ঢাকা   বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪ | ৫ বৈশাখ ১৪৩১

সত্যিকারের নেত্রী হলে আপনার ভারতীয় শাড়ি পোড়ান :প্রধানমন্ত্রীকে রিজভী

Daily Inqilab স্টাফ রিপোর্টার

০৩ এপ্রিল ২০২৪, ১২:০৮ এএম | আপডেট: ০৩ এপ্রিল ২০২৪, ১২:০৮ এএম

প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, আপনি যদি সত্যিকারের এ দেশের নেত্রী হয়ে থাকেন, এ দেশের কলকারখানা প্রমোট করেন। আজকে যে অর্থনৈতিক আগ্রাসন চালাচ্ছে, সেটাকে রুখতে হলে, আপনি আপনার ভারতীয় শাড়ী পোড়ান। গতকাল মঙ্গলবার নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে জাতীয়তাবাদী প্রচার দল আয়োজিত এক ইফতার ও দোয়া মাহফিলে তিনি এসব কথা বলেন।
রুহুল কবির রিজভী বলেন, বাংলাদেশ একটি পুলিশী রাষ্ট্র, এ দেশে গণমাধ্যমও আছে সেই সাথে বাকশালও আছে ভিন্নভাবে। আমার দেশ, দিগন্ত টিভি, ইসলামিক টিভি ও দিনকাল বন্ধ করেছে এই সরকার। বিরোধী কণ্ঠ রোধ করতে বাকশালের মতো কাজ করছে এই সরকার। অনেক মিডিয়া থাকলেও সত্য, ন্যায় সঙ্গত কথা বলা, শেখ হাসিনার অর্থ লুট এগুলো বলতে গেলেই আপনি নিরুদ্দেশ, না হয় আজীবনের জন্য কারাগারে থাকতে হবে।
রাজনৈতিক স্বাধীনতা হরণ করতে হলে আগে তার সাংস্কৃতিক কালচার হরণ করতে হবে এমন মন্তব্য করে তিনি বলেন, দেশে পার্শ্ববর্তী দেশের সিনেমা দিয়ে সাংস্কৃতিক আগ্রাসনের ছড়িয়ে পড়ছে। এটি অত্যন্ত ক্যালকুলেট করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা করে যাচ্ছেন।
রিজভী বলেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যখন আমরা ভারতীয় পণ্য বর্জন দেখি। তখন আমাদের সহমত জন্মায়। সেটিতে প্রধানমন্ত্রী রিয়েক্ট করে, রিয়েক্ট তো করবেনই। প্রধানমন্ত্রী ইতোমধ্যে স্বাধীনতা জমা দিয়েছেন, জিম্মি করে দিয়েছেন পার্শ্ববর্তী দেশের কাছে।
ভারতের শাড়ি নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর এমন বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় তিনি বলেন, আপনার গায়ে লাগছে কেন? আপনি যদি সত্যিকারের এ দেশের নেত্রী হয়ে থাকেন, এ দেশের কলকারখানা প্রমোট করেন। আজকে যে অর্থনৈতিক আগ্রাসন চালাচ্ছে, সেটাকে রুখতে হলে, আপনি আপনার ভারতীয় শাড়ী পুড়িয়ে দেন। সেটি পোড়াচ্ছেন না কেন?
বিএনপির স্বনির্ভর বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট শিরীন সুলতানার সভাপতিত্বে প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দলটির যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট অ্যাডভোকেট সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, আন্তর্জাতিক বিষয়ক কমিটির সদস্য ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেন, লেবার পার্টির চেয়ারম্যান ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, প্রচারদলের সভাপতি মাহফুজ কবির মুক্তা, সাধারণ সম্পাদক আকবর হোসেন প্রমুখ।
এর আগে দুপুরে নয়াপল্টনে জিয়া প্রজন্ম দলের উদ্যোগে বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের পক্ষ থেকে ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে রুহুল কবির রিজভী বলেন, সারা দুনিয়া শেখ হাসিনার অবৈধ নির্বাচনকে স্বীকৃতি দেয়নি। সেটা ২০১৪ হোক, ২০১৮ হোক বা ২০২৪ সালে নির্বাচন। কিন্তু আমাদের প্রতিবেশী দেশ যারা নিজেকে গণতান্ত্রিক দেশ বলে দাবি করে তারা একটি দলের হয়ে সারা বিশ্বে ও উকালতি করছে, অবৈধ নির্বাচনকে জায়েজ করতে চেষ্টা করছে। তারা বাংলাদেশের জনগণকে সম্মান করে না, বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বে বিশ্বাস করে না। তারা শুধু চায় বাংলাদেশে একটি দল আজীন ক্ষমতায় থাকুক আর তাদের তাবেদারি করুক। সেজন্যই জনগণ তাদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করছে, তাদের পণ্য বর্জন করছে। প্রতিবেশী দেশ আমাদের সম্মান করে না, দেশের জনগণকে সম্মান করে না, দেশে অবাধ সুষ্ঠু নির্বাচন হোক তারা তা চায় না। তারা সীমান্তে বাংলাদেশীদের পাখির মতো হত্যা করে। ভারত বাংলাদেশকে নিয়ন্ত্রণ করতে চায়, প্রভু হতে চায়। তিনি বলেন, বাংলাদেশকে তাবেদার রাষ্ট্র বানানো চলবে না, জনগণ তা হতে দিবে না। বাংলাদেশকে আরেকটি কাশ্মীর হতে দেব না।
রিজভী বলেন, ৭২ থেকে ৭৫ যেভাবে বাংলাদেশেকে ভিক্ষুকের দেশে পরিণত করা হয়েছিল শেখ হাসিনা দেশকে সে অবস্থায় নিয়ে যেতে চাচ্ছেন। দেশের মানুষের অবস্থা ভয়াবহ উল্লেখ করে তিনি বলেন, আজকে দেশে ভয়াবহ ডলার সংকট চলছে। রিজার্ভ ফুরিয়ে আসছে। তিন মাস আমদানি করার রিজার্ভও ব্যাংকে নেই। তারা ১৯ বিলিয়ন ডলারের কথা বললেও ব্যাংকে রিজার্ভ আছে তার চেয়ে অনেক কম। বর্তমানে পোশাক রফতানি ৩০ভাগ কমে গেছে। এ অবস্থা চলতে থাকলে পোশাক কারখানা থাকবে না, সব বন্ধ হয়ে যাবে। মানুষ বেকার হয়ে রিকশা চালানোর অবস্থাও থাকবে না। শেখ হাসিনা দেশকে সে অবস্থায় নিয়ে গেছেন।
বিএনপির এই নেতা বলেন, অত্যন্ত সুক্ষভাবে বাংলাদেশের সংখ্যাগরিষ্ঠ মানুষের সাংস্কৃতিক মূল্যবোধ ও ধর্মীয় মূলবোধের উপর আক্রমণ করছে সরকার। তারা সবকিছুর অনুমতি দিলেও ইফতারের অনুমতি দেয় না। এমনকি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ইফতারেও বাধা দেওয়া হচ্ছে। আর এটা করেছে তাদের প্রভুদের খুশি করতে। টার্গেট করে করে এদেশের সংস্কৃতি ও ধমীয় মুল্যবোধে আঘাত করছে সরকার।
এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন বিএনপি’র ঢাকা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাড. আব্দুস সালাম আজাদ, যুবদল কেন্দ্রীয় কমিটির সাহিত্য ও প্রকাশনা সম্পাদক মেহবুব মাসুম শান্ত, ছাত্রদল কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডাঃ তৌহিদুর রহমান আউয়াল প্রমুখ।


বিভাগ : জাতীয়


মন্তব্য করুন

HTML Comment Box is loading comments...

আরও পড়ুন

শরিফুল-তাসকিন তোপে উড়ে গেল শেখ জামালও

শরিফুল-তাসকিন তোপে উড়ে গেল শেখ জামালও

বাসের ধাক্কায় কিশোরগঞ্জে দুই মোটরসাইকেল আরোহী নিহত

বাসের ধাক্কায় কিশোরগঞ্জে দুই মোটরসাইকেল আরোহী নিহত

ফারাক্কার প্রভাবে পদ্মা নদী এখন বিলে পরিনত হয়েছে

ফারাক্কার প্রভাবে পদ্মা নদী এখন বিলে পরিনত হয়েছে

আমার স্ত্রীর কোনো ক্ষতি হলে সেনাপ্রধানকে দায়ী করব : ইমরান খান

আমার স্ত্রীর কোনো ক্ষতি হলে সেনাপ্রধানকে দায়ী করব : ইমরান খান

পশ্চিমাদের চাপ বাড়লেও ইরানের তেল রপ্তানিতে বাধা নেই

পশ্চিমাদের চাপ বাড়লেও ইরানের তেল রপ্তানিতে বাধা নেই

কারাবন্দি থেকে ফের গৃহবন্দি সু চি

কারাবন্দি থেকে ফের গৃহবন্দি সু চি

প্রাণিসম্পদ সেবা সপ্তাহ ও প্রদর্শনীর উদ্বোধন প্রধানমন্ত্রীর

প্রাণিসম্পদ সেবা সপ্তাহ ও প্রদর্শনীর উদ্বোধন প্রধানমন্ত্রীর

ক্রিমিয়া ও ডনবাস চিরকাল রাশিয়ার মধ্যে থাকবে: স্লোভাক প্রধানমন্ত্রী

ক্রিমিয়া ও ডনবাস চিরকাল রাশিয়ার মধ্যে থাকবে: স্লোভাক প্রধানমন্ত্রী

রুশ সেনাদের অগ্রগতির কথা স্বীকার করেছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট

রুশ সেনাদের অগ্রগতির কথা স্বীকার করেছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট

সিঙ্গাপুরের নতুন প্রধানমন্ত্রীকে যে চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হবে

সিঙ্গাপুরের নতুন প্রধানমন্ত্রীকে যে চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হবে

বনশ্রীতে লাগা আগুন নিয়ন্ত্রণে

বনশ্রীতে লাগা আগুন নিয়ন্ত্রণে

ছাতকে সড়ক দুর্ঘটনায় কণ্ঠশিল্পী পাগল হাসানসহ প্রাণ গেল দুইজনের

ছাতকে সড়ক দুর্ঘটনায় কণ্ঠশিল্পী পাগল হাসানসহ প্রাণ গেল দুইজনের

ইসরাইল প্রতিশোধ নিলে আঞ্চলিক যুদ্ধের ঝুঁকি বাড়বে: জর্ডান

ইসরাইল প্রতিশোধ নিলে আঞ্চলিক যুদ্ধের ঝুঁকি বাড়বে: জর্ডান

ব্রেন্ডন লিঞ্চের নেতৃত্বে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধি দল ঢাকায় আসছেন ২১ এপ্রিল

ব্রেন্ডন লিঞ্চের নেতৃত্বে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধি দল ঢাকায় আসছেন ২১ এপ্রিল

মুজিবনগর সরকার এবং বাংলাদেশের স্বাধীনতা একই সূত্রে গাঁথা: রাষ্ট্রদূত মো.ইমরান

মুজিবনগর সরকার এবং বাংলাদেশের স্বাধীনতা একই সূত্রে গাঁথা: রাষ্ট্রদূত মো.ইমরান

সেরেল্যাকে অতিরিক্ত চিনি মেশানোর অভিযোগ নেসলের বিরুদ্ধে

সেরেল্যাকে অতিরিক্ত চিনি মেশানোর অভিযোগ নেসলের বিরুদ্ধে

গেরুয়া পোশাক পরা নিয়ে প্রশ্ন তোলায় তেলঙ্গানায় স্কুলে হামলা

গেরুয়া পোশাক পরা নিয়ে প্রশ্ন তোলায় তেলঙ্গানায় স্কুলে হামলা

দীর্ঘক্ষণ রোদে রেখে ১ মাসের সন্তানকে হত্যা, ৮ বছর জেল রাশিয়ান ইনফ্লুয়েন্সারের

দীর্ঘক্ষণ রোদে রেখে ১ মাসের সন্তানকে হত্যা, ৮ বছর জেল রাশিয়ান ইনফ্লুয়েন্সারের

কেউ মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনে কোনো পদক্ষেপ নেয়নি: প্রধানমন্ত্রী

কেউ মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনে কোনো পদক্ষেপ নেয়নি: প্রধানমন্ত্রী

মুজিবনগর দিবস বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রাম এবং মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসে এক অনন্য দিন

মুজিবনগর দিবস বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রাম এবং মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসে এক অনন্য দিন