রোজার মাসায়েল

Daily Inqilab মাওলানা আব্দুল্লাহ বিন আলাউদ্দীন

১২ মার্চ ২০২৪, ১২:১৬ এএম | আপডেট: ১২ মার্চ ২০২৪, ১২:১৬ এএম

মাহে রমজানে আল্লাহতাআলা অধিক রহমত-বরকত নাজিল করেন, এতে বান্দার কৃত গুনাহ ও পাপ জ্বলে-পুড়ে ছাই হয়ে যায়। রাসুলুল্লাহ (সা.) ঘোষণা দিয়েছেন, ‘এ মাসে পরম করুণাময় আল্লাহতাআলা তোমাদের দিকে শুভ দৃষ্টি প্রদান করেন এবং রহমত বর্ষণ করেন, তোমাদের সব গুনাহ মাফ করে দেন ও দোয়া কবুল করেন। তোমাদের মধ্যে যদি কোনো প্রতিদ্বন্দ্বী অধিক সৎ কাজ করে শীর্ষস্থান অধিকার করতে পারে, আল্লাহ তার প্রতিদ্বন্দ্বিতা প্রত্যক্ষ করতে থাকেন ও ফেরেশতাদের কাছে গর্ব করেন। তোমরা অনেক বেশি সৎ কাজ করে আল্লাহকে দেখিয়ে দাও। আল্লাহর দয়া-অনুগ্রহ থেকে এ মাসে একমাত্র হতভাগ্যরাই বঞ্চিত থাকে।’ সুন্দরভাবে রোজা পালনের জন্য প্রয়োজনীয় মাসায়েল ইসলামি শরিয়তে সুনির্দিষ্ট করা আছে। সেখান থেকেই কিছু মাসায়েল নিচে উল্লেখ করা হলো।

যখন কাজা ও কাফ্ফারা ওয়াজিব

১. ইচ্ছাকৃতভাবে এমন কোনো জিনিস খাওয়া বা পান করা, যা সাধারণত খাওয়া বা ওষুধ হিসেবে ব্যবহৃত হয়। (আলমগিরি : খ. ১, পৃ. ২০৫)। ২. যদি ইচ্ছাকৃতভাবে গিবত করার পর পানাহার করে, তাহলে তার ওপর কাজা-কাফ্ফারা উভয়ই ওয়াজিব। (ফাতহুল কাদির : খ. ২, পৃ. ৩৮০)। ৩. রোজাদার যদি সমকামিতায় লিপ্ত হয়, তাহলে তার ওপর কাজা-কাফ্ফারা দুটিই ওয়াজিব। (আল-ওয়াল ওয়ালিযিয়্যাহ : খ. ১, পৃ. ২২৩)। ৪. পুরুষ যদি মহিলার সঙ্গে জোরজবরদস্তি করে সম্ভোগ করে, তাহলে মহিলার ওপর শুধু কাজা ওয়াজিব, কাফ্ফারা নয়। আর পুরুষের ওপর কাজা-কাফ্ফারা উভয়ই ওয়াজিব। (আল-ওয়াল ওয়ালিযিয়্যাহ : খ. ১, পৃ. ২২৪)। ৫. ইচ্ছাকৃতভাবে স্ত্রীসম্ভোগ করা। (বুখারি, হাদিস : ১৮০১)।

যখন রোজা ভেঙে ফেলার অনুমতি আছে

যদি এমন অসুস্থ হয়ে পড়ে যে রোজা রাখার শক্তি নেই বা রোজা রাখার দ্বারা অসুস্থতা বেড়ে যাবে, তাহলে তার জন্য রোজা না রাখার অনুমতি রয়েছে। তবে হ্যাঁ, যখনই সুস্থ হয়ে যাবে, তখনই তার ওপর রোজা কাজা করে নেওয়া ওয়াজিব। (আপকে মাসায়েল : খ. ৩, পৃ. ২০২)। ১. যে ব্যক্তি এমন দুর্বল হয়ে যায় যে রোজা রাখার শক্তি নেই। (আপকে মাসায়েল : খ. ৩, পৃ. ২০৩)। ২. এমন ক্ষুধা বা পিপাসা লাগে যে প্রাণ চলে যাওয়ার উপক্রম হয়ে যায়। (আলমগিরি : খ. ১, পৃ. ২০৭)। ৩. গর্ভধারিণী বা স্তন্যদানকারিণী মহিলা যদি নিজের অথবা নিজের বাচ্চার প্রাণপাতের আশঙ্কা করেন, তাহলে তাঁর জন্য রোজা ভেঙে ফেলা জায়েজ আছে। (আলমগিরি : খ. ১, পৃ. ২০৭)। ৪. রোজা থাকার কারণে যদি জীবনযাপনের সামগ্রী উপার্জন করতে দুর্বল হয়ে যায়, তাহলে তার জন্য রোজা ভেঙে ফেলার অনুমতি রয়েছে। তবে তা পরে কাজা করে নিতে হবে। তা-ও সম্ভব না হলে ফিদিয়া আদায় করবে এবং প্রতি রোজার পরিবর্তে সদকায়ে ফিতর পরিমাণ দান করে ফিদিয়া আদায় করবে। (শামি : খ. ৩, পৃ. ৪০০)। ৫. অনুরূপভাবে ফসল কর্তন করার ক্ষেত্রে, যদি রোজা থাকা অবস্থায় ফসল কর্তন করা সম্ভব না হয়, অন্যদিকে দেরি হলে ফসল নষ্ট হয়ে যাবে, তাহলে রোজা না রাখার অনুমতি আছে এবং অন্য সময় কাজা করে নেবে। (শামি : খ. ৩, পৃ. ৪০০)

নারীদের রোজার মাসায়েল

১. মহিলারা রমজান ছাড়া স্বামীর অনুমতি ব্যতীত রোজা রাখবে না। (তিরমিজি : হাদিস নম্বর ৭৮২)। ২. যে মেয়ে বালেগ হয়েছে অথচ লজ্জার কারণে প্রকাশ করে না এবং রোজাও রাখে না, তাহলে তার ওপর তাওবা ও ছুটে যাওয়া রোজার কাজা করা ওয়াজিব। ৩. মহিলা যদি নিজের হায়েজের আর্দ্রতা তথা পবিত্রতার নিদর্শন দেখতে পায়, যার দ্বারা বুঝতে পারে যে সে এখন পাক হতে যাচ্ছে, তাহলে রাতেই রোজার নিয়ত করবে। আর যদি পবিত্রতার নিদর্শন না দেখা যায়, তাহলে ভেতরে তুলা লাগিয়ে দেবে। যদি পরিষ্কার থাকে, তাহলে রোজা রাখবে। যদি দ্বিতীয়বার হায়েজের রক্ত এসে যায়, তাহলে রোজা ভেঙে ফেলবে। ৪. মহিলা যদি নিজের অভ্যাস অনুযায়ী বুঝতে পারে যে আগামীকাল তার হায়েজ জারি হবে। তাহলেও সে রোজা ভাঙবে না। যতক্ষণ না সে তার হায়েজের রক্ত দেখতে পায়। (আপকে মাসায়েল : খ. ৩, পৃ. ২৭৮)। ৫. হায়েজা মহিলার জন্য উত্তম হলো নিজের স্বাভাবিক অবস্থার ওপর থাকা। আল্লাহতাআলা তার ওপর যে ফয়সালা করেছেন, তার ওপর সন্তুষ্ট থাকা। এমন কিছু ব্যবহার না করা, যার দ্বারা রক্ত বন্ধ হয়ে যায়। বরং হায়েজ অবস্থায় রোজা ছেড়ে দেওয়া। অতঃপর কাজা করে নেওয়া। কেননা উম্মুল মুমিনিন ও আকাবির মহিলারা এমনটিই করেছেন। আর যদি ওষুধ দিয়ে রক্ত বন্ধ করে দেওয়া হয়, তাহলেও রোজা হয়ে যাবে। (আপকে মাসায়েল : খন্ড ৩, পৃ. ২০৭)। ৬. নেফাজওয়ালা মহিলা যদি ৪০ দিন হওয়ার আগেই পাক হয়ে যায়, তাহলে রোজা রাখবে এবং নামাজের জন্য গোসল করে নেবে। ৭. আর যদি ৪০ দিন অতিবাহিত হওয়ার পরও রক্ত জারি থাকে, তাহলে সে রোজা রাখবে এবং গোসল করে নেবে। কেননা তার রক্ত ইস্তেহাজা (রোগ) হিসেবে গণ্য করা হবে। (বেহেশতি জেওর : পৃষ্ঠা : ১৬০, শরহে বেকায়া : খ. ১, পৃ. ১২০)। ৮. হায়েজওয়ালা মহিলা যদি সূর্য হেলার আগেই পাক হয়ে যায় এবং রোজার নিয়ত করে, তাহলে তার ফরজ আদায় হবে না। (শামি : খ. ৩, পৃষ্ঠা : ৩৮৫)।


বিভাগ : বিশেষ সংখ্যা


মন্তব্য করুন

HTML Comment Box is loading comments...

আরও পড়ুন

কুষ্টিয়ায় পরকীয়ার জেরে যুবককে পিটিয়ে হত্যা, আটক ৩

কুষ্টিয়ায় পরকীয়ার জেরে যুবককে পিটিয়ে হত্যা, আটক ৩

কুষ্টিয়ায় বালু বোঝাই ট্রলি চাপায় বৃদ্ধা নিহত

কুষ্টিয়ায় বালু বোঝাই ট্রলি চাপায় বৃদ্ধা নিহত

বঙ্গোপসাগরে শক্তিশালী হচ্ছে নিম্নচাপ, আঘাত হানতে পারে যেসব জেলায়

বঙ্গোপসাগরে শক্তিশালী হচ্ছে নিম্নচাপ, আঘাত হানতে পারে যেসব জেলায়

মার্কিন সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করার ডিক্রিতে সাক্ষর করলেন পুতিন

মার্কিন সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করার ডিক্রিতে সাক্ষর করলেন পুতিন

আজিজের নিষেধাজ্ঞা ও বেনজীরের সম্পদ ক্রোক জাতির জন্য লজ্জার : ডা. শাহাদাত

আজিজের নিষেধাজ্ঞা ও বেনজীরের সম্পদ ক্রোক জাতির জন্য লজ্জার : ডা. শাহাদাত

অবরুদ্ধ গাজায় কোরআন পোড়াচ্ছেন ইসরায়েলি সেনারা

অবরুদ্ধ গাজায় কোরআন পোড়াচ্ছেন ইসরায়েলি সেনারা

কৈলাশটিলা-৮ কূপ থেকে প্রতিদিন মিলবে ২১ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস

কৈলাশটিলা-৮ কূপ থেকে প্রতিদিন মিলবে ২১ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস

একাকী নামাজ পড়ার সময় ইকামত দেওয়া প্রসঙ্গে।

একাকী নামাজ পড়ার সময় ইকামত দেওয়া প্রসঙ্গে।

জলাবদ্ধতার নিরসন চাই

জলাবদ্ধতার নিরসন চাই

রাশিয়া মহাকাশে উপগ্রহ বিধ্বংসী অস্ত্র উৎক্ষেপন করেছে: যুক্তরাষ্ট্র

রাশিয়া মহাকাশে উপগ্রহ বিধ্বংসী অস্ত্র উৎক্ষেপন করেছে: যুক্তরাষ্ট্র

ফরিদপুরে বোমায় উড়ে গেল যুবকের আঙ্গুল চোখ ও কনুই

ফরিদপুরে বোমায় উড়ে গেল যুবকের আঙ্গুল চোখ ও কনুই

ইন্দুরকানীতে ৪র্থ শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে যুবক গ্রেফতার

ইন্দুরকানীতে ৪র্থ শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে যুবক গ্রেফতার

ঘুমের মধ্যেই মৃত্যু ‘বিশ্বের সবচেয়ে সুখী কুকুর’ কাবোসুর

ঘুমের মধ্যেই মৃত্যু ‘বিশ্বের সবচেয়ে সুখী কুকুর’ কাবোসুর

কালিয়াকৈরে ভয়াবহ আগুনে কলোনির শতাধিক ঘর পুড়ে ছাই

কালিয়াকৈরে ভয়াবহ আগুনে কলোনির শতাধিক ঘর পুড়ে ছাই

শেষ পর্যস্ত শাভিকে ছাঁটাই করল বার্সা

শেষ পর্যস্ত শাভিকে ছাঁটাই করল বার্সা

নেত্রকোণার পূর্বধলায় চিরকুট লেখে ট্রেনের নীচে ঝাঁপ দিয়ে নারীর আত্মহত্যা

নেত্রকোণার পূর্বধলায় চিরকুট লেখে ট্রেনের নীচে ঝাঁপ দিয়ে নারীর আত্মহত্যা

বিএনপি-জামায়াত দেশের রাষ্ট্রীয় ব্যবস্থা ধ্বংসের ষড়যন্ত্র করছে : নাছিম

বিএনপি-জামায়াত দেশের রাষ্ট্রীয় ব্যবস্থা ধ্বংসের ষড়যন্ত্র করছে : নাছিম

মাঠে নামতে মুখিয়ে আছে ইংল্যান্ড-পাকিস্তান

মাঠে নামতে মুখিয়ে আছে ইংল্যান্ড-পাকিস্তান

২১শ’ সাল নাগাদ বিশ্বে শিশু জন্মের হার ১.৭ শতাংশে নামবে

২১শ’ সাল নাগাদ বিশ্বে শিশু জন্মের হার ১.৭ শতাংশে নামবে

উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আগুন, ২ শতাধিক শেড পুড়ে ছাই

উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আগুন, ২ শতাধিক শেড পুড়ে ছাই