৪২৯ কাগুজে গার্মেন্টস ফ্যাক্টরি

সিদ্ধান্ত নিতে এফবিসিসিআইকে হাইকোর্টের নির্দেশ

Daily Inqilab স্টাফ রিপোর্টার

১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১২:০৪ এএম | আপডেট: ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১২:০৪ এএম

দেশের ৪২৯টি কাগুজে গার্মেন্টস ফ্যাক্টরির বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। সেই সঙ্গে কারখানাগুলোর কথিত মালিকদের বিজেএমইএ’র ভোটার হিসেবে কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না- এই মর্মে রুল জারি করা হয়েছে। রুলে ফ্যাক্টরিগুলোর টিআইএন ঠিক আছে কিনা তা যাচাই করে জানাতে বলা হয়েছে। এ কাজে সহায়তা করবে এনবিআর।

রিটের শুনানি শেষে গতকাল বিচারপতি নাইমা হায়দার এবং বিচারপতি জিনাত হকের ডিভিশন বেঞ্চ এ নির্দেশসহ রুল জারি করেন। ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআইকে সাত কার্যদিবসের মধ্যে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে। রিটকারী ফয়সাল সামাদের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার মোস্তাফিজুর রহমান খান।

এর আগে ৪২৯টি কাগুজে গার্মেন্টস ফ্যাক্টরির অস্তিত্ব নিয়ে সম্প্রতি সংবাদ মাধ্যমে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। এর পরপরই ৬৭টি গার্মেন্টস ফ্যাক্টরির নাম বিজেএমইএ’র ভোটার তালিকা থেকে বাদ দেয় নির্বাচনী আপীল বোর্ড। তবে বাকী কারখানাগুলোর নাম ভোটার তালিকা থেকে বাদ দেয়ার জন্য ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআই-এর নির্বাচনী ট্রাইব্যুনালের কাছে আবেদন দেয় একটি পক্ষ। এফবিসিসিআই আরবিট্রেশন ট্রাইব্যুনালে গত ৩১ জানুয়ারি ভূয়া ভোটারের বিষয়ে আবেদন দেয়া হলেও এখনো পর্যন্ত তা শুনানির জন্য আসেনি। এ বিষয়ে গত ৫ ফেব্রুয়ারি আরবিট্রেশন ট্রাইব্যুনালের মহাসচিবকে তাগাদা দেয়া হয়। তা সত্ত্বেও এ বিষয়ে কোনো শুনানি হয়নি। এমনকি এ বিষয়ে কোন ব্যবস্থা আদৌ নেয়া হবে কিনা সে বিষয়েও অভিযোগকারীকে কিছু জানানো হয়নি।

ব্যারিস্টার মোস্তাফিজুর রহমান খান বলেন, বিজিএমইএ’র সদস্য হতে হলে অবশ্যই সংশ্লিষ্ট কারখানার টিআইএন নাম্বার থাকতে হবে। রিটার্নও হালনাগাদ থাকতে হবে। যেসব কারখানার বিরুদ্ধে অভিযোগ করা হয়েছে সেগুলোর কারো কারো হয়তো এক সময় কারখানা ছিলো। তাদের অনেকে নানা কারণে এখন ব্যবসার বাইরে আছেন। যেসব কারখানার বিরুদ্ধে অভিযোগ করা হয়েছে সেগুলো থেকে ৭০ থেকে ৮০ জনের নাম বিজিএমইএ নির্বাচনের জন্য গঠিত ট্রাইব্যুনাল বাদ দিয়েছে। এতে সংক্ষুব্ধ হয়ে রিটকারী এফবিসিসিআই ট্রাইব্যুনালে আপীল করেছেন। কিন্তু সেখানে তারা অপীল নিষ্পত্তিতে বিলম্ব হচ্ছে। এ প্রেক্ষাপটে রিটটি দায়ের করা হয়েছে। আগামী ৯মার্চ তৈরি পোশাক শিল্প মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএ’র নির্বাচন হওয়ার কথা। নির্বাচনের তফশিল অনুযায়ী সংগঠনের পক্ষ থেকে ভোটার তালিকা হালনাগাদ করা হয়।


বিভাগ : জাতীয়


মন্তব্য করুন

HTML Comment Box is loading comments...

এই বিভাগের আরও

বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী ছিলেন অধ্যাপক মোসলেমা খাতুন
ঢাকা-আশুলিয়া এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের সমস্যার মূলে সিএমসি
পল্টনে পুলিশ হত্যা মামলার আসামি নীলফামারীতে গ্রেফতার
গত বছরের জুন পর্যন্ত মেট্রোরেলে আয় ১৮,২৮,০৬,৫১৪ টাকা
১ লাখ টন চিনি পুড়ে ছাই, এখনো জ্বলছে আগুন
আরও

আরও পড়ুন

ইউসিবির উদ্যোগে আর্থিক সাক্ষরতা দিবস পালিত

ইউসিবির উদ্যোগে আর্থিক সাক্ষরতা দিবস পালিত

এসও-এস শিশু পল্লী’র সাথে অংশীদারিত্বে আসলো ভিভো

এসও-এস শিশু পল্লী’র সাথে অংশীদারিত্বে আসলো ভিভো

ভাঙ্গা থেকে পায়রা হয়ে কুয়াকাটা পর্যন্ত রেলপথ নির্মাণের প্রকল্প গ্রহণ করা হবে

ভাঙ্গা থেকে পায়রা হয়ে কুয়াকাটা পর্যন্ত রেলপথ নির্মাণের প্রকল্প গ্রহণ করা হবে

বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী ছিলেন অধ্যাপক মোসলেমা খাতুন

বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী ছিলেন অধ্যাপক মোসলেমা খাতুন

একুশে গ্রন্থমেলায় বিক্রয় শীর্ষে এম মিরাজ হোসেনের নতুন দুই বই

একুশে গ্রন্থমেলায় বিক্রয় শীর্ষে এম মিরাজ হোসেনের নতুন দুই বই

ঢাকা-আশুলিয়া এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের সমস্যার মূলে সিএমসি

ঢাকা-আশুলিয়া এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের সমস্যার মূলে সিএমসি

পল্টনে পুলিশ হত্যা মামলার আসামি নীলফামারীতে গ্রেফতার

পল্টনে পুলিশ হত্যা মামলার আসামি নীলফামারীতে গ্রেফতার

গত বছরের জুন পর্যন্ত মেট্রোরেলে আয় ১৮,২৮,০৬,৫১৪ টাকা

গত বছরের জুন পর্যন্ত মেট্রোরেলে আয় ১৮,২৮,০৬,৫১৪ টাকা

টিকিটের দাম ২ কোটিরও বেশি! বিশ্বকাপে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ নিয়ে তুঙ্গে উত্তেজনা

টিকিটের দাম ২ কোটিরও বেশি! বিশ্বকাপে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ নিয়ে তুঙ্গে উত্তেজনা

মনিপুর স্কুলকে গ্রাস করার অপচেষ্টা চলছে: সংবাদ সম্মেলনে অভিভাবকদের অভিযোগ

মনিপুর স্কুলকে গ্রাস করার অপচেষ্টা চলছে: সংবাদ সম্মেলনে অভিভাবকদের অভিযোগ

১ লাখ টন চিনি পুড়ে ছাই, এখনো জ্বলছে আগুন

১ লাখ টন চিনি পুড়ে ছাই, এখনো জ্বলছে আগুন

রুশ ও মার্কিন নভোচারী নিয়ে স্পেসএক্স এর যাত্রা

রুশ ও মার্কিন নভোচারী নিয়ে স্পেসএক্স এর যাত্রা

লাক্ষাদ্বীপে কেন দ্বিতীয় সামরিক নৌঘাঁটি তৈরি করছে ভারত?

লাক্ষাদ্বীপে কেন দ্বিতীয় সামরিক নৌঘাঁটি তৈরি করছে ভারত?

কুসিক উপনির্বাচন : সংখ্যালঘু নতুন ও দক্ষিনের ভোটার জয়-পরাজয়ে ফ্যাক্টর

কুসিক উপনির্বাচন : সংখ্যালঘু নতুন ও দক্ষিনের ভোটার জয়-পরাজয়ে ফ্যাক্টর

সিরাজগঞ্জে ‘শিক্ষকের গুলিতে’ মেডিক্যাল কলেজ শিক্ষার্থী আহত

সিরাজগঞ্জে ‘শিক্ষকের গুলিতে’ মেডিক্যাল কলেজ শিক্ষার্থী আহত

বাংলাদেশকে কঠিন লক্ষ্য দিল শ্রীলঙ্কা

বাংলাদেশকে কঠিন লক্ষ্য দিল শ্রীলঙ্কা

সুগার মিলের আগুন নিয়ন্ত্রণে নৌবাহিনী

সুগার মিলের আগুন নিয়ন্ত্রণে নৌবাহিনী

টেকসই ভবিষ্যতের লক্ষ্যে পরিবেশবান্ধব জ্বালানিতে গুরুত্ব দিচ্ছে গ্রামীণফোন

টেকসই ভবিষ্যতের লক্ষ্যে পরিবেশবান্ধব জ্বালানিতে গুরুত্ব দিচ্ছে গ্রামীণফোন

মধ্যপ্রাচ্যের অন্যতম গন্তব্য আবুধাবীতে ফ্লাইট শুরু করতে যাচ্ছে ইউএস-বাংলা

মধ্যপ্রাচ্যের অন্যতম গন্তব্য আবুধাবীতে ফ্লাইট শুরু করতে যাচ্ছে ইউএস-বাংলা

ওয়ারীর ১৪ রেস্টুরেন্টে অভিযান, আটক ১৬

ওয়ারীর ১৪ রেস্টুরেন্টে অভিযান, আটক ১৬