সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের পক্ষে যুক্তরাষ্ট্র অবস্থান অব্যাহত রেখেছে -মির্জা ফখরুল

Daily Inqilab স্টাফ রিপোর্টার

১৬ মে ২০২৪, ১২:০২ এএম | আপডেট: ১৬ মে ২০২৪, ১২:০২ এএম

বাংলাদেশে সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য মার্কিন সরকার তাদের অবস্থান অব্যাহত রেখেছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। গতকাল বুধবার গুলশানে চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণ ও মধ্য এশিয়া বিষয়ক মার্কিন সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডোনাল্ড লু’র ঢাকা সফর প্রসঙ্গে সাংবাদিকরা জানতে চাইলে তিনি একথা বলেন। বিএনপি মহাসচিব বলেন, এদেশে সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য মার্কিন সরকার তাদের অবস্থান অব্যাহত রেখেছে। নিরপেক্ষ নির্বাচনের পক্ষেই তারা কথা বলছেন। তারা এদেশের জনগণের বিরুদ্ধে গিয়ে কোনো কাজ করছেন না।

এর আগে তিনি গণফোরাম ও পিপলস পার্টির নেতৃবৃন্দের সঙ্গে বৈঠক করেন। বৈঠকে মির্জা ফখরুল ছাড়াও বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলু ও গণফোরামের এ্যাড. সুব্রত চৌধুরী, জগলুল হায়দার আফ্রিক, মহিউদ্দিন আবদুল কাদের, এ্যাড. ফজলুল হক সরকার, মুহাম্মদ উল্লাহ মধু, পিপলস পার্টির মোহাম্মদ বাবুল সরদার চাখারি প্রমুখনেতারা উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠক শেষে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, আওয়ামী শাসকগোষ্ঠী জনগণকে মিথ্যা কথা বলছে, মিথ্যা তথ্য দিচ্ছে। তারা মিথ্যার ওপর টিকে থাকতে চায়। তবে মিথ্যার ওপর টিকে থাকা সরকার বেশিদিন টিকবে না।
তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতার টিকে থাকার জন্য সব অপকৌশল গ্রহণ করেছে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে অপব্যবহার করে রাষ্ট্রের যতগুলো প্রতিষ্ঠান আছে সবগুলোকে ধ্বংস করে দিয়েছে। তারা গোটা রাষ্ট্রকে একটি একদলীয় শাসন ব্যবস্থায় নিতে চায়। তারা একটি রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাস সৃষ্টি করেছে।

দেশের মানুষ নির্দলীয়-নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন চায় দাবি করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার যে নির্বাচন করেছে জনগণ সে নির্বাচনে অংশ নেয়নি। জনগণ ভোট দেয়নি। জনগণ একটি নির্দিষ্ট সরকারের মাধ্যমে নির্বাচনে তাদের মতামত দিতে চায়।

সরকার রাষ্ট্রীয় যন্ত্র ব্যবহার করে, রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসী দিয়ে জোর করে ক্ষমতা দখল করে আছে. এমন অভিযোগ করে মির্জা ফখরুল বলেন, ইতিহাস বলে এভাবে জোর করে বেশিদিন ক্ষমতায় টিকে থাকা যায় না। কিছুদিন জনগণের কষ্ট হয়, সরকার সন্ত্রাস করে ভয়-ভীতি দেখিয়ে অনেক নির্যাতন করে জনগণকে দমাতে চায়। সচেতন মানুষ এখন বলছে- দেশে মাফিয়া রাষ্ট্র কায়েম করা হয়েছে। ক্ষমতা টিকিয়ে রাখতে সরকার নতুন নতুন কৌশল বের করে। সেজন্যই কখনো ডামি নির্বাচন, কখনো নিশিরাতের নির্বাচন আবার কখনো বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচন করে। সামগ্রিক বিশ্লেষণ ও ভবিষ্যৎ কর্মপদ্ধতি অবলম্বন করতেই আজ বৈঠক হয়েছে বলেও জানান তিনি।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, একদলীয় শাসনব্যবস্থার উদাহরণ হচ্ছে, রাষ্ট্রের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা সবসময় সব ক্ষেত্রে ক্ষমতাসীনদের কথাই বলে। তারা সাধারণত বাংলাদেশকে প্রমোট করেন না, তারা ওই দলটিকেই প্রমোট করেন। দেশের রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক যে করুণ অবস্থা তা এর জন্যই সৃষ্টি হয়েছে।###


বিভাগ : জাতীয়


মন্তব্য করুন

HTML Comment Box is loading comments...

আরও পড়ুন

প্রকাশ্যে ভোট দেয়ার ভিডিওধারণ করায় সাংবাদিকদের উপর হামলা, আহত ১০

প্রকাশ্যে ভোট দেয়ার ভিডিওধারণ করায় সাংবাদিকদের উপর হামলা, আহত ১০

নেতানিয়াহুর গ্রেফতারি চাওয়ার নেপথ্যে ছিলেন আমাল ক্লুনিও

নেতানিয়াহুর গ্রেফতারি চাওয়ার নেপথ্যে ছিলেন আমাল ক্লুনিও

জয়ে আশাবাদি আশরাফ, রয়েছে ফলাফল ছিনিয়ে নেওয়ার শঙ্কা

জয়ে আশাবাদি আশরাফ, রয়েছে ফলাফল ছিনিয়ে নেওয়ার শঙ্কা

পশ্চিমাদের নিরাপত্তা গ্যারান্টির প্রতি আফ্রিকার দেশগুলোর কেন আস্থা নেই?

পশ্চিমাদের নিরাপত্তা গ্যারান্টির প্রতি আফ্রিকার দেশগুলোর কেন আস্থা নেই?

রইসির হেলিকপ্টার বিধ্বস্তের পর যুক্তরাষ্ট্রের সহায়তা চেয়েও পায়নি ইরান

রইসির হেলিকপ্টার বিধ্বস্তের পর যুক্তরাষ্ট্রের সহায়তা চেয়েও পায়নি ইরান

অবসরের পর চুরির দায়ের কাঠগড়ায় টেনিস তারকা

অবসরের পর চুরির দায়ের কাঠগড়ায় টেনিস তারকা

বেঙ্গালুরুতে রাতভর উদ্দাম পার্টি, মাদকের নেশায় উল্লাস বিধায়ক-নায়িকাদের!

বেঙ্গালুরুতে রাতভর উদ্দাম পার্টি, মাদকের নেশায় উল্লাস বিধায়ক-নায়িকাদের!

বাগেরহাটে আওয়ামী লীগ নেতাকে ছয় মাসের কারাদণ্ড

বাগেরহাটে আওয়ামী লীগ নেতাকে ছয় মাসের কারাদণ্ড

ভোটকেন্দ্রের মাঠে কুকুর, ৩ ঘণ্টায় ভোট পড়েছে মাত্র ১৯টি

ভোটকেন্দ্রের মাঠে কুকুর, ৩ ঘণ্টায় ভোট পড়েছে মাত্র ১৯টি

ইরানের সর্বোচ্চ নেতাকে চিঠি লিখেছেন পুতিন

ইরানের সর্বোচ্চ নেতাকে চিঠি লিখেছেন পুতিন

ইরানি জনগণের মাঝে রাইসি কেন জনপ্রিয় ছিলেন?

ইরানি জনগণের মাঝে রাইসি কেন জনপ্রিয় ছিলেন?

১১ সপ্তাহ বন্ধ থাকার পর খুললো হাইতির বিমানবন্দর

১১ সপ্তাহ বন্ধ থাকার পর খুললো হাইতির বিমানবন্দর

শিল্পীদের ভোটকে অসম্মান করবেন না, ডিপজলের উদ্দেশে রত্না

শিল্পীদের ভোটকে অসম্মান করবেন না, ডিপজলের উদ্দেশে রত্না

ঢাকায় পৌঁছেছেন অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ঢাকায় পৌঁছেছেন অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী

রাইসির মৃত্যুর পর এখন ইরানের ভবিষ্যৎ কী?

রাইসির মৃত্যুর পর এখন ইরানের ভবিষ্যৎ কী?

শত্রুরাই আমার আত্মবিশ্বাস বাড়িয়েছে: পরীমণি

শত্রুরাই আমার আত্মবিশ্বাস বাড়িয়েছে: পরীমণি

ভারতে সাজাভোগ শেষে দেশে ফিরলেন ৮ বাংলাদেশি নারী

ভারতে সাজাভোগ শেষে দেশে ফিরলেন ৮ বাংলাদেশি নারী

কান থেকে ফিরেই হাসপাতালে ঐশ্বরিয়া

কান থেকে ফিরেই হাসপাতালে ঐশ্বরিয়া

অপু বিশ্বাসের জিডি, তিনজনকে সতর্ক করলো পুলিশ

অপু বিশ্বাসের জিডি, তিনজনকে সতর্ক করলো পুলিশ

গণসংহতির বিক্ষোভ ঘিরে বাংলাদেশ ব্যাংকের সামনে নিরাপত্তা জোরদার

গণসংহতির বিক্ষোভ ঘিরে বাংলাদেশ ব্যাংকের সামনে নিরাপত্তা জোরদার