বোরকা-হুইল চেয়ারেও গ্রেফতার এড়াতে পারলেন না মাহি

Daily Inqilab বিনোদন ডেস্ক

১৮ মার্চ ২০২৩, ০৭:৪৬ পিএম | আপডেট: ০১ মে ২০২৩, ১২:১৬ এএম

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলার আসামি হওয়ার খবর আগেই জেনেছিলেন চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। এই মামলায় গ্রেপ্তার হওয়ার ঝুঁকি নিয়েই ওমরাহ পালন শেষে আজ দেশে ফেরেন তিনি। দুপুর ১২টার দিকে গাজীপুর মেট্রোপলিটন গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল মাহিকে শাহজালাল বিমানবন্দর থেকে গ্রেপ্তার করে। আর গ্রেপ্তারে পর তাকে গাজীপুর জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে মাহিকে গ্রেপ্তার অভিযানে অংশ নেওয়া ও বিমানবন্দরে কর্তব্যরত আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা গণমাধ্যমকে বলেন, “মাহি বোরকা পরে বিমান থেকে নেমেছিলেন। মামলার বিষয়টি তিনি আগেই জেনেছিলেন। বিমানবন্দরে নেমে গ্রেপ্তারও হতে পারেন। সেই আশঙ্কা থেকে তিনি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নজরদারি এড়াতে ছদ্মবেশ নিয়েছিলেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। বিমানবন্দরে মাহিকে হুইল চেয়ারেও দেখা যায়।”

ইমিগ্রেশন পুলিশ জানায়, সকাল ১০টা ৫০ মিনিটে সৌদি আরব থেকে বিজি ৩৩৬ ফ্লাইটে জেদ্দা থেকে মাহি শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করেন। ৪ নম্বর বোর্ডিং ব্রিজের ৬ নম্বর বেল্টে তার লাগেজ ছিল। কিন্তু বিমানবন্দরে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর চোখ এড়াতে পারেননি তিনি। বিমান থেকে নামার পর ইমিগ্রেশন অফিসাররা তার ইমিগ্রেশন শেষ করেন। এরপর আমাদের হাতে তাকে তুলে দেওয়া হয়।

তবে এ সময় তার স্বামী রকিব সরকার মাহির সঙ্গে ছিলেন না। পুলিশ নিশ্চিত করেছে তিনি পলাতক। বর্তমানে নয় মাসের অন্তঃসত্ত্বা মাহিয়া মহি। কিছুদিনের মধ্যেই মা হবেন তিনি। এর মধ্যেই গ্রেপ্তার হলেন এই নায়িকা।

উল্লেখ্য, শুক্রবার (১৭ মার্চ) রাতে মাহির বিরুদ্ধে বাসন থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. রোকন মিয়া বাদী হয়ে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে একটি মামলা দায়ের করেন। এছাড়া মারধর, ভাঙচুর, চাঁদা দাবি ও জমি দখলের অভিযোগ এনে মাহি ও তার স্বামী রকিব সরকারকে আসামি করে আরও একটি মামলা করেন স্থানীয় ইসমাইল হোসেন। এ মামলায় ২৮ জনকে আসামি করা হয়েছে।


বিভাগ : বিনোদন


মন্তব্য করুন

HTML Comment Box is loading comments...

আরও পড়ুন

'অনাকাঙ্ক্ষিত দুর্ঘটনা' আখ্যা দিলেও আগ্রাসন চালিয়ে যাওয়ার অঙ্গীকার নেতানিয়াহুর

'অনাকাঙ্ক্ষিত দুর্ঘটনা' আখ্যা দিলেও আগ্রাসন চালিয়ে যাওয়ার অঙ্গীকার নেতানিয়াহুর

ইউরোর প্রাথমিক দল ঘোষণা স্পেনের,নতুন মুখ ফেরমিন লোপেজ

ইউরোর প্রাথমিক দল ঘোষণা স্পেনের,নতুন মুখ ফেরমিন লোপেজ

দেড় লাখ ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত

দেড় লাখ ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত

পানিবন্দি লাখো মানুষ

পানিবন্দি লাখো মানুষ

দুনিয়ার ধন-সম্পদ মানুষের জন্য পরীক্ষা

দুনিয়ার ধন-সম্পদ মানুষের জন্য পরীক্ষা

ভারত একনায়কতন্ত্রের দিকে যাচ্ছে, পুতিন ও শেখ হাসিনা যা করেছেন মোদি তাই করতে চাইছেন -অরবিন্দ কেজরিওয়াল

ভারত একনায়কতন্ত্রের দিকে যাচ্ছে, পুতিন ও শেখ হাসিনা যা করেছেন মোদি তাই করতে চাইছেন -অরবিন্দ কেজরিওয়াল

ফিচ রেটিংসে ফের বাংলাদেশের ঋণমান অবনমন

ফিচ রেটিংসে ফের বাংলাদেশের ঋণমান অবনমন

এডিপি বাস্তবায়ন অর্ধেকেরও কম

এডিপি বাস্তবায়ন অর্ধেকেরও কম

নিজের বুক পেতে উপকূলকে এবারও রক্ষা করল সুন্দরবন

নিজের বুক পেতে উপকূলকে এবারও রক্ষা করল সুন্দরবন

পৌনে তিন কোটি গ্রাহক বিদ্যুৎবিচ্ছিন্ন

পৌনে তিন কোটি গ্রাহক বিদ্যুৎবিচ্ছিন্ন

কসাই জিহাদকে নিয়ে কলকাতার সেই ফ্ল্যাটে ঢাকা ডিবির তদন্ত দল

কসাই জিহাদকে নিয়ে কলকাতার সেই ফ্ল্যাটে ঢাকা ডিবির তদন্ত দল

একদিনে ৩ হাজার ৩৩৫ মি.মি. বৃষ্টিপাত রেকর্ড!

একদিনে ৩ হাজার ৩৩৫ মি.মি. বৃষ্টিপাত রেকর্ড!

রিমালের প্রভাবে আন্তর্জাতিক রুটের ১০ ফ্লাইট বাতিল

রিমালের প্রভাবে আন্তর্জাতিক রুটের ১০ ফ্লাইট বাতিল

১১১ উপজেলায় কোটিপতি ১০৬ প্রার্থী

১১১ উপজেলায় কোটিপতি ১০৬ প্রার্থী

নিষেধাজ্ঞা উঠছে, সউদীর কাছে প্রাণঘাতী অস্ত্র বিক্রি করবে যুক্তরাষ্ট্র

নিষেধাজ্ঞা উঠছে, সউদীর কাছে প্রাণঘাতী অস্ত্র বিক্রি করবে যুক্তরাষ্ট্র

রাখাইনে নির্বিচারে মুসলিম নিধন ও শিরোñেদ চালাচ্ছে আর্মি

রাখাইনে নির্বিচারে মুসলিম নিধন ও শিরোñেদ চালাচ্ছে আর্মি

শরণার্থী শিবিরে ইসরাইলি হামলায় জীবন্ত পুড়ে মরল অসহায় ফিলিস্তিনিরা

শরণার্থী শিবিরে ইসরাইলি হামলায় জীবন্ত পুড়ে মরল অসহায় ফিলিস্তিনিরা

একদিনে ১৩ জনের করোনা শনাক্ত

একদিনে ১৩ জনের করোনা শনাক্ত

মসজিদসমূহ মুসলমানদের সামনে বাতিঘরের ভূমিকা পালন করেছে

মসজিদসমূহ মুসলমানদের সামনে বাতিঘরের ভূমিকা পালন করেছে

সিট বাণিজ্য বন্ধ হোক

সিট বাণিজ্য বন্ধ হোক