যুক্তরাষ্ট্র চিঠিতে প্রধানমন্ত্রীর ভুয়সী প্রশংসা করেছে : সাংবাদিকদের পররাষ্ট্রমন্ত্রী

Daily Inqilab স্টাফ রিপোর্টার

২৫ মে ২০২৩, ১১:৫৫ পিএম | আপডেট: ২৫ মে ২০২৩, ১১:৫৫ পিএম

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্থনি বিøনকেন বাংলাদেশী নাগরিকদের জন্য ‘নতুন ভিসা নীতি’ ঘোষণায় বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ‘ভূঁয়সী প্রশংসা’ করেছেন বলে মন্তব্য করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন। যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এন্থনি বিøনকেন গত ৩ মে চিঠি দিয়ে নতুন ভিসা নীতি নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের অবস্থান জানায় বাংলাদেশকে। বাংলাদেশ ওই চিঠি গোপন রাখায় গত ২৪ মে বাংলাদেশ সময় গভীর রাতে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী তা প্রকাশ করেন। এই ইস্যুতে তোলপাড় শুরু হলে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ওই চিঠিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ‘ভ‚য়সী প্রশংসা’ করা হয়েছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমাকে তাদের (যুক্তরাষ্ট্র) পররাষ্ট্রমন্ত্রী চিঠি দিয়েছে এবং ওই চিঠিতে অত্যন্ত সুন্দর কথা বলেছে। তাদের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অপূর্ব চিঠি দিয়েছে প্রধানমন্ত্রীর ভ‚য়সী প্রশংসা করেছেন।

ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, যুক্তরাষ্ট্র বলেছে, আমরা যে নীতি প্রকাশ করলাম, সেটি প্রধানমন্ত্রীর যে আগ্রহ অবাধ ও সুষ্ঠ নির্বাচন করার, সেটিকে আরও শক্তিশালী অবস্থানে নেওয়ার জন্য এটি ঘোষণা করা হয়েছে। সুতরাং তারা যেটি করেছে ভালো বলে তিনি জানান।

নির্বাচন নিয়ে বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্র একমত হওয়ার পরও কেন ভিসা নীতি ঘোষণা করা হলো জানতে চাইলে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, এটি ভালো। দেখেন না দুষ্ট লোকেরা এখনো জ্বালাও-পোড়াও করে। গত পরশু পুলিশকে পিঠিয়েছে এবং বাস জ্বালিয়েছে। তারা কিছুটা সাবধান হবে। ভিসা কড়াকড়ি শুধু সরকারি দলের জন্য নয়, বিরোধী দলের জন্যও প্রযোজ্য হবে। ওই চিঠি ৩ মে পাঠানো হলেও এত দিন গোপন রাখা হয়েছে কেন, জানতে চাইলে আব্দুল মোমেন বলেন, তারা জানাক। তাদের নীতি আমরা জানাবো কেন?

পররাষ্ট্রমন্ত্রী দাবি করেন যে আওয়ামী লীগ গণতন্ত্রের ধারক ও বাহক। গত ১৪ বছরে আওয়ামী লীগ আছে বলেই গণতন্ত্র আছে। গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় সরকার বদল হয়েছে। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী যে বক্তব্য দিয়েছেন, সেটি প্রধানমন্ত্রী যা চাইছেন সেটিকে জোরালোভাবে সমর্থন করে বলে তিনি জানান। তিনি বলেন, যে মার্কিন সরকার তাদের যে ভিসা নীতি গ্রহণ করেছেন, সেটির সঙ্গে আমরা যেটি চাই সেটির সঙ্গে মিল আছে। আমরা চাই সুষ্ঠু ও অবাধ নির্বাচন এবং এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী বদ্ধপরিকর। কেউ কেউ অভিযোগ করে যে রাতের অন্ধকারে ভোট হয়ে যায় এবং সে কারণে আমরা স্বচ্ছ ব্যালট বক্স করেছি। তিনি আরো বলেন, তবে প্রায় আমি বলে থাকি, সরকারের আন্তরিকতা থাকলে এবং নির্বাচন কমিশনের ইচ্ছা থাকলে অনেক সময় অহিংস নির্বাচন হয় না। অনেক সময় অসুবিধা হয়। একটি হত্যাযজ্ঞ ছাড়া অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন চাইলে সব দল ও মত, সরকারি দল, বিরোধী দল, এনজিও, সুশীল সমাজ সবার সহযোগিতা দরকার। আমেরিকা যে নীতিটি ঘোষণা করেছে, সেখানে ওই কথা বলা হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের এই অবস্থানকে বাড়তি চাপ অনুভব করছেন কি না, জানতে চাইলে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, একদম না। তারা (যুক্তরাষ্ট্র) তাদের কাজ করেছে; আমরা আমাদের কাজ করবো। ##

 

 

 


বিভাগ : জাতীয়


মন্তব্য করুন

HTML Comment Box is loading comments...

আরও পড়ুন

আখাউড়ায় সাংবাদিকের ওপর হামলা একজন গ্রেপ্তার

আখাউড়ায় সাংবাদিকের ওপর হামলা একজন গ্রেপ্তার

বাবা হত্যার পরিকল্পনাকারীদের আ.লীগ থেকে বহিষ্কার করা হোক  - প্রতিবাদ সভায় এমপি আনার কন্যা ডরিন

বাবা হত্যার পরিকল্পনাকারীদের আ.লীগ থেকে বহিষ্কার করা হোক - প্রতিবাদ সভায় এমপি আনার কন্যা ডরিন

ঐতিহাসিক প্রয়োজনেই আওয়ামী লীগের জন্ম -আনন্দ র‌্যালি পূর্ব অনুষ্ঠানে আ জ ম নাছির উদ্দিন

ঐতিহাসিক প্রয়োজনেই আওয়ামী লীগের জন্ম -আনন্দ র‌্যালি পূর্ব অনুষ্ঠানে আ জ ম নাছির উদ্দিন

পদ্মায় পানি বেড়ে দৌলতদিয়া ফেরিঘাটে ভাঙন আতঙ্ক

পদ্মায় পানি বেড়ে দৌলতদিয়া ফেরিঘাটে ভাঙন আতঙ্ক

বীমা সেবার পরিধি বাড়াতে গার্ডিয়ান লাইফ ইন্স্যুরেন্স-ব্র্যাক হেলথকেয়ার স্ট্র্যাটিজিক পার্টনারশিপ চুক্তি

বীমা সেবার পরিধি বাড়াতে গার্ডিয়ান লাইফ ইন্স্যুরেন্স-ব্র্যাক হেলথকেয়ার স্ট্র্যাটিজিক পার্টনারশিপ চুক্তি

সোনালী ব্যাংকে হুইসেল ব্লোয়ার্স পলিসি বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত

সোনালী ব্যাংকে হুইসেল ব্লোয়ার্স পলিসি বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত

ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কে এলেঙ্গা থেকে সেতুপূর্ব পর্যন্ত ১৪ কি.মি. এলাকায় থেমে থেমে যানজট

ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কে এলেঙ্গা থেকে সেতুপূর্ব পর্যন্ত ১৪ কি.মি. এলাকায় থেমে থেমে যানজট

প্রধানমন্ত্রী ভারতকে সবকিছু উজার করে দিয়েই যাচ্ছেন

প্রধানমন্ত্রী ভারতকে সবকিছু উজার করে দিয়েই যাচ্ছেন

মতলবে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু

মতলবে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু

চুক্তি জনগণ মানে না ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ

চুক্তি জনগণ মানে না ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ

চৌদ্দগ্রামে নানার বাড়িতে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু

চৌদ্দগ্রামে নানার বাড়িতে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ৩১ রাজ্যে স্তন্যপায়ীদের শরীরেও ‘বার্ড ফ্লু’র সন্ধান

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ৩১ রাজ্যে স্তন্যপায়ীদের শরীরেও ‘বার্ড ফ্লু’র সন্ধান

কালিয়াকৈরে মহাসড়কে গাড়ির চাপ, কর্মস্থলে ফিরছেন কর্মজীবীরা

কালিয়াকৈরে মহাসড়কে গাড়ির চাপ, কর্মস্থলে ফিরছেন কর্মজীবীরা

প্রশ্ন : সন্তানের জন্মের পূর্বেই তার আকিকার নিয়ত পশু নির্দিষ্ট করে রাখা প্রসঙ্গে।

প্রশ্ন : সন্তানের জন্মের পূর্বেই তার আকিকার নিয়ত পশু নির্দিষ্ট করে রাখা প্রসঙ্গে।

খালেদা জিয়াকে চিকিৎসার জন্য অবিলম্বে বিদেশে পাঠাতে হবে

খালেদা জিয়াকে চিকিৎসার জন্য অবিলম্বে বিদেশে পাঠাতে হবে

ড্রয়ের ম্যাচে জরিমানাও গুনতে হলো ক্রোয়েশিয়াকে

ড্রয়ের ম্যাচে জরিমানাও গুনতে হলো ক্রোয়েশিয়াকে

বন্যায় সিলেটে অনার্স ও ডিগ্রি'র দুটি পরীক্ষা স্থগিত !

বন্যায় সিলেটে অনার্স ও ডিগ্রি'র দুটি পরীক্ষা স্থগিত !

ভারতের সেবাদাসে পরিণত হয়েছে সরকার : মির্জা ফখরুল

ভারতের সেবাদাসে পরিণত হয়েছে সরকার : মির্জা ফখরুল

কুষ্টিয়ায় ট্রাকের ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহীর মৃত্যু

কুষ্টিয়ায় ট্রাকের ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহীর মৃত্যু

টিকে থাকার লড়াইয়ে মুখোমুখি ইতালি-ক্রোয়েশিয়া

টিকে থাকার লড়াইয়ে মুখোমুখি ইতালি-ক্রোয়েশিয়া