পরিবার এবং বন্ধুদের ভালবাসাই সেরা ওষুধ, সুস্থ হয়ে জানালেন ম্যাডোনা

Daily Inqilab বিনোদন ডেস্ক

০১ আগস্ট ২০২৩, ১০:১১ এএম | আপডেট: ০১ আগস্ট ২০২৩, ১০:১১ এএম

গত মাসে ব্যাকটেরিয়া জনিত সংক্রমণে গুরুতর অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন বিখ্যাত সংগীতশিল্পী ম্যাডোনা। তিনি এতটাই অসুস্থ ছিলেন যে, তাকে বেশ কিছু সময় আইসিইউতেও ভর্তি রাখা হয়েছিল। এবার সুস্থ হয়ে অসুস্থ থাকাকালীন সার্বিক সহযোগিতার জন্য নিজের পরিবার ও বন্ধুদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন এ তারকা। দীর্ঘ এক মাস অসুস্থতার সঙ্গে লড়াই করে যুক্তরাষ্ট্রের পপ তারকার উপলব্ধি হলো, নিজের পরিবার আর বন্ধুদের ভালোবাসাই হল সেরা ওষুধ।

 

জীবন নিয়ে এই উপলব্ধির কথা ম্যাডোনা লিখেছেন তার ইনস্টাগ্রামে। সেখানে ছয় সন্তানের মধ্যে দুই ছেলেমেয়ে রোকো রিচি এবং লর্ডেস লিওনের সঙ্গে নিজের ছবিও পোস্ট করেছেন।

ইনস্টাগ্রামে ম্যাডোনা লিখেছেন, ‘একজন মা সন্তানদের প্রয়োজনে পাশে থাকে, এটা চিরন্তন। কিন্তু সেই মা যখন অসুস্থ হয়ে পড়েন, সন্তানদের পাশে পান। আমার সন্তানরা আমার অসুস্থতার সময় কাছে ছিল।’ তিনি আরো লেখেন, ‘আমি তাদের মধ্যে আমার জন্য যে উৎকণ্ঠা দেখেছি, তা আগে কখনো দেখিনি। সত্যিই পরিবার এবং বন্ধুদের কাছ থেকে ভালবাসাই সেরা ওষুধ।’

 

এরআগে গত ২৬ জুন ম্যাডোনার অসুস্থতার খবর প্রকাশ করেন তার দীর্ঘদিনের ম্যানেজার গাই ওসেরি। ম্যাডোনা কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন তার প্রতিও। অসুস্থ থাকার সময় পপ তারকা ম্যাইকেল জ্যাকসনের একটি ছবি ম্যাডোনাকে উপহার দিয়েছিলেন ওসেরি। জ্যাকসনের সেই ছবি হাতে নিজের ছবি পোস্ট করেছেন ম্যাডোনা। ম্যাডোনা লিখেছেন, ‘আমি বুঝতে পেরেছিলাম যে আমি কতটা ভাগ্যবান। এবং কতটা সৌভাগ্যবান হলে এমন মানুষকে পাশে পায়।’ সেরে ওঠার জন্য ঈশ্ববরকে ধন্যবাদ দিয়ে ম্যাডোনা লিখেছেন, ‘আমাকে আমার অবশিষ্ট কাজ শেষ করার জন্য ঈশ্বর সময় দিয়েছেন।’

 

গত ২৬ জুন গাই ওসেরি খবর দেন, দুদিন আগে বাড়িতে অচেতন হয়ে পড়েছিলেন ম্যাডোনা। পরে ইনজেকশন দিয়ে তার চেতনা ফেরানো হয়। অবস্থা বেগতিক হওয়ায় পপ তারকাকে নিউ ইয়র্ক সিটির এক হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। চিকিৎসকের পরামর্শে তখন ম্যাডোনাকে সরাসরি আইসিইউতে ভর্তি করা হয়। এরপর চিকিৎসকরা জানিয়ে দেন, মারাত্মক ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণ হয়েছে তার শরীরে। অবস্থা কিছুটা স্থিতিশীল হলে ২৯ জুন একটি অ্যাম্বুলেন্সে করে ম্যাডোনাকে বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়।

এরপর বাড়িতেই চিকিৎসকদের তত্ত্বাবধানে তার চিকিৎসা চলে। কিন্তু বাড়ি ফেরার পর ম্যাডোনার বমির মাত্রা বাড়তে থাকে। ওই পরিস্থিতিতে ভাবা হয়েছিল ফের হাসপাতালে পাঠানো হবে শিল্পীকে। কিন্তু শেষমেশ সামলে ওঠায় বাড়িতে থেকেই ম্যাডোনা চিকিৎসা নেন তিনি।

 

উল্লেখ্য, কয়েক দশক ধরেই সেরা হিট গানের তালিকায় রয়েছে ম্যাডোনার বেশকিছু গান। এরমধ্যে রয়েছে ইনটু দ্য গ্রুভ (১৯৮৫), লাইক আ প্রেয়ার (১৯৮৯), ভোগ (১৯৯০) এবং হাং আপ (২০০৫)। তবে স্বাস্থ্য পরিস্থিতি নিয়ে বরাবরই গোপনীয়তা বজায় রেখে এসেছেন ম্যাডোনা।

 


বিভাগ : বিনোদন


মন্তব্য করুন

HTML Comment Box is loading comments...

আরও পড়ুন

ইসরাইলের গণহত্যা তদন্তে সহযোগিতা করছেন আমাল ক্লুনি

ইসরাইলের গণহত্যা তদন্তে সহযোগিতা করছেন আমাল ক্লুনি

জয়ে আশাবাদি আশরাফ, রয়েছে ফলাফল ছিনিয়ে নেওয়ার শঙ্কা

জয়ে আশাবাদি আশরাফ, রয়েছে ফলাফল ছিনিয়ে নেওয়ার শঙ্কা

পশ্চিমাদের নিরাপত্তা গ্যারান্টির প্রতি আফ্রিকার দেশগুলোর কেন আস্থা নেই?

পশ্চিমাদের নিরাপত্তা গ্যারান্টির প্রতি আফ্রিকার দেশগুলোর কেন আস্থা নেই?

রইসির হেলিকপ্টার বিধ্বস্তের পর যুক্তরাষ্ট্রের সহায়তা চেয়েও পায়নি ইরান

রইসির হেলিকপ্টার বিধ্বস্তের পর যুক্তরাষ্ট্রের সহায়তা চেয়েও পায়নি ইরান

অবসরের পর চুরির দায়ের কাঠগড়ায় টেনিস তারকা

অবসরের পর চুরির দায়ের কাঠগড়ায় টেনিস তারকা

বেঙ্গালুরুতে রাতভর উদ্দাম পার্টি, মাদকের নেশায় উল্লাস বিধায়ক-নায়িকাদের!

বেঙ্গালুরুতে রাতভর উদ্দাম পার্টি, মাদকের নেশায় উল্লাস বিধায়ক-নায়িকাদের!

বাগেরহাটে আওয়ামী লীগ নেতাকে ছয় মাসের কারাদণ্ড

বাগেরহাটে আওয়ামী লীগ নেতাকে ছয় মাসের কারাদণ্ড

ভোটকেন্দ্রের মাঠে কুকুর, ৩ ঘণ্টায় ভোট পড়েছে মাত্র ১৯টি

ভোটকেন্দ্রের মাঠে কুকুর, ৩ ঘণ্টায় ভোট পড়েছে মাত্র ১৯টি

ইরানের সর্বোচ্চ নেতাকে চিঠি লিখেছেন পুতিন

ইরানের সর্বোচ্চ নেতাকে চিঠি লিখেছেন পুতিন

ইরানি জনগণের মাঝে রাইসি কেন জনপ্রিয় ছিলেন?

ইরানি জনগণের মাঝে রাইসি কেন জনপ্রিয় ছিলেন?

১১ সপ্তাহ বন্ধ থাকার পর খুললো হাইতির বিমানবন্দর

১১ সপ্তাহ বন্ধ থাকার পর খুললো হাইতির বিমানবন্দর

শিল্পীদের ভোটকে অসম্মান করবেন না, ডিপজলের উদ্দেশে রত্না

শিল্পীদের ভোটকে অসম্মান করবেন না, ডিপজলের উদ্দেশে রত্না

ঢাকায় পৌঁছেছেন অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ঢাকায় পৌঁছেছেন অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী

রাইসির মৃত্যুর পর এখন ইরানের ভবিষ্যৎ কী?

রাইসির মৃত্যুর পর এখন ইরানের ভবিষ্যৎ কী?

শত্রুরাই আমার আত্মবিশ্বাস বাড়িয়েছে: পরীমণি

শত্রুরাই আমার আত্মবিশ্বাস বাড়িয়েছে: পরীমণি

ভারতে সাজাভোগ শেষে দেশে ফিরলেন ৮ বাংলাদেশি নারী

ভারতে সাজাভোগ শেষে দেশে ফিরলেন ৮ বাংলাদেশি নারী

কান থেকে ফিরেই হাসপাতালে ঐশ্বরিয়া

কান থেকে ফিরেই হাসপাতালে ঐশ্বরিয়া

অপু বিশ্বাসের জিডি, তিনজনকে সতর্ক করলো পুলিশ

অপু বিশ্বাসের জিডি, তিনজনকে সতর্ক করলো পুলিশ

গণসংহতির বিক্ষোভ ঘিরে বাংলাদেশ ব্যাংকের সামনে নিরাপত্তা জোরদার

গণসংহতির বিক্ষোভ ঘিরে বাংলাদেশ ব্যাংকের সামনে নিরাপত্তা জোরদার

নাইজেরিয়ার মৃৎশিল্পে চিরায়ত ঐতিহ্য

নাইজেরিয়ার মৃৎশিল্পে চিরায়ত ঐতিহ্য