আদানির সঙ্গে চুক্তি দেশবিরোধী: মির্জা ফখরুল

Daily Inqilab স্টাফ রিপোর্টার

০৯ মার্চ ২০২৩, ০২:৩৮ পিএম | আপডেট: ৩০ এপ্রিল ২০২৩, ১০:৫৪ পিএম

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, আদানির সাথে যেই চুক্তি করা হয়েছে সেটা দেশ বিরোধী, জনগণ বিরোধী; অবিলম্বে এই চুক্তি বাতিল করতে হবে।

বৃহস্পতিবার (৯ মার্চ) দুপুরে রাজধানীর গুলশান-২ এ একটি হোটেলে তিনি এসব কথা বলেন।

"মহা বিপর্যয়ে বিদ্যুৎ খাত: গভীর খাদে অর্থনীতি" শীর্ষক গোল টেবিল আলোচনার আয়োজন করে এসোসিয়েশন অব ইঞ্জিনিয়ার্স বাংলাদেশ (এ্যাব)।

মির্জা ফখরুল বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকে তারা ঠিক করে নিয়েছে বিদ্যুৎখাত থেকে সবচেয়ে বেশি চুরি করবে। তারা যা করে সেটা পরিকল্পিতভাবেই করে। তারা ক্ষমতায় এসে বলতে শুরু করল বিদ্যুৎখাতে বিএনপি সরকার কিছুই করেনি, শুধু খাম্বা তৈরি করেছে কিন্তু বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য কোন ব্যবস্থা নেয়নি। এসব বলে জায়েজ করল তারা বিদ্যুৎ উৎপাদন করবে। কুইক রেন্টাল পাওয়ার প্লান্ট জায়েজ করার জন্য তারা এসব প্রপাগাণ্ডা শুরু করলো।

তিনি বলেন, আদানির সাথে যে চুক্তি হয়েছে পুরো বিষয়টি তারা গোপন রেখেছে।

ফখরুল বলেন, 'লুট আর লুট, এখানে আর কিছু নেই। এটাকে (লুট) ঠেকানোর জন্য, বাংলাদেশের মানুষকে বাচানোর জন্য আজকে আমাদের সকলকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। সমস্ত রাজনৈতিক দলকে এগিয়ে আসতে হবে। সিভিল সোসাইটিকে এগিয়ে আসতে হবে, ব্যক্তিকে এগিয়ে আসতে হবে। এছাড়া আমাদের বাঁচার কোন পথ নেই।

বিএনপি ক্ষমতায় গেলে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতের অনিয়ম ও দুর্নীতি তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান মির্জা ফখরুল।

গোলটেবিল আলোচনায় বেশ কিছু লিখিত সুপারিশ তুলে ধরা হয়-

বিদ্যুৎ ও জ্বালানির দ্রুত সরবরাহ বৃদ্ধি (বিশেষ বিধান) আইন বাতিল করতে হবে;

বিদ্যুৎ ও জ্বালানীখাতের সকল দুর্নীতি-অনিয়মের সাথে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে,

রেন্টাল/কুইক রেন্টাল কোম্পানির সঙ্গে চুক্তি নবায়ন বন্ধ/বাতিল করতে হবে,

অতিদ্রুত প্রয়োজনীয় বিদ্যুৎ সঞ্চালন ও বিতরণ লাইন স্থাপন করতে হবে যাতে ক্যাপসিটি চার্জ প্ৰদান কমানো যায়;

সংকট মোকাবিলায় পেট্রোবাংলা, বাপেক্স ইত্যাদি সরকারী সংস্থার মাধ্যমে দেশীয় খনিজ কয়লা ও গ্যাস উত্তোলনের জন্য যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে, একইসাথে দেশীয় প্রকৌশলী ও সংশ্লিষ্ট সংস্থাসমূহকে আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহারে দক্ষ করে তুলতে উপযুক্ত উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে;

দেশের বিদ্যুৎ ও জ্বালানীখাতকে টেকসই ও নিরাপদ করতে জীবাশ্ম জ্বালানী নির্ভরতা কমিয়ে ক্রমান্বয়ে মোট উৎপাদনের ৫০% নবায়নযোগ্য শক্তি নির্ভর জ্বালানিনীতি গ্রহণ করতে হবে।

অবৈধ ও অস্বচ্ছ টেন্ডারবিহীন বিদ্যুৎ চুক্তি বাতিল করতে হবে, ক্ষেত্রবিশেষে চুক্তি সংশোধন করে দেশের স্বার্থ রক্ষা করতে হবে ।

দেশের শিল্প-কারখানা/বাণিজ্যিক / আবাসিক ও অন্যান্য ক্ষেত্রে বিদ্যুতের চাহিদা নিরূপণ করে আগামী ২৫ বছরের জন্য বিদ্যুৎ কেন্দ্র, সঞ্চালন লাইন ও অন্যান্য অবকাঠামো নির্মাণের ধারাবাহিক পরিকল্পনা গ্রহণ করতে হবে।

বিদ্যুৎ সেক্টরের সকল ক্রয়/বন্টন চুক্তির পূর্ণ তথ্য জনগণের জন্য উন্মুক্ত করতে হবে। বিদ্যুৎ খাতের সকল চুক্তি উন্মুক্ত দরপত্রের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক নিয়ম অনুসরণ করে করতে হবে।

বর্তমানে দেশে বার্ষিক বিদ্যুৎ চাহিদা বৃদ্ধির পরিমান ৫-৭%, সেই হিসেবে আগামী ৫-৭ বছরে দেশে নতুন কোন বিদ্যুৎ কেন্দ্রের প্রয়োজন নেই বরং বিদ্যমান বিদ্যুৎ কেন্দ্রসমূহের সংস্কার ও বিতরণ ব্যবস্থার আধুনিকীকরণের মাধ্যমেই বর্তমান সংকট থেকে পরিত্রাণ পাওয়া সম্ভব।

মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন- প্রকৌশলী হাসিন আহমেদ।

অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন প্রকৌশলী কেএম আসাদুজ্জামান চুন্নু।

গোল টেবিল আলোচনার সভাপতিত্ব করেন আয়োজক সংগঠনের সভাপতি প্রকৌশলী রিয়াজুল ইসলাম রিজু।

এছাড়া বক্তব্য রাখেন বিএনপির সহ-স্থানীয় সরকার বিষয়ক সম্পাদক শাম্মী আক্তার, সহ-বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক প্রকৌশলী আশরাফ উদ্দিন বকুল, বাংলাদেশ পেশাজীবি সমন্বয় পরিষদের সদস্য সচিব ও ডিইউজে সভাপতি কাদের গণি চৌধুরী প্রমুখ।


বিভাগ : রাজনীতি


মন্তব্য করুন

HTML Comment Box is loading comments...

আরও পড়ুন

বিয়ে করতে অস্বীকৃতি,কনে পক্ষের হামলায় বরের দুলাভাই নিহত

বিয়ে করতে অস্বীকৃতি,কনে পক্ষের হামলায় বরের দুলাভাই নিহত

মুন্সীগঞ্জে পদ্মায় গোসল করতে নেমে নিখোঁজ ৩জনের মধ্যে ২ জনের লাশ উদ্ধার

মুন্সীগঞ্জে পদ্মায় গোসল করতে নেমে নিখোঁজ ৩জনের মধ্যে ২ জনের লাশ উদ্ধার

আওয়ামী লীগ আজ রাষ্ট্রকে পুলিশ রাষ্ট্রে পরিণত করেছে -মির্জা ফখরুল

আওয়ামী লীগ আজ রাষ্ট্রকে পুলিশ রাষ্ট্রে পরিণত করেছে -মির্জা ফখরুল

মুন্সীগঞ্জে পদ্মায় গোসল করতে নেমে নিখোঁজ ৩জনের মধ্যে ২ জনের লাশ উদ্ধার

মুন্সীগঞ্জে পদ্মায় গোসল করতে নেমে নিখোঁজ ৩জনের মধ্যে ২ জনের লাশ উদ্ধার

উপজেলা নির্বাচনে প্রার্থীদের জনপ্রিয়তা যাচাইয়ের সুযোগ সৃষ্টি রয়েছে : স্থানীয় সরকারমন্ত্রী

উপজেলা নির্বাচনে প্রার্থীদের জনপ্রিয়তা যাচাইয়ের সুযোগ সৃষ্টি রয়েছে : স্থানীয় সরকারমন্ত্রী

আমাদের বিরুদ্ধে প্রায় ৬০ লাখ মিথ্যা মামলা দেয়া হয়েছে: মির্জা ফখরুল

আমাদের বিরুদ্ধে প্রায় ৬০ লাখ মিথ্যা মামলা দেয়া হয়েছে: মির্জা ফখরুল

আমতলীতে ইউপি নির্বাচনী সহিংসতায় নিহত, চেয়ারম্যান প্রার্থীসহ গ্রেফতার ৩

আমতলীতে ইউপি নির্বাচনী সহিংসতায় নিহত, চেয়ারম্যান প্রার্থীসহ গ্রেফতার ৩

অঞ্চল রাঙ্গামাটিতে ৩৯, সীতাকুণ্ডে ৩৮.৫ ডিগ্রি : তাপপ্রবাহ বিস্তারের আভাস

অঞ্চল রাঙ্গামাটিতে ৩৯, সীতাকুণ্ডে ৩৮.৫ ডিগ্রি : তাপপ্রবাহ বিস্তারের আভাস

বান্দরবানে সন্ত্রাসবিরোধী অভিযান এলাকায় পর্যটক ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা

বান্দরবানে সন্ত্রাসবিরোধী অভিযান এলাকায় পর্যটক ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা

কুমিল্লার বিনোদনকেন্দ্রগুলোতে সববয়সী দর্শনার্থীদের ঢল

কুমিল্লার বিনোদনকেন্দ্রগুলোতে সববয়সী দর্শনার্থীদের ঢল

নির্যাতিত মুসলিম উম্মাহের জন্য দুয়া করার সুবর্ণ সুযোগ রয়েছে পবিত্র শাওয়াল মাসে

নির্যাতিত মুসলিম উম্মাহের জন্য দুয়া করার সুবর্ণ সুযোগ রয়েছে পবিত্র শাওয়াল মাসে

কুড়িগ্রামে ৪৮ বোতল বিদেশি মদ জব্দ, আটক ১

কুড়িগ্রামে ৪৮ বোতল বিদেশি মদ জব্দ, আটক ১

বুদ্ধি প্রতিবন্ধী কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার

বুদ্ধি প্রতিবন্ধী কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার

বরগুনায় আগুনে পুড়ে শিশু নিহত, দগ্ধ মা-বাবা হাসপাতালে ভর্তি!

বরগুনায় আগুনে পুড়ে শিশু নিহত, দগ্ধ মা-বাবা হাসপাতালে ভর্তি!

চরভদ্রাসনে শিশু কন্যা ধর্ষনকারী নরপশু পিতা গ্রেফতার

চরভদ্রাসনে শিশু কন্যা ধর্ষনকারী নরপশু পিতা গ্রেফতার

মারাঠা বর্গীদের মতো দেশে লুটপাট চলছে: কাদের গনি চৌধুরী

মারাঠা বর্গীদের মতো দেশে লুটপাট চলছে: কাদের গনি চৌধুরী

প্লাস্টিকের ব্যাগের ভেতর থেকে ১লক্ষ ৩০হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার

প্লাস্টিকের ব্যাগের ভেতর থেকে ১লক্ষ ৩০হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার

ঘরের মাঠে বিশাল ব্যবধানে হেরে হতাশ ক্লপ

ঘরের মাঠে বিশাল ব্যবধানে হেরে হতাশ ক্লপ

পাকিস্তান সিরিজ থেকে ছিটকে গেলেন মিলনে-অ্যালেন

পাকিস্তান সিরিজ থেকে ছিটকে গেলেন মিলনে-অ্যালেন

দুই লঞ্চের রুট পারমিট বাতিল

দুই লঞ্চের রুট পারমিট বাতিল