ্নিকাণ্ডে নিহত বেড়ে ৩২

রাজকোটে গেমিং জোন অগ্নিকাণ্ডে নিহত বেড়ে ৩২

ঘূর্ণিঝড় রেমালের প্রভাবে পশ্চিমবঙ্গে রেড অ্যালার্ট জারি

ঘূর্ণিঝড় রেমালের প্রভাবে পশ্চিমবঙ্গে রেড অ্যালার্ট জারি

উপকূলে রেমালের প্রভাব, আতঙ্ক জনমনে

উপকূলে রেমালের প্রভাব, আতঙ্ক জনমনে

যশোরে 'রেমাল' মোকাবিলায় ২২৪৫ আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত

যশোরে 'রেমাল' মোকাবিলায় ২২৪৫ আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত

উখিয়ায় ১০ কোটি টাকার ক্রিস্টাল মেথসহ ১ রোহিঙ্গা যুবক আটক

উখিয়ায় ১০ কোটি টাকার ক্রিস্টাল মেথসহ ১ রোহিঙ্গা যুবক আটক

নোয়াখালীতে ইউপি সদস্যকে কুপিয়ে জখম করায় তরুণকে পিটিয়ে হত্যা

নোয়াখালীতে ইউপি সদস্যকে কুপিয়ে জখম করায় তরুণকে পিটিয়ে হত্যা

গরমে সিদ্ধ হচ্ছে উত্তর ভারত, তাপমাত্রা ৫০ ডিগ্রি ছুঁই ছুঁই

গরমে সিদ্ধ হচ্ছে উত্তর ভারত, তাপমাত্রা ৫০ ডিগ্রি ছুঁই ছুঁই

সিদ্ধিরগঞ্জে ময়লার গাড়ির ধাক্কায় গর্ভবতী নারী নিহত

সিদ্ধিরগঞ্জে ময়লার গাড়ির ধাক্কায় গর্ভবতী নারী নিহত