নিরাপত্তার স্বার্থে সীমান্তে ক্ষেপণাস্ত্র মোতায়েন করল বাংলাদেশ

Daily Inqilab উখিয়া উপজেলা সংবাদদাতা

১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১২:০৪ এএম | আপডেট: ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১২:০৪ এএম

সীমান্ত নিরাপত্তায় টহল বৃদ্ধির পাশাপাশি ঘুমধুম সীমান্তের বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) নিরাপত্তা চৌকিগুলোতে আর কে-৩ কোর্সার অ্যান্টি-ট্যাঙ্ক গাইডেড মিসাইল (এটিজিএম) মোতায়েন করা হয়েছে।

মিয়ানমারের অভ্যন্তরীণ বিরোধের জেরে, সম্প্রতি মিয়ানমার সীমান্তে ব্যাপক সংঘর্ষ, মর্টারশেল নিক্ষেপ, গুলি ও বোমা বিস্ফোরণের পর অত্যাধুনিক এই অস্ত্রটি মোতায়েন করা হয়।

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলারবর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)'র ঘুমধুম সীমান্ত চৌকিসহ আরও বেশ কয়েকটি চৌকিতে এটিজিএম অস্ত্রটি মোতায়েন করা হয়েছে। এটিজিএম হলো ইউক্রেনের তৈরি হালকা বহনযোগ্য ট্যাঙ্কবিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র। এটি দিয়ে স্থির ও চলমান সাঁজোয়া যান এমনকি হেলিকপ্টারেও আক্রমণ করা যায়। ২০০০ সালে ইউক্রেনে এই অস্ত্রটি তৈরি হয়।

সীমান্তে অত্যাধুনিক এই অস্ত্রটি মোতায়েনের ফলে সীমান্ত সুরক্ষা ও নিরাপত্তার পাশাপাশি, বিজিবির আধুনিকায়নে আরও এক ধাপ উন্নতি হলো বলে মনে করছেন সচেতন মহল।

এদিকে, ৩৪ বিজিবির অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আব্দুল্লাহ আল মাশরুকী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সম্প্রতি ঘুমধুম সীমান্তে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর সঙ্গে আরাকান আর্মির সংঘর্ষে বাংলাদেশের অভ্যন্তরে বেশ কয়েকটি মর্টারশেল ও গুলি এসে পড়ে। এতে দুজন নিহত ও চারজন আহত হয়। সীমান্তের ওপারে হেলিকপ্টার থেকেও ব্যাপক গুলি ও বোমা বর্ষণ করা হয়। এসব বিষয় নিয়ে বিজিবি কড়া প্রতিবাদও জানায়। তুমব্রু সীমান্তে গতকাল সেনাবাহিনীর বোম ডিসপোজাল ইউনিটের সদস্যরা সীমান্ত থেকে পাওয়া দুটি রকেট লাঞ্চার বোম নিষ্ক্রিয় করেছে। বিকট শব্দে এগুলো বিস্ফোরণ ঘটিয়ে নিষ্ক্রিয় করা হয়। এসময় সীমান্তে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়।

সীমান্তে গোলাগুলি না হওয়ায় পরিস্থিতি এখন স্বাভাবিক রয়েছে। সীমান্ত এলাকায় বসবাসকারী বেশিভাগ লোকজনই এখন ঘরে ফিরেছে। তবে যে ৫টি স্কুল বন্ধ করা হয়েছিল সেগুলো এখনোও খোলা হয়নি।

পরিস্থিতি একেবারেই স্বাভাবিক হয়ে গেলে স্কুলগুলো খুলে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষা কর্মকর্তা ফরিদুল আলম হুসাইনি।

অন্যদিকে, আগামী মাসে অনুষ্টিতব্য এসএসসি পরীক্ষার কেন্দ্র ঘুংধুম উচ্চ বিদ্যালয় থেকে সরিয়ে নিরাপদ স্থানে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

বান্দরবানের জেলা প্রশাসক শাহ্ মোজাহিদ উদ্দিন জানান, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনুমতি পাওয়া সাপেক্ষে বাংলাদেশ অবস্থানকারী মিয়ানমারের বিজিপি সদস্যদের সে দেশে নিয়ে যাওয়া হবে।

( এম আর আয়াজ রবি


বিভাগ : বাংলাদেশ


মন্তব্য করুন

HTML Comment Box is loading comments...

এই বিভাগের আরও

কুসিক উপনির্বাচন : সংখ্যালঘু নতুন ও দক্ষিনের ভোটার জয়-পরাজয়ে ফ্যাক্টর
সিরাজগঞ্জে ‘শিক্ষকের গুলিতে’ মেডিক্যাল কলেজ শিক্ষার্থী আহত
কুমিল্লায় দুগ্ধপোষ্য শিশু চুরির অপরাধে এক নারীর দশ বছরের কারাদণ্ড
মুসলিম উম্মাহর ঐক্য, শান্তি ও সমৃদ্ধি এবং দেশের শান্তি- শৃঙ্খলা রক্ষায় আল্লাহর রহমত কামনা করে মোকামিয়ার দুই দিনব্যাপী মাহফিল সম্পন্ন
ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্রে ১৭, সাধারণ কেন্দ্রে থাকবে ১৬ জনের ফোর্স
আরও

আরও পড়ুন

ইউসিবির উদ্যোগে আর্থিক সাক্ষরতা দিবস পালিত

ইউসিবির উদ্যোগে আর্থিক সাক্ষরতা দিবস পালিত

এসও-এস শিশু পল্লী’র সাথে অংশীদারিত্বে আসলো ভিভো

এসও-এস শিশু পল্লী’র সাথে অংশীদারিত্বে আসলো ভিভো

ভাঙ্গা থেকে পায়রা হয়ে কুয়াকাটা পর্যন্ত রেলপথ নির্মাণের প্রকল্প গ্রহণ করা হবে

ভাঙ্গা থেকে পায়রা হয়ে কুয়াকাটা পর্যন্ত রেলপথ নির্মাণের প্রকল্প গ্রহণ করা হবে

বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী ছিলেন অধ্যাপক মোসলেমা খাতুন

বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী ছিলেন অধ্যাপক মোসলেমা খাতুন

একুশে গ্রন্থমেলায় বিক্রয় শীর্ষে এম মিরাজ হোসেনের নতুন দুই বই

একুশে গ্রন্থমেলায় বিক্রয় শীর্ষে এম মিরাজ হোসেনের নতুন দুই বই

ঢাকা-আশুলিয়া এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের সমস্যার মূলে সিএমসি

ঢাকা-আশুলিয়া এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের সমস্যার মূলে সিএমসি

পল্টনে পুলিশ হত্যা মামলার আসামি নীলফামারীতে গ্রেফতার

পল্টনে পুলিশ হত্যা মামলার আসামি নীলফামারীতে গ্রেফতার

গত বছরের জুন পর্যন্ত মেট্রোরেলে আয় ১৮,২৮,০৬,৫১৪ টাকা

গত বছরের জুন পর্যন্ত মেট্রোরেলে আয় ১৮,২৮,০৬,৫১৪ টাকা

টিকিটের দাম ২ কোটিরও বেশি! বিশ্বকাপে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ নিয়ে তুঙ্গে উত্তেজনা

টিকিটের দাম ২ কোটিরও বেশি! বিশ্বকাপে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ নিয়ে তুঙ্গে উত্তেজনা

মনিপুর স্কুলকে গ্রাস করার অপচেষ্টা চলছে: সংবাদ সম্মেলনে অভিভাবকদের অভিযোগ

মনিপুর স্কুলকে গ্রাস করার অপচেষ্টা চলছে: সংবাদ সম্মেলনে অভিভাবকদের অভিযোগ

১ লাখ টন চিনি পুড়ে ছাই, এখনো জ্বলছে আগুন

১ লাখ টন চিনি পুড়ে ছাই, এখনো জ্বলছে আগুন

রুশ ও মার্কিন নভোচারী নিয়ে স্পেসএক্স এর যাত্রা

রুশ ও মার্কিন নভোচারী নিয়ে স্পেসএক্স এর যাত্রা

লাক্ষাদ্বীপে কেন দ্বিতীয় সামরিক নৌঘাঁটি তৈরি করছে ভারত?

লাক্ষাদ্বীপে কেন দ্বিতীয় সামরিক নৌঘাঁটি তৈরি করছে ভারত?

কুসিক উপনির্বাচন : সংখ্যালঘু নতুন ও দক্ষিনের ভোটার জয়-পরাজয়ে ফ্যাক্টর

কুসিক উপনির্বাচন : সংখ্যালঘু নতুন ও দক্ষিনের ভোটার জয়-পরাজয়ে ফ্যাক্টর

সিরাজগঞ্জে ‘শিক্ষকের গুলিতে’ মেডিক্যাল কলেজ শিক্ষার্থী আহত

সিরাজগঞ্জে ‘শিক্ষকের গুলিতে’ মেডিক্যাল কলেজ শিক্ষার্থী আহত

বাংলাদেশকে কঠিন লক্ষ্য দিল শ্রীলঙ্কা

বাংলাদেশকে কঠিন লক্ষ্য দিল শ্রীলঙ্কা

সুগার মিলের আগুন নিয়ন্ত্রণে নৌবাহিনী

সুগার মিলের আগুন নিয়ন্ত্রণে নৌবাহিনী

টেকসই ভবিষ্যতের লক্ষ্যে পরিবেশবান্ধব জ্বালানিতে গুরুত্ব দিচ্ছে গ্রামীণফোন

টেকসই ভবিষ্যতের লক্ষ্যে পরিবেশবান্ধব জ্বালানিতে গুরুত্ব দিচ্ছে গ্রামীণফোন

মধ্যপ্রাচ্যের অন্যতম গন্তব্য আবুধাবীতে ফ্লাইট শুরু করতে যাচ্ছে ইউএস-বাংলা

মধ্যপ্রাচ্যের অন্যতম গন্তব্য আবুধাবীতে ফ্লাইট শুরু করতে যাচ্ছে ইউএস-বাংলা

ওয়ারীর ১৪ রেস্টুরেন্টে অভিযান, আটক ১৬

ওয়ারীর ১৪ রেস্টুরেন্টে অভিযান, আটক ১৬