নরম মনোভাব দেখানোর অপরাধে সউদি আরবে ১০ বিচারপতির মৃত্যুদণ্ড

Daily Inqilab অনলাইন ডেস্ক

২৬ মার্চ ২০২৩, ১১:২১ এএম | আপডেট: ৩০ এপ্রিল ২০২৩, ১১:১৬ পিএম

গত বছরের মার্চের একদিনে ৮১ জনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করে গোটা বিশ্বের নজরে এসেছিল সউদি আরব। এবার সামনে আরেক তথ্য। ১০ জন বিচারপতিকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়েছে। মানবাধিকার ও নারী অধিকার কর্মীদের প্রতি নরম মনোভাব দেখানোর অপরাধেই তাদের এই ‘এতিহাসিক’ শাস্তি দিল সউদি আরব। ডেমোক্রেসি ফর দ্য আরব ওয়ার্ল্ড নাউ (ডএডব্লিউন)।

১০ জনের মধ্যে ৬ জন রিয়াদের স্পেশালাইজড ক্রিমিনাল কোর্টের বিচারপতি। বাকি চারজন হাইকোর্টের সাবেক বিচারপতি। ২০২২ সালের ১১ এপ্রিল তাদের গ্রেফতার করে সৌদি স্টেট সিকিউরিটি এজেন্সি। তারপর থেকে এখনও পর্যন্ত জেলেই বন্দি রয়েছেন তারা।

তাদের কোনো রকম আইনি সহায়তাও দেওয়া হচ্ছে না প্রশাসনের তরফে। শুধু তাই নয়, পরিবার এবং বাইরের কারও সঙ্গে যোগাযোগও করতে দেওয়া হচ্ছে না। সাজাপ্রাপ্ত বিচারপতিদের মধ্যে একজন হলেন আল লুহাইদান। তিনি ২০২০ সালে বিশিষ্ট নারী অধিকার কর্মী লুজাইন-আল-হাথলাউলকে তার এজলাসে পেশ করার ২ মাসের মধ্যেই মুক্তি দিয়েছিলেন। লুজাইনকে আগে ৬ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছিলেন সৌদি আদালত। কিন্তু সেই মামলা লুহাইদানের এজলাসে ওঠার পর তিনি লুজাইনের শাস্তি কমিয়ে মাত্র ২ বছর ১০ মাসের সাজা শোনান।

সেই সাজার বেশিরভাগটাই আগে অতিক্রান্ত হয়ে যাওয়ায় ২০২১ সালের ফেব্র“য়ারিতে মুক্তি পান ওই নারী অধিকার রক্ষা কর্মী। বাকি ‘অভিযুক্ত’ বিচারপতিদের বিরুদ্ধে একই ধরনের অভিযোগ রয়েছে। তাদের সরিয়ে দিয়ে ইতোমধ্যেই সেই জায়গায় অন্য বিচারপতিদের নিয়োগ করেছেন সৌদি আরবের ক্রাউন প্রিন্স।

সূত্রের খবর, নবনিযুক্ত বিচারপতিরা রাষ্ট্রের প্রতি অত্যন্ত অনুগত। তারা ইতোমধ্যেই দেশদ্রোহিতা এবং অন্যান্য অভিযোগে বিচারাধীন মানবাধিকার এবং নারী অধিকার কর্মীদের সাজা বাড়িয়ে দিতে শুরু করেছেন। জানা গেছে, শুধু সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করার অভিযোগে গ্রেফতার হওয়া দুজনের সাজা ৮ বছর এবং ১৩ বছর থেকে বাড়িয়ে যথাক্রমে ৩৪ এবং ৪৫ বছর করে দেওয়া হয়েছে।

বিচারপতিদের এভাবে অভিযুক্ত করা এবং শাস্তির মুখোমুখি দাঁড় করানো রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। এর মাধ্যমে সৌদি সরকার এই বার্তা দিতে চাইছে যে, ন্যূনতম রাষ্ট্রদ্রোহিতাও কোনোভাবেই বরদাস্ত করা হবে না। সন্ত্রাস এবং অন্যান্য অভিযোগে গ্রেফতার হওয়া সমাজকর্মীদের কঠোর থেকে কঠোরতম সাজা না দিলে একই শাস্তির মুখে পড়তে হবে বিচারপতিদেরও।


বিভাগ : আন্তর্জাতিক


মন্তব্য করুন

HTML Comment Box is loading comments...

আরও পড়ুন

দাপুটে ভারতের কাছে হারল অস্ট্রেলিয়া,স্বপ্ন দেখছে বাংলাদেশ-আফগানিস্তান

দাপুটে ভারতের কাছে হারল অস্ট্রেলিয়া,স্বপ্ন দেখছে বাংলাদেশ-আফগানিস্তান

ইয়োগা দিবসে উপলক্ষ্যে কর্মকর্তাদের জন্য সচেতনতামূলক সেশন ব্র্যাক ব্যাংকের

ইয়োগা দিবসে উপলক্ষ্যে কর্মকর্তাদের জন্য সচেতনতামূলক সেশন ব্র্যাক ব্যাংকের

বিএনপির শাসনামলে ভারত-বাংলাদেশের মধ্যে অনাস্থা ও অবিশ্বাসের সৃষ্টি হয়েছিল : ওবায়দুল কাদের

বিএনপির শাসনামলে ভারত-বাংলাদেশের মধ্যে অনাস্থা ও অবিশ্বাসের সৃষ্টি হয়েছিল : ওবায়দুল কাদের

তামিলনাড়ুতে বিষাক্ত মদপানে মৃত বেড়ে ৫৬, হাসপাতালে ১১৭

তামিলনাড়ুতে বিষাক্ত মদপানে মৃত বেড়ে ৫৬, হাসপাতালে ১১৭

ফরিদপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত দুই

ফরিদপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত দুই

শ্রমিক ফেডারেশন নেতা ওসমান আলীর বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ

শ্রমিক ফেডারেশন নেতা ওসমান আলীর বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ

ইন্টারনেট প্যাকেজ আরও সাশ্রয়ী করা হবে : তথ্য প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী

ইন্টারনেট প্যাকেজ আরও সাশ্রয়ী করা হবে : তথ্য প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী

ভুটানের প্রধানমন্ত্রীর সাথে পরিবেশমন্ত্রী সাবের চৌধুরীর বৈঠক

ভুটানের প্রধানমন্ত্রীর সাথে পরিবেশমন্ত্রী সাবের চৌধুরীর বৈঠক

বিয়ের প্রলোভনে ছাত্রলীগ নেত্রীকে একাধিকবার ধর্ষণ, মামলার পর দেশ ছেড়েছেন ছাত্রলীগ নেতা

বিয়ের প্রলোভনে ছাত্রলীগ নেত্রীকে একাধিকবার ধর্ষণ, মামলার পর দেশ ছেড়েছেন ছাত্রলীগ নেতা

চামড়া শিল্পের উন্নয়নে সময়াবদ্ধ কর্মপরিকল্পনা প্রণয়ন করা হচ্ছে : সিনিয়র শিল্প সচিব

চামড়া শিল্পের উন্নয়নে সময়াবদ্ধ কর্মপরিকল্পনা প্রণয়ন করা হচ্ছে : সিনিয়র শিল্প সচিব

স্পেনে প্রবাসী বাংলাদেশিদের ঈদ পুনর্মিলনী ও মিলনমেলা

স্পেনে প্রবাসী বাংলাদেশিদের ঈদ পুনর্মিলনী ও মিলনমেলা

ডিমের বাজারও সিন্ডিকেটের কালো থাবায় ক্ষত বিক্ষত : বাংলাদেশ ন্যাপ

ডিমের বাজারও সিন্ডিকেটের কালো থাবায় ক্ষত বিক্ষত : বাংলাদেশ ন্যাপ

ভারতের বিপক্ষে মহাগুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে টসে জিতে ফিল্ডিংয়ে অস্ট্রেলিয়া

ভারতের বিপক্ষে মহাগুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে টসে জিতে ফিল্ডিংয়ে অস্ট্রেলিয়া

বিএনপি গণতন্ত্রের কথা বললেও দলের ভিতরেই গণতন্ত্র নেই :হাছান মাহমুদ

বিএনপি গণতন্ত্রের কথা বললেও দলের ভিতরেই গণতন্ত্র নেই :হাছান মাহমুদ

সিপিআর ট্রেনিংয়ে ঘরে ঘরে তৈরি হবে বিশেষজ্ঞ, বাঁচবে হাজারো প্রাণ

সিপিআর ট্রেনিংয়ে ঘরে ঘরে তৈরি হবে বিশেষজ্ঞ, বাঁচবে হাজারো প্রাণ

জাতীয় সংসদ ভবনে ‘মুজিব ও স্বাধীনতা’র উদ্বোধন প্রধানমন্ত্রী

জাতীয় সংসদ ভবনে ‘মুজিব ও স্বাধীনতা’র উদ্বোধন প্রধানমন্ত্রী

বিশ্বাসঘাতকের কবলে পড়ে পলাশীর ন্যায় আবার স্বাধীনতা হারাতে বসেছি আমরা : ড. হেলাল উদ্দিন

বিশ্বাসঘাতকের কবলে পড়ে পলাশীর ন্যায় আবার স্বাধীনতা হারাতে বসেছি আমরা : ড. হেলাল উদ্দিন

আবার মঞ্চে ম্যাড থিয়েটারের নাটক দ্বিতীয় বিজয়া

আবার মঞ্চে ম্যাড থিয়েটারের নাটক দ্বিতীয় বিজয়া

বিয়ে করলেন সোনাক্ষী ও জাহির ইকবাল

বিয়ে করলেন সোনাক্ষী ও জাহির ইকবাল

স্টার ওয়ারসে ফিরছেন ডেইজি রিডলি

স্টার ওয়ারসে ফিরছেন ডেইজি রিডলি