ঢাকা   বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ | ১৬ ফাল্গুন ১৪৩০

ঢাবির কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার আধুনিক করা হোক

Daily Inqilab ইনকিলাব

১৪ নভেম্বর ২০২৩, ১২:১৪ এএম | আপডেট: ১৪ নভেম্বর ২০২৩, ১২:১৪ এএম

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, যাকে আখ্যায়িত করা হয় প্রাচ্যের অক্সফোর্ড হিসেবে। এই বিশ্ববিদ্যালয় অগ্রণী ভূমিকা রেখে বাংলাদেশ নামক যে একটা রাষ্ট্রের জন্ম দিয়েছিল, সে দেশের প্রায় সব জায়গাতেই আজ ডিজিটালাইজেশনের ছোঁয়া লেগেছে। বিষয়টি আসলে গৌরবের হলেও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের কিছু গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে প্রত্যাশা রয়ে গেছে। এই প্রত্যাশাগুলোর মধ্যে অন্যতম হলো ঢাবির কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার আধুনিকায়ন হওয়া। কেননা, কেন্দ্রীয় লাইব্রেরিতে শত শত শিক্ষার্থীর জন্য টেবিল চেয়ারের সুব্যবস্থা থাকলেও ভিতরে নেটওয়ার্কিং ব্যবস্থা খুবই খারাপ। একদমই নেটওয়ার্ক পাওয়া যায় না লাইব্রেরির ভিতরে। লাইব্রেরিতে প্রবেশের পর কোনো ক্লাস ক্যান্সেল হলো কি না, কোনো ক্লাস এগিয়ে দেয়া হলো কি না, এসব নোটিশ দেখার জন্য একটু পরপর সিট থেকে ওঠে বাইরে আসতে হয়। ফলে পড়াশোনায় মনোযোগের ব্যাঘাত ঘটে। বর্তমান যুগে ইন্টারনেট ছাড়া পড়াশোনা আসলেই কল্পনা করা অসম্ভব। আর যদি পড়াশুনার জায়গাতে এমন হতাশাজনক বিষয় জড়িয়ে থাকে তাহলে তা এই ডিজিটাল বাংলাদেশে আসলেই দুঃখজনক ব্যাপার। এবার আসি প্রবেশের সময় কার্ড চেক করার কথায়। হয়ত বা যারা গেটে থাকে তারা ভেবেই নেয় সবাই ঢাবির ছাত্র এজন্য অধিকাংশের কার্ড চেক করা হয় না। কিন্তু ঢাবির বাইরেরও অনেক শিক্ষার্থীরা লাইব্রেরিতে আসে বা আসছে নিয়মিত। ফলে সিট সংকট দেখা যাচ্ছে প্রতিদিন। আবার হতে পারে যে অনেক সিনিয়র ভাই, আপুরা থাকেন তাদের থেকে কার্ড চেক করাটা লজ্জাজনক। বর্তমান যুগে আসলেই তো বিষয়টা লজ্জাজনক। যদি এই বায়োমেট্রিক্সের যুগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে কার্ড চেকিং পদ্ধতি বহাল থাকে তাহলে সবার কার্ড চেক করাটাও কষ্টকর আবার লজ্জাজনকও বটে। এমতাবস্থায় কেন্দ্রীয় লাইব্রেরির গেটে বায়োমেট্রিক্সের এবং ভিতরে ভালো নেটওয়ার্কের করলে কর্মচারী ও শিক্ষার্থীদের অনেক দুর্ভোগ কমবে। পরিশেষে, সকল দিক বিবেচনা করে সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ঢাবি প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করছি।

মো. আব্দুল ওহাব
শিক্ষার্থী, আরবি বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা।


বিভাগ : সম্পাদকীয়


মন্তব্য করুন

HTML Comment Box is loading comments...

এই বিভাগের আরও

সড়কের মাঝে বৈদ্যুতিক খুঁটি
ভেজাল রোধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে হবে
খতনাও কি বিদেশে করতে হবে?
বিদ্যুৎ-গ্যাসের নিরবচ্ছিন্ন সরবরাহ নিশ্চিত করুন
বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধি কতটা যৌক্তিক
আরও

আরও পড়ুন

পেকুয়ায় যানজট নিরসনে ইজারাদার নিযুক্ত -ইনকিলাবের রিপোর্টে নড়েচর বসেছে প্রশাসন

পেকুয়ায় যানজট নিরসনে ইজারাদার নিযুক্ত -ইনকিলাবের রিপোর্টে নড়েচর বসেছে প্রশাসন

প্লাস্টিক দূষণ মোকাবিলায় বিশ্বকে ঐক্যবদ্ধ পদক্ষেপ নিতে হবে : সাবের হোসেন চৌধুরী

প্লাস্টিক দূষণ মোকাবিলায় বিশ্বকে ঐক্যবদ্ধ পদক্ষেপ নিতে হবে : সাবের হোসেন চৌধুরী

চার বছর নিষিদ্ধ পগবা

চার বছর নিষিদ্ধ পগবা

মির্জাপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় এনজিও কর্মী নিহত

মির্জাপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় এনজিও কর্মী নিহত

আভদেয়েভকার কাছে পাঁচটি আব্রামস ট্যাঙ্ক পাঠিয়েছে ইউক্রেন

আভদেয়েভকার কাছে পাঁচটি আব্রামস ট্যাঙ্ক পাঠিয়েছে ইউক্রেন

ডিনিপারের বাম তীরে নামতে ব্যর্থ হয়েছে ইউক্রেন: গভর্নর

ডিনিপারের বাম তীরে নামতে ব্যর্থ হয়েছে ইউক্রেন: গভর্নর

৩ মার্চ বিচারিক আদালতে আত্মসমর্পণ করবেন ড. ইউনূস

৩ মার্চ বিচারিক আদালতে আত্মসমর্পণ করবেন ড. ইউনূস

ইসরাইল ‘ধীর গতিতে’ শিশুদের হত্যা করছে: সেভ দ্য চিলড্রেন

ইসরাইল ‘ধীর গতিতে’ শিশুদের হত্যা করছে: সেভ দ্য চিলড্রেন

ছাত‌কে সংঘর্ষে এক ব্যক্তির মৃত্যু

ছাত‌কে সংঘর্ষে এক ব্যক্তির মৃত্যু

ইসরায়েলি হত্যাযজ্ঞে চুপ থেকে বিএনপি-জামায়াত গাজায় গণহত্যার পক্ষে অবস্থান নিয়েছে : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ইসরায়েলি হত্যাযজ্ঞে চুপ থেকে বিএনপি-জামায়াত গাজায় গণহত্যার পক্ষে অবস্থান নিয়েছে : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

বাইতুল মুকাররমে সভা সমাবেশ নিষিদ্ধের সিদ্ধান্ত বাতিল করতে হবে-পীর সাহেব চরমোনাই

বাইতুল মুকাররমে সভা সমাবেশ নিষিদ্ধের সিদ্ধান্ত বাতিল করতে হবে-পীর সাহেব চরমোনাই

ডব্লিউটিও’র ১৩তম মন্ত্রী পর্যায়ের সম্মেলন দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য সহায়তায় গুরুত্ব বাংলাদেশের

ডব্লিউটিও’র ১৩তম মন্ত্রী পর্যায়ের সম্মেলন দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য সহায়তায় গুরুত্ব বাংলাদেশের

শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দল এখন বাংলাদেশে

শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দল এখন বাংলাদেশে

পাটপণ্যের রপ্তানি বাড়াতে সবাইকে এক সঙ্গে কাজ করতে হবে : মন্ত্রী

পাটপণ্যের রপ্তানি বাড়াতে সবাইকে এক সঙ্গে কাজ করতে হবে : মন্ত্রী

ধারামশালা টেস্টেও নেই রাহুল, ফিরলেন বুমরাহ

ধারামশালা টেস্টেও নেই রাহুল, ফিরলেন বুমরাহ

১২ মামলায় বিএনপির ইশরাকের আগাম জামিন

১২ মামলায় বিএনপির ইশরাকের আগাম জামিন

ইসরাইলে যুদ্ধবিরতি জন্য চাপ বাড়ছে

ইসরাইলে যুদ্ধবিরতি জন্য চাপ বাড়ছে

৬৬ আইনজীবীর বিরুদ্ধে মামলার প্রতিবেদন পেছালো

৬৬ আইনজীবীর বিরুদ্ধে মামলার প্রতিবেদন পেছালো

সউদির রাডারে সালাহ, ডি ব্রুইনার মতো তারকারা

সউদির রাডারে সালাহ, ডি ব্রুইনার মতো তারকারা

সালথায় ডাকাত দলের দুই সদস্য গ্রেপ্তার

সালথায় ডাকাত দলের দুই সদস্য গ্রেপ্তার