হুঁশিয়ারি পুতিনের ইউক্রেনে ন্যাটোর কোন সৈন্য পাঠানো হবে না : জার্মান চ্যান্সেলর

রাশিয়ায় আক্রমণ করলে পরিণতি হবে করুণ

Daily Inqilab ইনকিলাব ডেস্ক

০২ মার্চ ২০২৪, ১২:০২ এএম | আপডেট: ০২ মার্চ ২০২৪, ১২:০২ এএম

রাশিয়া মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সাথে কৌশলগত স্থিতিশীলতার বিষয়ে আলোচনা করবে না যতক্ষণ না তার জাতীয় স্বার্থ বিবেচনায় নেয়া হয়, প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিন ফেডারেল অ্যাসেম্বলি, রাশিয়ান পার্লামেন্টের উভয় কক্ষে তার বার্ষিক ভাষণে বলেছেন। রাষ্ট্রপ্রধান রাশিয়ার নতুন এবং উন্নত অস্ত্র ব্যবস্থার কথা উল্লেখ করে মহাকাশে পারমাণবিক অস্ত্র স্থাপনের রাশিয়ার পরিকল্পনাকে ভুয়া গল্প বলে নিন্দা করেছেন। তিনি আরও উল্লেখ করেছেন যে, পশ্চিমারা রাশিয়ার জায়গায় একটি ক্ষয়িষ্ণু এবং মৃত সত্তা দেখতে চায় এবং ‘সম্ভাব্য আক্রমণকারীদের’ সতর্ক করেছিল যে, তাদের ভাগ্য তাদের পূর্বসূরিদের তুলনায় অনেক বেশি করুণ হবে।

ইউক্রেনে বিশেষ সামরিক অভিযান নিয়ে পুতিন বলেন, রাশিয়া তার লক্ষ্য অর্জনের জন্য সবকিছু করবে। ‘আমরা ডনবাসে যুদ্ধ শুরু করিনি কিন্তু, যেমনটি আমি বারবার বলেছি, আমরা এটি শেষ করার জন্য সবকিছু করব। আমাদের বাহিনী এই উদ্যোগটিকে দৃঢ়ভাবে ধরে রেখেছে। তারা ক্রমাগতভাবে বেশ কয়েকটি অপারেশনাল এলাকায় অগ্রসর হচ্ছে, আরও বেশি করে ভূমি মুক্ত করছে। আমাদের সশস্ত্র বাহিনী প্রচুর যুদ্ধের অভিজ্ঞতা অর্জন করেছে। সশস্ত্র বাহিনীর যুদ্ধ ক্ষমতা বহুগুণ বেড়েছে।’ পুতিন জানান, রাশিয়ার প্রতিরক্ষা শিল্পকে উৎসাহিত করার পূর্ববর্তী সমস্ত পরিকল্পনা, যা ২০১৮ সালের স্টেট অফ দ্য নেশন অ্যাড্রেসে ঘোষণা করা হয়েছিল, হয় বাস্তবায়িত হয়েছে বা সমাপ্তির কাছাকাছি। কিনঝাল এবং সিরকন হাইপারসনিক মিসাইল সিস্টেম ইতিমধ্যেই বিশেষ সামরিক অভিযানে ব্যবহৃত হচ্ছে; অ্যাভানগার্ড হাইপারসনিক মিসাইল এবং পেরেসভেট লেজার সিস্টেমগুলি যুদ্ধের দায়িত্বে রয়েছে, এবং বুরেভেস্টনিক ক্রুজ মিসাইল এবং পসেইডন মানবহীন ডুবো যানের পরীক্ষা তাদের চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে। তিনি বলেন, ‘প্রথম ধারাবাহিকভাবে উৎপাদিত সারমাট ভারী ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ইতিমধ্যেই সেনাবাহিনীর সাথে ব্যবহার করা হয়েছে। আমরা শীঘ্রই তাদের মোতায়েন ঘাঁটিতে যুদ্ধের দায়িত্ব মোডে তাদের প্রদর্শন করব। অন্যান্য বেশ কয়েকটি উন্নত অস্ত্র ব্যবস্থা নিয়ে কাজ চলছে। আমরা অবশ্যই আমাদের গবেষক এবং অস্ত্র নির্মাতাদের নতুন অর্জনের কথা শুনব।’

ইউক্রেনে ন্যাটোর কোন সৈন্য পাঠানো হবে না : জার্মান চ্যান্সেলর ওলাফ শলৎজ ইউক্রেনে জার্মানির কিংবা ন্যাটোর কোন সৈন্য পাঠানোর কথা নাকচ করে দিয়েছেন। ড্রেসডেনে স্থানীয় বাসিন্দাদের সাথে দেখা করার সময় শলৎজ বলেন, ‘আমরা যুদ্ধ বাড়ানোর অনুমতি দেব না, এটি রাশিয়া এবং ন্যাটোর মধ্যে যুদ্ধ নয়।’ ‘যেমন আমি আবার বলেছি, এবং প্রথম থেকেই স্পষ্ট করে দিয়েছি: ইউক্রেনের মাটিতে কোন জার্মান বা ন্যাটো সৈন্য থাকবে না, কারণ অন্যথায় তারা এমন বিপদের সম্মুখীন হবে,’ তিনি জোর দিয়ে বলেছিলেন, ‘এবং আমি এতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ আছি।’ কথোপকথনটি সরকারের ওয়েবসাইটে সরাসরি সম্প্রচার করা হয়।

একই সময়ে, শলৎজ জোর দিয়ে বলেছিলেন যে, জার্মানি কিয়েভকে ব্যাপক সহায়তা দিয়েছে - আর্থিকভাবে, মানবিক দিক দিয়ে, পাশাপাশি অস্ত্র সরবরাহ করে। তিনি পুনর্ব্যক্ত করেন যে, ইউক্রেনকে সাহায্যের ক্ষেত্রে জার্মানি বিশ্বে দ্বিতীয় এবং ইউরোপে প্রথম। এই বছর, জার্মানি কিয়েভকে অস্ত্র সরবরাহে সহায়তা করার জন্য ৭ বিলিয়ন ইউরোর বেশি বরাদ্দ করবে, তিনি যোগ করেছেন। তবে চ্যান্সেলর আবারও কিয়েভে টরাস ক্রুজ মিসাইল সরবরাহের বিরোধিতা করেছেন। এর আগে ২৬ ফেব্রুয়ারি প্যারিসে একটি বৈঠকে, যেখানে প্রায় ২০টি পশ্চিমা দেশের প্রতিনিধিরা রাশিয়ার সাথে সংঘাতে ইউক্রেনের জন্য আরও সমর্থন নিয়ে আলোচনা করেছিলেন, সেখানে ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাখোঁ ইউক্রেনে পশ্চিমা দেশগুলির স্থল সেনা পাঠানোর প্রস্তাব দিয়েছিলেন। তিনি মন্তব্য করেন যে, কোন ঐকমত্য অর্জিত হয়নি, তবে ভবিষ্যতে এমন পরিস্থিতি উড়িয়ে দেয়া যায় না।

সম্মেলনের পরে, বেশিরভাগ অংশগ্রহণকারী দেশের প্রতিনিধিরা বলেছিলেন যে তাদের ইউক্রেনে সৈন্য পাঠানোর কোন ইচ্ছা নেই এবং তারা রাশিয়ার বিরুদ্ধে সামরিক অভিযানে তাদের অংশগ্রহণের ঘোর বিরোধী। ফেব্রুয়ারী ২৭-এ, ফরাসি পররাষ্ট্রমন্ত্রী স্টিফেন সেজার্ন ব্যাখ্যা করেছিলেন যে, ইউক্রেনে পশ্চিমা সেনাবাহিনীর উপস্থিতি কিছু ধরণের সহায়তা প্রদানের জন্য প্রয়োজন হতে পারে, যার মধ্যে ডিমাইনিং অপারেশন এবং ইউক্রেনীয় সৈন্যদের নির্দেশনা রয়েছে, তবে এটি সংঘর্ষে তাদের অংশগ্রহণকে বোঝায় না। এর প্রতিক্রিয়ায় ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ বৃহস্পতিবার বলেছেন, ইউক্রেনে ইউরোপীয় সেনা পাঠানোর সম্ভাবনা সম্পর্কে ম্যাখোঁর বক্তব্য বিপজ্জনক। সূত্র : তাস।


বিভাগ : আন্তর্জাতিক


মন্তব্য করুন

HTML Comment Box is loading comments...

আরও পড়ুন

'১৮৫৭ সালে সুবেদার রজব আলী চট্টগ্রাম প্যারেড গ্রাউন্ডে ব্রিটিশদের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ করেন' -পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ

'১৮৫৭ সালে সুবেদার রজব আলী চট্টগ্রাম প্যারেড গ্রাউন্ডে ব্রিটিশদের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ করেন' -পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ

ঢাকায় ইসরাইলি বিমান অবতরণ : সরকারের কাছে ব্যাখ্যা দাবি বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের

ঢাকায় ইসরাইলি বিমান অবতরণ : সরকারের কাছে ব্যাখ্যা দাবি বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের

সোমালিয়ার নৌদস্যুদের চেয়েও বিএনপি অনেক বেশি ভয়ঙ্কর : পররাষ্ট্র মন্ত্রী

সোমালিয়ার নৌদস্যুদের চেয়েও বিএনপি অনেক বেশি ভয়ঙ্কর : পররাষ্ট্র মন্ত্রী

তন্বীর প্রেমের টানে নারায়ণগঞ্জ থেকে মোংলায় ছুটে আসছে সুবর্ণা

তন্বীর প্রেমের টানে নারায়ণগঞ্জ থেকে মোংলায় ছুটে আসছে সুবর্ণা

দলীয় কিছু মানুষের হাতে দেশের সম্পদ কেন্দ্রীভূত হচ্ছে

দলীয় কিছু মানুষের হাতে দেশের সম্পদ কেন্দ্রীভূত হচ্ছে

ইসরায়েল থেকে ঢাকায় বিমানের নজিরবিহীন অবতরণ: সর্বত্র নিন্দা ও প্রতিবাদের ঝড়

ইসরায়েল থেকে ঢাকায় বিমানের নজিরবিহীন অবতরণ: সর্বত্র নিন্দা ও প্রতিবাদের ঝড়

নতুন মৌসুমের আগে স্ট্রাইকারের খোঁজে ইউনাইটেড বস

নতুন মৌসুমের আগে স্ট্রাইকারের খোঁজে ইউনাইটেড বস

টোল ছাড়া এক্সপ্রেসওয়েতে উঠতে পারেনি ফায়ার সার্ভিস, সমালোচনা

টোল ছাড়া এক্সপ্রেসওয়েতে উঠতে পারেনি ফায়ার সার্ভিস, সমালোচনা

উচ্চ খরতাপের দহন দেশজুড়ে হিট এলার্ট জারি : সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রাঙ্গামাটিতে ৪০ ডিগ্রি

উচ্চ খরতাপের দহন দেশজুড়ে হিট এলার্ট জারি : সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রাঙ্গামাটিতে ৪০ ডিগ্রি

অবৈধ ইসরাইলের বিমান বাংলাদেশে অবতরণ কেন জনগণ জানতে চায় - মাওলানা জালালুদ্দীন আহমদ

অবৈধ ইসরাইলের বিমান বাংলাদেশে অবতরণ কেন জনগণ জানতে চায় - মাওলানা জালালুদ্দীন আহমদ

ইসরাইলি কার্গো বিমান বাংলাদেশের অবতরণ জাতির সাথে বেইমানির নামান্তর

ইসরাইলি কার্গো বিমান বাংলাদেশের অবতরণ জাতির সাথে বেইমানির নামান্তর

প্রকাশ্যে তরুণীকে মারধর; সোশ্যাল মিডিয়ায় সমালোচনা

প্রকাশ্যে তরুণীকে মারধর; সোশ্যাল মিডিয়ায় সমালোচনা

তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ ডেকে আনতে পারেন বাইডেন : ডোনাল্ড ট্রাম্প

তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ ডেকে আনতে পারেন বাইডেন : ডোনাল্ড ট্রাম্প

নববর্ষে যেসব রাস্তা বন্ধ থাকবে, চলতে হবে যে পথে

নববর্ষে যেসব রাস্তা বন্ধ থাকবে, চলতে হবে যে পথে

কমলনগরে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত উদ্যোক্তার মৃত্যু।

কমলনগরে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত উদ্যোক্তার মৃত্যু।

ইসরায়েলের পাশে দাঁড়ালে মধ্যপ্রাচ্যে মার্কিন ঘাঁটি গুঁড়িয়ে দেওয়ার ‘হুমকি’ ইরানের

ইসরায়েলের পাশে দাঁড়ালে মধ্যপ্রাচ্যে মার্কিন ঘাঁটি গুঁড়িয়ে দেওয়ার ‘হুমকি’ ইরানের

বাংলা নববর্ষ ১৪৩১ উপলক্ষ্যে দেশবাসীকে প্রধানমন্ত্রীর শুভেচ্ছা

বাংলা নববর্ষ ১৪৩১ উপলক্ষ্যে দেশবাসীকে প্রধানমন্ত্রীর শুভেচ্ছা

রাঙ্গামাটির দুর্গম-পার্বত্য সীমান্ত পরিদর্শন করলেন বিজিবির মহাপরিচালক

রাঙ্গামাটির দুর্গম-পার্বত্য সীমান্ত পরিদর্শন করলেন বিজিবির মহাপরিচালক

তীব্র তাপদাহ থাকতে পারে আরও ৩ দিন

তীব্র তাপদাহ থাকতে পারে আরও ৩ দিন

পাকিস্তানে চলন্ত বাস থেকে নামিয়ে গুলি, নিহত ৯

পাকিস্তানে চলন্ত বাস থেকে নামিয়ে গুলি, নিহত ৯