ইবি ছাত্রীকে র‌্যাগিং, আটকে আছে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত প্রক্রিয়া

Daily Inqilab ইবি সংবাদদাতা

২৭ মার্চ ২০২৩, ০৬:১০ পিএম | আপডেট: ৩০ এপ্রিল ২০২৩, ১০:২৪ পিএম

সম্প্রতি ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) দেশরত্ন শেখ হাসিনা হলে নবীন ছাত্রী ফুলপরি খাতুনকে নির্যাতনের ঘটনায় জড়িতদের বিষয়ে এখন পর্যন্ত চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হয়নি। তদন্তে নির্যাতনের সত্যতা পেয়ে উচ্চ আদালতের নির্দেশে অভিযুক্তদের সাময়িক বহিষ্কার করে তাদের কেনো স্থায়ী বহিষ্কার করা হবে না তার কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়। কারণ দর্শানোর সময় শেষ হওয়ার দুই সপ্তাহ পেরুলেও কোন সিদ্ধান্ত নেয়নি কর্তৃপক্ষ।

জানা যায়, তদন্তে নির্যাতনের সত্যতা পেলে উচ্চ আদালতের নির্দেশে অভিযুক্তদের সাময়িক বহিষ্কার করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। একইসঙ্গে তাদের কেনো স্থায়ী বহিষ্কার করা হবে না জানতে চেয়ে কারণ দর্শানোর নোটিশ জারি করা হয়। অভিযুক্তদের ১৫ মার্চের মধ্যে জবাব দিতে বলা হয়। এতে তাবাসসুম ও মোয়াবিয়া জবাব দিলেও বাকি তিনজন জবাব না দিয়ে পক্ষান্তরে সময় বাড়ানোর আবেদন করে। এতে আটকে আছে চূড়ান্ত সিদ্ধান্তের প্রক্রিয়া।

রেজিস্ট্রার দপ্তরের উপ-রেজিস্ট্রার সূত্রে জানা যায়, গত ১৩ মার্চ অভিযুক্তদের স্থানীয় বহিষ্কারের বিষয়ে কারণ দর্শানোর নোটিশ ও সময় বাড়ানোর আবেদন সংক্রান্ত ফাইল রেজিস্ট্রার দপ্তরে জমা দেওয়া হয়। পরের দিন রেজিস্ট্রারের এন্ট্রি করা ফাইলটি আইন প্রশাসক দপ্তর পাঠানো হয়।

এদিকে সম্প্রতি দপ্তরপ্রধানরা ফাইল সম্পর্কে সঠিক তথ্য না জানার বিষয় নিয়ে গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে। এতে ফাইলের বিষয়ে দপ্তরপ্রধানরা একে অন্যের উপর দায় চাপানোর বিষয়ে উঠে আসে।

এ বিষয়ে রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) এইচ এম আলী হাসান বলেন, ফাইলটি আইন প্রশাসক দপ্তরে সময়মত পাঠানো হয়েছে। ফাইলটি ওখানে আটকে আছে। আইন প্রশাসক বাহিরে আছে। আগামীকাল তিনি আসবেন। আসলে ভিসি স্যারের সাথে কথা বলে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

ফাইলের বিষয়ে আইন প্রশাসক অধ্যাপক ড. আনিচুর রহমান বলেন, আমি ঢাকায় আছি। তবে ফাইলটি দেখেছি। আরও ভালোভাবে দেখে মতামত দিবো।

উল্লেখ্য, দেশরত্ন শেখ হাসিনা হলে গত ১১ ও ১২ই ফেব্রুয়ারি দুই দফায় ফিন্যান্স এন্ড ব্যাংকিং বিভাগের ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের ছাত্রী ফুলপরীকে রাতভর র‌্যাগিং, শারীরিকভাবে নির্যাতন ও বিবস্ত্র করে ভিডিও ধারণ করার অভিযোগ উঠে। এতে শাখা ছাত্রলীগ সহ-সভাপতি সানজিদা চৌধুরী অন্তরা, তাবাসসুম ইসলাম, ইশরাত জাহান মীম, হালিমা আক্তার উর্মি ও মুয়াবিয়া জাহানসহ কয়েকজন জড়িত ছিলেন বলে অভিযোগ ভুক্তভোগীর।


বিভাগ : বাংলাদেশ


মন্তব্য করুন

HTML Comment Box is loading comments...

আরও পড়ুন

ছাত্রলীগ নেতার অন্তরঙ্গ ভিডিও, সমালোচনার ঝড়

ছাত্রলীগ নেতার অন্তরঙ্গ ভিডিও, সমালোচনার ঝড়

সুনামগঞ্জের দেখার হাওরে কৃষকদের নিয়ে ধান কাটলেন কৃষিমন্ত্রী

সুনামগঞ্জের দেখার হাওরে কৃষকদের নিয়ে ধান কাটলেন কৃষিমন্ত্রী

নীলফামারীতে ৩ হাজার ১৭০ জন চাষির মাঝে বিনামূল্যে কৃষি উপকরণ বিতরণ

নীলফামারীতে ৩ হাজার ১৭০ জন চাষির মাঝে বিনামূল্যে কৃষি উপকরণ বিতরণ

চুয়াডাঙ্গায় তীব্র তাপ প্রবাহ, সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৪১.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস

চুয়াডাঙ্গায় তীব্র তাপ প্রবাহ, সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৪১.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস

হালদা থেকে বালু উত্তোলন, ৪ জনের কারাদন্ড

হালদা থেকে বালু উত্তোলন, ৪ জনের কারাদন্ড

ডেঙ্গু প্রতিরোধে সোমবার থেকে মাঠে নামছে ডিএনসিসি

ডেঙ্গু প্রতিরোধে সোমবার থেকে মাঠে নামছে ডিএনসিসি

১৫০ বাংলাদেশিকে ফিরিয়ে ২৮৫ সেনাকে নিয়ে ফিরবে মিয়ানমারের জাহাজ: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

১৫০ বাংলাদেশিকে ফিরিয়ে ২৮৫ সেনাকে নিয়ে ফিরবে মিয়ানমারের জাহাজ: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

অভিনয় শিল্পীদের প্রশংসায় ভাসাচ্ছেন দর্শকরা

অভিনয় শিল্পীদের প্রশংসায় ভাসাচ্ছেন দর্শকরা

ঈশ্বরগঞ্জে বাড়ির সীমানা নিয়ে দ্বন্দ্বে নিহত ১

ঈশ্বরগঞ্জে বাড়ির সীমানা নিয়ে দ্বন্দ্বে নিহত ১

বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছেন আরও ১১ বিজিপি সদস্য

বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছেন আরও ১১ বিজিপি সদস্য

কারওয়ানবাজার স্থানান্তর করতে সহায়তা সংক্রান্ত টিম গঠন

কারওয়ানবাজার স্থানান্তর করতে সহায়তা সংক্রান্ত টিম গঠন

কসবায় নির্বাচন থেকে সরতে চান না মন্ত্রীর আত্মীয় সায়েদুর

কসবায় নির্বাচন থেকে সরতে চান না মন্ত্রীর আত্মীয় সায়েদুর

বিজেপি ২০০ আসনও পাবে না: মমতা

বিজেপি ২০০ আসনও পাবে না: মমতা

ঈশ্বরদীতে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে নিহত-১ আহত অন্তত ২৩ জন

ঈশ্বরদীতে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে নিহত-১ আহত অন্তত ২৩ জন

ইরানে ইসরাইলের হামলা নিয়ে বিশ্বনেতাদের প্রতিক্রিয়া

ইরানে ইসরাইলের হামলা নিয়ে বিশ্বনেতাদের প্রতিক্রিয়া

বান্দরবানে অপহৃত সেই ব্যাংক ম্যানাজার কে চট্টগ্রামে বদলী

বান্দরবানে অপহৃত সেই ব্যাংক ম্যানাজার কে চট্টগ্রামে বদলী

নেতানিয়াহুকে গ্রেপ্তারি করার প্রস্তুতি নিচ্ছে আইসিসি, জরুরি বৈঠক তলব

নেতানিয়াহুকে গ্রেপ্তারি করার প্রস্তুতি নিচ্ছে আইসিসি, জরুরি বৈঠক তলব

জার্মানির প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ জেলেনস্কির

জার্মানির প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ জেলেনস্কির

দুবাই পানিতে তলিয়ে যাবার কারণ ক্লাউড সিডিং?

দুবাই পানিতে তলিয়ে যাবার কারণ ক্লাউড সিডিং?

আনোয়ারায় হিট স্ট্রোকে শাহজাদা ছালেহ আহমদ (৭৪) শাহর মৃত্যু

আনোয়ারায় হিট স্ট্রোকে শাহজাদা ছালেহ আহমদ (৭৪) শাহর মৃত্যু