ঢাকা   বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ | ১৬ ফাল্গুন ১৪৩০

গাজা থেকে পশ্চিম তীরের বিচ্ছেদ মানবে না জর্ডান

Daily Inqilab ইনকিলাব ডেস্ক :

৩০ নভেম্বর ২০২৩, ১২:১২ এএম | আপডেট: ৩০ নভেম্বর ২০২৩, ১২:১২ এএম

ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজা ভূখণ্ড থেকে অধিকৃত পশ্চিম তীরের বিচ্ছিন্নতা বা পৃথকীকরণ প্রত্যাখ্যান করেছে জর্ডান। একইসঙ্গে এই দুটি অঞ্চলই ‘একক ফিলিস্তিনি রাষ্ট্রের সম্প্রসারণ’ বলেও জানিয়ে দিয়েছে দেশটি। বুধবার এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা আনাদোলু। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, জর্ডানের বাদশাহ দ্বিতীয় আবদুল্লাহ মঙ্গলবার গাজা উপত্যকা থেকে পশ্চিম তীরকে আলাদা করার যে কোনও প্রচেষ্টাকে তার দেশের প্রত্যাখ্যানের কথা পুনর্ব্যক্ত করেছেন। কমিটি অন দ্য এক্সারসাইজ অব দ্য ইনঅ্যালাইনেবল রাইটস অব দ্য প্যালেস্টানিয়ান পিপল (সিইআইআরপিপি)-এর প্রধানের কাছে পাঠানো এক বার্তায় পশ্চিম তীর এবং গাজা উভয়ই ‘ফিলিস্তিনি রাষ্ট্রের সম্প্রসারণ’ বলেও নিশ্চিত করেছেন বাদশাহ দ্বিতীয় আবদুল্লাহ। এই কমিটির কাছে পাঠানো বার্তায় তিনি আরও বলেন, ‘সকল ঐশ্বরিক ধর্মের মূল্যবোধের পাশাপাশি আমাদের সাধারণ মানবিক মূল্যবোধও বেসামরিক লোকদের হত্যা করাকে স্বীকৃতি দেয় না।’ তিনি উল্লেখ করেন: ‘পশ্চিম তীর এবং গাজা উপত্যকায় ইসরাইলের আগ্রাসন আন্তর্জাতিক মানবিক আইনকে লঙ্ঘন করেছে এবং এটি এই অঞ্চল ও বিশ্বে আরও সহিংসতা ও ধ্বংসের সূচনা করবে।’ ২৯ নভেম্বর আন্তর্জাতিক ফিলিস্তিনি সংহতি দিবস পালিত হচ্ছে। জর্ডানের বাদশাহ বলেন, (অন্য বছরের তুলনায়) ‘ব্যতিক্রমী পরিস্থিতিতে এই দিবসটি সামনে এসেছে এবং এই দিবসটি যুদ্ধ বন্ধ করতে এবং ইসরাইলকে গাজা উপত্যকার ওপর থেকে অবরোধ তুলে নিতে বাধ্য করার জন্য সমগ্র বিশ্বকে আহ্বান জানাচ্ছে’। বাদশাহ দ্বিতীয় আবদুল্লাহ ‘গাজার কিছু অঙ্ক পুনরুদ্ধার করা বা এতে বাফার জোন প্রতিষ্ঠা করা এবং পশ্চিম তীরকে গাজা থেকে আলাদা করার’ বিষয়টি জর্ডান প্রত্যাখ্যান করছে বলেও পুনর্ব্যক্ত করেছেন। আনাদোলু বলছে, ফিলিস্তিনি জনগণ এবং বিশ্বব্যাপী তাদের সমর্থকরা বুধবার ফিলিস্তিনি জনগণের সাথে এই আন্তর্জাতিক সংহতি দিবস উদযাপন করবে। ১৯৪৭ সালের এই দিনে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের প্রস্তাবে ফিলিস্তিনকে ‘আরব’ এবং ‘ইহুদি’ রাষ্ট্রে বিভক্ত করার আহ্বান জানানো হয়েছিল। পরে ১৯৭৭ সালে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদ প্রতিবছর দিবসটি উদযাপনের আহ্বান জানায়। এর ১০ বছর পরে ১৯৮৭ সালে একই তারিখে ফিলিস্তিন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠায় জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদে প্রস্তাব গৃহীত হয়। এরপর থেকে এই দিনটি আন্তর্জাতিক ফিলিস্তিনি সংহতি দিবস হিসাবে পালিত হয়ে আসছে। উল্লেখ্য, গত ৭ অক্টোবর হামাসের আন্তঃসীমান্ত হামলার পর ইসরাইল গাজা উপত্যকায় ব্যাপক সামরিক অভিযান শুরু করে। ভূখণ্ডটিতে ইসরাইলি বর্বর হামলায় নিহতের সংখ্যা ১৫ হাজার ছাড়িয়ে গেছে। নিহত এসব ফিলিস্তিনিদের মধ্যে ৬ হাজারেরও বেশি শিশু। এছাড়া নিহতদের মধ্যে নারীর সংখ্যাও চার হাজার। অবশ্য গাজায় বর্তমানে যুদ্ধবিরতি চলছে। দেড় মাসেরও বেশি সময় যুদ্ধ চলার পর গত শুক্রবার চারদিনের এই যুদ্ধবিরতি চুক্তিতে পৌঁছায় হামাস ও ইসরাইল। যদিও ইসরাইল হুমকি দিয়ে রেখেছে, যুদ্ধবিরতি শেষ হলেই তারা আবারও গাজায় হামলা চালানো শুরু করবে। আনাদোলু।


বিভাগ : আন্তর্জাতিক


মন্তব্য করুন

HTML Comment Box is loading comments...

এই বিভাগের আরও

ইসরায়েলের বর্বরতা : খাবারের জন্য লাইনে দাঁড়িয়ে থাকা ফিলিস্তিনিদের ওপর গুলিবর্ষণ
ইউক্রেনের আরও তিনটি গ্রাম মুক্ত, অভিযানের গতি বাড়িয়েছে রুশ সেনা
৫৪ দিনে মালয়েশিয়ায় ১৪ হাজারেরও বেশি অবৈধ অভিবাসী গ্রেফতার
রমজানে আল-আকসায় নামাজ পড়তে দেওয়ার আহ্বান যুক্তরাষ্ট্রের
যুদ্ধের মাঝেই রাশিয়া-ইউক্রেন সফরে চীনের রাষ্ট্রদূত
আরও

আরও পড়ুন

৬৬ আইনজীবীর বিরুদ্ধে মামলার প্রতিবেদন পেছালো

৬৬ আইনজীবীর বিরুদ্ধে মামলার প্রতিবেদন পেছালো

সউদির রাডারে সালাহ, ডি ব্রুইনার মতো তারকারা

সউদির রাডারে সালাহ, ডি ব্রুইনার মতো তারকারা

সালথায় ডাকাত দলের দুই সদস্য গ্রেপ্তার

সালথায় ডাকাত দলের দুই সদস্য গ্রেপ্তার

গাজায় গণহত্যার প্রতিবাদে রাবিতে অনশন

গাজায় গণহত্যার প্রতিবাদে রাবিতে অনশন

বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির প্রজ্ঞাপন জারি হবে আজ : নসরুল হামিদ

বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির প্রজ্ঞাপন জারি হবে আজ : নসরুল হামিদ

বাংলাদেশেও মুক্তি পাচ্ছে ‘ডিউন : পার্ট টু’

বাংলাদেশেও মুক্তি পাচ্ছে ‘ডিউন : পার্ট টু’

বিএনপির ঢাকা জেলা সভাপতি আশফাকসহ ৬০ নেতাকর্মীর জামিন

বিএনপির ঢাকা জেলা সভাপতি আশফাকসহ ৬০ নেতাকর্মীর জামিন

যখনই যেটার দরকার পুলিশকে সেই ভূমিকা পালন করতে হবে : প্রধানমন্ত্রী

যখনই যেটার দরকার পুলিশকে সেই ভূমিকা পালন করতে হবে : প্রধানমন্ত্রী

দাফনের ৬ মাস পর কবর থেকে তোলা হলো আ.লীগ নেতার লাশ

দাফনের ৬ মাস পর কবর থেকে তোলা হলো আ.লীগ নেতার লাশ

ওয়ালটন ডিজিটাল ক্যাম্পেইনে ‘ননস্টপ মিলিয়নিয়ার’ হওয়ার সুযোগ

ওয়ালটন ডিজিটাল ক্যাম্পেইনে ‘ননস্টপ মিলিয়নিয়ার’ হওয়ার সুযোগ

১ মার্চ কার্যকর হবে সয়াবিন তেলের নতুন দাম : বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী

১ মার্চ কার্যকর হবে সয়াবিন তেলের নতুন দাম : বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী

মা-বাবা হচ্ছেন দীপিকা-রণবীর, গুঞ্জন হচ্ছে সত্যি

মা-বাবা হচ্ছেন দীপিকা-রণবীর, গুঞ্জন হচ্ছে সত্যি

গ্রিনের ব্যাটে অস্ট্রেলিয়ার দিন পার

গ্রিনের ব্যাটে অস্ট্রেলিয়ার দিন পার

জয়পুরহাটে অস্ত্র ও মাদকসহ ০৭ মামলার কুখ্যাত সন্ত্রাসী তসলিম কে আটক করেছে র‌্যাব

জয়পুরহাটে অস্ত্র ও মাদকসহ ০৭ মামলার কুখ্যাত সন্ত্রাসী তসলিম কে আটক করেছে র‌্যাব

সিরাজদিখানে শিক্ষার্থীর চুল কাটার ঘটনায় শিক্ষিকা সাময়িক বরখাস্ত

সিরাজদিখানে শিক্ষার্থীর চুল কাটার ঘটনায় শিক্ষিকা সাময়িক বরখাস্ত

জয়পুরহাটে হত্যা মামলায় ৯ জনের যাবজ্জীবন

জয়পুরহাটে হত্যা মামলায় ৯ জনের যাবজ্জীবন

বাড়ছে মন্ত্রিসভার আকার, শনিবার হতে পারে শপথ গ্রহণ

বাড়ছে মন্ত্রিসভার আকার, শনিবার হতে পারে শপথ গ্রহণ

মঠবাড়িয়ায় পুলিশের তাড়া খেয়ে ৩ তলা ছাদ থেকে পড়ে ঠিকাদারের মৃত্যুর অভিযোগ

মঠবাড়িয়ায় পুলিশের তাড়া খেয়ে ৩ তলা ছাদ থেকে পড়ে ঠিকাদারের মৃত্যুর অভিযোগ

বিএনপি দেশ ধ্বংসের মাস্টারপ্ল্যান বাস্তবায়নে তৎপর : ওবায়দুল কাদের

বিএনপি দেশ ধ্বংসের মাস্টারপ্ল্যান বাস্তবায়নে তৎপর : ওবায়দুল কাদের

ইসরায়েলের বর্বরতা : খাবারের জন্য লাইনে দাঁড়িয়ে থাকা ফিলিস্তিনিদের ওপর গুলিবর্ষণ

ইসরায়েলের বর্বরতা : খাবারের জন্য লাইনে দাঁড়িয়ে থাকা ফিলিস্তিনিদের ওপর গুলিবর্ষণ