ঢাকা   বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪ | ৫ বৈশাখ ১৪৩১
ক্রেতা সংখ্যা নিয়ে ব্যবসায়ীদের মিশ্র প্রতিক্রিয়া

মার্কেট-শপিং মলে জমে উঠেছে কেনা-বেঁচা দেশীয় পণ্যে ঝুঁকেছেন ক্রেতারা

Daily Inqilab স্টাফ রিপোর্টার

০৩ এপ্রিল ২০২৪, ১২:০৭ এএম | আপডেট: ০৩ এপ্রিল ২০২৪, ১২:০৭ এএম


ঈদুল ফিতরের আর মাত্র কয়েক দিন বাকি। এ সময় ক্রেতা ও বিক্রেতারা কেনা-বেচায় ব্যস্ত সময় পার করছেন। ঈদ কেন্দ্র করে পোশাক থেকে শুরু করে প্রসাধনী, জুতা, গয়না, ঘরের অন্দরসজ্জা সামগ্রী, ক্রোকারিজ ও ইলেকট্রনিক জিনিসপত্রসহ বিভিন্ন পণ্য কিনতে ভিড় করছেন ক্রেতারা। সরকারি ছুটির দিন পেয়ে মানুষের এই ভিড় আরো একটু বেড়ে যায়। তবে এবার অন্য কয়েকবারের চেয়ে দেশিয় পণ্যে ঝুঁকেছে ক্রেতারা বলে বিভিন্ন ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলে জানান গেছে। তবে ব্যবসায়ীরা বলছেন, ভারতীয় পণ্য ক্রেতারা আগের চেয়ে কম কিনছেন এটা সত্যি। তবে দেশীয় পণ্যের দাম বেশি হওয়ার অনেকে ইচ্ছা থাকা শর্তেও কিনতে পারছেন না। তবে রাজধানীর বড় মার্কেটগুলো বিক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলে এবার ক্রেতা সংখ্যা নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া পাওয়া গেছে। ব্যবসায়ীদের অনেকে বলছেন, অন্য বছরের তুলনায় এবার বেচা-বিক্রি তেমন জমে নি। আবার অনেকে বলেছেন, করোনার পরে এবারই ক্রেতার ভির বেশি পেয়েছেন তারা।

জানা গেছে, ঈদুল ফিতর সামনে রেখে রাজধানীর বড় শপিং মল গুলোতে ভারতীয় পণ্যও বিক্রি হচ্ছে। বলা যায়, অন্য বছরগুলোর মতই এবারও ঈদের বাজারে যেসব পোশাক বিক্রি হচ্ছে তার উল্লেখযোগ্য একটি অংশই ভারতীয়। ঢাকার একাধিক এলাকার বিভিন্ন মার্কেট ও শপিং মলে ক্রেতা-বিক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যাচ্ছে, পোশাক কেনার সময় সেটি কোন দেশের, তা নিয়ে খুব একটা মাথাব্যথা নেই অধিকাংশর। আর দোকানিরা বলছেন, ঈদের বাজার সামলানোর মতো পর্যাপ্ত পোশাক দেশে উৎপাদনই হয় না।

রাজধানী ঢাকার বসুন্ধরা সিটি, নিউ মার্কেট, শান্তিনগর, বাড্ডা ও পুরাণ ঢাকার বড় কয়েকটি মার্কেটের ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, কোন কোন মার্কেটে ঈদে আগের কয়েক বছরের চেয়ে বেশি বিক্রি হচ্ছে, আবার কোথাও কোথাও কমও হচ্ছে। আসলে এখনো ঈদের কেনাকাটা আরো জমবে। যা আগামী ৭-৮ দিনে হবে বলে তারা আশা করছেন। ব্যবসায়ীরা বলছেন, মানুষের এবার অনেকেরই হাতে আগের মত টাকা নেই। অনেকে এ জন্য এখনো ঈদের কেনা-কাটায় মনোযোগী হতে পারেন নি। তবে আগামী কয়েকদিনে ঈদের কেনা-কাটা বাড়বে বলেই মনে করছেন তারা। তবে এর ভিন্ন প্রতিক্রিয়া পাওয়া গিয়েছে, অনেকে বলেছেন, এবার তাদের ক্রেতা সংখ্যা বেশি। বিক্রি হচ্ছে বেশি। সব খানেই মেয়ে ও শিশুদের ড্রেসগুলোই বেশি বিক্রি হচ্ছে।
রাজধানীর নিউজ মার্কেট ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম সাগর ইনকিলাবকে জানান, এবারও ক্রেতাদের ভির আছে। তবে অন্য বছরগুলোর চেয়ে একটু কম। এর জন্য নিউ মার্কেটের সামনের ওভার ব্রিজের মেরামত কাজ হওয়ার অন্যতম কারণ বলে তিনি জানান। তিনি জানান, নিউজ মার্কেটে রেডিমেড পোশাকই বেশি বিক্রি হয়, এবারও তাই হচ্ছে। এ মার্কেটে এ জিনিসটি সস্তা হওয়ায় এবার ক্রেতাদের ভির হচ্ছে বলে জানান তিনি।

রাজধানী পুরাণ ঢাকা গ্রেড ওয়াল মার্কেটের ম্যানেজার আবু সাঈদ জানালেন, এবার অন্য বারের তুলনায় মানুষের কেনাকাটার কম হচ্ছে। তবে আগামীতে তা বাড়তে পারে বলে তিনি মনে করছেন। তবে এর উল্টো কথা বললেন, রাজধানীর বাড্ডার সুবস্তু নজর ভ্যালীর এ্যাসিটেন্ট ম্যানেজার রাকিবুল ইসলাম ইনকিলাবকে বলেন, গত বছরের চেয়ে কেনা-কাটা বেশি। এবার বাচ্চাদের আইটেম বিক্রি হচ্ছে বেশি। যার অধিকাংশই ভারতীয় পণ্য। সেটাই বেশি চলছে।

ঈদে মোহাম্মদপুরের জাপান গার্ডেন সিটির টোকিও স্কয়ার থেকে জামা কিনেছেন নাফিসা। এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ঈদের সময় একটু ঝলমলে কাপড় না হলে ভালো লাগে না। এ জন্য জর্জেট, সিল্ক বা কাতানের ওপর কাজ করা ঝলমলে গাউনই ভালো লাগে। তবে ঝলমলে কাপড়ের সঙ্গে দেশি সুতি কাপড়ও কিনেছি। যাতে ঈদের পরে পরতে পারি। ওই মার্কেটে দেখা গেল ভারতীয় পোশাকের সঙ্গে যেমন পাকিস্তানী পোশাক রয়েছে এর সঙ্গে রয়েছে দেশীয় পোশাকও। তবে অন্যবারের মতই ভারতীয় শাড়ি, থ্রি পিছ ও লেহেঙ্গার দোকানেই বেশি ভির হচ্চে বলে জানালেন ব্যবসায়ীরা। ওই মার্কেটের কয়েকজন ব্যবসায়ী জানালেন, এবার অন্যবারের চেয়ে বেঁচা-বিক্রি কম। অর্থ্যাৎ ক্রেতার আনাগোনা এবং বিক্রি দুটোই কম। এর কারণ হিসেবে এক ব্যবসায়ী জানান, শবেবরাতের পর কথা বলার সুযোগও হয় না। কিন্তু এখন ক্রেতা কম। মাসের সবে শুরু। সামনে আরো কয়েকদিন আছে। ক্রেতারা বেতন-বেনাস পেলে আশা করি আরো বিক্রি বাড়বে। অন্য এক ব্যবসায়ী জানান, আট বছর ধরে ব্যবসা করি। কিন্তু রোজার মাঝামাঝি সময়ে এসেও তেমন বিক্রি হচ্ছে না। অন্যান্য বছরের তুলনায় অনেকটা কম। আর ওই মার্কেটের কয়েকজন ক্রেতা জানালেন, মার্কেটে পোশাকজন জিনিসের দাম বেশি। পছন্দ হলেই সঙ্গে সঙ্গে তা কিনতে কষ্ট হচ্ছে ক্রেতাদের। এক ক্রেতা জানালেন, একই রকম কোটা শাড়ি নিউমার্কেটে অর্ধেকের চেয়েও কম দামে কেনা যায়। একটা ফ্রক ড্রেস কিনলাম মেয়ের জন্য। তিন হাজার টাকা দাম নিলো। অথচ নিউমার্কেটে কম দামে কেনা যেত। দাম অনেক বেশি রাখলো।

বিভিন্ন মার্কেট ও শপিং মলে পোশাকের দোকানগুলোতে ঘুরে দেখা গেছে, নারী, শিশু ও পুরুণের জমকালো নকশার পোশাক। যার মধ্যে রয়েছে ভারতীয়, পাকিস্তানী ও দেশী ব্র্যান্ডের মিশেল। ঈদে কেনা কাটা মানুষ পছন্দ অনুসারে পোশাক কিনছেন। তবে এবার দেশি শাড়ির দোকানগুলোতে যেমন ভির দেখা গেছে। যা অন্য বারের ঈদের চেয়ে বেশি। ক্রেতারা বলছেন, উৎসবমুখী গুণগত ব্র্যান্ডের দেশি শাড়ি ও অন্যান্য পোশাকের তুলনামূলকভাবে দাম বেশি হওয়ায় তারা এ পোশাকে ঝুঁকতে পারছেন না। ফলে ইচ্ছা থাকা শর্তেও ওই পণ্য কেনা অনেকের পক্ষেই সম্ভব হচ্ছে না। এ বিষয়ে এক ক্রেতা জানালেন, নিজেদেরর পছন্দেই দেশি পোশাক কিনে থাকেন তিনি। কিন্তু আড়ংসহ দেশিদশ যে রয়েছে- যেমন কে ক্রাফটসহ অন্য যারা আছে তাদের বেশিরভাগেই গুণগত মান ভালো। কাপড় পড়েও আরাম কিন্তু পোশাকগুলোর দাম অনেকটা বেশি। এটা কম হলে ভাল হতো। জানা গেছে, এবার দেশি কাপড়ের চাহিদা অন্য সময়ের চেয়ে বেড়েছে। অনেকে গরমে পরার জন্য দেশি সুতি, সিল্ক ও খাদি কাপড় আরামদায়ক এ জন্য দেশি পোশার কিনছেন। পনের রোজার পর থেকেই আড়ং, ইয়েলো, ইনফিনিটি, লা রিভের মতো দেশি ব্র্যান্ডের শো-রুমগুলোতেও তাই তীব্র ভিড় দেখা গেছে। কে-ক্রাফট, অঞ্জনস, রঙ, দেশালের মতো ব্র্যান্ডগুলোতে জমে উঠেছে ঈদের কেনা-কাঁটা। জানা গেছে, এবার অনেকে মার্কেটের বাইরে ইন্টারনেটেও বিভিন্ন অনলাইস শপ থেকে দেশীয় পণ্য অর্ডার করে কিনেছেন। এ বিষয়ে দেশীয় পণ্যের অনলাইন প্লার্টফর্ম ‘কলাবতী কণ্যা’র স্বত্বাধিকারী ও নারী উদ্দ্যোক্তা নাফিয়া তুজ জাহান ইনকিলাবকে জানান, এবার ভারতীয় পণ্যের বাজারের পাশাপাশি দেশিয় পণ্যের ক্রেতা বেড়েছে। আমি নিজেও অনলাইনে কয়েকটি দেশিয় পোশাক পণ্য বিক্রি করেছি।

বিভিন্ন মার্কেটের ব্যবসায়ীরা বলছেন, ভারতীয় দিল্লি বুটিকসসহ অন্যান্য ব্র্যান্ডের পোশাকের নানা মানের রেপ্লিকা ড্রেস সহজলভ্য, যেগুলোর দামও হাতের নাগালেই। তাই ক্রেতারা এবার নিজের পছন্দ অনুসারে এসব পণ্যে ঝুঁকছেন অনেকে। ভারী নকশা সমৃদ্ধ একটি ভারতীয় থ্রিপিস পাঁচ হাজার টাকার কিছু কমবেশিতে পাওয়া সম্ভব। এ বিষয়ে রাজধানীর শান্তি নগরের ইস্টার্ণ প্লাস শপিং মলের কালার্স হিল শোরুমের মালিক মনিরুল ইসলামের সুমন সঙ্গে কথা হয় এই প্রতিবেদকের। তিনি ইনকিলাবকে জানান, এবার করোনার পরে অন্যবারের বেশি ক্রেতা পেয়েছেন তিনি। এবার ভারতীয় পণ্যের চাহিদা বেশি বলেই জানান তিনি। সুমন জানান, এবারে মেয়েদের ড্রেসগুলোর নাম- সারারা, গারারা, স্কোন ওয়ার্ক এমন। সুমন বলেন, এবার চাহিদা ভালো পাচ্ছি। আমরা পার্টি ড্রেস বেশি বিক্রি করি। আমরা স্টিজ ও অনস্টিজ জিনিস বিক্রি করি বেশি। এ ছাড়া মুসলিম কাপড়ের ওপর হাতের কাজ করার চিনন স্লিক ও শাড়ী গাউন ভালো বিক্রি হচ্ছে বলে জানান তিনি। তিনি বলেন, একটি দামী ড্রেস ৫ থেকে ১০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। যার চাহিদাই বেশি।


বিভাগ : জাতীয়


মন্তব্য করুন

HTML Comment Box is loading comments...

আরও পড়ুন

উলভার্টের ১৮৪* ছাপিয়ে আতাপাত্তুর ১৯৫*, শ্রীলঙ্কার রেকর্ডময় জয়

উলভার্টের ১৮৪* ছাপিয়ে আতাপাত্তুর ১৯৫*, শ্রীলঙ্কার রেকর্ডময় জয়

মালিকদের লুটপাটে বেসরকারি অনেকগুলো ব্যাংক ধ্বংসের মুখে

মালিকদের লুটপাটে বেসরকারি অনেকগুলো ব্যাংক ধ্বংসের মুখে

শরিফুল-তাসকিন তোপে উড়ে গেল শেখ জামালও

শরিফুল-তাসকিন তোপে উড়ে গেল শেখ জামালও

বাসের ধাক্কায় কিশোরগঞ্জে দুই মোটরসাইকেল আরোহী নিহত

বাসের ধাক্কায় কিশোরগঞ্জে দুই মোটরসাইকেল আরোহী নিহত

ফারাক্কার প্রভাবে পদ্মা নদী এখন বিলে পরিনত হয়েছে

ফারাক্কার প্রভাবে পদ্মা নদী এখন বিলে পরিনত হয়েছে

আমার স্ত্রীর কোনো ক্ষতি হলে সেনাপ্রধানকে দায়ী করব : ইমরান খান

আমার স্ত্রীর কোনো ক্ষতি হলে সেনাপ্রধানকে দায়ী করব : ইমরান খান

পশ্চিমাদের চাপ বাড়লেও ইরানের তেল রপ্তানিতে বাধা নেই

পশ্চিমাদের চাপ বাড়লেও ইরানের তেল রপ্তানিতে বাধা নেই

কারাবন্দি থেকে ফের গৃহবন্দি সু চি

কারাবন্দি থেকে ফের গৃহবন্দি সু চি

প্রাণিসম্পদ সেবা সপ্তাহ ও প্রদর্শনীর উদ্বোধন প্রধানমন্ত্রীর

প্রাণিসম্পদ সেবা সপ্তাহ ও প্রদর্শনীর উদ্বোধন প্রধানমন্ত্রীর

ক্রিমিয়া ও ডনবাস চিরকাল রাশিয়ার মধ্যে থাকবে: স্লোভাক প্রধানমন্ত্রী

ক্রিমিয়া ও ডনবাস চিরকাল রাশিয়ার মধ্যে থাকবে: স্লোভাক প্রধানমন্ত্রী

রুশ সেনাদের অগ্রগতির কথা স্বীকার করেছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট

রুশ সেনাদের অগ্রগতির কথা স্বীকার করেছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট

সিঙ্গাপুরের নতুন প্রধানমন্ত্রীকে যে চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হবে

সিঙ্গাপুরের নতুন প্রধানমন্ত্রীকে যে চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হবে

বনশ্রীতে লাগা আগুন নিয়ন্ত্রণে

বনশ্রীতে লাগা আগুন নিয়ন্ত্রণে

ছাতকে সড়ক দুর্ঘটনায় কণ্ঠশিল্পী পাগল হাসানসহ প্রাণ গেল দুইজনের

ছাতকে সড়ক দুর্ঘটনায় কণ্ঠশিল্পী পাগল হাসানসহ প্রাণ গেল দুইজনের

ইসরাইল প্রতিশোধ নিলে আঞ্চলিক যুদ্ধের ঝুঁকি বাড়বে: জর্ডান

ইসরাইল প্রতিশোধ নিলে আঞ্চলিক যুদ্ধের ঝুঁকি বাড়বে: জর্ডান

ব্রেন্ডন লিঞ্চের নেতৃত্বে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধি দল ঢাকায় আসছেন ২১ এপ্রিল

ব্রেন্ডন লিঞ্চের নেতৃত্বে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধি দল ঢাকায় আসছেন ২১ এপ্রিল

মুজিবনগর সরকার এবং বাংলাদেশের স্বাধীনতা একই সূত্রে গাঁথা: রাষ্ট্রদূত মো.ইমরান

মুজিবনগর সরকার এবং বাংলাদেশের স্বাধীনতা একই সূত্রে গাঁথা: রাষ্ট্রদূত মো.ইমরান

সেরেল্যাকে অতিরিক্ত চিনি মেশানোর অভিযোগ নেসলের বিরুদ্ধে

সেরেল্যাকে অতিরিক্ত চিনি মেশানোর অভিযোগ নেসলের বিরুদ্ধে

গেরুয়া পোশাক পরা নিয়ে প্রশ্ন তোলায় তেলঙ্গানায় স্কুলে হামলা

গেরুয়া পোশাক পরা নিয়ে প্রশ্ন তোলায় তেলঙ্গানায় স্কুলে হামলা

দীর্ঘক্ষণ রোদে রেখে ১ মাসের সন্তানকে হত্যা, ৮ বছর জেল রাশিয়ান ইনফ্লুয়েন্সারের

দীর্ঘক্ষণ রোদে রেখে ১ মাসের সন্তানকে হত্যা, ৮ বছর জেল রাশিয়ান ইনফ্লুয়েন্সারের