ঢাকা   বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪ | ৫ বৈশাখ ১৪৩১
ব্যাংকে মিলছে না ৫/১০/২০ টাকার নোট # টাকার হাটে অতিরিক্ত দাম

ঈদ আনন্দে নতুন টাকার সঙ্কট

Daily Inqilab অর্থনৈতিক রিপোর্টার

০৩ এপ্রিল ২০২৪, ১২:৪৮ এএম | আপডেট: ০৩ এপ্রিল ২০২৪, ১২:৪৮ এএম


ঈদ উপলক্ষে নতুন জামা, পাঞ্জাবি আর জুতার পাশাপাশি সালামি হিসেবে নতুন টাকা পেলে শিশুদের আনন্দ আর ধরে না। শুধু ছোটরা নয়, নতুন কড়কড়ে নোট বড়দেরও আনন্দ দেয়। এজন্য ঈদ এলেই কদর বাড়ে টাকার নতুন নোটের। অনেকে ফিতরা ও জাকাত হিসেবে চকচকে নতুন নোট দেন। ফলে ঈদকেন্দ্রিক নতুন টাকার চাহিদা থাকে অনেক বেশি। বিশেষ করে ঈদুল ফিতরে এ চাহিদা আরও বেশি। এসব বিষয় বিবেচনায় ঈদকে কেন্দ্র করে ঈদে নতুন নোট সরবরাহ করতে বাংলাদেশ ব্যাংক প্রতি বছরই ব্যাপক প্রস্তুতি নেয়। এবারও ব্যতিক্রম হয়নি। তবে যেখানে ২০২১ সালে করোনার মধ্যেও ঈদুল ফিতরের সময়ে ১৪ হাজার কোটি টাকার নতুন নোট ছাড়া হয়। ২০২২ সালে ছাড়া হয় আগের বছরের প্রায় দ্বিগুন ২৩ হাজার কোটি টাকা। ২০২৩ সালে নতুন টাকার অঙ্ক কমে আবার দাড়ায় ১৫ হাজার কোটি টাকা। তবে সবকিছু ছাপিয়ে এবার মাত্র ১০৬ কোটি ৫৬ লাখ টাকার ৫, ১০, ২০, ৫০ ও ১০০ টাকার নতুন নোট বাজারে ছাড়া হয়েছে। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, হাজার হাজার কোটি টাকা থেকে কিভাবে এ বছর শত কোটি টাকার নতুন নোট বাজারে ছাড়ার সিদ্ধান্ত নেয় বাংলাদেশ ব্যাংক। কেউ কেউ বাংলাদেশ ব্যাংকের দায়িত্বশীলদের কান্ডজ্ঞানহীন এই কাজের জন্য ব্যাপক ক্ষোভ প্রকাশ করেন।
এদিকে নতুন টাকা বিতরণ শূন্যের কোটায় নামলেও বাড়ানো হয়েছে বিতরণে শাখা। গত বছর থেকে আরও ৪০টি শাখা বাড়ানো হয়েছে। গতবছর ৪০টি শাখার মাধ্যমে নতুন টাকা বিতরণ করা হলেও এ বছর এটি বেড়ে দাড়াচ্ছে ৮০টিতে। আর তাই একদিকে নতুন নোট সঙ্কট অন্যদিকে বাড়ানো হয়েছে শাখা। গত রোবাবার থেকে তাই নতুন নোটের গ্রাহকদের উপচে পড়া ভিড় লক্ষ্য করা গেছে। বেড়েছে গ্রাহকদের হয়রানিও। দিনভর অপেক্ষা করেও মিলছে না নতুন নোট। এদিকে অন্যান্য বছর বাংলাদেশ ব্যাংক থেকেও নতুন নোট গ্রাহকদের সরবরাহ করা হলে এ বছর আর সেই সুযোগও রাখা হয়নি। অথচ ব্যাংক ছাড়াও ঢাকার নির্দিষ্ট এলাকার ফুটপাতে চলা নতুন টাকার কেনাবেচায় ঠিকই মিলছে টাকা। রাজধানীর গুলিস্তান ও মতিঝিলে এরই মধ্যে জমে উঠেছে অস্থায়ী টাকার হাট। অনেকেই এগুলোকে বলে থাকেন টাকার হাট। ঈদকে সামনে রেখে ব্যাংকে না পেয়ে ফুটপাতের টাকার হাটেও বেড়েছে নতুন টাকার চাহিদা। তবে এবার নতুন টাকার সরবরাহ কম থাকার অজুহাত দেখিয়ে দাম বাড়িয়ে দিয়েছেন বিক্রেতারা। এদিকে নতুন নোট বিতরণের প্রথম দিন গত রোববার থেকে বিপাকে আছেন বিভিন্ন ব্যাংকের নতুন নোট রক্ষণাবেক্ষনের দায়িত্বে থাকা কর্মকর্তারা। অনেকে আবার ব্যাংকিং সময়ে মোবাইল বন্ধ করে অথবা আত্মগোপনে চলে যাচ্ছেন। ব্যাংকিং সময় শেষ হলে বা বিশেষ কারনে প্রয়োজন হলে জনসম্মুখে আসছেন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিভিন্ন ব্যাংকের এসব দায়িত্বশীল কর্মকর্তারা জানান, এ বছর গ্রাহকদের ভিড় বেশী। অথচ টাকা একেবারে কম। এমন অবস্থা হয়েছে- ব্যাংকের নিজস্ব শাখাগুলোতেও নতুন টাকা দেয়া সম্ভব হচ্ছে না। এবার নতুন নোট কম বাজারে ছাড়ার পাশাপাশি ছোট নোট ৫ টাকা ব্যাংকগুলোকে দেয়াই হয়নি। আর ১০ ও ২০ টাকার নোটের সংখ্যাও খুবই কম। যার ৫ হাজার টাকা দরকার তাকে ১ হাজার দিয়ে বিদায় দিতে হচ্ছে। দিনভর বসিয়ে ১/২ হাজার টাকা পাওয়ায় আবার অনেককে বসে থেকে টাকা না নিয়েই বিদায় নিতে হচ্ছে।
সূত্র মতে, ব্যাংকে টাকা পাওয়া না গেলেও অতিরিক্ত অর্থের বিনিময়ে ফুটপাতে মিলছে নতুন টাকা। বিক্রেতারা জানান, নতুন টাকা সংগ্রহ করেন বিভিন্ন ব্যাংকের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কাছ থেকে। পরে তারা এ টাকা বিক্রি করেন সাধারণ মানুষের কাছে। গুলিস্তান ও মতিঝিলের অস্থায়ী হাটে নতুন টাকা বিক্রি হয় সকাল থেকে রাত পর্যন্ত। রাজধানীসহ পার্শ্ববর্তী জেলা থেকেও এখানে ক্রেতা আসেন টাকা সংগ্রহ করতে। এর সঙ্গে ছেঁড়া-ফাটা টাকার বিনিময়ও করা যায় তাদের কাছে।
নতুন টাকা কিনতে গুলিস্তানে আসেন জুয়েল হোসেন। তিনি বলেন, প্রতিবছরই এখান থেকে নতুন টাকা সংগ্রহ করে থাকি। ব্যাংকে অনেক ভিড় থাকে, আবার নিজেরও অফিস আছে। সব মিলিয়ে বাড়তি ভোগান্তি এড়াতে গুলিস্তান থেকে নতুন টাকা কিনে বাড়ি পাঠাই। তবে এবার বিক্রেতারা অতিরিক্ত দাম চাচ্ছেন। প্রতি বান্ডিল বা ১০০ পিস টাকার দাম (পরিমাণভেদে) ১০০ থেকে ১৩০ টাকা পর্যন্ত বাড়তি নেওয়া হচ্ছে।
একই অভিযোগ রশ্নি নামের আরেক ক্রেতার। রশ্নি বলেন, দুই টাকা ও পাঁচ টাকার কয়েক বান্ডিল নতুন নোট লাগবে আমার। এসে দেখি গুলিস্তান ও মতিঝিলের ফুটপাতে নতুন টাকার দাম গতবারের তুলনায় অনেক বেশি। গত বছর ঈদে দুই টাকার এক বান্ডিল নোট কিনেছিলাম ২৮০ টাকায়। এবার তা ৩৮০ থেকে ৩৯০ টাকা পর্যন্ত চাওয়া হচ্ছে। পাঁচ টাকার বান্ডিলে গতবারের চেয়ে ১০০ টাকা বেশি চাচ্ছেন বিক্রেতারা। এভাবে টাকার দাম বাড়ানোর মানে কী বুঝলাম না। এটাতো মরিচ-পেঁয়াজের বাজার না। এখানে তো বাড়তি খরচ নেই।
তবে বিক্রেতারা বলছেন ভিন্ন কথা। তারা বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে এখনো এবারের ঈদের জন্য নতুন টাকা ছাড়া হয়নি। এ কারণে মার্কেটে এখনো সেভাবে নতুন টাকা মিলছে না। যাদের কাছে পাওয়া যাচ্ছে সেখান থেকে বাড়তি দামেই টাকা কিনতে হচ্ছে। এতে টাকার দাম কিছুটা বাড়তি মনে হতে পারে। তবে আমরা প্রতি বান্ডিলে ২০ টাকার বেশি লাভ রাখি না। যা বাড়তি পাই এতেই সংসার চলে।
কথা হয় গুলিস্তানের টাকা বিক্রেতা সোহেল রানার সঙ্গে। তিনি বলেন, সরবরাহ কম তাই দাম কিছুটা বেশি। আমাদেরও অতিরিক্ত টাকা দিয়ে নতুন নোট কিনতে হয়। তাই দাম বাড়ানো হয়।
একই কথা বলেন আরেক বিক্রেতা আনিস। তিনি বলেন, আমরা যে দামে টাকা (বান্ডিল) সংগ্রহ করি তার চেয়ে ২০ টাকা বেশি রাখি। ক্রেতা বেশি হলে দাম বেশি রাখা হয় এ অভিযোগ সঠিক নয়। ঝড়-বৃষ্টি, রোদ উপেক্ষা করে সারাদিন খোলা জায়গায় বসে আমরা টাকা বিক্রি করি। এতে দিনে কারও ৫০০ টাকা লাভ থাকে, কারওবা ৭০০ টাকা। যা দিয়ে সংসার-সন্তানের খরচ মেটাই।
এবার সবচেয়ে বেশি দাম রাখা হচ্ছে দুই টাকার নতুন নোটে। দুই টাকার প্রতি বান্ডিলের (১০০ পিস নোট) দাম ২০০ টাকা হলেও বিক্রি হচ্ছে ৩৭০ থেকে ৩৮০ টাকায়। অর্থাৎ প্রতি বান্ডিলে বাড়তি রাখা হচ্ছে ১৮০ টাকা। পাঁচ টাকার বান্ডিল (৫০০ টাকা) বিক্রি হচ্ছে ৬২০ থেকে ৬৩০ টাকায়। ১০ টাকার বান্ডিল (এক হাজার টাকা) বিক্রি হচ্ছে এক হাজার ১৮০ টাকায়। এছাড়া ২০ টাকার বান্ডিল (২ হাজার টাকা) ২ হাজার ১৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। ৫০ টাকার বান্ডিল (৫ হাজার টাকা) বিক্রি হচ্ছে ৫ হাজার ১৭০ টাকা। এছাড়া ১০০ টাকার বান্ডিলে ২০০ টাকা বেশি রাখা হচ্ছে। ৩০০ টাকা বাড়তি রাখা হচ্ছে ২০০ টাকার বান্ডিলে।
বাংলাদেশ ভ্যাংক এক বিজ্ঞপ্তিতে বলেছে, সাপ্তাহিক ও সরকারি ছুটির দিন ছাড়া বিভিন্ন বাণিজ্যিক ব্যাংকের ৮০টি শাখা ও বাংলাদেশ ব্যাংকের বিভিন্ন অফিসের মাধ্যমে বিশেষ ব্যবস্থায় নতুন টাকা বিনিময় করা হচ্ছে। গত রোববার শুরু হয়েছে, যা চলবে ৯ এপ্রিল পর্যন্ত। এবার ঈদ উপলক্ষে ৫, ১০, ২০, ৫০ ও ১০০ টাকা মূল্যমানের নতুন নোট নিতে পারবেন গ্রাহকরা। তবে একই ব্যক্তি একাধিকবার নতুন টাকার নোট নিতে পারবেন না বলে জানিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।#


বিভাগ : জাতীয়


মন্তব্য করুন

HTML Comment Box is loading comments...

আরও পড়ুন

কালকিনিতে কলেজ ছাত্রীকে ধর্ষনের ঘটনায় মামলা দায়ের

কালকিনিতে কলেজ ছাত্রীকে ধর্ষনের ঘটনায় মামলা দায়ের

ছেলেকে ভোট না দিলে উন্নয়ন বন্ধের হুমকি একরামুল করিম চৌধুরী এমপির

ছেলেকে ভোট না দিলে উন্নয়ন বন্ধের হুমকি একরামুল করিম চৌধুরী এমপির

গোপালগঞ্জে সিঁধ কেটে ঘরে প্রবেশ করে প্রবাসীর স্ত্রীকে এসিড নিক্ষেপ

গোপালগঞ্জে সিঁধ কেটে ঘরে প্রবেশ করে প্রবাসীর স্ত্রীকে এসিড নিক্ষেপ

জাতির পিতার সমাধিতে বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কমিশনের চেয়ারম্যানের শ্রদ্ধা

জাতির পিতার সমাধিতে বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কমিশনের চেয়ারম্যানের শ্রদ্ধা

সিনিয়র শিল্প সচিবের সঙ্গে যুক্তরাজ্যে নিযুক্ত বাংলাদেশ হাইকমিশনারের সাক্ষাৎ

সিনিয়র শিল্প সচিবের সঙ্গে যুক্তরাজ্যে নিযুক্ত বাংলাদেশ হাইকমিশনারের সাক্ষাৎ

রাজবাড়ী পদ্মা নদীতে গোসলে নেমে ডুবে যুবকের মৃত্যু

রাজবাড়ী পদ্মা নদীতে গোসলে নেমে ডুবে যুবকের মৃত্যু

স্টুয়ার্ট ল এখন যুক্তরাষ্ট্রের কোচ

স্টুয়ার্ট ল এখন যুক্তরাষ্ট্রের কোচ

যে কারণে ৫৮ বছর বয়সে পেশাদার ফুটবলে রোমারিও

যে কারণে ৫৮ বছর বয়সে পেশাদার ফুটবলে রোমারিও

চন্দ্রঘোনা থানার সি আর মামলার ৭ আসামী গ্রেপ্তার

চন্দ্রঘোনা থানার সি আর মামলার ৭ আসামী গ্রেপ্তার

শাহিনের সাথে আমার কোনো বিবাদ নেই: বাবর

শাহিনের সাথে আমার কোনো বিবাদ নেই: বাবর

সালথায় আগুনে পুড়ল ১২টি দোকান, বিপুল পরিমাণ ক্ষয়ক্ষতি

সালথায় আগুনে পুড়ল ১২টি দোকান, বিপুল পরিমাণ ক্ষয়ক্ষতি

উলভার্টের ১৮৪* ছাপিয়ে আতাপাত্তুর ১৯৫*, শ্রীলঙ্কার রেকর্ডময় জয়

উলভার্টের ১৮৪* ছাপিয়ে আতাপাত্তুর ১৯৫*, শ্রীলঙ্কার রেকর্ডময় জয়

মালিকদের লুটপাটে বেসরকারি অনেকগুলো ব্যাংক ধ্বংসের মুখে

মালিকদের লুটপাটে বেসরকারি অনেকগুলো ব্যাংক ধ্বংসের মুখে

শরিফুল-তাসকিন তোপে উড়ে গেল শেখ জামালও

শরিফুল-তাসকিন তোপে উড়ে গেল শেখ জামালও

বাসের ধাক্কায় কিশোরগঞ্জে দুই মোটরসাইকেল আরোহী নিহত

বাসের ধাক্কায় কিশোরগঞ্জে দুই মোটরসাইকেল আরোহী নিহত

ফারাক্কার প্রভাবে পদ্মা নদী এখন বিলে পরিনত হয়েছে

ফারাক্কার প্রভাবে পদ্মা নদী এখন বিলে পরিনত হয়েছে

আমার স্ত্রীর কোনো ক্ষতি হলে সেনাপ্রধানকে দায়ী করব : ইমরান খান

আমার স্ত্রীর কোনো ক্ষতি হলে সেনাপ্রধানকে দায়ী করব : ইমরান খান

পশ্চিমাদের চাপ বাড়লেও ইরানের তেল রপ্তানিতে বাধা নেই

পশ্চিমাদের চাপ বাড়লেও ইরানের তেল রপ্তানিতে বাধা নেই

কারাবন্দি থেকে ফের গৃহবন্দি সু চি

কারাবন্দি থেকে ফের গৃহবন্দি সু চি

প্রাণিসম্পদ সেবা সপ্তাহ ও প্রদর্শনীর উদ্বোধন প্রধানমন্ত্রীর

প্রাণিসম্পদ সেবা সপ্তাহ ও প্রদর্শনীর উদ্বোধন প্রধানমন্ত্রীর